somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

নিষ্পত্তি কি সব সময়ে জয়-পরাজয়ে? ময়দানি ধুলোয় তার বাইরেই যে পড়ে থাকে খেলার আসল-নকল গল্পগুলো৷ ময়দানের ঘাস-ধুলো যাঁর প্রিয়তম বন্ধু, তাঁর কলমে অভিজ্ঞতার দস্তাবেজ৷

আমার পরিসংখ্যান

ফেলুদার তোপসে
quote icon
দিনরাত সাদা-কালো জীবনের মধ্যে এক্কাদোক্কা খেলতে খেলতে হারিয়ে যাই অচেনা দুপুরের কোলে। বাকি থেকে যায় কিছু মরচে পড়া নিঃশ্বাস, কয়েকটা পোড়া স্বপ্ন আর কিছু ব্যক্তিগত উন্নাসিকতা। রাত আসে, শহর ঘুমিয়ে পড়ে... আর মন পড়ে থাকে কোনও একলা ছাদের অন্ধকারে। এভাবেই চলছে জীবন... এভাবেই মাঝে মাঝে ভিড় করে আসে রাত জাগানো শব্দেরা। ইচ্ছে, কবিতা, প্রেম, রাস্তা, অন্ধকার... আমি।
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

চক্র

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ১১ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:৩৮

একটি ছোট্ট নৌকো পাল তুলে পাড়ি দিচ্ছে অনন্ত আকাশে । ধীর, অতি ধীর তার গদিত নৌকোয় কয়েকজন মানুষ । একটি শিশু, একটি বালক, এক কিশোর, একজন যুবক এবং জনৈক বৃদ্ধ । নৌকোর গতি ধীর । চারদিকে গাঢ় অন্ধকার । মাঝে মাঝে ছুটে আসছে অনিকেত উল্কা । মহাজাগতিক ধুলো । মাঝেমধ্যে... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৩৩ বার পঠিত     like!

গল্প

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২৬ শে জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৯:০৮


সবারই বোধহয় নিভৃত কোনো গল্প থাকে,
ওই লোকটারও কি ছিলনা?
ও কি তার স্ত্রী, সন্তান, বন্ধু বা সহকর্মিদের
সে গল্পের ভাগ দিয়ে গেছে?
রাস্তা পেরুবার সময় লোকটা কি
কিছু ভাবছিল?
কি নিয়ে ভাবছিল ও!
কোনোদিন কি কেউ তা জানতে পারবে?
পুলিশ, সাংবাদিক, ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞ কিংবা মনোবিদ?

মানুষ তার জমি, বাড়ি, বাগান রেখে যায়, কিন্তু
গল্পের কতখানি?







বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৫৩ বার পঠিত     like!

গ্রামের নামটি 'বিরহী'

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২৭ শে ডিসেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৮


বিরহী নামের কোনও গ্রাম হতে পারে আমাদের এই বাংলায়? থাকলে সেই গ্রামের লোকগুলো কেমন? আমার আপনার মতো চিরকালীন বিষয়ী, লোভী, হিংস্র, স্বার্থপর, রাগী হবে? না, একটু উদাস উদাস? চারপাশের পৃথিবী সম্পর্কে চূড়ান্ত উদাসীন? সংসার, মানুষজন, জীবিকা সম্পর্কে খোঁজই রাখে না।



রোদ পড়েছে মাঠে, জ্যোৎস্নায় ভাসছে সবুজ বাগান, রিমঝিম বৃষ্টি... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৯০ বার পঠিত     like!

বিষাদ,– তোমাকে আমি লিওনার্দো কোহেনের গানে চিনি

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৭ রাত ১১:১৫

বিষাদ,– তোমাকে আমি লিওনার্দো কোহেনের গানে চিনি
বিষাদ,– তোমাকে আমি লিওনার্দো কোহেনের গানে চিনি, আমি দেখি
শান্ত বাড়ি ফিরে যাওয়া মেয়েটির মুখ, একভিড় বাসের মধ্যে একা মুখে শতাব্দীর বেদনা
একটি শান্ত রাস্তা বেঁকে গেছে, মুখ নয়, মুখের ছায়ায় দেখছি ভারতবর্ষ
মৃত্যু নয়, জীবনের মধ্যে দেখছি সাবধানী চোখের সন্ত্রাসের কান্না
রাস্তার উপরে পড়ে থাকা একটি বাচ্চা,... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪১ বার পঠিত     like!

