somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

নূহান
মডারেশনে স্বচ্ছতা চাই

ফিকশন না ফ্যাক্ট আপনি কোন দিকে- কাউকে তো বলতে হবেই

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৯ দুপুর ১:২৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

ফিউশন ফাইভের ব্লগ পর্যালোচনা পোষ্ট আসার পরে, আমি ফিড ব্যাকে ইমেইল দিয়ে জানতে চাইসিলাম আমার ব্লগ এ অভিযোগ, অনুযোগ কিংবা মিথ্যাচারের জবাব দিবে কিনা। আমাকে ফিড ব্যাক থেকে বেশ রূঢ় ভাষায় জানানো হয় যে।

" আমার ব্লগ এর পরিসংখ্যান থেকে শুরু করে প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা রাখার চেষ্টা করা হয়। ব্লগারদের মতামতকে সুচারু রূপে বিশ্লেষন করে আমার ব্লগের কর্ম প্রনালী স্হির করা হয়। যেহেতু ব্লগারদের নিয়েই আমার ব্লগ, কোন কাল্পনিক নিকের তথাকথিত নির্মোহ রিভিউ নিয়ে আমার ব্লগের কোন দায়বদ্ধতা নেই।"

চমতকার প্রস্তাব, উনারা কোন জবাব দিবেন না কারন উনাদের কোন দায়বদ্ধতা নেই। আমাদের প্রান প্রিয় ব্লগ নিয়ে যা ইচ্ছা করবার অধিকার এসব কাল্পনিক নিকের আছে। একজন ব্লগার হিসাবে ব্যাপারটি আমার কাছে গ্রহনযোগ্য নয় যে একটি ব্লগের নামে ইচ্ছামত কুতসা রটনা করা হবে ব্যাক্তিগত কিংবা সাম্প্রদায়িক জিঘাংসার জন্য। সো আমি প্রতিটি পয়েনটের লাইন বাই লাইন জবাব দিবো। আমার এ জবাব আমার নিজের ব্যাক্তিগত মতামত এবং এর সাথে আমার ব্লগের কোন সম্পর্ক নেই।

১। ফিউশনের ফিকশন- আমার ব্লগের স্পিড স্লো। এ বিষয়ে আমি আমার ব্লগের তথ্য কেন্দ্রে যোগাযোগ করেছিলাম অনেক আগে এবং আমাকে দেখানো হয় যে সামু, আলু এবং আমুর স্পিডে খুবই কম ডিফারেনস এবং এ স্পিড আগের চেয়ে বহুগুন বেড়েছে। একটি জেনারেল ষ্টেটমেনট দেয়া খুব সোজা, আমি ফিউশন ফাইভকে এবং আমার ব্লগ তথ্যকেন্দ্রকে স্পিড জনিত পরিসংখ্যান প্রকাশের চ্যালেন্জ জানাই।

২।ফিউশনের ফিকশন- আমার ব্লগের ইউনিক ইউজার ৭০০। উন্মুক্ত পরিসংখ্যানে দেখি গত ৭ দিনের গড়ে দেখি গড় ইউনিক ইউজারে সংখ্যা ৮৫০র ওপরে অর্থাত ফিউশনের ফিকশন থেকে ২০% বেশী। সব বাংলা ব্লগের মধ্যে একমাত্র আমার ব্লগের পরিসংখ্যান উন্মুক্ত কিন্তু ফিউশন এ বিষয়ে কোন যোগান্তক মন্তব্য করেনি তার তথাকথিত নির্মোহ রিভিউতে।

৩। ফিউশনের ফিকশন-একটি তথাকথিত অডিও টেপ দিয়ে ব্লগের পিছনে সুশান্তের খরচ ১৮,০০০ ডলার জানানো হয়। এ ব্লগের পিছনে আমার কোন প্রকার অর্থ অনুদান না থাকলে আমার নাম জড়িয়ে সম্পুর্ন অনুমান নির্ভর একটি গুজব ছড়ানো হয়েছে। এ দুটো তথ্যের পিছনে কোন প্রকার সুত্র কিংবা প্রমান না থাকার পরেও এটি তথাকথিত নির্মোহে রিভিউতে জায়গা পেয়েছে। ফিউশনের ফিকশন এরপরে জানায় যে আমার ব্লগে গত এক বছরের ইউজারের সংখ্যা খুব কম বেড়েছে ব্যাপক বানিয্যকরনের পরেও। আমি ফিউশনের নির্মোহ এ বাক্যের পরিসংখ্যান চাই। আমার ব্লগের এখনকার ইউনিক ইউজার আমরা জানি, ফিউশন তার ফিকশনের মাধ্যমে দেখাক কয়জন ইউনিক ইউজার বেড়েছে এবং কমেছে।

