somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আপনি যে ব্লগটি খুঁজছেন,এই ব্লগটি পাওয়া যায়নি...

আলোচিত ব্লগ

যে পৃথিবী মুছে যায়..... (সায়েন্স ফিকশান)

লিখেছেন পুলহ, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ সকাল ১০:১৬

প্রফেসর জাহিদ হাসান নিজের রুমে বসে আছেন। তার সামনে তার ছাত্র শরিফুল।
ছেলেটার বয়স খুব একটা বেশি না, সবে সেকেন্ড-ইয়ার, সেকেন্ড-সেমিস্টার পার করছে। অত্যন্ত সাধারণ চেহারার নিরীহ ভঙ্গিতে বসে থাকা ছেলেটি-... ...বাকিটুকু পড়ুন

উপমহাদেশ সম্পর্কে ১১৫২ সালে করা ভবিষ্যৎবানী! সবই ফলে গেছে!!! বাকি গুলা??

লিখেছেন যাযাবর চিল, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ দুপুর ১২:২৭

কয়েকদিন আগে একটা অদ্ভুত কবিতা পড়েছিলাম, ইসলামি ফাউন্ডেশন থেকে প্রকাশিত। আজ থেকে প্রায় ৮০০ বছর আগে শাহ নেয়ামাতুল্লাহ র. এই উপমহাদেশ সম্পর্কে ভবিষ্যৎবানী করে ছিলেন। এবং তার সব কথা পরে... ...বাকিটুকু পড়ুন

দেশজ

লিখেছেন দেবজ্যোতিকাজল, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ দুপুর ২:০১


চলো দেশজ । এবার বুঝি পালাতে হবে
যা ছিল আমার , মৃত্যুতে তা রূপান্তর ; বুঝলে !
এই দেশ এখন বিদায়ি আসরের মত
অনিশ্চিত জীবন , মৃত্যু লালন ক'রে বাঁচা
লাশের উপর লাশ... ...বাকিটুকু পড়ুন

রম্য গল্পঃ- ইঁদুর বিশেষজ্ঞ রমিজ মিয়া ও তার ইঁদুর

লিখেছেন Habib Shuvo, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ সন্ধ্যা ৭:৩২

ইঁদুরের সাথে একটা বিশেষ ভাব-সাব আছে রমিজ মিয়ার। সে জন্য রমিজ মিয়াকে সবাই আহ্লাদ করে উপাধি দিয়েছে ইঁদুর বিশেষজ্ঞ রমিজ মিয়া। উনার ফ্ল্যাটের প্রতিটা পরিবার যখন ঈঁদুরের যন্ত্রণায় রাতের ঘুম... ...বাকিটুকু পড়ুন

বিভ্রান্তির গল্প

লিখেছেন অরুনি মায়া অনু, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ রাত ৯:২১



হাঁ লেখাগুলো আমিই লিখি, কিন্তু লেখাগুলো তো আমার গল্প নয় |
শূন্যতা আমার অসহ্য লাগে,তাই টেবিলে ফেলে রাখা খাতার পাতা গুলো পূর্ণ করতে ছুটে যাই,,
কিন্তু হাঁ, গল্প গুলো আমার নয় |

আমি... ...বাকিটুকু পড়ুন

নির্বাচিত ব্লগ

চাঁদের আলোয় অধরা, মিহি বাতাসে মাধবী......!! (নো ম্যান্স ল্যান্ড-৮)

লিখেছেন সজল জাহিদ, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ সকাল ১১:০২


অরণ্য একটি লজে রুম খুঁজে নিয়ে, একটু ফ্রেস হয়েই আবার বেরিয়ে পড়লো কিছু খাবারের খোঁজে। ফিরে এলো কিছু সময় পরে। রুমে এসেই বুঁদ হয়ে গেল ফেসবুকের মেসেঞ্জারে। এদিকে অধরা আর অন্যদিকে অরণ্যর বন্ধুরা। কথা বলছে... তিন তলার হোটেল রুমের পর্দা সরিয়ে জানালা খুলে দিল।

জানালার পর্দা সরাতেই এক মুঠো জ্যোৎস্না এসে পড়লো ভরা চাঁদের বুক থেকে! অরণ্যর ধবধবে সাদা বিছানায়। যা দেখে নিজের অজান্তেই হেসে ফেলল অরণ্য! আর মনে মনে ভাবলো এ যেন জ্যোৎস্না নয় অধরার হাসি, অধরার উপস্থিতি, এ যেন অধরারই আলো, চাঁদের আলো হয়ে এসে পড়েছে অরণ্যর বিছানায়! ভেসে উঠলো অধরার নির্মল আর নিস্পাস হাসির মুখখানি!

চাঁদের আলোয় অধরার সাথে... ...বাকিটুকু পড়ুন

যে পৃথিবী মুছে যায়..... (সায়েন্স ফিকশান)

