somewherein... blog badh bhangar awaaj recent posts http://www.somewhereinblog.net http://www.somewhereinblog.net/config_bangla.htm copyright 2006 somewhere in... নাস্তিকদের একটি Common প্রশ্নের জবাব
ইসলামী আক্বীদা সংশোধনের জন্য আরো পড়তে পারেন

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর বহু বিবাহ প্রসঙ্গে ইসলাম বিদ্বেষীদের সমালোচনার জবাব

আল্লাহ সুবহানাতায়ালার অস্তিত্ত্বের একটি বুদ্ধিবৃত্তিক প্রমান





পুরুষ জাতির বহু বিবাহ প্রথাকে ইসলামী শরীয়াহ আসলে কতটুকু সমর্থন করে

বনী কুরায়জা গোত্রের সকল পুরুষ ইহুদি হত্যা করা প্রসঙ্গে একটি পর্যালোচনা

ইসলামি শরীয়াহ কি কখনই দাস দাসী প্রথাকে সমর্থন করেছিল

স্টালিনের নৃশংসতার স্বীকার এক বাঙ্গালী বিপ্লবী

মাওসেতুং এর সময় চীনা মুসলমানদের দূর্দশতার কথা শুনুন

কামসূত্র বইটি কোথা থেকে এল ? এর ইতিহাস কি আপনি জানেন ?

সতীদাহ প্রথা সরাসরি দেখার এক দুর্লভ অভিজ্ঞতার কথা শুনুন





]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29748128 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29748128 2013-01-13 20:47:01
The Unbreakbles: banged up abroad, National Geographic Chanel এর একটি অসাধারন অনুষ্ঠান <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" />


জেল খানায় আমাদের মুল কাজটা ছিল পানি সংগ্রহ করা। ঘন্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষের সাথে হুড়াহুড়ি করে আমাকে খাবার পানি সংগ্রহ করতে হত। এই পানি সংগ্রহ করতেই আমার দিনের ২-৩ ঘণ্টা সময় ব্যয় হত। জেল খানায় খাবার পানি আর ওযু গোসলের পানি সংগ্রহ করাই ছিল আমাদের মুল কাজ। জেল খানায় পানির খুব কষ্ট। কারন চট্রগ্রাম জেল খানায় বন্দী ধারন ক্ষমতা হল ১৫০০ আর থাকে ৪৫০০ বন্দী। প্রতিদিন ৬০ করে জামিন পায় আর ৬০ করে নতুন হাজতী আসে। তাই জেল খানায় মানুষ কমেও না আবার বাড়েও না। কি আজিব ব্যাপার!



