somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ইয়াহিয়ার সঙ্গে আলোচনা: সংকট উত্তরণের আভাস; বিদেশী পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধ, পর্ব ২০

০৩ রা জুন, ২০০৮ রাত ১১:৩০
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

পিটার হ্যাজেলহার্স্ট
দি টাইমস্, ২০ মার্চ, ১৯৭১।

করচি, মার্চ ১৯। প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান এবং আওয়ামী লীগের নেতা শেখ মুজিবুর রহমান আজ ঢাকায় কয়েক দফায় আলোচনা শুরু করেছেন। দেশের সাংবিধানিক সংকটে তারা যে কট্টর অবস্থান নিয়েছিলেন, তা থেকে তারা কিছুটা নমনীয় হয়েছেন বলে মনে হচ্ছে। ঘোষণা দেয়া হয়েছে যে শেখের তিনজন উপদেষ্টা ড. কামাল হোসেন, মি. তাজউদ্দিন আহমদ ও মি. সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রেসিডেন্টর সহযোগীদের সঙ্গে আজ আলোচনায় বসবেন।

শেখ বলেছেন তিনি যখন আগামীকাল প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আবার আলোচনায় বসবেন তখন তার সঙ্গে আওয়ামী লীগের ছয়জন সহযোগী থাকবেন। সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মনে হয়েছে, মঙ্গলবার আলোচনা শুরু করার পর থেকে তাকে যেকেনো সময়ের চেয়ে সবচেয়ে বেশি শান্ত মনে হয়েছে। এদিকে করাচিত গত রাতে পিপলস্ পার্টির মি. জেড. এইচ. ভুট্টো সতর্ক করে দিয়েছেন যে, যদি 'ঢাকায় পশ্চিম পাকিস্তানের স্বার্থ নিয়ে আপস করা হয়' তবে তার দল পূর্ব পাকিস্তানের বেসামরিক অসহযোগ আন্দোলনের মাধ্যমে পূর্বের মতোই পশ্চিম পাকিস্তান অচল করে দেবে। এর আগে তিনি ঢাকায় প্রেসিডেন্ট ও শেখের সঙ্গে আলোচনায় বসতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন তার দল পুরো পাকিস্তানের জনগণের ইচ্ছা-আকাঙ্ক্ষার 'রক্ষাকর্তা' এবং পশ্চিম পাকিস্তানের জনগণের স্বার্থ ধুলিসাৎ করে এরকম কোনো সিদ্ধান্ত তিনি মেনে নেবেন না। তিনি বলেন, 'যদি পূর্ব পাকিস্তানের জনগণের সামর্থ্য পরীক্ষা নেয়া হয়ে থাকে, তবে এবার পশ্চিম পাকিস্তানের শক্তি প্রদর্শনের পালা'। প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, তিনটি প্রস্তাবের ভিত্তিতে প্রেসিডেন্ট মুজিবুরের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। প্রস্তাব তিনটি থেকে মনে হচ্ছে কোনো প্রস্তাবই পূর্ব বা পশ্চিম পাকিস্তানের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না।

প্রথম প্রস্তাব অনুসারে উভয় অংশে প্রাদেশিক সরকারের হাতে মতা থাকবে এবং সেনাবাহিনী ততক্ষণ পর্যন্ত শাসন কার্যক্রম চালিয়ে যাবে যতক্ষণ না একটি সংবিধান প্রণীত হচ্ছে। শেখ এরকম কোনো অন্তর্বর্তীকালীন সংবিধান গ্রহণ করবেন না যাতে তার চূড়ান্ত স্বায়ত্তশাসনের ব্যবস্থার কথা নেই। এই প্রস্তাবের বিকল্প হিসেবে ইয়াহিয়া উভয় অংশের নেতাদের কেন্দ্রে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করার পরামর্শ দিয়েছেন যা একটি সংবিধান প্রণীত না হওয়া পর্যন্ত সামরিক সরকারের তদারকিতে চলবে।

স্বায়ত্তশাসনের বিতর্ক এড়ানোর জন্য প্রেসিডেন্ট বলেছেন সংবিধান গঠন না হওয়া পর্যন্ত কোনো প্রাদেশিক সরকারও গঠিত হতে পারবে না। প্রেসিডেন্ট দুই নেতাকে একটি অন্তবর্তীকালীন সরকার গঠন করতে বলেছেন, এবং তিনি উল্লেখ করেছেন, যদি তা করা হয় তবে প্রদেশে শিগগীরই মতা হস্তান্তর করা হবে। এই প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিত এটা মনে হবে যে নেতারা এই মুখ-রক্ষার ফর্মুলায় তারা লাফ দিয়ে অবতীর্ণ হবেন, কিন্তু সমস্যা হলো তারা প্রস্তাবগুলোকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করছেন।

