somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

মনে মনে গল্পকার। যখন আমি কোনো কিছুই করি না, তখনো একটা কাজ সব সময় করতে থাকি। মনে মনে গল্প লিখতে থাকি।

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

অগতি

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ১১ ই মার্চ, ২০২০ দুপুর ১:০৪


মাঝে মাঝে আমার আসলে কোথাও যাওয়ার থাকে না
এমনকি নিজের কাছেও--

তোমার কাছে যাবো বলে একদিন নিজেকেও ছেড়ে
আসছি! সেইসব অনেক পুরাতন কথা। তবুও, নিজেকে
নিয়ে হাঁটতে হাঁটতে ক্লান্ত থেকে আরো ক্লান্ততর হয়ে
যখন ঘরে ফিরবার ইচ্ছা হয়—তখনো কোথাও আমি
ফিরবার অনুমতি পাই না। এমনকি নিজের কাছেও--

আমাকে ঠাঁই দেবে,... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৪৬ বার পঠিত     like!

আমি এমন-ই

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০৯ ই মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:১৮


আমি তবুও কোনো একটা ছুতা চাই
এমন একটা সহজ ছুতা--ধরো বললাম,
শহরে করোনা এসেছে। এইসব তো
তুমিও জানো--আমি জানি, তবুও--
আমি তো অন্য কোনো কথা নিয়া
তোমার কাছে যাওয়ার সুযোগ পাই না।

আমাকে তাই সকালের নাস্তার মতন
একটা সহজ বিষয় ধরতে হয়। জানি
বিরক্ত হও, তবুও, আমার... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৫০ বার পঠিত     like!

অর্থহীন

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০৪ ঠা মার্চ, ২০২০ রাত ৯:৫৫


শহরে বৃষ্টি শুরু হইছে। আমি তোমার জন্য কাঁদছি--
তুমি আমার জন্য। এই রকম উদ্ভ্রান্ত এক একটা
বৃষ্টির রাতে দূরে কোথাও কোলাব্যাঙ তার ব্যাঙানীর
জন্য মন খারাপ করে ডাকাডাকি শুরু করে…

আমি তোমার শহরে এসে ঝিম মাইরা বসে থাকি
তোমার কাছে যাওয়ার সাহস করে উঠতে পারি না।
এই রকম... বাকিটুকু পড়ুন

৩ টি মন্তব্য      ৭০ বার পঠিত     like!

মানুষ যেইখানে ফিরে

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০৪ ঠা মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:২১


পথেদের যে ভাষা, সেইসব ভাষা তো আমরা
এখনো বুঝে উঠতে পারি নাই। এইসব ভরা-
ভর্তি ফাগুনের রাতে কোথাও কোথাও ব্যাঙ
ডেকে উঠলে আমরা নস্টালজিক হইয়া যাই।

আমাদের তখন স্কুলবেলা মনে পড়ে, ল্যাংটা
সাঁতার আর কাকভাত তুলে আনার সেইসব
আইলপথগুলা, সেইসব পাথরকুচি পাতাগুলা,
যেইসব পাতাদের কাঁটাগুলা কানি আঙুলের... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৪০ বার পঠিত     like!

সুনীল বাবুর দুঃখ

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ১৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:০৬


নীরার জন্য জ্বলে উঠেছিলো কলকাতা শহর!

শুধু নীরার জন্য মিছিল হলো, সাতটা ট্রামে ধরে
গেলো আগুন। গোঁফওয়ালা পুলিশগুলো ধরে
নিয়ে গেলো কয়েক শত ছোকরা। নীরার যদি
অসুখ না সারতো, সুনীল গাঙ্গুলি ডালহৌসি মোড়ে
দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে পান, বিড়ি, সিগারেট বেচতো
আজীবন। শহরগুলো আগের... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৮০ বার পঠিত     like!

বিয়ান বেলা

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০১ লা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:১৪


বাড়িত তাইলে বিয়ান বেলা আর ঘুম যাইন্নফারি!

ফজরর আজান দিবার আগে আগে আব্বা উড়ি
যাগই, খুক খুক গরি হাঁসে, গলা খাকারি দেয়…

“অ ফুয়াইন, “ওড়ো, ওড়ো। নামাজর সময় অই
গিয়ই বাবা।” আব্বা তাহাজ্জুদ পইড়ত বইয়ে, আঁরা
ঘুম যাই। আজান দে। আব্বা আবার আস্তে আস্তে
ডাকে, “অ ফুয়াইন ওড়ো,... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৭৮ বার পঠিত     like!

বসন্তদিনের জন্য

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ২৪ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:৪২


অতিথি পাখিদের মতন আমরাও কেউ কেউ
বসন্তদিনের জন্য অপেক্ষা করে থাকি…

এইসব পৌষ-মাঘ, এইসব পরবাসী জীবন
যাপন শেষে কোনো কোনো পাখিদের বাড়ি
ফিরবার সময় হয়ে আসে, এইসব বিনাবাক্য-
হৃদয়ের হৃদপিন্ড থেকে তারা ঠোঁট তোলে
সরে পরে, বাড়ি ফিরে যায়, কারো কারো তবুও
মানুষের মতন আর কোথাও ফিরে... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৮৫ বার পঠিত     like!

হলুদ হলুদ কুমড়ার ফুল অথবা ফিরে না আসা হৃদয়েরা

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ২১ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১১:৩২


ফিরতি বাসে কেউ থাকে না, আমরা জানি, তবুও
পৃথিবীর সব বাস স্টপে কেউ না কেউ দাঁড়ায়া থাকে!

