somewherein... blog badh bhangar awaaj recent posts http://www.somewhereinblog.net http://www.somewhereinblog.net/config_bangla.htm copyright 2006 somewhere in... চলন্ত ট্রেন থেকে তুললাম - বরাবরের মতো নিজের প্রতিভায় নিজেই মুগ্ধ

<img src=" style="border:0;" />]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29960634 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29960634 2014-06-25 06:34:00
বুঝতে পারলাম রুপচর্চা এমনে এমনেই করে না <img src="http://cdn1.somewhereinblog.net/smileys/emot-slices_09.gif" width="23" height="22" alt=";)" style="border:0;" />

রূপচর্চার আগে

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29930800 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29930800 2014-03-08 14:54:35
মোবা্‌ইল দিয়া

মারহাবা , মারহাবা]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29930106 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29930106 2014-03-05 19:39:36
ফুলের নাম - ঘাসফুল
ছবি © রাজামশাই
`ফুল সুন্দর তাই তার বলিউড সুন্দরীদের মতো মেকাপ লাগে না্।`]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929860 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929860 2014-03-04 19:24:38
ফুলের নাম - শ্বেতদ্রোণ
]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929576 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929576 2014-03-03 21:15:11
মাছির একটা ছবি তুললাম
]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929543 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29929543 2014-03-03 19:29:08
একজন লুল ও রূপসীর যোগসূত্র
এই ফুলটার বাংলা নাম - রূপসী। স্থানীয় নামের মধ্যে Silver oak, Silk oak উল্লেখযোগ্য এর বৈজ্ঞানিক নাম Grevillea robusta এটি Proteaceae (Silver oak family) পরিবারের একটি উদ্ভিদ।

রূপসী শব্দের অর্থ জানাতে ব্লগার সাইমুম বলেছেন "সংস্স্কৃত ব্যাকরণ মতে রূপসী শব্দটি শুদ্ধ নয়। সংস্কৃতে রূপীয়সী শুদ্ধ। কিন্তু বাংলায় তা অপ্রচলিত। সুন্দরী বা রূপবতী অর্থে বাংলায় রূপসী শব্দটি চালু রয়েছে (তোহ্মাক দেখিল রাধা অধিক রূপসী - শ্রীকৃষষ্ণকীর্তন)।

আগে 'রুপসী' শব্দটি চালু ছিল। জ্ঞানেন্দ্রমোহন দাস তাই শুরুতেই রুপসী শব্দটি রেখেছেন। তবে বর্তমানে রূপসীই চালু। বাংলায় একই অর্থে রূপসিনী শব্দটিও চালু রয়েছে (অলঙ আমার বাক্য শুন রূপসিনী - শীতলামগ্ঙ্গল)। এটাও ব্যাকরণ দুষ্ট শব্দ। কিন্তু চলছে। এটাকে আর পাল্টানোর দরকারও নেই।

সংস্কৃতে 'রূপস' শব্দের অর্থ রূপবান, সুন্দর (স্বর্ণরৌপ্য ঘর সব দেখিতে রূপস - কৃত্তিবাস; পিতাপুত্রে দুয়ে আটি গজালে গাঁথিল পাটি, গড়ে ভিঙা দেখিতে রূপস - কবিকঙ্কন চণ্ডী)। এ রূপস থেকেই বাংলায় স্বীলিঙ্গে রূপসী শব্দটি এসেছে। একই নিয়মে সুকেশী শব্দটি ব্যাকরণসম্মত হলেও মধুসূদন দত্ত তাঁর মেঘনাবধ কাব্যে 'সুকেশিনী' শব্দটি লিখেছেন।"

এতো গেলো রূপসী শব্দের পোষ্ট মর্টেম - তাতে আমরা বুঝলাম রমনী যার রূপ আছে সেই রূপসী।

প্রাচীন কলার বিশ্লেষনে চার প্রকার রূপসীর ধারনা পাওয়া যায় ..
১) পদ্মীনি
২) শঙ্খীনি
৩) হস্তীনি
৫) চিত্রাণী

পদ্মীনিঃ এই ধরণের রূপসী খুবই বিরল। তারা অতিসুন্দর, ধার্মিক, সহনশীলা, মাধূর্যময়ী, গোলাকার মুখমন্ডল ( অনেকটা দেবী ভোগ্যা বসুন্ধরা), সুহাসীনি, সুভাষীনি, চারুহাসিনী, স্থির, শান্ত সর্ব গুনে গুনবতী। তারা দেবীর মতো। তাদের সৌন্দর্য্য পদ্মের মতো। তারা তাদের রূপে শত্রুদের বশ করতে পারে ।

