somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের ছয় বছর পূর্তী

১৭ ই ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ৯:৩৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

কিছু প্রাক কথা:

ইদানিং প্রায়ই কপিরাইট আইন, পাইরেসী প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা শুনে থাকি। মাঝে মধ্যে নিজেদের প্রয়োজনে চুরি করে হলেও বিভিন্ন সাইট থেকে লেখা/ছবি/গান/ইবুক প্রভৃতি নামিয়ে দেখি। তখন চুরি করা হচ্ছে জেনেও আমরা তা ব্যবহার করি অন্য উপায় নেই এই কথা বলে। আবার অন্য দিকে উক্ত ছবি/গান/ইবুক প্রস্তুতকারকরাও যেনো খলনায়ক হয়ে অবতীর্ন হন এবং পাইরেসী বিরোধী আন্দোলন শুরু করে।


তাহলে কি আমাদের ব্যক্তিগত ব্যবহারের কোন উপায় থাকবে না? কপিরাইটের বাধনে আমরা সাধারণ মানুষ জিম্মি হয়ে থাকবো?
এই পরিস্থিতিতে আজ থেকে ছয় বছর পূর্বে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ল’ অধ্যাপক লরেন্স লেসিং কপিরাইট বিষয়টিকে ভিন্ন আঙ্গিকে উপস্থাপন করেন। তিনি ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের খসড়া তৈরি করেন যা ব্যবহার করে স্বত্তাধিকারী তাঁর সৃজনশীল ছবি/লেখা/গান/ইবুক প্রভৃতির ব্যবহার নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন সেই সাথে কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীদের উন্মুক্ত ব্যবহারের অধিকার নিশ্চিত করতে পারবেন।


এই ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের মাধ্যমে সম্পূর্ণ নতুন একটি সম্ভাবণাময় দ্বার খুলে গেলো, পূর্বে কপিরাইট আইনে যেসকল বিষয়ে বাধা ছিলো তার অনেকগুলোই বিশেষ ক্ষেত্রে সীথিল হয়ে যায় (উদাহরণসরূপ: অনলাইনে বিনামূল্যে বিতরণ)। যেখানে কপিরাইট আইনে ছিলো “ALL RIGHTS RESERVED.” সেখানে ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সে হলো “SOME RIGHTS RESERVED.”। স্বত্তাধিকারী সহজেই উল্লেখ করতে পারবেন তিনি কি কি বিষয়ে তার সৃষ্টিকর্মের ব্যবহার উন্মুক্ত করে দিবেন।


এই ছয় বছরে ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্স কপিরাইট আইনের বিকল্প হিসেবে কপিরাইট আইনের সীমাবদ্ধতাকে দূর করেছে। পৃথিবীর ৫০টিরও বেশি দেশে ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের অধীনে লক্ষাধিক প্রজেক্ট নিবন্ধিত হয়েছে।


আজ ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের ৬ বছর পূর্তী উপলক্ষে সারা বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে (মোট ১৪টি শহরে) বিভিন্ন সচেতনামূলক উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আসুন আমরাও উদ্যোগ গ্রহণ করি আমাদের দেশের মানুষকে কপিরাইট আইনের প্রতি বিরুপ মনোভাব সৃষ্টির বদলে ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্স সম্পর্কে সচেতন করে তুলি যাতে তারা নিজেরাও তাদের প্রভৃতি সৃজনশীল কর্ম ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সে প্রকাশ করেন এবং ক্ষেত্র বিশেষে যাতে উন্মুক্ত ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারেন।


ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সের উপর একটি ভিডিও চিত্র
http://www.youtube.com/watch?v=2BESbnMJg9M

এক নজরে ক্রিয়েটিভ কমন্স এর লাইসেন্সগুলো:


ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সে মূলত তিনটি অংশ রয়েছে, by (attributes) মূল স্বত্তাধিকারীর নাম প্রকাশ, nc (non-commercial) অবাণিজ্যিক ব্যবহার, nd (non-derivatives) অপরিমার্জনীয়। এছাড়াও রয়েছে sa (share alike) একই লাইসেন্সের অধীনে।

এই তিনটি অংশ নিয়েই ছয়টি লাইসেন্স তৈরি হয়েছে


by
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যেকোন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। বাণিজ্যিক/অবাণিজ্যিক উভয় ক্ষেত্রেই ব্যবহারযোগ্য এবং সুবিধাজনকভাবে পরিবর্তন/পরিমার্জন সম্ভব।


by-nc
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে অবাণিজ্যিক যেকোন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে এবং দরকারে সুবিধাজনকভাবে পরিবর্তন/পরিমার্জন সম্ভব।


by-nd
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যেকোন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। বাণিজ্যিক/অবাণিজ্যিক উভয় ক্ষেত্রেই ব্যবহারযোগ্য তবে কোনরূপ পরিবর্তন/পরিমার্জন করা যাবে না।