৪। ফিউশন একটি নারী অবমাননার অভিযোগ এনেছে কিন্তু সেখানে অভিযোগের কোন সারবত্তা পাওয়া যায় নেই। আমি এ ব্যাপারে সেই নারী ব্লগারের সাথে ব্যাক্তিগত ভাবে আলাপ করেও এর কোন সারবত্তা পায়নি। ফিউশন আরো অভিযোগ এনেছেন ব্যাক্তি আক্রমন, গালিগালাজ এবং অশ্লীল কনটেনটের। আমার ব্লগ একটি নো মডারেশন ব্লগ এখানে কাউকে কি লিখতে হবে সে সম্পর্কে বলা হয়না। লেখার প্রয়োজনে শালীনতার কোন বাউন্ডারী কোন লেখককে দিতে হয়না। আমাকে ব্লগের সকল ব্লগারের লেখার দায়িত্ব লেখকদের- ফিউশন এ কনসেপটের সাথে পরিচিত না আমি জানি, তাই এ বিষয়ে তথাকথিত নির্মোহ আলোচনা না করবার আহবান জানাই।

৫। ফিউশন দুটি অভিযোগ সামনে এনেছে ব্লগ ব্যান এবং পোষ্ট ডিলিট করবার জন্য। নো মডারেশন একটি গ্রোয়িং এনড পেইনফুল কনসেপট। আমার ব্লগ এ ব্যাপারে ভুল স্বীকার করেছে এবং ভবিষ্যতে সতর্ক থাকার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। যে কোন প্রকারের মতামত প্রকাশের অধিকার আমার ব্লগ দেয় আর তার প্রমান আমার ব্লগের পাতা। ফিউশনের দুটি বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে রাজনীতিক রূপ দিয়ে একটি নির্মোহ রিভিউর নিন্দা জানাই।

৬।ব্লগের পরিসংখ্যান আমার ব্লগের জন্ম লগ্ন থেকেই উণ্মুক্ত ছিল। মাঝে আপডেটের কারনে এ সুবিধা বন্ধ থাকে এবং পরিসংখ্যান জটিলতা হয়। আমার ব্লগের ডেভোলপরা বার বার চেষ্টা করেও এর সমাধান করতে পারেন নি। এ বিষয়েও আমার ব্লগ ইনফো তাদের বক্তব্য পরিষ্কার করেছেন এবং ভবিষ্যতে সতর্ক থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। আমার ব্লগ এলেক্সা রেন্কিং নিয়ে কখনো চিন্তিত ছিলনা এবং স্বীক্রত রেনি্কং বলে মনে করেনা তাই জোয়াচুরি করার প্রশ্নই আসেনা। সর্বোপরি ফিউশন নিজেও ছাগুরামের সাথে আলোচনায় স্বীকার করেছেন যে এলেক্সা রেন্কিং এর ক্রেডিবিলিট নাই বললেই চলে এবং তার পোষ্টে বর্নিত ট্রিকস গুলো ২০০৭ এর ষ্টেপ এবং এখন ২০০৯ এ তা দিয়ে কাজ হয়না। ফিউশনের স্ববিরোধী বক্তব্য আর যাই হোক তার নির্মোহ আলোচনার নিদর্শন করেনা।

৭। আমার ব্লগ ব্লগারদের মতামত নিয়ে একটি পদ্ধতির মাধ্যমে ভাষার মাসে ব্লগ দিবস নির্বাচন করেছে, এ ব্যাপারে ফিউশন কিংবা তার এমপ্লায়ার সামুর কাছ থেকে তার পারমিশন নেবার কোন কারন নেই। জামাত শিবিরের ব্রিডিং গ্রাউনডে ব্লগ দিবস হবেনা, গোলাম আজম ভাষা সিপাহী হলেও। ফিউশনের এবং সামুর ভেষ্টেড ইনটারেষট প্রকাশ পায় এ মন্তব্যে।

৮। আমার ব্লগ নো মডারেশন এখানে মুক্তিযোদ্ধা কিংবা রাজাকার প্রত্যেকের পাছা নিজের সামলাতে হয়। কোন মুক্তিযোদ্ধা এখানে দেশ এবং স্বাধিনতা বিরোধী কোন নতুন কনসেপট দিলে সেটা অবশ্যই প্রতিহত হবে। কোন মুক্তিযোদ্ধা জামাতের ১৯৭১ এর ভূমিকা রাজনীতিক ভুল হিসাবে দেখলে তাকে ব্লগে প্রতিহত করা হবে। সর্বোপরি আমার প্রচুর পোষট আছে আওয়ামী এবং শেখ হাসিনা বিরোধী আমার ব্লগ অথরীটি কিংবা ব্লগাররা আমাকে কেন গালাগালি করেনা? প্রশ্ন করি নির্মোহকারী ফিউশন কে।

৯।যুক্ত কর হে সবার সন্গে মুক্ত কর হে বন্ধ। আমার ব্লগ সব বাংলা ব্লগকে নিয়ে বাংলা ব্লগ দিবস করতে চায় কেননা বাংলা ভাষার গর্ব সব ব্লগারের। ভাষার মাসের গর্ব সকল বান্গালীর। সচলায়তন বাংলা ব্লগ দিবসের প্রয়োজনীয়তা মনে করেনি সেজন্য আমার ব্লগের ব্লগ দিবসে নিজেদের সংযোজন করেনি, এখানে সচলায়তনের সাথে কোন ব্যাক্তির সমস্যার যোগসুত্র কেবল ফিউশনের সূদর প্রসারী কল্পনায় সম্ভব। তবে ফরমায়েসী নির্মোহ লেখা লিখতে হলে অনেক কিছু দেখতে হয় তিলকে তাল করতে হয়।