জেল খানা থেকে টাকা কামানো যায় এই কথাটা সত্য। কিভাবে টাকা কামানো যায় তা এখন আপনাদের কে একটু বলি। ধরেন আমার পিতা আমাকে ২০০০ টাকা দিল জেল খানার ভিতরে খরচ করার জন্য। এই যে আমার পিতা আমাকে ২০০০ টাকা দিল এই টাকা টা কিন্তু আমি জেল খানার ভিতরে নিতে পারবো না। জেল খানার প্রত্যেক বন্দীর নামে একটা P.C. Card থাকে যেটার মানে হল Personal Card. ঐ কার্ডে আমার নামে ২০০০ টাকা লিখা থাকবে। জেল খানার ভিতরে প্রতি ভবনে একটা রুম থাকে যেখানে বিভিন্ন শুকনা জিনিস যেমন বিস্কুট, আলু, কলা ফলমূল প্রভৃতি বিক্রি হয়। প্রত্যেকে তার P.C. Card দিয়ে এইসব জিনিস কিনে। তবে জেল খানার ভিতর সবচেয়ে বেশি বিক্রি কি হয় জানেন ? সেটা হল সিগারেট। এই সিগারেট কিন্তু খাওয়ার জন্য কেউ কিনে না। কেন কিনে বলি। জেল খানার ভিতরে গোসল করা খুব কষ্টকর। হাউসে নেমে হুড়াহুড়ি করে গোসল করতে হয়। তো আপনি যদি প্রতি সপ্তাহে ১ টা করে গোল্ডলিফের প্যাকেট ঐ কয়েদীকে দেন যে পানির দায়িত্বে থাকে তাইলে সে আপনাকে প্রতি সপ্তাহে মোটামুটি ভাবে গোসল করার পানি দিবে। এইভাবে সে যে গোল্ডলিফের প্যাকেট গুলি পাবে ধরেন ১০ প্যাকেট গোল্ডলিফ দাম ৭০০ টাকা। এই ১০ প্যাকেট গোল্ডলিফ সে কোন কারা রক্ষীর মাধ্যমে বাইরে বিক্রি করবে ৬০০ টাকায়। এরমধ্যে ১০০ টাকা আবার ঐ কারা রক্ষীর পারিশ্রমিক। তাইলে থাকে ৫০০ টাকা। এই ৫০০ টাকা কারা রক্ষী ঐ কয়েদির নামে তার P.C. Card এ জমা দিয়ে দিবে, তারপর ঐ কয়েদি P.C. Card এর ৫০০ টাকা দিয়ে জেল খানার ভিতর বিভিন্ন খাবারের জিনিস কিনবে। আবার ঐ সিগারেটের প্যাকেট অন্য ভাবেও ব্যবহৃত হয়। যেমন ঐ কয়েদির কোন আত্মীয় স্বজন তার সাথে দেখা করতে আসলে সে ১০ প্যাকেট গোল্ডলিফ কোন কারা রক্ষীর মাধ্যমে তার ঐ আত্মীয় স্বজন কে দিবে। ঐ ১০ প্যাকেট গোল্ডলিফের মাঝে কারা রক্ষী নিবে ১ প্যাকেট আর বাকী থাকে ৯ প্যাকেট গোল্ডলিফ। ঐ ৯ প্যাকেট গোল্ডলিফ তার ঐ আত্মীয় স্বজন জেল খানার বাইরে কিছু নির্দিষ্ট দোকানে বিক্রি করে যে টাকা পাবে তা নিয়ে চলে যাবে। এইভাবে জেলে থেকে অনেক কয়েদী সংসার চালায় বা বাপ মাকে টাকা দেয়। আমার মনে হয় না বাংলাদেশের চেয়ে এত বিচিত্র দেশ এই পৃথিবী তে আছে। জেল না খাটলে আমি আসলে এই অদ্ভুত দেশের অনেক কিছুই

তবে জেল খাটার ফলে একটা জিনিসই আমি খুব ভাল করে বুঝতে পারছি যে আল্লাহ সুবহানাতায়ালা অনেকের চেয়ে আমাদের কে অনেক অনেক ভাল রেখেছেন। কারন মিথ্যা মামলায় ২০ বছর ধরে জেল খাটতাছে এরকম লোক বাংলাদেশের জেল খানা গুলিতে প্রচুর আছে। একটা সময় আমার বস্তির লোকদের দেখলে খারাপ লাগত। কিন্তু ১ মাস জেল খাটার পর আমার আর বস্তির লোকদের দেখলে খারাপ লাগে না। কারন ঢাকার বস্তির লোকেরা চাইলেই রামপুরা খিলগাঁও মিরপুর থেকে ঘুরে আসতে পারে। কিন্তু চট্রগ্রাম জেল খানায় ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় আটক সেনা বাহিনীর সাবেক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল, মেজর জেনারেলরাও জেল খানায় ডিভিশনে বসে দিন কাটাতে হয়। একটা সুস্থ সবল মানুষ সারাদিন একটা ৫ তলা ভবনে আবদ্ধ আর বিকাল ৫ টার পর মুরগির খোয়ারের মত একটা গন রুমে রাত কাটান সেটা যে কি কষ্টকর এটা যে জেল খাটছে সেই জানে। এই পৃথিবীতে স্বাধীনতার চেয়ে বড় আনন্দ আর কিছু নাই।



আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৫ম পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন



আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৪র্থ পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৩য় পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ২য় পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ১ম পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29747630 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29747630 2013-01-12 22:53:54
সিঁধেল চোর নাসিম রুপকের লেখা চুরির কাহিনী শুনুন <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" />







অনুসন্ধানি গবেষণা চুরি করে নিজের নামে চালিয়ে দিল যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ দপ্তর সম্পাদক বিখ্যাত সিঁধেল চোর নাসিম রুপক !!!