এক মরনজয়ী জীবন প্রেমিকের কাহিনী- The Last Lecture

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ১৮ ই নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:৫২

এক মরনজয়ী জীবন প্রেমিকের কাহিনী- The Last Lecture

র‍্যান্ডি পশের কথা আমি আগে কোথাও পড়িইনি।
পরে জেনেছি তাঁকে নিয়ে কেবল আমেরিকা নয়, দুনিয়া জুড়ে বিস্তর হইচই হয়েছে,কিন্তু সেসব তখন জানতাম না।
ছুটির দিনে উদ্দেশ্যহীন ভাবে এ-বই সে-বই উল্টাতে উল্টাতে ছোট্ট বইটা চোখে পড়েছিলো।
গত কয়েক বছরে কলকাতার আর কিছু না হোক, একটা... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ১৯১ বার পঠিত     like!

কাশিতে কাশিও না

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৭ রাত ৮:৩৯

কাশিতে কাশিও না

মানুষের অদ্ভুত অদ্ভুত সব ভাল লাগা থাকে। আমারও এমন একটা আছে, বলা ভাল ছিল। আমার অদ্ভুত ভাল লাগা হল কাশির শব্দ শুনে সেটা নকল করা।

ছোটবেলায় ভাঙা দালানের কোণে বসে দাদু যখন কাশতো, আমি সেটা হুবহু নকল করতাম। দাদুর কাশিকে নকলটা এত ভাল হত, সবাই আমাকে বারবার সেটাই করতে... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ৮৮ বার পঠিত     like!

কোজাগরী

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ১৪ ই নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ২:২৫

চিরকাল সরস্বতীই প্রিয় আমার, পছন্দ তনুজা, পছন্দ সুচিত্রা মিত্র। তবু কোজাগরী চাঁদ যখন সুখে ভেসে থাকে আমাদের পুরনো দীঘিটার বুকের উপর তখন তাকে হারিয়ে যাওয়া মেয়েটির মতো লাগে, সেও তো এমনই করে বুকের সিঁড়ি দিয়ে উঠে আসতো ছাদে। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে প্রতারিত হওয়ার জন্য যখন প্রস্তুত করি সততাকে তখন... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ৫৭ বার পঠিত     like!

ফেরারী গল্পের খোঁজে

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০৯

সামনের ঘরে বসে আছি । বোকাবাক্সে গড়গড় চলছে এনডিটিভি। দুপুরের লেমন ইয়েলো রোদ তেরছা হয়ে মারিয়ে গিয়েছে বারান্দার কোল। পাশের বাড়ির ছাদে শুকোচ্ছে সেনেদের ভেজা
শাড়ি-সায়া-ব্লাউজ। পাখিটা হঠাৎ গ্রানাইটের কালো থামের আড়াল থেকে বুকে ভর দিয়ে হেঁচড়ে বেড়িয়ে এল। ওর নাম জানি না। ছোট, কালচে, ঘাড়ের কাছটা একটু ধূসর; আগে... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৭৭ বার পঠিত     like!

একদিন ঠিক আবার আমাদের দেখা হবে

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ০৮ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৯:১৮

মনখারাপের বিকেল আসে এক এক দিন।
উদ্দেশ্যহীন, গন্তব্যহীন, অলস, বড় মায়াময় কিছুটা সময়।
চিলেকোঠার ধুলোমাখা দূরবীন, এক ধাক্কায় অনেকটা পিছনে নিয়ে যায়। কোনও অলৌকিক ম্যাজিকবাক্সে সাদাকালো ফ্ল্যাশব্যাক শুরু হয়। দূরের এক মফঃস্বলের স্টেশনে ট্রেন চলে যাবার ভোঁ শুনতে পাই।

আবছা মনে পড়ে, কবে যেন তুমুল বৃষ্টি নেমেছিল এখানে। খুব চেনা... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৯১ বার পঠিত     like!

একটি ভুতের গল্প

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২০ শে এপ্রিল, ২০১৭ সকাল ১০:২৩



দ্বিজুদা, আপনি একটা সিম্পল ভূতের গল্প বলুন, আজ।

সিম্পল ভূত মানে তো তোমাদের ইয়ার্কি-ফাজলামির ভূত? ভূত-গবেষক দ্বিজপদ সাঁতরা বিরক্ত হল, এই করে করে তোমরা লেখকরা ভূতের জাত মেরে বেড়াচ্ছ! ও আমি জানি-টানি না যাও!

