somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

আমার ব্লগ আমার বাসার ড্রয়িং রুমের মত, আমি এখানে যেকোনো কিছু দিয়ে সাজাতে পারি আপনার পছন্দ না হলে বলতে পারেন আমার কোন আসবাবটির অবস্থান বা ডিজাইন আপনার পছন্দ হয় নি এবং কেন হয় নি। তবে তা অবশ্যই ভদ্র ভাষাতে। ভাষার ব্যবহার করতে জানা অনেক বড় একটি গুন

আমার পরিসংখ্যান

শেখ এম উদ্‌দীন
quote icon
আমি বাংলাদেশি ....আমি বাঙালী....আমি মুসলিম....আমি বাংলার জন্য জীবন দিতে সর্বদা প্রস্তুত ।
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

শিক্ষা এবং শিক্ষক ও একটি জাতির গল্প (৪)

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:৫৭

লেখাটি প্রথম আলোর দূরপ্রবাসে পাতাতে প্রকাশিত।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের সাথেই বলে দেয়া আছে এখানে যে জ্ঞান বিতরণ করা হবে তা হতে হবে বিশ্বমানের, কারন এ বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থীদের নিজকে প্রমানের লড়াইটা কেবল দেশের গণ্ডীতে সীমাবদ্ধ না থেকে বিস্তার লাভ করবে সারা বিশ্বে! লড়াই যখন একই থানাতে থাকে, তখন একটি থানা বা উপজিলা... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৭৫ বার পঠিত     like!

শিক্ষা এবং শিক্ষক ও একটি জাতির গল্প (৩)

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:০৬

প্রথমআলো দূরপ্রবাসে পাতাতে প্রকাশিত (Click This Link)

২০০০ সালে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র, স্কুলে বনভোজন হবে বহু বছর পরে। সিনিয়র শিক্ষার্থী হিসেবে খুব আগ্রহ নিয়ে ক্লাস থেকে অর্থ উত্তোলন করলাম। কিন্তু আমাদের হতাশ করে দিয়ে, শিক্ষক রাজনিতির যাঁতাকল আমাদের এই স্বপ্নকে পিষ্ট করে দিলেন কয়েকজন শিক্ষক। এমন অবস্থাতে আমরা ৩০ জনের মত... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ১১৫ বার পঠিত     like!

লিটন দাশের ছবি, কাট মোল্লা এবং তাহাদের সমগোত্রীয় বাঙালেরা

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ০৩ রা অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৩

৬৩৭ খ্রিঃ জেরুজালেমের শাসনকর্তা Patriarch Sophronius খালেদ বিন ওয়ালিদ (রাঃ) এবং আমর বিন আল আস (রাঃ) নেতৃত্বে থাকা মুসলমান সৈন্যদের দ্বারা বেষ্টিত অবস্থাতে থাকা সত্ত্বেও ঘোষণা দিলেন যে তিনি একমাত্র খলীফা ওমর (রাঃ) এর নিকটই আত্মসমর্পণ করবেন!

এ ঘটনা জানতে পেরে মুসলিম জাহানের দ্বিতীয় খলীফা ওমর ইবনুল খাত্তাব (রাঃ), অমুসলিম গণের... বাকিটুকু পড়ুন

১৬ টি মন্তব্য      ৮৩৩ বার পঠিত     like!

শিক্ষা, শিক্ষক ও একটি জাতির গল্প (২)

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:২৮

সময়টা ১৯৯৫ সাল। বাচ্চু স্যারের ক্লাসে প্রশ্ন করলাম, স্যার পড়াশোনার শেষ কোথায়?

লেখাটি প্রথমআলোর দুরপ্রবাসে পাতাতে প্রকাশিত (Click This Link)

স্যার বললেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার শেষ আছে। কিন্তু মানুষ থাকতে হলে সারা জীবন পড়তে হবে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা হলো চার স্তরের। এই যে তোরা প্রাইমারিতে পড়ছিস, এরপরে যাবি হাইস্কুলে। সেখান থেকে কলেজ এবং সবশেষে বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার... বাকিটুকু পড়ুন

১৫ টি মন্তব্য      ১৫১ বার পঠিত     like!