সম্প্রতি ক্বাবার ইমামদের নেতৃত্বে তথাকথিত মানব বন্ধনের খবরের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে ফেসবুকে ও সামু ব্লগে ঝড় তুলে নায়ক বনে গ্যাছেন নাসিম রুপক নামক এক সিঁধেল চোর !

আমি তাকে সিঁধেল চোর বলছি এই কারণে যে সে নিজে নিজে এই সব খুঁজে বের করে নাই ! আর তার এসব খুঁজে পাওয়ার কথাও নয় !!!

হাসান (حسن تنوير ) নামক একজন ফেসবুক ইউজারের অনুসন্ধানমূলক গবেষণা চুরি করে সে নিজের নামে চালিয়ে দিয়েছে !

সবগুলো আসল লিঙ্ক ছিল আরবি ভাষার ! আর নাসিম রুপকের এমন ক্ষমতাও নাই যে সে আরবি পইড়া মানে উদ্ধার করবে !

আর গুগল ট্রান্সলেট যদিও আলাদা আলাদাভাবে শাব্দিক অর্থের জন্য অবশ্যই ভাল ! কিন্তু বাক্যের ট্রান্সলেট করার জন্য একেবারেই জঘন্যতম !! এর চেয়ে জঘন্যতম বাক্যের অনুবাদক দুনিয়ায় আর দ্বিতীয়টা আছে কিনা আমার জানা নেই। আর যারা গুগল ট্রান্সলেট নিয়মিত ব্যবহার করেন, তারা হয়তো জেনে থাকবেন যে এটা দিয়ে কোন বাক্যের আসল অর্থ উদ্ধার করা আদৌ সম্ভব না ! আর আরবি ভাষা তো প্রশ্নই আসে না! (তবে আলাদা আলাদা শব্দের অর্থ জানার জন্য এটা ভাল )

যাই হোক !!

আসলে এই কাজটার মূল হোতা হল “হাসান” (حسن تنوير ) নামক একজন ফেসবুক ইউজার যিনি সর্বপ্রথম নিজ উদ্যোগে এই কাজটা করেন । তিনিই সব লিংক আর তথ্য দিয়ে বিভিন্ন ফেসবুক পেজ আর নিউজ লিঙ্কের নিচে বড় একটা কমেন্ট জুড়ে দিয়ে প্রথম প্রতিবাদ জানান!

এমনকি ঐ হাসান ভাই, তার কমেন্টে লিখেও দিয়েছিলেন যে তিনি কীভাবে এই কাজ করেছিলেন ! আর তিনি নিজেও একজন আরবি জানা মানুষ ! তাই তার জন্য গুগল ট্রান্সলেট করতে হয়নি।

আসলে তিনি এই কাজটা করেছেন কোনো দলের প্রতি রাগ বা হিংসা থাকার জন্যেও না, আর কোনো পত্রিকার সম্পাদকের সাথে শত্রুতা করেও না !

মূলত তিনি এই কাজ করেছেন শুধুমাত্র এই জন্য যে কেউ যেন বর্তমান বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ইমাম শাইখ আবদুর রহমান আস-সুদাইসকে নিয়ে আর একটাও বাজে মন্তব্য না করতে পারে !

