somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

''সমস্ত দিনের শেষে শিশিরের শব্দের মতনসন্ধ্যা আসে;ডানার রৌদ্রের গন্ধ মুছে ফেলে চিল;পৃথিবীর সব রঙ নিভে গেলে পাণ্ডুলিপি করে আয়োজন.।''

আমার পরিসংখ্যান

ফাহমিদা বারী
quote icon
আমার একাকী প্রহরগুলো বন্দি এখা্নে, প্রিয় কিছু শব্দের নিবাসে জেগে থাকে নিশাচরীর সপ্তপদী আশা.।
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

ওমের খোঁজে

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫৭


(লেখাটি কিছুটা এডিট করে রি-পোস্ট করছি। )

এক
জয়তুনের সাত বছরের মেয়ে আলো, চটাশ করে এক চড় বসিয়ে দিলো তার পাঁচ বছরের ভাই সবুজের গালে।
ভাইয়ের অপরাধ তেমন বড় কিছু নয়। আলোর সাজিয়ে রাখা পুতুলের ঘরে অসাবধানে তার পায়ের পাড়া পড়ে গেছে। আলোর কাছে এই অপরাধের কোন ক্ষমা নেই। চড় দিয়ে তার... বাকিটুকু পড়ুন

১৪ টি মন্তব্য      ৭৯ বার পঠিত     like!

তখনো সন্ধ্যা নামেনি.।

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৫


এক
গোধূলি’র আকাশ দেখতে সবসময়ই খুব ভালো লাগে মুনার।
প্রকৃতির সাথে ভালোবাসাবাসি শেষে লাজনম্রা আভরণ গায়ে মেখে বসে থাকে তিলোত্তমা আকাশ। কোথাও বুঝি এক গরবিনী ছায়া ফুটে ওঠে তার সমস্ত অবয়বজুড়ে। সঙ্গীর ভালোবাসায় সিক্ত হওয়া আকাশের মন জুড়ে আস্থার গৌরব! গোধূলির আকাশকে দেখে প্রতিবার এই কথাটিই কেন যে মনে... বাকিটুকু পড়ুন

১৭ টি মন্তব্য      ১৬৪ বার পঠিত     like!

ছুরি

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৯ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩১


‘এই তর আওনের টাইম হইলো! না আইলেই পারতি! ম্যালা দাম বাড়ছে তর...তাই না?’
শুলি’র দিকে কটমটে চোখে তাকিয়ে ছদ্মরাগ দেখালো মজিদ।
শুলি আদুরে ভঙ্গিতে কাছে ঘেঁষে বসে। এদিক সেদিকে চেয়ে মজিদের চুলে বিলি কেটে দিতে দিতে বলে,
‘রাগ কর ক্যান? মাইনষের বাড়িত কাম করি। এট্টু দেরি ত হইবারই পারে!’
মজিদের রাগ তবু পানি... বাকিটুকু পড়ুন

১২ টি মন্তব্য      ১৭৪ বার পঠিত     like!

ভ্রান্তিরে করি পূর্ণ

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:০৪


গত পহেলা ফাল্গুন আমি মরে গিয়েছি।
আমার কথা শুনে কি হাসছেন? ভাবছেন মজা করছি আপনাদের সাথে? মরে গিয়ে নিজের কথা বলছি কীভাবে?
সত্যি কথা বলতে কী, সেটা আমি নিজেও ঠিক বুঝতে পারছি না। আমার ধারণা ছিল, ভেতরের যত জ্বালা যন্ত্রণা ক্ষোভ রাগ সবকিছুকেই আমি ঐ ইহজগতেই জলাঞ্জলি দিয়ে এসেছি। এই জগতে এসে... বাকিটুকু পড়ুন

১৯ টি মন্তব্য      ২৯৯ বার পঠিত     like!

