somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

এই পোস্টটি লেখক নিজে সরিয়ে ফেলেছেন, বিস্তারিত জানতে পোস্টটির লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন।

আলোচিত ব্লগ

প্রাইম মিনিষ্টার সৌদী, মোদী, বৌদিদের বিনিয়োগ কেন চায়?

লিখেছেন চাঁদগাজী, ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:০৬



মনে হয়, এটা বিনিয়োগের ব্যাপার নয়, আসলে কৌশলে ভিক্ষা চাওয়া; সৌদীরা শেখ হাসিনাকে পছন্দ করে না, ওদের পছন্দের লোক হলো বেগম জিয়া, জামাত, মুসলমিক লীগ! সৌদী রাজপুত্র সালমান আমেরিকান... ...বাকিটুকু পড়ুন

ধর্ম যার যার উৎসব সবার

লিখেছেন ঢাবিয়ান, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

'ধর্ম যার যার উৎসব সবার'' এই বাক্যটাতে আজকাল দেখছি অনেক মানুষের এলার্জি। আজ থেকে বিশ ত্রিশ বছর আগে ইন্টারনেট নামক কোন বস্তু ছিল না। হাজার হাজার মানূষের সাথে মতবিনিময় হবার... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্রাঞ্জি সে

লিখেছেন মোঃ মাইদুল সরকার, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৩৪



স্রাঞ্জি সে
১১/১০/১৮ইং।

ব্লগে যখন প্রথম আসিল
সকলেই প্রশ্ন করিল-এ আবার কে ?
রহস্যময় এক নাম স্রাঞ্জি সে।

তারপর সময়ের স্রোতে ব্লগে ভেসে
সকলের মন জয় করিল যে
সেতো আমাদের প্রিয় স্রাঞ্জি সে।

কবিতায় প্রেম-প্রকৃতি, মন-মননের... ...বাকিটুকু পড়ুন

আইয়ূব বাচ্চু, আপনি আসবেন ফিরে গানে গানে, রুপালি গিটার হাতে...

লিখেছেন হাসান মাহবুব, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৭


(১)
১৯৯০ এর দিকে আমাদের ব্যান্ড এ্যালবামগুলোর একটা ফরমেট ছিলো। বেশিরভাগ থাকবে বিরহের গান, একটি সন্ত্রাস অথবা মাদকবিরোধী গান, একটি ফোক গান। সেই সময়ে আমাদের ব্যান্ডগুলির মূল শক্তি ছিলো... ...বাকিটুকু পড়ুন

বলো দুর্গা মা কি... 'জয়'

লিখেছেন অর্পিতা সাহা., ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:০২



অবশেষে, সেফ ব্লগারের খাতায় আমার নামটাও উঠলো:
ব্লগের সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা। মডুদের থেকে গ্রীন সিগন্যাল পেয়েছি। মডারেশন স্ট্যাটাস সেফ, মানে আমি নিরাপদ ব্লগার। ভাবতেই কেমন লাগছে!... ...বাকিটুকু পড়ুন

নির্বাচিত ব্লগ

বিদায় বাচ্চু ভাই। বিদায় এবি । বিদায় গুরু।

লিখেছেন মোরতাজা, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:২৯


ছবি বাচ্চু ভাইয়ের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে নেয়া।

কিছু মানুষের যে শিরদাঁড়া খাড়া থাকে, মাথা উঁচু করে কথা বলতে পারেন, চোখে আঙুল দিয়ে বলে দিতে পারেন- তুমি যা করছো, তুমি যা শুনছ, তা আমার নয়। আমার কথা শোনো। আমরা যা বলি- সুরে ও গানে তা নিয়ে ভাবো। আমাদেরও নিজেদের অনেক কিছু আছে, যা তোমরা ভুলে যাচ্ছ। সেই সব মনে করিয়ে দেয়া শিল্পীদের অন্যতম আইয়ুব বাচ্চু- এবি।

২০১৪ সালের ১৩ মার্চ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেলিব্রেশন কনসার্টের ভিনদেশী শিল্পীতে ঠাঁসা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের শিল্পীরা ছিলেন অচ্যুত! সেই সময় বাচ্চুভাই দর্শকদের সামেন তাঁর অভিমান লুকাননি। বলেছিলেন, “আপনারা যারা কষ্ট করে বাংলা... ...বাকিটুকু পড়ুন

মহা অষ্টমী ও মহা নবমী দুর্গাপূজা

লিখেছেন লক্ষণ ভান্ডারী, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:৪০

গতকাল ছিল মহা অষ্টমী। পূজা মণ্ডপে ব্যস্ত থাকায় কবিতা প্রকাশ দেওয়া সম্ভব হয়নি। তাই আজ একসাথে মহা অষ্টমী দুর্গাপূজা ও মহা নবমী দুর্গাপূজা প্রকাশ দিলাম। দেবী দুর্গতিনাশিনী আদ্যাশক্তি মহামায়ার অষ্টমী ও নবমীর সন্ধিক্ষণে এই পূজা দুর্গাপূজার গুরুত্বপূর্ণ শক্তির আরাধনা। বিধিমতে সুগন্ধি চন্দন, পুষ্পমালা, ধূপদীপ সহকারে মাতৃপূজা করা হয়। হোম যজ্ঞ ও আহুতি প্রদান করা হয়। জগতমাতাকে (দেবী দুর্গা) আমরা আরাধনা করি তিনি সকল নারীর মধ্যে মাতৃরূপে আছেন। এ উপলব্ধি সকলের মধ্যে জাগ্রত করার জন্যই কুমারী পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। দুর্গা মাতৃভাবের প্রতীক আর কুমারী নারীর প্রতীক। কুমারীর মধ্যে মাতৃভাব প্রতিষ্ঠাই এ পূজার মূল লক্ষ্য। কুমারী পূজার আনুষ্ঠানিকতা সম্পর্কে... ...বাকিটুকু পড়ুন