মানুষের মতন কিছু হৃদয়, যাদের ফিরবার কথা
ছিলো, যারা কোনো দিন ফিরে আসবে না, সেই-
সব মৃত শালিকের পালকগুলা ভুলক্রমে পৃথিবীর
দিকে ওড়ে আসবে ভেবে কেউ কেউ বাস স্টপে
বসে বসে ঝিমায়, শীত... বাকিটুকু পড়ুন

৩ টি মন্তব্য      ৮৭ বার পঠিত     like!

ডাঁটাশাকের মতন কিছু মানুষ

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ১৮ ই জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:৫০


একটা সবুজ ডাঁটাশাকের দিকে আমি ফ্যালফ্যাল
কইরা চায়া থাকি৷ মানুষের জীবন একটা সবুজ
ডাঁটাশাক ছাড়া বিশেষ কিছুই না। যার ইচ্ছা খট কইরা
ছিড়া নিয়া বাসায় চইলা যায়, রান্না করে খায়, কিংবা
আসলে খায়ও না। কোনো কারণ ছাড়া ফেইলা দেয়!

কেউ কেউ ডগাটা ভাইঙা... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৮৮ বার পঠিত     like!

পাতা ঝরাদের দিনগুলা

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ১১ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:২৩


পাতা ঝরাদের দিনগুলা ফুরায়া যাচ্ছে ধীরে ধীরে

সবুজ সৌন্দর্যের মতন অবিকল কিছু রোশনাই
পৃথিবীতে ফিরে আসবে, আশা করা যায়। আগেও
এই রকম আরো অসংখ্যবার ফিরে আসার বর্ণনা
পৃথিবীর মানচিত্রে দাগায়িত আছে, আমরা পড়ি--

আমরা আরো পড়তে পাই, এই পাতাঝরা দিনে
কিছু ডাহুক পাখি কম্বলহীন শীতার্ত হৃদয়... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৬৬ বার পঠিত     like!

অতীতগামী বিষণ্ণতার ভিতর

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ১০ ই জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:৩২


আমার তবুও আর কারো কাছে, কোথাও যাওয়া হয় না

এই রকম অসংখ্য অতীতকালীন যাওয়া, না-যাওয়ার
গল্প নিয়া পৌষ সংক্রান্তির মেলার দিকে যাই, মানুষের
দিকে। মানুষেরা মূলত মানুষ ছাড়া আর কারো কাছে
ফিরে যাওয়ার অধিকার রাখে না। একটা বগলবন্দী
স্মৃতির অ্যালবাম আর কিছু রাজহাঁসের মাংসের ঘ্রাণ
ছাড়া মানুষ আর... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৪৮ বার পঠিত     like!

প্রণয়িনী অথবা ভুলের লিরিক

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০৪ ঠা জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:০৫


সাড়ে ছয়দিন পর শহরে ফিরে দেখি
প্রেমিকা ঘুমাতে গেছে সিডাটিভ
খেয়ে, প্রেমিকাদের মনগুলো ও’রকম...

একশ বছর প্রণয়িনীর চোখের দিকে
তাকিয়ে থাকবার পর চোখ ফেরালেই
দেখবেন, ভুল হয়ে গেছে। প্রেমিকাদের
চোখে আজকাল সবকিছু নিপাট ভুল।

একটা সুন্দর ভুল গলাধঃকরণ করে
আমরা পথ চলছি... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৮৯ বার পঠিত     like!

গুম, খুন এবং রাষ্ট্র বিষয়ক

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০৩ রা জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৫৬


বিভ্রান্ত সব শব্দের ভিতরে প্রতিদিন একা একা
খেলা করি, নিজের ভিতরে নিজের যুদ্ধ হয়…

নিজেকে নিজে দণ্ডিত করি, ক্রসফায়ার দিই,
নিজেকেই নিজে দিয়ে দিই দুইশ বছর জেল।
সশ্রম কারাদন্ড! তুই শালা দুইশ বছর কবিতার
ভিতরে পঁচে-গলে মর। নিজের বিরুদ্ধে নিজে
ঘোষনা করি, তোকে কবিতা লেখার সকবিতা
কারাদন্ড দেওয়া হলো। তুই শালা কবিতা লেখ।... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৯৬ বার পঠিত     like!

মনোলিপি

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ০১ লা জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:১৪


তোমার চোখের খুব গভীরে তাকানো হয়নি আজতক
সোমবার সাড়ে ছত্রিশ ভাজা হয়ে যাবে চশমার গ্লাস
তোমার ওই উদাসীন চোখ, ওইখানে কিছু পরিযায়ী প্রেম
জমা করে রেখে চলে যাবে বেখেয়ালি প্রেম, ফিরবে না।

মানুষের মত ঠোঁটের ডগায় ফোঁটা ফোঁটা ঘর্মাক্ত প্রেমে
কাজ নেই, আমি চাই শরীরের খাঁঝে খাঁঝে দীর্ঘশ্বাস…
মন... বাকিটুকু পড়ুন

১০ টি মন্তব্য      ৮৪ বার পঠিত     like!

ডিসেম্বরের শীতকালগুলা

লিখেছেন অনন্ত আরফাত, ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:১৭


এই রকম কোনো কোনো ডিসেম্বর শেষে আমাদের
বাড়ি ফিরবার তাড়া শুরু হইয়া যেতো…
আমাদের তখন শুধু শুধু মন খারাপ হতো
আমাদের তখন শুধু শুধু ভালো লাগতো না!

সেইসব ডিসেম্বরের বৃষ্টিহীন গাঢ়তর শীতের দিনগুলা
আমরা কাটায়া দিতাম মামা বাড়িতে…

সেইসব ভাপা পিঠা আর উরুম মুলা'র দিনগুলায়
আমরা... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৫৬ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ৫৩৩০ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