তিনি আমাকে বলেন যে আমি প্রথমে গত পাঁচ জানুয়ারি তারিখ বিকালে ফেসবুকে ঐ কাল্পনিক মানব বন্ধনের খবর দেখার পর, দেখি যে অনেকে ক্বাবার ইমাম সাহেবদের নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করছে।

এটা হাসান ভাই সহ্য করতে পারেন নাই ! তারপর তিনি নিজ উদ্যোগে ঐ তথাকথিত মানব বন্ধনের ছবিটা গুগল ইমেজে আপলোড দিয়ে দেখতে পান যে আসলে ছবিটা কীসের ! তখনই আসল ছবিগুলোর লিংক পেয়ে যান এবং দেখতে পান যে আসলে ক্বাবার ইমাম সাহেবরা কোনো প্রতিবাদ ব্যানার নিয়ে দাড়িয়ে ছিলেন না ! বরং সেটা ছিল ক্বাবার গিলাফ হস্তান্তরের সময়কার ছবি ! তারপরই তিনি লিঙ্কগুলো সমেত বিভিন্ন পেজে কমেন্ট দিতে থাকেন !

আসলে এই নাসিম রুপক ঐ হাসান (حسن تنوير ) ভাইয়ের কমেন্টস থেকে লিংক আর তথ্য চুরি করে সে সামুতে ব্লগ লিখে ! তারপর ফেসবুক পেজে নোটও লিখে !

এখানে বিখ্যাত চোর নাসিম রুপকের ব্লগ আর নোট লিখার সময়টা দেখুন ! ব্লগিং সময় ৬ জানুয়ারি দুপুর ১টা ৫৪ মিনিট !!! নোট লিখার সময় ৬ জানুয়ারি দুপুর ২ টা ১৭ মিনিট

Click This Link



Click This Link

কিন্তু আমার কথা বিশ্বাস না হলে আপনারা এই লিঙ্কে গিয়ে হাসান ভাইয়ের কমেন্টটা দেখুন, আর সে কখন ঐ কমেন্ট করেছেন, সে সময়টাও দেখুন !

সময় রাত ৬ জানুয়ারি ভোর রাত ৩ টা ২০ মিনিট !!!

Click This Link

তাহলে সময়ের দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাচ্ছি যে হাসান (حسن تنوير) ভাই আগেই এই অনুসন্ধানি গবেষণা প্রকাশ করেছেন !

কিন্তু উলু বনে মুক্তা ছড়ালে যা হয় আর কি !! অর্থাৎ কমেন্টে এই সব দুর্লভ তথ্য দিয়ে দিলে সেটা কী আর চুরি না হয়ে পারে ???

বিভিন্ন জামাতি ফেসবুক পেজ আর নিউজ লিঙ্কের নিচে তার করা ঐ কমেন্ট গুলোএকটু পর পরই অনেক পেছনে চলে যাচ্ছিল ফলে তিনি প্রায় আঁটটা থেকে দশটা ফেসবুক পেজ যাতে ঐ মিথ্যা খবর নিয়ে মাতামাতি করা হচ্ছিল, আর কিছু অনলাইন নিউজ লিঙ্কের নিচে ঐ একই কমেন্ট বার বার দিতে থাকেন, যাতে সবাই সত্যটা জানতে পারে এবং পবিত্র ক্বাবার ইমামদের নিয়ে বাজে কথা না বলে ।

এই কারণে এক পর্যায়ে তাকে নয়াদিগন্ত পেজ থেকে ব্যানও মারা হয় এবং তার সব কমেন্ট মুছেও দেওয়া হয় !

কিন্তু ঐ পেজ থেকে ব্যান মারলে কী হবে, অন্যান্য অনেক পেজেও এই একই কমেন্ট বার বার করছিলেন এবং সেগুলো তো অনেকেই দেখছিল আর একের পর এক ঐ কমেন্টে লাইক আসছিল!

আর এই চোট্টা নাসিম রুপক পরের দিন সকালে উঠে চুরি করা তথ্য নিয়ে ব্লগিং করে নিজের নামে চালিয়ে দিয়েছে যে সে-ই নাকি এইসব খুঁজে পেয়েছে !!!

