somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

ডুমুর ফুল

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

ভালবাসার কত রঙ!

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২১ শে জুলাই, ২০১৭ বিকাল ৪:৩২

লোকাল বাসে চড়া খুব বিরক্তিকর। মাঝে মাঝে বাধ্য হয়ে চড়তে হয়। গত কয়েকদিন আগে বাড়ি যাচ্ছি। লোকাল বাসে করে। পুরো বাস লোকে লোকারণ্য। সিটের অভাব নাই, কিন্তু খালি সিট খুজে পাচ্ছি না! অবশেষে একদম পেছনে পেলাম। পাশের সিটে দুইটা বাচ্চা। একটা ছেলে ৭/৮ বছরের আরেকটা মেয়ে ৫/৬ বছরের। ভাই বোন।... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১৪৩ বার পঠিত     like!

নাতির এক্সরে রিপোর্ট

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ০৭ ই জুলাই, ২০১৭ বিকাল ৩:৫৯

তখন বাংলাদেশে লুঙ্গি প্রায় ছিলই না। সবাই লেঙ্গি পরতো। লেঙ্গি হচ্ছে অনেকটা ধুতির মত। তবে ধুতি অনেক বড়। লেঙ্গী ছোট এক টুকরো কাপড়। কোনমতে মেইন জিনিষটা ঢেকে রাখা যেত!
পুরো গ্রামের মধ্যে দুই তিনটা লুঙ্গি ছিল। সাবুল দাদার একটা ছিল। সব সময় যত্ন করে রাখতেন। কোন অনুষ্ঠান হলে বা কোন মেহমান... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ১২৮ বার পঠিত     like!

খিচুড়ি বিলাস

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ৩০ শে জুন, ২০১৭ সকাল ১১:১৪

সুমি মাঝে মাঝে আমার বাসায় আসে। এসেই আমার রুমে গিয়ে বোরকা টোরকা খুলে চুলটুল ছেড়ে দিয়ে বিছানায় লম্বা হয়ে শুয়ে পড়ে। সাতারকুলের এক ফ্লাটে আমি একা থাকি। বাড়িওয়ালা আংকেল আমার দূর সম্পর্কের আত্নীয়। আমাকে খুব ভালবাসেন। তবুও ভয় করে এভাবে ওর আসা যাওয়াকে হঠাৎ কী মনে করে বসেন। সুমিকে নিষেধ... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১৬৬ বার পঠিত     like!

যে কারনে পুরুষ নির্যাতন আইন জরুরী!

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২৩ শে জুন, ২০১৭ রাত ৯:১৩


ঈদের আর বাকী মাত্র তিনদিন। অথচ শপিং এখনো বাকী। আমিও কিছু কিনি নাই, বউও কিছু কিনে নাই। গোপন সুত্রে খবর পেয়েছি, এবার ঈদে বউ ভাল সেলামী পেয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় ৫০ হাজার হবে। আর আমার বেতন বোনাস সব মিলিয়ে ৩০ হাজারও না।
বউকে বললাম,
"এবার তো তুমি ভাল এমাউন্ট পেয়েছ। এবার আমি... বাকিটুকু পড়ুন

১৬ টি মন্তব্য      ২৬১ বার পঠিত     like!

গহীনের ভালোবাসা

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ০৫ ই মার্চ, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৭


দীর্ঘ আড়াই বছর প্রেমের পর এক জোছনা রাতে ধুমধাম করে বিয়ে করল অন্নি আর রাতুল। এই আড়াই বছরে তাদের প্রেমে কোন বিবাদ ছিল না, কোন সন্দেহ ছিল না। যাকে বলে একেবারে বিশুদ্ধ প্রেম!
উভয় পরিবারই বিয়েতে রাজি ছিল। রাতুল অবশ্য বিয়ে করতে চায় নি। কারন হিসাবে সে "অন্নিকে বলেছিল আর... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ১৪৮ বার পঠিত     like!