বইমেলার বই- 'ছায়াপথ' (উপন্যাস)

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৫০


২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসের কথা। অনলাইনে লেখালেখির ভিতটাকে আরেকটু শক্ত করতে বিভিন্ন ওয়েব পোর্টালে লেখালেখি করি। লেখালেখি বিষয়ক যতরকম পেজ আছে, সবগুলোতে ঢুঁ মারি। তেমনি এক ওয়েব পোর্টালে এক বিষয়ভিত্তিক সংখ্যার জন্য একটি ফরমায়েশী গল্প লিখলাম। সেই সংখ্যার বিষয় ছিল... ‘ঘৃণা’।

আমার মাথায় তখন তার বেশ কিছুদিন আগে থেকেই একটি গল্পের... বাকিটুকু পড়ুন

২৫ টি মন্তব্য      ২৭৩ বার পঠিত     like!

ফাঙ্গাস

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৪ ঠা অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:০৫


ফাঙ্গাস
এক
‘ঐ মিয়া কীয়ের বাল ছাল মার্কা গাড়ি চালাও এ্যা? গাড়ির সিটের গায়ে ফাঙ্গাসের ভিটা বাড়ি হইছে...দ্যাখবার পাও না?’
যাত্রীর বিরক্তিভরা কথা শুনে গাড়ি চালাতে চালাতেই মাথা ঘুরিয়ে দেখলো ড্রাইভার ইদ্রিস মিয়া।
হাইওয়েতে গাড়ি ছুটছে। এখন বেশি উত্তেজিত হলে চলবে না। তাই মাথাটাকে শান্ত রেখেই যাত্রীর কথার জবাব দিলো সে।
‘কী কন... বাকিটুকু পড়ুন

১০ টি মন্তব্য      ১৯৮ বার পঠিত     like!

বিবর্ণ সায়র

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৮





এক
দিলারা হাসান পাতলা টাওয়েল দিয়ে শিশুটিকে প্যাঁচিয়ে বের হয়ে এলেন লেবার রুম থেকে। একটুও সময় নষ্ট করলেন না তিনি। ডাক্তার, দুজন জুনিয়র সহকারী ডাক্তার, নার্স...সবাই বিস্মিত হয়ে তাকে দেখছে। বাধা দেওয়ার ক্ষমতাটুকুও যেন হারিয়ে ফেলেছে সবাই। দিলারা হাসান নির্বিকার। এত কিছু লক্ষ্য করার সময় নেই এখন। ডাক্তারের কাছ থেকে... বাকিটুকু পড়ুন

১৬ টি মন্তব্য      ২৩৩ বার পঠিত     like!

সে...কখনো আসেনি

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ১৯ শে আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:১৬



এক
কলেজের টিচার... বাকিটুকু পড়ুন

২৬ টি মন্তব্য      ২৮৫ বার পঠিত     like!

যত দূরে যাই

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ৩০ শে জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৬



এক
জনাকীর্ণ রাস্তায় হনহন করে হাঁটছে রাশেদ।
হাতে কালো একটা ব্যাগ। দিগ্বিদিক শূন্য হয়ে ছুটে চলেছে সে। বিকেল চারটার মধ্যেই এই ব্যাগ পৌঁছে দেবার কথা ছিল। এখন বাজছে চারটা কুড়ি। গন্তব্যে পৌঁছতে পৌঁছতে ঘড়ির কাঁটা পাঁচটা ছুঁই ছুঁই।

একটু ভয় ভয় করছিল রাশেদের।
বড় ভাই সময়ের ব্যাপারে হেলাফেলা পছন্দ করে... বাকিটুকু পড়ুন

২০ টি মন্তব্য      ২৮৪ বার পঠিত     like!

যেখানে দেখিবে ছাই

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ০২ রা জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:০৭



শ্বশুরবাড়ির যাবতীয় আচার অনুষ্ঠান আমি পারতপক্ষে এড়িয়ে চলি। যেভাবে... বাকিটুকু পড়ুন

২৯ টি মন্তব্য      ২৯২ বার পঠিত     like!