লিখেছেন পুলহ, ২৪ শে জুলাই, ২০১৬ সকাল ১০:১৬

প্রফেসর জাহিদ হাসান নিজের রুমে বসে আছেন। তার সামনে তার ছাত্র শরিফুল।
ছেলেটার বয়স খুব একটা বেশি না, সবে সেকেন্ড-ইয়ার, সেকেন্ড-সেমিস্টার পার করছে। অত্যন্ত সাধারণ চেহারার নিরীহ ভঙ্গিতে বসে থাকা ছেলেটি- ছাত্র হিসেবে অসাধারণ। প্রফেসর হাসান তার দীর্ঘ অধ্যাপনা জীবনে এতো শার্প স্টুডেন্ট দেখেছেন বলে মনে করতে পারেন না।
সেই ফার্স্ট ইয়ারেই তিনি শরিফুলদের কোয়ান্টাম ফিজিক্স-১, ২ কোর্সদু’টি পড়াতেন। আর সে কোর্সগুলোর সুবাদেই শরিফুলের সাথে তার জানাশোনা; সেই সময় থেকেই কোয়ান্টাম মেকানিক্সের মতন এতো ‘এবস্ট্রাক্ট’ একটা বিষয়ে ছেলেটির দক্ষতার পরিচয় পেয়ে তিনি বিস্মিত। বলা বাহুল্য- অন্য কোর্সগুলোর অবস্থাও অনেকটা একই রকম; প্রফেসর হাসান অতটা বিস্তারিত না জানলেও এটুকু অন্তত জানেন যে- বাকি... ...বাকিটুকু পড়ুন

এ্যাডভেঞ্চার বাইকাররা মরার আগে যে রোডগুলোতে রাইড করে....

লিখেছেন অপলক , ২৩ শে জুলাই, ২০১৬ রাত ১১:০৯

=< South Yungas Road:
বলিভিয়ার ভয়ঙ্কর এই রোডটা ৪৩ মাইল দীর্ঘ। একে Death Road বলা হয়ে থাকে। বছরে প্রায় ১০০০ লোক মারা যায় এই রোডে। তারপরেও সৌন্দর্যে ভরা একটা গ্রামে যেতে এডভ্যানচার প্রেমীরা এই রোডে যাত্রা করে।



=ভাইটিম নদীর ব্রীজ আর সাইবেরীয়ার ভয়ঙ্কর দুর্গম রোড হচ্ছে চ্যালেঞ্জিং আর এ্যাডভেন্চারে ঠাসা একটা রোড। ৬০০ মিটারের কাঠের একটা ব্রীজ পার হতে বাঘাবাঘা রাইডারের গলা শুকিয়ে যায়। আর অন্যদিকে সাইবেরিয়ার রোড আসলে রোড বলা যায় না, মৃত্যু ভয় থাকলে এ রোডে কেউ পা বাড়ায় না। কখন কি ঘটবে, কোথায় ভাল্লুক বের হবে, কোথায় পাহার ধসে রোড বন্ধ... ...বাকিটুকু পড়ুন

অনুবাদ গল্পঃ ব্লাউজ

লিখেছেন শরীফ আজাদ, ২৩ শে জুলাই, ২০১৬ রাত ১০:৪৯



মমিন গত কয়েকদিন যাবত এক ধরণের অস্থিরতায় ভুগছে। তাঁর পুরো শরীরটা যেন একটা দগদগে বিষফোঁড়া। সর্বদা সে একটা রহস্যজনক ব্যথা অনুভব করে —কাজ করতে গেলে, হাঁটতে গেলে, এমনকি চিন্তা করতে গেলেও ব্যথাটা তাঁর অনুভূত হয়। যতবারই সে এই অনুভূতিটাকে ব্যাখ্যা করতে চেয়েছে, ততবারই ব্যর্থ হয়েছে।

বসে থাকা অবস্থায় মাঝে মাঝে সে এটার একটা ব্যাখ্যা দাঁড় করানো শুরু করে। সাধারণত যেসব অস্পষ্ট এলোমেলো চিন্তাগুলো তাঁর মনে বুদ্বুদাকারে উত্থিত হয়ে আবার নীরবে মিলিয়ে যায়, সেগুলো এখন প্রচণ্ড ঝড়ের বেগে সেখানে বিস্ফোরিত হতে লাগলো।মনে হচ্ছে যেন কাঁটাওয়ালা পা নিয়ে কতগুলো পিঁপড়ে তাঁর কোমল মনটার অলিতে গলিতে হামাগুড়ি দিয়ে হেঁটে বেড়াচ্ছে। তাঁর পুরো শরীরে... ...বাকিটুকু পড়ুন

বিনা টিকিটে বন্ধু নাজিরের সঙ্গে মহানগর প্রভাতীতে!!!

লিখেছেন রেজা ঘটক, ২৩ শে জুলাই, ২০১৬ বিকাল ৪:১১

আজ থেকে ঠিক ১৩ বছর আগের কথা। ২০০৩ সালের ২৪ জুলাই। বন্ধু নাজিরের নেতৃত্বে আমরা চার বন্ধু নাজির, রিয়াজ, পুলক আর আমি আখাউড়া যাচ্ছিলাম নাজিরদের বাড়িতে। নাজির বলেছিল, আমরা এয়ারপোর্ট থেকে চট্টগ্রামগামী সকালের ট্রেন ধরব, তোরা সকাল সাতটার আগেই এয়ারপোর্ট রেল স্টেশনে আসবি।

রিয়াজ, পুলক আর আমি তখন একসাথে থাকি কাঁঠালবাগানে। আমরা তিন জন সকাল সাতটার আগেই এয়ারপোর্ট রেল স্টেশনে হাজির হলাম। নাজির আসবে মিরপুর থেকে। কিছুক্ষণের মধ্যে নাজিরও পৌঁছালো। আমরা মহানগর প্রভাতীর অপেক্ষায়। পুলক প্রস্তাব করলো, ট্রেন আসার আগে টিকিট কেটে নাস্তা কইরা ফেলাই?

নাজির ধমক দিয়ে কইলো, নাস্তা ট্রেনে করিস। আর টিকিট ফিকিট লাগতো না। তোরা কার লগে যাইতাছোস,... ...বাকিটুকু পড়ুন