১০। আমার ব্লগ তাদের ডয়েচ ভেল সন্ক্রান্ত পোষ্টে জানিয়েছে যে সেলফ সিলেকশন এবং ট্রানসলেশনের মধ্যে দিয়ে সেটা বাংলা ব্লগ নির্বাচন ব্লগারদের স্বার্থে পরিপন্হি। এ বিষয়ে ব্লগারদের মতামত নেয়া হয়েছে এবং সেটাই আমার ব্লগ জানিয়েছে। কোন নির্মোহ কারনে এটি আমার ব্লগের জন্য বিয়োগান্তক তা ফিউশনের ফিকশনে বলা নাই। আমার ব্লগ ব্লগারদের ব্যাক্তিগত অংশগ্রহনের ওপরে কোন বিধিনিষেধ আরোপ করেনি তাই এটি কেন বিয়োগান্তক কেন তা বুঝতে কোন নির্মোহ মন রাখেনা।

ফিউশন ফরমায়েশী ভাবে নির্মোহ আলোচনা করেন কোন অসুবিধা নাই। তবে আমার ব্লগ একটি স্বচ্ছ এবং দায়িত্বশীল ব্লগিং পরিবেশের জন্য কাজ করছে। আমরা সফল নই এখনো, ব্যর্থতা আছে তবে উই শ্যাল ওভারকাম। এটি বাধ্যবাধকতার বাংলাদশে আপনি বুঝতে চান না কিংবা সব কিছু আপনাদের মত ভাড়দের তথাকথিত নির্মোহ মাইনডের নিয়ন্ত্রনে থাকবে না বলে মানতে চাননা। তবে একদিন সব কিছু পরিষ্কার হবে, ড়েসিডেনট ভাড়দের নির্মোহ নিয়ন্ত্রন থেকে আমরা মুক্ত হবো। সেদিনের কামনায় ........।

নোটঃ লেখাটি ডা আইজুদ্দিন এর লেখা। আমি কপি পেস্ট করলাম মাত্র।
সর্বশেষ এডিট : ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৯ দুপুর ১:৩৯
৪টি মন্তব্য ৩টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

একটি ময়ূরাক্ষী, একজন হিমু! (দ্বিতীয় পর্ব)

লিখেছেন ফাহাদ জুবায়ের, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ সকাল ১০:২৮

আমি মিসেস নাহারের চেম্বার থেকে বের হয়ে রাস্তায় নেমে আসলাম। বেলা ১২ টার মতো বেজে গেছে মনে হয়। ভদ্রমহিলা এত সহজে আমাকে ছেড়ে দেবেন এটা ভাবিনি। এত বড় একজন সাইকাইট্রিস্ট... ...বাকিটুকু পড়ুন

প্রবাসে বাংলাদেশের রক্তের উত্তরাধিকারী গুণীগন - ৩

লিখেছেন গিয়াসলিটন, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:৪১

কানাডার ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট ও ভাইস চ্যান্সেলর ড. প্রফেসর অমিত চাকমা ।



... ...বাকিটুকু পড়ুন

বিদেশের মাটিতে চিড়িয়াখানায় একদিন ঘোরাঘুরি ( ছবি ব্লগ)

লিখেছেন জুন, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:৪৯


এক জোড়া ধনেশ পাখী ।


আরেক জোড়া ধনেশ পাখী ভিন্ন ভঙ্গীমায় বসা


এই পাখিটির নাম জানি না ... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাওয়া ভ্রমণ

লিখেছেন পগলা জগাই, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ দুপুর ১২:২২

ঢাকার যেকোন স্থান থেকে যাত্রাবাড়ী পৌছে ফুটঅভার ব্রীজের দক্ষিণ দিকের পোস্তাগোলাগামী রাস্তা দিয়ে একটু সামনে এগুলেই পাওয়া যাবে মাওয়া বাসষ্ট্যান্ড। এখান থেকে প্রতি ৫ থেকে ১০ মিনিট অন্তর অন্তর বিভিন্ন... ...বাকিটুকু পড়ুন

হলিউডের সিনেমা নয় বরং আসুন হলিউড জায়গাটি এবং এর সম্পর্কে কিছু unusual তথ্য জেনে নিই ;) ;) ;) ;)

লিখেছেন রিকি, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ দুপুর ১:১২



"Fame is a bee.
It has a song--
It has a sting--
Ah, too, it has a wing. "



Hollywood....বিশ্বখ্যাত মুভি industry গুলোর একটি...সেই মান্ধাতা আমল থেকে আজ পর্যন্ত এটির খ্যাতি... ...বাকিটুকু পড়ুন

?

লিখেছেন কাবিল, ০১ লা জুলাই, ২০১৫ দুপুর ১:২৬