শঙ্খীনি - এই ধরনের রূপসী রা সুন্দর, তারা তীক্ষ্ণ বুদ্ধিসম্পন্ন এবং স্মার্ট। তারা হলো শঙ্খের ডাক(শব্দ)। তাদের দেহ সুষম, তাদের এনার্জী লেভেল হাই, তারা স্বাধীনচেতা। তারা ভাঙ্গবে তবে মস্কাবে না টাইপ।

হস্তীনিঃ এরা মাধূর্যময়ী, স্বাস্থ্যবান কিছুটা মোটা, মমতাময়ী। যেকোন খাদ্যবস্তু তাদের পছন্দ তাই বলে পেটুক নয়<img src=" style="border:0;" />। তারা কৌতুক পছন্দ করে। আনন্দই তাদের জীবনের শেষ লক্ষ্য। তারা নিজেরা সিদ্ধান্ত নেয় না কিন্ত তোমার সিদ্ধান্তে নাক গলাতে সিদ্ধ হস্ত। তার শুরু করে না দিয়ে আর শেষ করে হ্যা দিয়ে।

চিত্রাণীঃ এরা সুকন্ঠী হয়, স্লীম ফিগারের অধিকারী হয়, এরা প্রথমে নিজেকে ভালবাসে এর পর অন্যকে। তারা মতি গতি ক্ষনে ক্ষনে বদল হয় অনেকটা ড্রেস চেঞ্জকরার মতো। সাজগোজের ব্যাপারে এরা সংবেদনশীল। লিপিস্টিক ছাড়া এরা বেডরুমেও থাকে না। <img src=" style="border:0;" />

অনেক কিছু শিইখ্যা ফালাইলাম - আসো কিছু অনুশীলন করি
নীচের ছবির রূপসীগন কে কোন গোত্রের?




]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29927283 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29927283 2014-02-23 13:18:16
ফুলের নাম ...............



<img src=(" style="border:0;" />

ছবি © রাজামশাই]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29926249 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29926249 2014-02-19 13:23:06
ফুলের নাম - ডালিয়া
এই ফুলটিকে বাংলায় ডাকে ডালিয়া নামে। বৈজ্ঞানিক নামঃ Dahlia variabilis এবং এটি Asteraceae পরিবারে অন্তর্গত একটি উদ্ভিদ। ৩৬ প্রজাতির ডালিয়া আছে। এর আদি নিবাস ধরা হয় মেক্সিকো, সেন্ট্রাল আমেরিকা ও কলম্বিয়াকে।

এই ফুলটি আমাদের কাছে অতি পরিচিত। বিভিন্ন রং এর এই ফুলটি
দেখতে অসম্ভব সুন্দর।

ছবি © রাজামশাই


]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29925241 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29925241 2014-02-15 13:01:16
ফুল http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29919233 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29919233 2014-01-25 09:57:21 ফুল - ফুল - ফুল http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29896297 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29896297 2013-11-16 12:55:21 বলতো হে - এই ফুল গুলার নাম কি ? কইতে পারলে স্বর্ণমুদ্রা
কেমন আছিস সবাই <img src=" style="border:0;" />

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29891279 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29891279 2013-11-02 16:54:34
রাজামশাই-এর লুলীয় দৃষ্টি ....

যুগে যুগে নারীরা তাদের সৌন্দর্য্যের পরিশীলিত প্রকাশ ঘটিয়েছে তাদের নিজস্বার্থে - আমারা লুল পুরুষ তা অবলোকন করে কিঞ্চিত আনন্দিত/ পুলকিত হই মাত্র । এতে কোন হীনস্বার্থ জড়িত নাই <img src=" style="border:0;" />

নারীর প্রতি আকর্ষন, এইটা লুলীয় ধর্ম এবং এইটা স্বাভাবিক। অবলোকনে কিঞ্চিত পুলকিত হওয়া যাইতে পারে তাতে কোন সমস্যা নাই। তবে প্রেমের পাঁচ পর্ব যথাক্রমে রাগ, অনুরাগ, পূর্বরাগ, বিরহ ও মিলন (মোক্তার-স্যার , নটরডেম কলেজ) এর সাথে এই আর্কষনের কোন সম্পর্ক নাই। এই আকর্ষন সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয় ইহাতে প্রেম তেমন কোন ইতরভেদ ঘটাইতে পারে না। একজন আদর্শ লুল এই আকর্ষনকে উপভোগ করিয়া থাকে। <img src=" style="border:0;" />