নয়া দিগন্ত, আমার দেশ, সংগ্রাম, বাঁশের কেল্লা ইত্যাদি যেমন মিথ্যাচার করেছে, তেমনি এই নাসিম রুপকও একজনের গবেষণা নিজের নামে চালিয়ে দিয়ে জঘন্যতম পাপাচার করেছে !!!

এখন সে-ই নাকি এইসবের মূল হোতা !

ধিক এই সব চোরদের যারা অন্যের জিনিস নিজের নামে চালিয়ে দেয় !

আমার মতে এদেরকে সিঁধেল চোর বললেও সিঁধেল চোরেরা লজ্জা পাবে !

দুনিয়া চোরে চোরে ভরে গেছে <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" />

আল্লাহ এই সব লেখা চোরদের ঈমান দিক <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" />



]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29746811 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29746811 2013-01-11 12:15:33
ইয়া হু! মাসিক মুঈনুল ইসলাম পত্রিকা জানুয়ারী 2013 সংখ্যায় আমার একটি প্রবন্ধ ছাপা হয়েছে <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" /> http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29745029 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29745029 2013-01-08 12:35:47 বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার কৃতজ্ঞতা



বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে একটি কারনে আমি সারাজীবন কৃতজ্ঞ থাকবো আর তা হলো এইবার আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর ডানপন্থী দলের অনেক ছেলে পুলে জেল খাটছে। এই অভিজ্ঞতার কিন্তু ভাই দরকার ছিল। যেমন আপনার ইচ্ছা হল গোসল করতে সাথে সাথে আপনি পুকুরে যেয়ে একটা ডুব দিয়ে আসতে পারেন বা বাথরুমের ভিতর শাওয়ার ছেড়ে একটা আরামের গোসল দিয়ে দিলেন। কিন্তু আপনি কি জানেন যে জেলখানার ভিতর গায়ে একটু বেশী করে প

ানি ঢালা যে একটি অসম্ভব ব্যাপার। শত শত লোকের সাথে হাউসে দাড়িয়ে গোসল করতে হয়। তাও হাউসে পানি থাকে মাত্র ২৫ মিনিট। অনেক হাজতীর তো শুধু এটাই তৃপ্তি যে গোসল করার সময় তার গায়ে ১ মগ পানি ঢালতে না পারলেও অন্যের পানির ছিটাটা তার শরীরে পড়ছে। আমি আপনি চাইলেই এখন রাস্তায় হাটতে পারবো, মাঠে যেয়ে খেলা দেখতে পারবো কিন্তু হায় কত লোক আছে দিনের পর দিন বিকাল ৫ টা থেকে ফজর পর্যন্ত একটা রুমের ভিতর ৫০ জন মিলে গাদাগাদি করে বন্দী থাকে। শুধু ফজর থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত জেল খানার ভিতর নিজের রুমের বাইরে একটু হাটার সুযোগ পায়। রাস্তায় নিজের মত করে হাটা, একটু ভালভাবে গোসল করার ভিতর যে কি মজা এটা শুধু সেই জানে যে অন্তত ১ মাস জেল খাটছে। মিষ্টি কুমড়া লালশাক পালংশাক কলমীশাক পাটশাক লতা পুইশাক তো আমাদের সবার প্রিয় খাবার। কিন্তু হায় জেল খানার ভিতর শাকান্ন যেন একটা কল্পনা। যে লোকটা ২০ টা বছর ধরে জেল খাটছে সে তো এইসব তরকারি শাকের স্বাদ ভুলেই গেছে। আপনি পয়সা খরচ করলে জেল খানার ভিতর মাদক দ্রব্য নিয়া আসতে পারবেন কিন্তু একটু শাকান্ন একটু বেশী পানি দিয়া ভালভাবে গোসল করা এটা একটা অসম্ভব ব্যাপার। আমরা অনেক সময়ই আল্লাহ সুবহানাতায়ালার প্রতি অভিমান করে আত্মহত্যা করে ফেলি কিন্তু আমরা কি কখনো একটু চিন্তা করে দেখছি যে একটা নিরপরাধ লোক প্রতিবেশীর সাথে জমি নিয়া মামলা মোকাদ্দমার কারনে বা গ্রামের চেয়ারম্যানের রোষানলে পড়ে মিথ্যা খুনের মামলায় সাজা প্রাপ্ত হয়ে আজকে ২০ টা বছর ধরে রাস্তায় হাটতে পারে না, খোলা মাঠে পূর্ণিমার জোত্‍স্না দেখতে পারে না তার তুলনায় আল্লাহ সুবহানাতায়ালা আমাদের কে কত কত ভাল রাখছে।



আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৫ম পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন



আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৪র্থ পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ৩য় পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ২য় পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

আমার জেল জীবনের স্মৃতিকথা ১ম পর্ব পড়তে এই লিংকে ক্লিক করুন

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29744109 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29744109 2013-01-06 22:10:48
ভার্চুয়াল প্রেম সম্পর্কে কিছু তথ্য <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_15.gif" width="23" height="22" alt=":(" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_15.gif" width="23" height="22" alt=":(" style="border:0;" /> <img src="http://www.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_15.gif" width="23" height="22" alt=":(" style="border:0;" />



ভার্চুয়াল প্রেম বর্তমানে এক তীব্র মানসিক যন্ত্রণার আকার ধারন করছে আমাদের মাঝে। যেই মেয়ের সাথে খালি ফেইসবুকে পরিচয় তারপর ঐ মেয়ের নিজের থেকে তার ফোন নাম্বার দেয়ার মাধ্যমে এই ভার্চুয়াল প্রেমই বলেন বা তীব্র মানসিক যন্ত্রণা বলেন তা শুরু হয়। এক্ষেত্রে ছেলে ও মেয়ের আবাসস্থল হয় অনেক দূরে। বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে মেয়ের বাসা আর ছেলের বাসার দূরত্বে হয় ৪০০ থেকে ৫০০ কিলোমিটারের মাঝে। ভার্চুয়াল প্রেমে যে তীব্র মানসিক যন্ত্রণা শুরু হয় এতে ঐ ছেলেটার সারা শরীর ভেঙ্গে টুকরা টুকরা হয়ে যায়। কিন্তু মাগার মেয়ের মাঝে কিন্তু ঐ ছেলেটার প্রতি এতটা ফিলিংস থাকে না। ছেলে যদি মেয়েটাকে ২০ টা মেসেজ দেয় তাইলে মেয়ের পক্ষ থেকে উত্তর আসে মাত্র একটা। আর ছেলেটা সারাদিন ঐ মেয়ের জন্য পাগল থাকে কিন্তু ঐ যন্ত্র মানবীর কাছ থেকে ছেলেটা একটু সাড়া পায় রাতের বেলায়। বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে মেয়েটার বাস্তব জীবনে একজন Boy Friend থাকে আর এটা শোনার পর ঐ ছেলেটার মানসিক যন্ত্রণা আরো বেড়ে যায়। আল্লাহ সুবহানাতায়ালা একটা ছেলের হৃদয়ে একটা মেয়ের প্রতি যে কী এক তীব্র ভালবাসা সৃষ্টি করে দিয়েছে তা চিন্তা করলে আমার মাথা খারাপ হয়ে যায়। ছেলেটা শুধু ঐ মেয়েটার কাছ থেকে এত টুকুই চায় যে ছেলেটা ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে মেয়েটার বাড়ির সামনে যাবে। আর মেয়েটা মাত্র ১০ মিনিটের জন্য তার বাসার বারান্দায় দাড়াবে যেন ছেলেটা তাকে এক নজর দেখতে পারে। ভাই এক তরফা ভালবাসায় যদি এত তীব্র যন্ত্রণা থাকে তাইলে এই এক তরফা ভালবাসার অনুভূতি মানুষকে কেন দেয়া হল ? <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" /> <img src=" style="border:0;" /> নওসীন! আমার জীবনের প্রতিটা সকাল আসে শুধু তোমাকে ভালবাসার জন্য, নওসীন! জনম জনম তব তরে কাঁদিব। <img src=(" style="border:0;" /> <img src=(" style="border:0;" /> <img src=(" style="border:0;" />