শিক্ষা, শিক্ষক ও একটি জাতির গল্প

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৩:৩০

আমাদের সমাজে বহুল প্রচলিত দুটি বচন হলো—‘শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড’ ও ‘শিক্ষকেরা হলেন এই মেরুদণ্ড গড়ার কারিগর’। বিষয়টি বোঝার জন্য আমাদের দুটি বিষয় জানা আবশ্যক। প্রথমত মেরুদণ্ড ও এর ভূমিকা। দ্বিতীয় শিক্ষা কেন একটি জাতির মেরুদণ্ড তুল্য এবং এই মেরুদণ্ডের সঠিক গঠনে শিক্ষকের অবদান। এই আলোচনার সঙ্গে সঙ্গে মেরুদণ্ড গড়ার কারিগর... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৯১ বার পঠিত     like!

আমরা যেন অন্তত এ ঘৃন্য বিষয়টি পরিহার করি

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ১১:৪৬

আপনি জানেন কি কোথায় আপনাকে ব্রেক কষতে হবে আর কোন বিষয়ে চুপ থাকতে হবে?

বাঙালীর সবচেয়ে বড় সমস্যা হল এরা সাধারণত জানে না নিজেদের বাউন্ডারি কোথায়। কোথায় তাকে থামতে হবে, আর কোথায় কথা বলতে হবে।

আমি ইমেইলে আমার ছাত্র ছাত্রী সহ অনেক কে পরামর্শ দেই, তবে যখন বুঝি বিষয়টি আমার জানার বাইরে... বাকিটুকু পড়ুন

১০ টি মন্তব্য      ৩৪৯ বার পঠিত     like!

একটু ভাবিয়া দেখিবার সময় হইবে কি জনাব?

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ রাত ৯:০০

২৮ লাখে একটা গরু না ক্রয় করিয়া ২৮ টা গরু ক্রয় করত তাহা বিলাইয়া দেয়ার ব্যবস্থা করিতে কি খুব বেশী মাথা খাঁটাতে হইত?

হইত না বলিয়াই প্রতীয়মান হয়। তাহা হইলে কিসের কারনে আমরা এই অপচয়ের হোলি খেলাকে কুরবানি বলিয়া কুরবানিকে অপমানিত করিতে দ্বিধান্বিত হইতেছি না, ইহাকে কি আমাদে রক্তের সমস্যা বলিলে... বাকিটুকু পড়ুন

১২ টি মন্তব্য      ১৯৫ বার পঠিত     like!

আসুন স্বপ্ন দেখি এবং বাস্তবায়ন করি এক সাম্যের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১২ ই আগস্ট, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

বাবা একজন সামান্য ব্যাংক ম্যানেজার ছিলেন, ব্যাংকের এমডিও রিকোয়েস্ট করে কোন খারাপ ব্যক্তিকে লোন দেয়াতে পারেনি! একে বলে মুক্তি যুদ্ধের চেতনা! এই জন্য তাঁকে যে খুব সুখে থাকতে দিয়েছে তা নয়, ২৬ বছর একই পোষ্টে চাকুরি করেছেন কোন প্রোমোশন ছাড়াই! হুম ঠিকই পড়েছেন, দুই যুগেরও বেশী একই পোষ্টে, সেই সাথে... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৯৮ বার পঠিত     like!

ফিরে দেখা অতীত এবং কৃতজ্ঞতা!

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১০ ই আগস্ট, ২০১৮ সকাল ৭:৫১

ক্লাস নাইন থেকে স্কুলে পদার্থ বিজ্ঞান, উচ্চতর গণিত এবং সাধারণ গণিত বিষয়ের কোন ক্লাস হয় নাই।

ভালো কোন শিক্ষক প্রাইভেটও পড়ায় নাই, অপরাধ যদি আমি ফেল করি তাহলে ঐ শিক্ষকের বাজারে ধ্বস নামবে! কারন আমার এইট পর্যন্ত পড়াশুনা অন্য থানাতে, সুতরাং ওনারা জানেন না আমি কেমন ছাত্র!

এলাকার একজন শিক্ষকের... বাকিটুকু পড়ুন

১৪ টি মন্তব্য      ১৮৭ বার পঠিত     like!

নিজে বদলাই দেশ এমনিতেই বদলে যাবে

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১৫ ই জুলাই, ২০১৮ সকাল ৯:৫৮

আপনি বা তুমিই বাংলাদেশ

২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকের কথা। ল্যাবে বসে লাঞ্চ করছিলাম। আমাদের ল্যাবে সাধারণত সবাই একত্রে লাঞ্চ করতাম। সেই ২০১৩ সাল থেকে একটি বিষয় নিয়ে ভাবতাম, আর তা হল জাপানের রেল ষ্টেশনে কিছু মানুষের ছবি এবং প্রত্যেকের নামের পাশে একটি বড় অঙ্কের টাকা দেয়া। বুঝতে অসুবিধা হয়... বাকিটুকু পড়ুন

১৪ টি মন্তব্য      ২৯৮ বার পঠিত     like!