নিষিদ্ধ ভালোবাসা ( ৫ম পর্ব)

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ১৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সকাল ৯:৩৬

সংসারের অশান্তি আর দৈনিক চলমান ক্লান্তিকর ঝগড়া এড়াতে ইমন গ্রামের বাড়ি চলে যায়। সপ্তাহ দুয়েক থাকার পর আসে। বাড়িতে থাকাকালীন সময়টা অরু খুব আনন্দ করে কাটায়। কিন্তু বেশি পারে না। অরুর মনে সন্দেহ দানা বাধে। অরু খবর নিতে শুরু করে ইমনের আর কোথাও সম্পর্ক... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ৭১ বার পঠিত     like!

নিষিদ্ধ ভালোবাসা (৪র্থ পর্ব)

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ০৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ দুপুর ১২:০৮

-জান্টুস, কী কর?"
-কিছু না, এইতো।
-তোমাকে ভীষন মিস করছি। কাল সকালে দেশে পৌছে যাবো। তোমাকে দেখার জন্য আমিতো একেবারে পাগল হয়ে আছি.!
অরু আনমনাভাবে টেলিফোনের ওপাশের কথাগুলো শুনতে থাকে। মাঝেমধ্যে একটু হুঁ-হাঁ করে। আজকাল অরু বেশিরভাগই আনমনা তাকে। অরু আনমনা হয়ে ভাবে আমি তো নিষ্ক্রিয় এক... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ১৪৪ বার পঠিত     like!

নিষিদ্ধ ভালোবাসা ( ৩য় পর্ব )

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২৯ শে জানুয়ারি, ২০১৭ দুপুর ১:৫৫

অরুর সব রাগ গিয়ে পড়ে খাদিজার উপর। তুর্য্য থেকে আলাদা করার জন্য পেছনে কাটি করেছে খাদিজা। অরু এটা খুব ভাল করে বুঝতে পেরেছে। তারপরও সে এসব নিয়ে মাথা ঘামায় নি কারন সাদী ছিল। কিন্তু তখনই খাদিজার সাথে বিবাদ চরম পর্যায়ে যায় যখন অরু বুঝতে পারে খাদিজা সাদীর পেছনেও লেগেছে। অনেকবার... বাকিটুকু পড়ুন

১ টি মন্তব্য      ১১১ বার পঠিত     like!

নিষিদ্ধ ভালোবাসা (২য় পর্ব)

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২২ শে নভেম্বর, ২০১৬ সকাল ৯:৫০

এমন একটা সম্পর্ক তূর্য্যের যদিও অতটা প্রয়োজন ছিল না অরুর প্রয়োজন ছিল হয়ত। দুজন দুজনকে খুঁজে নিয়েছিল ফেসবুক থেকে। এটা ন্যাকা ভালোবাসনা না। এখানে শরীর ছিল। অরু তার শরীর নিয়ে মোটামুটি বেকায়দায় ছিল। তূর্য্য আর অরুর সম্পর্কটা অরুই মুলত গড়ে তুলেছে। তূর্য্য শুধু সাপোর্ট করে গেছে।

অরুর স্বামী ইমনের বলার... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১৯৩ বার পঠিত     like!

নিষিদ্ধ ভালোবাসা (১ম পর্ব)

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২১ শে নভেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৪:৪২

ঠিক তখনই তূর্য্যের মনে হলো কাজটা খারাপ। শুধু খারাপ না, জঘন্য এবং বিরক্তিকরও বটে। আরো স্পষ্ট করে বললে কাজটা অশ্লীল! অবাক হওয়ার মত ব্যাপার ঐ মূহুর্তে হঠাৎ করে কেন মনে হচ্ছে কাজটা খারাপ? অথচ তার দুইদিন আগেও ওদের হয়েছে! তখনও ওরা দুজনেই তৃপ্ত ছিল। দুজনই উপভোগ করেছে। কিন্তু মাত্র দুই... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ২৮৭ বার পঠিত     like!