বুক রিভিউ- 'গল্পটা কাল্পনিক'

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ৩১ শে মে, ২০১৮ সকাল ৭:৫৬


বুক রিভিউ- 'গল্পটা কাল্পনিক'

বইটি হাতে নিলেই চমৎকার ভূমিকাটিতে চোখ আটকে যায় কিছুক্ষণের জন্য। শুরুর কথাটুকু মনকে থমকে রেখে ভাবায় কিছুটা সময়।

‘যুক্তি আমাদের নির্দিষ্ট গণ্ডিতে আটকে রাখে আর কল্পনা নিয়ে যেতে পারে যেকোনো গন্তব্যে।‘
লেখক তার বইয়ের নাম রেখেছেন ‘গল্পটা কাল্পনিক’। তবে কি তিনি আমাদের কাল্পনিক কোনো গল্প শোনাতে চলেছেন?

নতুন লেখকের... বাকিটুকু পড়ুন

২৬ টি মন্তব্য      ৩৩৩ বার পঠিত     like!

ঈর্ষা

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ২৫ শে মে, ২০১৮ রাত ৯:৩৭



ছবিটার দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে নিজের মনেই কুলকুল করে হাসছিল... বাকিটুকু পড়ুন

২৪ টি মন্তব্য      ২০৪ বার পঠিত     like!

শৈশবের খেলার সাথীরা (ছবি ব্লগ) (পর্ব-৩)

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ২০ শে মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৩

১)


শৈশবের সুবাস জড়িয়ে আছে যার প্রতি পরতে...সেই 'ভাঁটফুল'।

২)


অদ্ভূত সুন্দর আর নিরিবিলিতে ফুটে থাকা একটি ফুল...দুপুরমনি'। দুপুরবেলাতে চুপটি করে খেলতে চলে যেতাম বলেই হয়ত এর সাথে দেখা হয়ে যেত।

৩)


একবার আমার মাকে এনে দিয়েছিলাম এই 'বকফুল'। সেদিনই এর সাথে প্রথম পরিচয়। মজার বড়া হয় এই ফুল... বাকিটুকু পড়ুন

১১ টি মন্তব্য      ৮৪ বার পঠিত     like!

শৈশবের খেলার সাথীরা (ছবি ব্লগ) (পর্ব-২)

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ২০ শে মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৪

১১)


আমরুল ফুল। এই গাছের পাতা দাঁত দিয়ে কাটতাম মনে আছে। কারণ সেই পাতার টক টক স্বাদ টি এখনো ভুলিনি।

১২)


ধুতুরা। বিষাক্ত ফুল। এই ফুল ধরা যাবে না এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাঝে মাঝে ধরে ফেলতাম। বাসায় এসে তিনবার সাবান দিয়ে হাত ধুতাম। বাঁচার আনন্দ ছিল অনেক। কেন... বাকিটুকু পড়ুন

৫০ টি মন্তব্য      ৩১০ বার পঠিত     like!

শৈশবের খেলার সাথীরা (ছবি ব্লগ) (পর্ব-১)

লিখেছেন ফাহমিদা বারী, ২০ শে মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৩০

এক অদ্ভূত নেশাতে পেয়ে বসে মাঝে মাঝে।
সেই ছেলেবেলার নেশা...ফুল লতা গাছ পালা নিয়ে মেতে থাকার নেশা। ছোটবেলায় সঙ্গী সাথী নিয়ে খেলাধুলাও করতাম বটে, কিন্তু একা একা ঘুরে বেড়ানোরও এক প্রচণ্ড নেশা ছিল আমার। নানারকম গাছপালা চিনে বেড়াতাম।

রাজশাহী বিভাগের অন্তর্ভূক্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জে ছিলাম প্রায় তিনবছর। জীবনের সেই তিনটি... বাকিটুকু পড়ুন

২৬ টি মন্তব্য      ২১৯ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ১৮৯১০ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