মাইয়া মানুষরে যখন মানুষ হিসাবে দেখবা তখন কোন সমস্যা নাই। কিন্তু একটু অন্য ভাবে যখন দেখবা তখন তুমি লুল ................................... আর যদি পুরা অন্য ভাবে দেখবা তখন তুমি পশু। কাজেই লুল হইলো মানুষ এবং পশু মধ্যবর্তী একটা অবস্থা। এমন একটা অবস্থা ইচ্ছা করলেই পাল্টি মাইরা ভালো মানুষ সাজন যায় <img src=" style="border:0;" /> আর লুল হওনের এইটাই সার্থকতা। উদাহরণ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (লুলশ্রেষ্ঠ), রাজামশাই ইত্যাদি।

চুড়ি পরা হাত দেখলে - কেন জানি মনের মধ্যে মোচড় দিয়া উঠে - তোগো কি এই রকম হয় ? আমি দেখার সময় দেখি হাত ভরা চুড়ি আছে কিনা? অবশ্য এই যুগে এখন আর হাত ভরা চুড়িওয়ালী পাওয়া দুস্কর। আবার অনেকে এইটারে পরাধীনতার চিহ্ন মনে করে.... হাত খালি রাইখ্যা স্বাধীন থাকবার চায়।



কপালের টিপ ( বিন্দি / বিন্দিয়া )- এইটা আমার কাছে চরম একটা আকর্ষনী বিষয়- কারও মুখের দিক চাইলে আমার চোখ তার কপালের টিপের উপর আটকায়া যায় <img src=" style="border:0;" />
এইটা আমার কাছে একটা মারাত্মক ধোকা হিসাবে কাজ করে। সুন্দরীর মুখের অনেক ক্রটি এর কারনে আমার চোখে পড়ে না।



আবার আমার ওস্তাদের টিপ দেওয়া দেখলেও কিন্ত খারাপ লাগে না কি বলিস?


ঝুমকা - এই জিনিসটা আমার কছে বড়ই মনোরম মনে হয় - দেখলেই ধইরা দেখতে ইচ্ছা করে । কানে ধরার অপরাধে অপরাধী হওন টা ঠিক না বিধায় আমার নাগালের বাইরেই থাইক্যা যায় <img src=" style="border:0;" /> ঝুমকা পরিহিত ললনা দেখিতে মন চায়। ঝুমকা নিয়া অনেক গান টান শুনা যায়........ বেশীর ভাগ আমার পছন্দ। ঝুমকা গিরা রে এই গানের তুলনা মিলা ভার




মেহেদী এই জিনিসটা আমারে খুব টানে সেই ছোটবেলা থাইক্যা একটা গাছের পাতা পিষে হাতে লাগাইলেই লাল রঙ দাগ পড়ে ব্যাপার টায় খুব মজা পাইতাম। বাংলায় নাম - মেহেদী ,অন্যান্য স্থানীয় নামঃ Henna, Mehendi, বৈজ্ঞানিক নামঃ Lawsonia inermis পরিবারঃ Lythraceae (Crape Myrtle family)

মেহেদীর রাঙ্গা হাতে দেখলে মনের মধ্যে একটা রাঙ্গা ভাব জাইগ্যা উঠে। একজোড়া চুড়ি ভরা হাতে মেহেদীর শৈল্পিক প্রলেপ, যে কোন পুরুষকে আর্কষন করবে এতে কোন সন্দেহ নাই। আর লুল হইলে <img src=" style="border:0;" />


আগে বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানে মেহেদী লাগানো চল থাকলেও - এখন সেই ভাবে দেখা যায় না। যা চোখে পড়ে তা হলো কিছু মানুষে মেহেদী রাঙ্গা পাকা চুল অথবা কিছু মৌলানার দাড়ি । মনে বড় দুঃখ পাই ।



টিকলী বা টিকা - এই জিনিসটা বরাবই আমারে পুলকিত করে। আমার মনে হয় এর মধ্যে কোন যাদু আছে ... অনেকটা সম্মোহন করার পেন্ডুলামের মতো। আমি মাঝে মাঝে সম্মোহিতের মত তাকাইয়া থাকি .. "হার দিল যো প‌্যায়ার করেগা" গানের মধ্যে রাণীরে টিকলী পরিহিত দেইখ্যা টাশকি খাইয়া, কয়দিন মন উদাস আছিলো। নীচে রাণীর ছবিটা দেখ প্রকৃত লুল হইলে তোর মনও উদাস হইবো বলিয়া আমার ধারনা <img src=" style="border:0;" />