আজ তো বাসররাত

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৬ বিকাল ৪:১৭

অনেকদিন পর কোন এক দরকারে আজ পুরোনো এক স্টুডেন্টের বাসায় গেলাম। আমার স্টুডেন্ট এখন বেশ বড় হয়ে গিয়েছে। ক্লাস টেনে পড়ে সে। ওরা তিন বোন। মেজোটা ক্লাস এইটে। আর ছোট টা ক্লাস ফোরে।

মায়ের সাথে বসে তিন বোন সিরিয়াল দেখছিল। আমি যাওয়ার পর আমাকে সোফায় বসতে বলে আবার... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৩৬ বার পঠিত     like!

শুভ বিবাহ! আমার হবে হবে করেও না হওয়া বউ, শুভ বিবাহ!!

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২৫ শে আগস্ট, ২০১৬ দুপুর ২:৪৪

শহরে আসার কয়েকমাস পর টিউশনির সুবাদে এক মহিলার সাথে খুব আন্তরিক সম্পর্ক হয়। উনার দুইটা ছেলে ছিল। তাদেরকে পড়াতাম। আমার সাথে উনার সম্পর্ক এতটা আন্তরিক ছিল যে আমি উনাকে খালাম্মা বলে ডাকতাম,,, কিন্তু তিনি আমাকে জামাই বলে ডাকতেন,,, আর বলতেন, "আমার কোন মেয়ে থাকলে তোমার সাথে বিয়ে দিয়ে চিরজীবনের জন্য... বাকিটুকু পড়ুন

১৭ টি মন্তব্য      ২৮৯ বার পঠিত     like!

ইরা

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৬ সকাল ১১:৫৫

- আসসালামু আলাইকুম, গুড মর্নিং সুইটহার্ট।
- ওয়ালাইকুমুস সালাম, আরেকটু ঘুমাতে দাও প্লিজ।
- না, আর ঘুমাতে হবে না। ৭.০০ টা বেজে গেছে। অফিস যাবে তাড়াতাড়ি ওঠো!
- ধুর! বাদ দাও অফিসের চিন্তা। আজ একটু ঘুমিয়ে নেই। কাল থেকে সকাল সকাল উঠে যাবো
- কাল বলতে কোন দিন নাই। যা করার... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ১৭৫ বার পঠিত     like!

একটি ভালোবাসার মৃত্যু

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ১৭ ই আগস্ট, ২০১৬ ভোর ৫:৪৯

- জান্টু কোথায় তুমি ??
- অফিসে !!
- কী করো ??
- চা খাচ্ছি !!
- তোমার সেক্রেটারি মেয়েটি এসেছে??
- হ্যা !!
- শোনো ওর থেকে দূরে থেকো !!
- আচ্ছা।
- ওরে অন্য কোথাও শিফট করে কাল থেকে একটা ছেলেকে রাখবা! বুঝেছো?
- বুঝেছি!
- আচ্ছা রাখি !!
- রাখো!

অফিসে আমি হাজার বিজি থাকলেও সুমির জন্য ফ্রী যেকোন... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ২০২ বার পঠিত     like!

হাজার চতুরতি, কপালের একরতি... (একটি শিক্ষনীয় কাহিনী)

লিখেছেন মোঃ সাইদুল ইসলাম, ২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ বিকাল ৫:৫১

আব্দুল আলী নামে এক ব্যক্তি একটি মুদি দোকানে চাকরী করত। তার বেতন ছিল ৮০ টাকা। মাসের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত খুব করে খাটুনি করত। কিন্তু মাস শেষে তাকে ৮০ টাকা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হত।
একবার একমাসে আব্দুল আলী ইচ্ছামত পরিশ্রম করল, মনযোগ দিয়ে খাটা-খাটুনি করে কাজ করল। তার মনের আশা ছিল... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ১২৪ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ৪৫৫৬ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