by-sa
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যেকোন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। বাণিজ্যিক/অবাণিজ্যিক উভয় ক্ষেত্রে ব্যবহারযোগ্য এবং সুবিধাজনকভাবে পরিবর্তন/পরিমার্জন সম্ভব। তবে এক্ষেত্রে সকল উদ্ভূত (derivatives) সৃষ্টিকর্মই একই লাইসেন্সের (by-sa) নিচে প্রকাশ করতে হবে।

by-nc-nd
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যেকোন অবাণিজ্যিক প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। এক্ষেত্রে কোনরূপ পরিবর্তন পরিমার্জন অনুমেদিত নয়।


by-nc-sa
মূল স্বত্তাধিকারী/সৃষ্টিকারীর নাম ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যেকোন অবাণিজ্যিক প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। সুবিধাজনকভাবে পরিবর্তন/পরিমার্জন সম্ভব তবে এক্ষেত্রে সকল উদ্ভূত (derivatives) সৃষ্টিকর্মই একই লাইসেন্সের (by-nc-sa) নিচে প্রকাশ করতে হবে।


উল্লেখ্য আমার সকল লেখা cc: by-nc-sa লাইসেন্সের অধীনে প্রকাশিত।
(লেখার আইডিয়া শাবাব ভাইয়ের।)
সর্বশেষ এডিট : ১৮ ই ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১০:০৩
৯টি মন্তব্য ৬টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ইসলামি মুভি দর্শন এবং আমাদের হালালি ভাবনা

লিখেছেন মনযূরুল হক, ২৮ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ৮:২৭


রাসুলকে স. নিয়ে ইরানে সম্প্রতি একটা মুভি বানানো হয়েছে । এই মুভির নাম ‘মুহাম্মদ : দ্য মেসেঞ্জার অব গড’ ।

এর আগেও ‘আর রিসালা’ বা ‘দ্য মেসেজ’ নামে মোস্তফা আক্কাদের একটা... ...বাকিটুকু পড়ুন

রূপান্তর

লিখেছেন লীন প্রহেলিকা, ২৮ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ৮:৫৮

এখানেই শহরটা ছিলো,
চোখে রঙিন চশমা, হাতের মুঠোতে পুরে আস্ত শহর
কে যেন টান সিনায় হেঁটে গেছে সুদৃশ্য জলের উপর।

শ্মশানের পাশে গড়ে তুলে নূতন দালান;
সভ্যতার শেষ চিহ্ন রেখে পালিয়েছে যাত্রাদল
কেউ কেউ পালিয়েছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

আরাকান আর্মির ছদ্মাবরণে বাংলাদেশের অভ্যান্তরে মায়ানমার সেনাবাহিনীর হামলা

লিখেছেন আল-শাহ্‌রিয়ার, ২৮ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ৯:২০

২ দিন আগে যখন প্রথম জানতে পারলাম আরাকান আর্মির সদস্যরা আমাদের দেশে ঢুকে আমাদের বিজিবি'র অপর হামলা চালিয়েছে তখনই সন্দেহ করে ছিলাম যে এটা আদৌ সম্ভব কি না??

বাংলাদেশে মায়ানমারের যে... ...বাকিটুকু পড়ুন

ক্রনিক লাইকাইটিস

লিখেছেন হঠাৎ ধুমকেতু, ২৮ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ১০:২৫

১৭ নম্বর রোগী টাকে অনেক্ষণ ধরে খেয়াল করতেছে বক্কর। পাগলের ডাক্তারের কাছে আবাল তার ছিঁড়া লোকজন আসবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এরে দেখে মনে হচ্ছে এর মাথায় তার ই নাই।তেইশ চব্বিশ... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্যাখ্যাতীত কিছু নেই [কবিতা]

লিখেছেন ডি মুন, ২৮ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ১১:৪৬



সবকিছু ব্যাখা করা যাবে-
ক্রোধ, ঘৃণা, প্রেম।

পিতার মৃত্যুর পর
সন্তানের চোখে পানি;
আবেগ নাকি অর্থনৈতিক নিরাপত্তাহীনতা;
জানা যাবে সবকিছু
নিখুঁত শুদ্ধতায়।

ব্যাখ্যা করা... ...বাকিটুকু পড়ুন

অগোছালো পাতাগুলো

লিখেছেন রেজওয়ান মাহবুব তানিম, ২৯ শে আগস্ট, ২০১৫ রাত ১:১০

ক/ হেমলক

শঙ্কাহীন অন্ধকার
আমাকে গ্রাস করবার আগে
আমি চুমুক দিয়ে পান করি, নির্ভাবনার বীজমন্ত্র!

হে বিষাদ!
করুণ সৌম্য বিষাদ-
মেঘের কপালে আদরের তিলক আঁকার আগে
আমাকে দিয়ে যেও যথেষ্ট হেমলক।



খ/ ডুবসাঁতার

যে পাথরে মাথা... ...বাকিটুকু পড়ুন