শেখ উল্লেখ করেছেন তিনি প্রস্তাবটি গ্রহণ করতে পারেন তখনই যখন অন্যান্য পূর্বশর্ত মেনে নেয়া হবে। কিন্তু শেখ পশ্চিম পাকিস্তানের ছোট দলগুলোর মধ্যে যারা তার দলের নীতিকে সমর্থন করেন তাদের নিয়ে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করার অনুরোধ জানাতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বলে মনে হচ্ছে। অন্যভাবে বলা যায় সেখানে ভুট্টো এবং তার পিপলস্ পার্টির কোনো স্থান থাকবে না (৩১৩টি আসনের মধ্যে তার ৮৪টি আসন রয়েছে)। এই ধরনের আয়োজনে পশ্চিম পাকিস্তানী নেতাদের বিরোধী দলে থাকতে হবে। শেখকে তখন উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত প্রদেশ, বেলুচিস্তান ও সিন্ধুর আঞ্চলিক দলগুলোকে নিয়ে অন্তবর্তীকালীন সরকার গঠন করতে হবে। এই ধরনের জোট-গঠন মি. ভুট্টো ও তার প্রদেশ পাঞ্জাবকে একাকী করে ফেলবে। এটা কোনো অবাক-করা কিছু নয় যে, মি. ভুট্টো এই প্রস্তাব মেনে নেন নি এবং উভয় অংশের দুই সংখ্যাগরিষ্ঠ দল নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠনের ওপরে তিনি জোরারোপ করছেন।

১১টি মন্তব্য ৭টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ট্রাম্প-জনসন আদর্শিক ভায়রা ভাই .....

লিখেছেন জুল ভার্ন, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ সকাল ১০:১১

ট্রাম্প-জনসন আদর্শিক ভায়রা ভাই .....



গতকাল আন্তর্জাতিক মিডিয়ার বেশীরভাগ নিউজ হেডলাইন ছিলো সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফ্লোরিডার বাড়িতে এফবিআই'র তল্লাশী..... জানিনা ক্ষমতাচ্যুতির দুই বছর পর গাধা মার্কা... ...বাকিটুকু পড়ুন

লজ্জা লজ্জা লজ্জা!!!

লিখেছেন অর্ক, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ১২:১৬



ছি ছি, অতি লজ্জা শরমের ব্যাপার, সদ্য সমাপ্ত হওয়া বার্মিংহাম কমনওয়েলথ গেমসে সম্পূর্ণ পদক শূন্য বাংলাদেশ! একটা তামাও নেই! বাংলাদেশের এ্যাথলেটদের চেহারাও তেমন দেখলাম না এ আসরে! ভয়ঙ্কর লজ্জা... ...বাকিটুকু পড়ুন

আহা লুঙ্গি

লিখেছেন শাহ আজিজ, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ১২:৩২



গেল সপ্তাহে ঢাকার একটি সিনেমা হলে এক লুঙ্গি পরিহিত বয়স্ক মানুষকে হলে ঢুকতে দেয়নি হল দারোয়ানরা । আমার মনে হয়েছিল এ এক তীব্র কষাঘাত জাতির গালে । প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্লগারদের গোপন তথ্য চেয়ে আবেদন!

লিখেছেন কাল্পনিক_ভালোবাসা, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৫:২৯

একবার আইনশৃংখলা বাহিনীর জনৈক ব্যক্তি ব্লগ টিমের কাছে একজন নির্দিষ্ট ব্লগার সম্পর্কে তথ্য জানতে চেয়ে ফোন দিলেন। ব্লগ টিম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে জানতে চাইলো - কেন উক্ত ব্লগারের তথ্য... ...বাকিটুকু পড়ুন

ভার্টিগো আর এ যুগের জেন্টস কাদম্বিনী

লিখেছেন জুন, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ৯:১৩



গুরুত্বপুর্ন একটি নথিতে আমাদের দুজনারই নাম ধাম সব ভুল। তাদের কাছে আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র ,পাসপোর্ট এর ফটোকপি, দলিল দস্তাবেজ থাকার পরও এই মারাত্মক ভুল কি... ...বাকিটুকু পড়ুন

×