জয় লুল <img src=" style="border:0;" />

মনটা হু হু কইরা উঠের রে.... মনে হয় বুড়া হইয়া গেলাম।


নূপুর - Anklet এক ধরনের গহনার নাম। আদি কালে মিশরীয় ও আরবীয় নারীগনের ব্যবহার করিবার ইতিহাস পাওয়া যায়। আমাদের উপমহাদেশে বিবাহিত রমনীকূল ইহা ব্যবহার করিতেন।

এই জিনিসটা আমারে খুব আন্দোলিত করিয়া থাকে । নববঁধুর পদযুগলে পড়ানো নূপুরে শব্দ শূণ্যভিটায় প্রান সঞ্চারিত করিয়া থাকে - যাহা প্রমানিত। কিন্তু কলিযুগের মাইয়ারা নববঁধূর গতিবিধি নজরবন্দী করিবার অজুহাতে দীর্ঘকাল ইহাকে পরিত্যাগ করিয়াছে। আধুনাকালে যৎকিঞ্চিত অবিবাহিত বালিকাদের মাঝে ইহা ব্যবহার পুনরায় পরিলক্ষিত হইতেছে বলিয়া আনন্দ বোধ করি। নৃত্যকলার এক অত্যাবশকীয় উপাদান এই নুপুর।


আফসুস!!! সুন্দর একজোড়া পদযুগলে নূপুর, একজন পুরুষে বুকে যে ঝংকার তুলিতে পারে, তাহা রমনীকূল যদি জানিতে পারিতো...


বিঃ দ্রঃ - মিলারে ভালা পাই - তাহার পদযুগল সুন্দর - তাতে নুপুর আরও সুন্দর - আহা!! আহা!!


একটা গল্প দিয়া শেষ করি

কুন্তলা শব্দটি কুন্তল এর স্ত্রী রূপ -
কুন্তল [ kuntala ] বি. কেশ. চুল (‘আলুলিত কুন্তলরাশি’: রবীন্দ্র)।
[সং. কুন্ত + √ লা + অ]।
কুন্তলা–বি. (স্ত্রী.) কুন্তল।

এক মজার কাহীনি মনে পড়লো - এক প্রিয়ভাষিনী রমনী একদা আমাকে শিক্ষাদান করিলো যে কুন্তল মানে হইতেছে নারী কপালের কাছ হইতে একগুচ্ছু চুল যাহা তাহার চিবুকের নিকট অবিন্যস্ত ভাবে পড়িয়া থাকে। স্বীকৃত লুল বলিয়া এর পর হইতে রমনী দেখিলেই কুন্তল খুজিয়া বেড়ানো শুরু হইলো । কিছু কিছু রমণীর কুন্তল এতটাই আকর্ষণী লাগিলো যে তাহাতে আমার টাকশি বা ভিমরী খাইবার যোগার হইলো । দীর্ঘ পর্যবেক্ষনের পর হাঠাৎ আবিস্কার করিলাম ইহা নিতান্ত অবিন্যস্তভাবে পড়িয়া থাকে না বরং সুপরিকল্পিত ভাবে এই কর্ম সম্পাদন করা হয়। <img src=" style="border:0;" /> পুরুষের চোখকে আকৃষ্ট করার এই কর্ম আমার খারাপ লাগে নাই ।






ইহা একটি লুলীয় প্রকাশনা



জয় লুল




]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29834473 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29834473 2013-05-25 19:33:16
ফুলের নাম - ধ্রুপদী মালা
বসন্তের আগে আগে ফুল ফোটে।


]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29827225 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29827225 2013-05-03 15:17:04
ফুলের নাম - রক্তদ্রোণ

বাংলায় নাম রক্তদ্রোণ বৈজ্ঞানিক নাম Leonurus japonicus এটি Lamiaceae পরিবারের একটি ‎উদ্ভিদ। অন্যান্য নামের মধ্যে Honeyweed, Chinese Motherwort, Little marijuana ‎উল্লেখযোগ্য। ‎

রক্তদ্রোণ এটি একটি ভেজষ গাছ ও আয়ুর্বেদিক ঔষধ, চাইনীজ ভাষায় Yi-mu-cao নামে পরিচিত। ‎সমস্ত গাছই এন্টিবেক্টেরিয়াল, এন্টিপাজমোডিক, কার্ডিয়াক, ডেপুরেটিভ, ডায়াফোরেটিক, হিপনোটিক, ‎টনিক, স্টিমুল্যান্ট গুনাগুন সমৃদ্ধ। ‎

]]>
http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29727333 http://www.somewhereinblog.net/blog/mohdfiendblog/29727333 2012-12-11 10:11:25