আমার আরো কিছু লেখা যা আপনার ভাল লাগতে পারে

স্টালিনের নৃশংসতার স্বীকার এক বাঙ্গালী বিপ্লবী

মাওসেতুং এর সময় চীনা মুসলমানদের দূর্দশতার কথা শুনুন

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর বহু বিবাহ প্রসঙ্গে ইসলাম বিদ্বেষীদের সমালোচনার জবাব

আল্লাহ সুবহানাতায়ালার অস্তিত্ত্বের একটি বুদ্ধিবৃত্তিক প্রমান





পুরুষ জাতির বহু বিবাহ প্রথাকে ইসলামী শরীয়াহ আসলে কতটুকু সমর্থন করে

বনী কুরায়জা গোত্রের সকল পুরুষ ইহুদি হত্যা করা প্রসঙ্গে একটি পর্যালোচনা

ইসলামি শরীয়াহ কি কখনই দাস দাসী প্রথাকে সমর্থন করেছিল

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29742844 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29742844 2013-01-04 20:20:54
যৌবণকালে আল্লাহ সুবহানাতায়ালার ইবাদত আর বৃদ্ধ বয়সে আল্লাহ সুবহানাতায়ালার ইবাদতের পার্থ্যক্য বুঝুন



বাংলাদেশের মানুষ ইসলামে আসে তার শেষ বয়সে। ঢাকার মসজিদ গুলিতে প্রথম কাতারে খালি চেয়ার আর চেয়ার। এই যে বৃদ্ধ বয়সে একটা লোক সুন্নতে মুয়াক্কাদাহ, সুন্নতে যায়েদাহ, এশরাকের নামায, চাশতের নামায, তাহাজ্জুদের নামায, সালাতুত তসবীহ এত রকম নফল নামায পড়ে এই নামায গুলি কিন্তু সে আল্লাহ সুবহানাতায়ালার প্রতি ভালবাসার কারনে পড়ে না। একটা বৃদ্ধ লোক তার শেষ বয়সে এত কষ্ট করে এই নফল নামায গুলি পড়ে শুধু এই কারনে যে তার এক পা কবরে চলে গেছে। যে ইবাদতে আল্লাহ সুবহানাতায়ালার প্রতি ভালবাসা থাকে না খালি কবরের আযাব থেকে বাচার জন্য করা হয় সেই ইবাদতের এমন কি আর মূল্য আছে আল্লাহ সুবহানাতায়ালার কাছে ? আমি বলছিনা যে কবরের আযাব বা দোযখের আগুনের ভয়ে নামায পড়লে কারো নামায হবে না। ঐ বৃদ্ধ লোকের নামায অবশ্যই আদায় হবে যা। তবে সেই নামায দ্বারা কখনই এহসানের পর্যায়ে পৌছানো যাবে না। যুবক বয়সের ইবাদত টা আল্লাহ সুবহানাতায়ালার কাছে কেন এত মূল্যবান ? এর কারন হল একটা যুবকের হৃদয়ে সব সময় মনে অনেক অতৃপ্তি থাকে। যেমন আপনি এমন একটা মেয়েকে Like করেন যেই মেয়েটার সামাজিক মর্যাদা, আর্থিক অবস্থা আপনার থেকে অনেক উঁচুতে। ঐ মেয়েটাকে সারাজীবনের জন্য পাওয়ার জন্য আপনার হৃদয়ের অনেক ছটফটানি কিন্তু আপনি ভাল করেই জানেন যে আপনি কখনই তাকে পাবেন না। আবার অনেক যুবকের ভাল কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে Chance না পাওয়ার একটা বেদনা কাজ করে সবসময়, আবার অনেক যুবকের মনে আর্থিক সমস্যার কারনে ভাল কোন ইলেক্ট্রনিক্স পন্য যেমন ল্যাপটপ, আইপড না কিনতে পারার একটা বেদনা কাজ করে সবসময় কিন্তু মনের ভিতর এত বেদনা পোষেও আপনি যখন ফযরের আযান শুনে এই শীতের রাত্রিতে শুধু আল্লাহ সুবহানাতায়ালার প্রতি নিঃস্বার্থ ভালবাসার কারনে ফযরের নামায টা জামাতে পড়ার জন্য মসজিদে যাবেন তখন আপনার এই নামাযের মত শ্রেষ্ঠ নামায এই পৃথিবীর কেউ পড়তে পারবে? সারা দুনিয়ার সকল বৃদ্ধ লোকের সম্মিলিত নামাযের চেয়েও আপনার ঐ ফযরের ২ রাকাত ফরয নামায শ্রেষ্ঠ হবে। একটা বৃদ্ধ লোকের আবার মনের ছটফটানি, চাহিদা কি ? একটা বৃদ্ধ লোক তো তার জীবনের সকল চাহিদা, মনের ছটফটানি শেষ করেই বৃদ্ধ হয়। যৌবনকালেই কেউ নাস্তিক হয় আবার এই যৌবনকালেই কোন যুবক এহসানের পর্যায়ে অন্তর্ভুক্ত হয়। সত্যিকথা বলতে কি মানব জীবনে অতৃপ্তি থাকবেই কিন্তু এই অতৃপ্তির মাঝেই আমাদের কে আল্লাহ সুবহানাতায়ালাকে ভালবাসতে হবে।



