somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

হাটহাজারীর বৈশাখ

১৫ ই এপ্রিল, ২০১৩ সকাল ১১:৫৭
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

কেউ বলে মদিনা সনদে দেশ চলবে। কিছু লোক নারীদের লোক-সম্মুখে উপস্থিত হওয়াকে আইনগত ভাবে বাতিল করতে চেয়ে হেফাজতের আন-লাকি ১৩ দফার রফা চায়। কিছু লোক নারীদের ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে খবরের কাগজে অশ্লীল গল্প ফাঁদে। বিশেষ করে চট্টগ্রামে হেফাজতের চকিত প্রাদুর্ভাব ও ১৩ দফার গ্রহণযোগ্যতা চমকপ্রদ।
কিন্তু কি অবাক করা!
কাল বৈশাখে যখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলাম এবং ফিরছিলাম, আমি মুগ্ধ হয়ে দেখছিলাম রাস্তার আশেপাশের লোকজনের উদ্দীপ্ত সমাগম। হেফাজতের ডেরা হাট-হাজারীর নরনারীর বাঁধ ভাঙা বৈশাখী অংশগ্রহণ! অদক্ষ হাতে মেয়েরা পরেছিল সাদা-লালের শাড়ী। শান্তিনিকেতনী অলঙ্কারে অলঙ্কৃত ছিল তাদের রোদে পোড়া ত্বক। মুখে ছিল নিঃসংকোচ তারুণ্যের দীপ্তি। ফলস চুলে করা বেণী দুলিয়ে, অনভ্যস্ত হাই হিলে চড়ে গর্বিত মোরগের মত মাথা উঁচু করে চলছিল তারা রাস্তায়। এবড়ো-থেবড়ো রাস্তার ভাঙাচোরা গাড়িঘোড়া, তাদের চাকা ঘুরে ঘূর্ণায়মান ধুলা, এলোমেলো লোকজনদের বড়ই বেমানান লাগছিল চারদিক আলো করা এই নারীদের উপস্থিতিতে।

হাট-হাজারীর আশেপাশের গ্রামের ছেলেরা ট্রাক ভাড়া করে প্যান্ডেল টাঙ্গিয়ে মাইকে বাদ্য বাজিয়ে দলবেঁধে উদ্যম নাচ নেচেছে কাল। ঘুরেছে এই প্রান্ত থেকে ঐ প্রান্তে।
যদি ঠিক এই ছেলেমেয়েগুলোর সাক্ষাৎকার নেওয়া যেত, নিশ্চিতভাবে আমরা শুনতে পেতাম, তারা হেফাজতে ইসলামকে সমর্থন করে। মেয়েদের ভাইদের কেউ কেউ দ্যাখা যাবে হেফাজতের সরাসরি কর্মী। এরা আসলে জানে না ১৩ দফার বাস্তবায়ন তাদের ভাগ্যে কি বয়ে আনতে পারে। তারা জানে না দাবিগুলো আসলে কি।

মনে মনে ভাবি, বাংলাদেশের মত একটি মুক্ত, অস্বীকৃত স্যাকুলার দেশে, হেফাজতের দাবী কি শুধু মধ্যযুগীয় নাকি হাস্যকর?

যদি এই অঞ্চলে ঘোষণা দেওয়া হয়, হেফাজতের ১৩ দফার সবকয়টি মেনে নিয়েছে সরকার; তৎক্ষণাৎ ছেলেমেয়ে, নারীপুরুষ আনন্দ মিছিলে বের হবে পথে। নরনারীর অবাধ অংশগ্রহণে সেই মিছিলে ১৩ দফার স্বীকৃতি বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উদযাপিত হবে নাচে, গানে, আনন্দে, একসাথে।
২টি মন্তব্য ১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

বৃষ্টির আঘ্রাণে

লিখেছেন নীলপরি, ২৩ শে মে, ২০১৬ রাত ৮:৫৮



আকাশে আজ চাঁদটা কেমন বৃষ্টিভেজা
মোহময়ী আজ বড্ড লাগছে রাধাচূড়া
ছাড়না আজ তুই লোকালট্রেন ধরা ।

জল দিয়ে একটা গল্প লেখ
না হয় একটু দাঁড়া বৃষ্টি... ...বাকিটুকু পড়ুন

নবী’জির বাণী আমেরিকার গবেষণায় উপকারী প্রমাণিত হইতে হইবে। নচেৎ মানিতে মুঞ্চায় না (আমার ছোট ব্লগ)

লিখেছেন প্লাবন২০০৩, ২৩ শে মে, ২০১৬ রাত ১১:৩৪



গত রাতে (২২/০৫/২০১৬, লাইলাতুল বরাত) মসজিদে নামাজ পড়ছি। নামাজের ফাঁকে এক দোস্ত এসে কানের সামনে ফিসফিস করে বলল “দোস্ত, দরকারি কথা আছে”।

“হুম্‌, বল” – বলি আমি।

"দোস্ত, পায়ের... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্যর্থ বিএনপি ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যেতে চায়

লিখেছেন তালপাতারসেপাই, ২৪ শে মে, ২০১৬ রাত ৩:৪০

গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ক্ষমতায় যেতে ব্যর্থ দেশের অন্যতম বিরোধী দল বিএনপি দেশে বিদেশে ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যেতে চায়। মোসাদের সঙ্গে বিএনপি নেতা আসলামের বৈঠক ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়ে তুরস্কের সমালোচনা... ...বাকিটুকু পড়ুন

কোথায় আছো

লিখেছেন রানার ব্লগ, ২৪ শে মে, ২০১৬ সকাল ৭:৫৫




কোথায় আছো,
কেমন আছো,
হরিয়ে গেছো নাকি।

মোবাইল ফোনে,
রিঙের টোনে,
বাজে না সুখ পাখি।

মেঘের কাছে ,
চিঠির ভাঁজে,
দিলাম প্রেমের চিঠি।

শুন্য শহর ,
দীর্ঘ প্রহর ,
একাকী পথ হাঁটি। ...বাকিটুকু পড়ুন

আমেরিকান নির্বাচন নিয়ে বাংগালীদের মাথা ঘামানোর দরকার আছে?

লিখেছেন মার্কোপলো, ২৪ শে মে, ২০১৬ সকাল ৮:১১



অবশ্যই দরকার আছে। বাংগালীদের মাথা ঘামানোর সুযোগ থাকলে আমেরিকান নির্বাচন নিয়ে মাথা ঘামানোই সঠিক কাজ হবে; কারণ, বাংলাদেশে নিজেদের ভোট নিয়ে অনেকদিন বাংগালীদের মাথা ঘামানোর দরকার হবে না,... ...বাকিটুকু পড়ুন

×