হেমন্তে নিবেদন

লিখেছেন তাওিহদ অিদ্র, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৫৬



বিপন্ন অন্ধকার//
সন্ধ্যা,বাড়ি ফেরার তাড়াছিল-ঊনমুখো হয়ে বটের হলুদ গোটার দিকে চেয়েছিলাম।দেখেছিলাম আধখানা চাঁদ।নগরের আলোর ভেতর-তমসা আলো।অসংখ্য লোকেদের ভীড়ে দাঁড়িয়েছিলাম।বাদুড় উড়িতেছিল,ফুটেছিল তারাফুল।কতো লোক হন্য হয়ে দৌঁড়িতেছে ইঞ্জিনে সাধ দিতে দিতে।একখানা পরিচ্ছন্ন নগরের তেষ্টায় ঘুম হয়না মেয়রের!গড়ে উঠিতেছে নানা আলোর চারা।আর কতো আলো লাগালে বসন্ত আসিবে কে জানে?-পূর্বেই শীতের মহড়া!রাতের ঘাসে জমিতেছে শিশির-পা জানে;চোখের পাতা কাঁপিতেছে সীমফুলের মতোন অনবরত।মনে আসিতেছে না কোন পরিচিত মুখ।আলো-অন্ধকারের তাসের খেলায় জ্বলিতেছে দেবদারুর পাতা, খুব ক্লান্ত হয়ে আসিতেছে-তাদের ছায়ায় বাসা বুনেছে হয়ত কোন এক গুপ্ত পাখি।পথিক ফুরায়ে গেলে-বিষাদ নদী নিয়ে নগরো ঘুমাতে যায়।উড়োজাহাজের ছিন্ন আলোয় কুয়াশা জড়ানো অদ্ভূত ওভারপাস বাড়ি।জানি এই বটের ফল আবারো খেতে আসিবে পাখিরা।


পায়রা//
আমাদের কিছু... ...বাকিটুকু পড়ুন

ধর্ম যার যার উৎসব সবার

লিখেছেন ঢাবিয়ান, ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

'ধর্ম যার যার উৎসব সবার'' এই বাক্যটাতে আজকাল দেখছি অনেক মানুষের এলার্জি। আজ থেকে বিশ ত্রিশ বছর আগে ইন্টারনেট নামক কোন বস্তু ছিল না। হাজার হাজার মানূষের সাথে মতবিনিময় হবার কোন রাস্তা ছিল না। সীমিত গন্ডির মাঝে ছিল মানুষের পদচারনা।ইন্টারনেটের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ভারী ভারী তত্ব বা ভাষ্যের সাথে ছিল না মানূষের পরিচয়।

শৈশবে হিন্দু প্রতিবেশীর পুজার নারু, লুচি, সব্জি বা ক্রীস্টান পরিবারের কিস্মাসের কেক খাবার সময় কোনদিন কেউ মনে করিয়ে দেয়নি যে এই খাবার খাওয়া যাবে না। তারাও আমাদের শবে বরাতের হালুয়া রুটী, রোজার ইফতার দারুন উপভোগ করত। পুজায় বন্ধুদের সাথে মন্ডপ পরিদর্শন করেছি, ক্রিসমাসে বন্ধুর বাসার ঝলমলে ক্রিস্মাস... ...বাকিটুকু পড়ুন

মৃত্যু চুম্বন(kiss of death)

লিখেছেন নবম অধ্যায়, ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৪


আনন্দে হু হু করিতে লাগিল
চুমু খাবি?
যেখানে লজ্জায় লাল হইবার কথা ছিলো
র্নিধিদ্বায় আকাঙ্ক্ষা মিঠাইতে পা ফেলা
প্রশ্নিনু আবার‍, এ ঠোঁটে মধু নেই পুরোটাই বিষ।
চমকিলো নয়ই বটে, উত্তরিনু মোরে
এসেছি আমি শশ্মানের ঘাটে যৌবন ফেলে
ছাড়িয়াছিলাম ধরণি সেদিন মধুর চুমু খেয়ে।
আজি না হয় আবার ধ্বংসীবে বিষের চুমুতে
আত্নার আবার মৃত্যু কিসের?
সে তোহ মৃত্যুঞ্জয়
গভীর চুমোয় জয় করে বিষক্ষয়।
তবে হে আসো উজাড় করিয়া যৌবনের জোয়ার
উজান ভাটি সবই পারাপার।
মধ্য রাতের নিশিতে আবার
স্তনপানে মদ্য খেলাত মাতোয়ারা
তোমার বিষের ঠোঁট করেছি জয়।
বিকেল ঘরালেই পুড়িবে চিতায়
মনশ্চক্ষু নয় সাঁচ্চা,
মরিয়াছিলাম আমি এইসা চুমুতে
আজি যে তোমারি পালা।
সূর্য উঠিলো পুবের আকাশে
আমারি বিদায়ের ক্ষণে,
দেখা হবে তোমায় আমায় সন্ধ্যার লগনে।
আত্নায় আত্নায় জমবে মনহরা,
শ্বশ্নানের ঘাটে যৌবনের পালে চলবে চুমুর... ...বাকিটুকু পড়ুন