ইসলামী আক্বীদা সংশোধনের জন্য আরো পড়তে পারেন

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর বহু বিবাহ প্রসঙ্গে ইসলাম বিদ্বেষীদের সমালোচনার জবাব

আল্লাহ সুবহানাতায়ালার অস্তিত্ত্বের একটি বুদ্ধিবৃত্তিক প্রমান





পুরুষ জাতির বহু বিবাহ প্রথাকে ইসলামী শরীয়াহ আসলে কতটুকু সমর্থন করে

বনী কুরায়জা গোত্রের সকল পুরুষ ইহুদি হত্যা করা প্রসঙ্গে একটি পর্যালোচনা

ইসলামি শরীয়াহ কি কখনই দাস দাসী প্রথাকে সমর্থন করেছিল

স্টালিনের নৃশংসতার স্বীকার এক বাঙ্গালী বিপ্লবী

মাওসেতুং এর সময় চীনা মুসলমানদের দূর্দশতার কথা শুনুন



]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29742284 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29742284 2013-01-03 20:25:31
জাফর ইকবাল Sir এর ভন্ডামি জানুন ভন্ড জাফর ইকবাল Sir এর মুখোশ উম্মোচন করা হয়েছে এতে।সরাসরী এই লিংকে চলে যান। না পড়লে নিশ্চিত মিস করবেন ভাই। লেখাটি ভাল লাগলে দয়া করে আপনার Facebook এ share করবেন please

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29741963 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29741963 2013-01-03 10:18:39
দিল্লীর দামিনীর জন্য এত হইচই আর ধর্ষিতা কাশ্মিরী নারীর জন্য কেউ কাঁদার নেই দিল্লীর দামিনী, কাশ্মীরের ধর্ষিতা মুসলিম নারী ও গুজরাটের মূখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই ৩ বিষয় নিয়ে একটা জটিল পোস্ট পড়ুন।সরাসরী এই লিংকে চলে যান। না পড়লে নিশ্চিত মিস ভাই

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29741573 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29741573 2013-01-02 17:40:57
পূর্ববর্তী বুযুর্গদের মহানুভবতা http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29639246 http://www.somewhereinblog.net/blog/farabi1986/29639246 2012-07-18 23:59:31