উচ্চ শিক্ষা এবং একটি দীর্ঘশ্বাস

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ০৭ ই জুলাই, ২০১৮ রাত ১০:১৯

জনাব আলম (ছদ্মনাম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশুনার পাট চুকিয়ে, জাপান সরকারের মনবশু বৃত্তির অর্থায়নে পি এইচ ডি ডিগ্রীর জন্য প্রয়োজনীয় গবেষণা করেন। জাপানের বিশ্ববিদ্যালয়ে তার অর্জন খুব ভালো হওয়াতে ওখানেই শিক্ষকতার প্রস্তাব পান। কিন্তু আলম সাহেবের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তাঁকে এই লোভনীয় প্রস্তাবকে পায়ে ঠেলতে এক মুহূর্তও দেরী করতে দেয় নি। তিনি... বাকিটুকু পড়ুন

১৩ টি মন্তব্য      ২৯৬ বার পঠিত     like!

Antifreeze proteins এবং এদের কাজের একটি সহজ ব্যখ্যা

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ২৩ শে জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৩



কখনো কি চিন্তা করেছেন এন্টার্কটিকার মত তাপমাত্রাতে একটি মথ বা একটি লার্ভা কিভাবে বেঁচে থাকে? মানুষের মত কাপড় বা অন্য প্রানির মত পুরু পশমের কোনটিই এগুলোর নেই, এর পরেও এরা বেঁচে থাকে বহাল তবিয়তে! এই সকল প্রানির দেহে এক ধরণের বরফ নিরোধক যৌগ তৈরি হয় যা তাদের এমন কঠিন বরফাচ্ছাদিত... বাকিটুকু পড়ুন

৯ টি মন্তব্য      ১৩৯ বার পঠিত     like!

টিউশনির বেতন এবং একটি ঈদের অপমৃত্যু

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ১৭ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪৩

২০০৯ সালের রোজার ঈদ। নিজের খরচ এবং সংসারে বাড়তি খরচের জন্য কোচিং এর ক্লাসের সাথে দুইটি টিউশনি করি। যদিও এজন্য অর্থশালী, ফেলোশিপ হোল্ডার বন্ধুদের উদাহরণ দিয়ে অনেক কটু কথাই শুনতে হত , আর যেহেতু পড়াশুনার পাশাপাশি একটা কিছু না করলে যারা কথা শুনায় তাঁরা এক বেলা খাওয়াবেনা তাই তাঁদের ঐ... বাকিটুকু পড়ুন

১০ টি মন্তব্য      ২৫২ বার পঠিত     like!

যদি তাঁদের আবার ফিরে পেতাম আমাদের মাঝে!

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১:২০

প্রাচিন চীনে সাওলিনদের একধরনের ভক্তি মুলক শক্তি ছিল। সেই শক্তিকে দমন করতে বর্গীরা চীনের লোভী রাজাদের ব্যবহার করেছিল। সাওলিনদের পতনের পরে স্বভাবতই ঐ রাজাদের হাড় দিয়ে ডুগডুগি বাজাতে ভুল করেনি বর্গীরা!

একই ভাবে ভারতীয় উপমহাদেশেও এই ক্ষমতা লোভীদের ব্যাবহার করে একরকম আরামসে তারা ভারতবর্ষ দখল করে শতাব্দির ধরে শাসন করেছে।

প্রতিটি অভাগা... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৯২ বার পঠিত     like!

মন্টু মিয়ার স্বপন

লিখেছেন শেখ এম উদ্‌দীন, ২৯ শে মে, ২০১৮ সকাল ৮:৫৭

১৯ রমজান আজ, মন্টু মিয়ার অনেক টাকা দরকার। এই ঈদে ছেলে মেয়ে দুইটির জন্য দুটো নতুন জামা দিতেই হবে। ওরা দুজনেই এস এস সি পরীক্ষাতে নাকি খুব ভালো ফলাফল করেছে। শিক্ষকগণ মন্টু মিয়ার কাছে খুব করে বলে দিয়েছে যেন ওদের পড়াশুনা চালিয়ে যায়। নতুন জামা দিয়ে অন্তত ওদের বুঝাতে হবে... বাকিটুকু পড়ুন

১০ টি মন্তব্য      ১৩৫ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ৩১৪৯৯ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