দ্বিজুদা ভূতের গল্পের জীবন্ত খনি। কিন্তু ভদ্রলোক যে চটে যাবেন কে জানত! তাঁকে অনেক কষ্টে ঠান্ডা... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৪৬৪ বার পঠিত     like!

একটি গল্পের শুরু

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ০৭ ই এপ্রিল, ২০১৭ সকাল ১০:০৯


প্রথম তাকে দেখেছিলাম সল্টলেক অফিসপাড়ায়। বাসের জন্য একমনে রোদের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকতে। একটা টিউশনি সেরে ফিরছিলাম। এল ২৩৮ এ আমিও যাই সেই পথে। পুরুষজনিত স্বভাবে আড়চোখে মাপছিলাম তাকে। সেও কিছুক্ষন পর বুঝতে পেরে অবহেলার চোখে তাকিয়েছিল।

ভাগ্য মাঝেমাঝে অদ্ভুতভাবে কাজে আসে। আবার সেই কপালই হয়ত এতকিছু ঘটাল। আজ দমদম... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৩৩ বার পঠিত     like!

নন্দিনীকে শীতের কবিতাগুচ্ছ

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ০৬ ই জানুয়ারি, ২০১৭ রাত ৮:০২





নন্দিনী ছোটবেলার আলু সেদ্ধ ভাতের মতো একটা সকালে উঠে আমি ভাবি কতটা প্রশ্রয় আজ পাওয়া যাবে তোমার থেকে?
একেকটি মঞ্চ, একেকটি সাফল্য ছেড়ে যখন তোমার নরম বুকে মাথা রেখে ভাবি পুরনো নক্ষত্রদের কথা, নিজেকে নীলাভ নাবিক মনে হয়
আমি বালিগঞ্জ থেকে পার্ক স্ট্রিট প্রত্যেক যায়গায় বেহিসাবি পয়সাওয়ালাদের মতো কেবল ছড়িয়ে এসেছি... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১০৮ বার পঠিত     like!

ইতি, ফেলুরাম

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩২


ত্রিকোনামিতির কসথিটা বাই ট্যান থিটা আর ফ্রক পড়ে আসেনা অনু,
আমি হোলস্কয়ার ছুঁয়েও দেখেছি তোর ঠোঁট আরো নরম।
এর পেটে ওর বাহু ঢুকিয়ে দেওয়া উপপাদ্যের দেহে রবি ঠাকুরও
একটুকরো কবিতা নামাতে পারলেন কই?

আমি সম্পাদ্যের বৃত্তকে অনেক কষ্টে দুই ভাগ করতে শিখেছি অনু,
উত্তর না মিললেও তোর চোখের তারা কোনো কম্পাসেই গোল হবে না... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৭১ বার পঠিত     like!

কলগার্ল

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২৮ শে ডিসেম্বর, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৫৯

ক্লান্ত শরীর নোনতা জীবন জিভ চেটে নেয় ধর্মতলা
আকাশ জুড়ে যখন তখন মনখারাপি কাব্য নামে
ভালবাসার চুল্লি সাজে শহর জুড়ে বিকেলবেলা
তুমি তখন আগুন জ্বাল ভাসাও শরীর গোপন স্নানে

গ্লসি মোড়ক ঠোঁটের ফাঁকে হজম করে নিষিদ্ধতা
সিফন আঁচল আড়াল খোঁজে বস্তাপচা নখের দাগে
ঘুমের চোখে কাঁপন তোলে পেটের খিদেয় বিশুদ্ধতা
তখন তুমি কাজল ঢাল চোখের পাতায় ভীষণ... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৫৮ বার পঠিত     like!

হরিপদ-অমল আর আমি

লিখেছেন ফেলুদার তোপসে, ২৫ শে ডিসেম্বর, ২০১৬ দুপুর ১:০০

অমলটা কবি হতে পারেনি, "প্রতিভা" বাক্সে তালাবদ্ধ করে রেখেছিল এবং রমা রায়, ভালোবেসে কারাবাসী হয়েছিল। আর

আমাদের হরিপদ... জীবনের গল্পটা দু'পাতাতেই শেষ করে দিলো...


হরিপদ কি ছিন্নমূলের যন্ত্রণা নিয়ে শহরে পা রেখেছিলেন? সেই জন্যই কী বিয়ের পিঁড়ি থেকে পালিয়ে আসতে হয়েছিল তাকে? মাথা গোঁজার ঠাঁই না থাকাতেই কী কুঁকড়ে থাকত হরিপদ?... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৪১ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ১২৪৭৩ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