somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ছোটো আঁকা ছোট লেখা, মনের ভিতর বাইরে যায় দেখা : ডুডুলজি

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:৫৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



নতুন কেনা স্কুলের খাতার পাতায় ছোটো ছোটো ছবি আঁকার জন্য খাতার পাতা নষ্ট করার অভিযোগে আপনি ছোট বেলায় যদি বাবার বকা বা পিঠে স্যারের দুটো বেমক্কা বেতের বারি অথবা নিদেনপক্ষে লাল হয়ে যাওয়া কানমলা খেয়ে থাকেন তবে জানবেন আপনার ওপর হামলা হয়েছিল ডুডুল আঁকার জন্য। ডুডুল আঁকার জন্য আপনার পিকাসো বা জয়নুল আবেদীন হবার দরকার নেই Iএটা সে’রকম জটিল কিছু আঁকা নয় ।ডুডুল আঁকা হলো কাজের অবসরে অনেকটা অন্যমনস্কভাবে আপনি সামনে পাওয়া কাগজে যেই ছবি আঁকেন বা লিখেন সেটা । সেটা হতে পারে আপনার নাম বা একটি ফুল,পাতা, বাড়ি ঘর, পাহাড়, সাগর বা যে কোনো কিছু ।

মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন এই ছোট ছোট ডুডুলগুলোতে লুকিয়ে থাকে মানুষের ব্যক্তিত্ব, মানসিকতার পরিচয়।এই ডুডুলগুলো যেহেতু অসচেতন ভাবে মানুষ আঁকে তাই এগুলোতে মানুষের সত্যিকারের মানসিকতাই ফুটে ওঠে । পাতার কোথায় ডুডুল আঁকা হচ্ছে সেটাও ডুডুল আঁকিয়ে সম্পর্কে অনেক কিছু বলতে পারে ।আপনি পাতার ওপর দিকে যদি ডুডুল আঁকেন তার অর্থহলো আপনি আপনার বক্তব্য খুব গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন।এটা আপনার মুক্ত চিন্তা, প্রাণবন্ত ব্যক্তিত্বের কথাই বলে। আপনার পাতার বা দিকে ডুডুল আকার অর্থ হতে পারে আপনি অতীতের বা নস্টালজিয়ার কথা ভাবছেন অথবা নিজের বর্তমান অবস্থা নিয়েই সন্তুষ্ঠু আর তাতে পরিবর্তন চাননা।পাতার ডান দিকে আঁকা ডুডুল আপনি আপনার অনুভূতিগুলো অন্যের সাথে শেয়ার করতে চাইছেন সেটাই বলে ।

প্রথমে পুরোনো দিনের বাংলা সিনেমার একটা গান শোনা যাক ।তারপর শুরু হবে আমাদের ডুডুল দর্শন (অধ্যয়নও)। মাস্টার সব আমি নাম দস্তখত শিখতে চাই (সিনেমা অশিক্ষিত )

১. নিজের নাম লেখা /স্বাক্ষর করা :
শুধু রহমত ভাই নয়, নাম দস্তখত সবাই করতে চায় ।কিছু মানুষ সব জায়গাতেই নাম দস্তখত করে সুযোগ পেলে।এই ধরণের মানুষেরা সব সময় অন্যদের দৃষিট আকর্ষণ করতে চায়। আলোচনায় থাকতে পছন্দ যাদের আর কি (আমাদের রাজনীতিবিদরা মনে হয় এই ক্যাটাগরিতে পড়তে পরে গণহারে) ! নিজের নাম কত বড় করে স্বাক্ষর করা হলো বা কতবার লেখা হলো সেটার ওপর নির্ভর করে কত বেশি বা দ্রুত একজন মানুষ তাৎক্ষণিকভাবে দৃষিট আকর্ষণ করতে চায়। কারো বড় করে নাম স্বাক্ষর করা মানে সে কোনো রুমে ঢুকলে হয়তো জোরে বা উঁচুস্বরে আসসালামু আলাইকুমুস সালাম বা হাই, হ্যালো বলে দৃষিট আকর্ষণ করতে চাইবে। ছোট করে অনেক বার নিজের নাম লেখার ডুডুল আঁকা কেউ হয়তো অনেক জোরে বা উঁচুস্বরে সম্বোধন করবে না কিন্তু নানা ভাবেই সবার দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করবে।

২. ফুল :



ডুডুল হিসেবে যারা ফুল অনেকে তারা সাধারণত ঘরোয়া স্বভাবের, আবেগপ্রবণ হয় I এ'ধরণের মানুষ সংসার, ছেলে মেয়ে, ফটো, স্মৃতি এসব জিনিসকে গুরুত্ব দেয় I ফুল ভেদে এই ডুডুলারের বৈশিষ্ঠ্য ভিন্ন হতে পারে । আপনি অনেকগুলো ছোট ছোট সতেজ ফুল বা ফুলের গুচ্ছ আঁকেন সেটা আপনি খুব সামাজিক ধরণের সেটাই বলে । অন্যদিকে আপনার ফুলগুলোর পাপড়ি যদি নতমুখী হয় তাহলে আপনি কোনো কারণে অনেক উদ্বিগ্ন I কেউ যদি গোলাপ ফুল অনেকে তবে সে একটু রোমান্টিক ধরণের আর আপনার আঁকা ডুডুল ডেইজি ফুলের কেন্দ্র যদি গোলাকার হয় আর তার চারদিকে অনেক সোজা pointy পাঁপড়ি থাকে তাহলে আপনি হয়তো আপনার উষ্ণ হৃদয় লুকোতে চাইছেন রক্ষনাত্মক মনোভাব দিয়ে ।

৩. বাক্স, জ্যামিতিক প্যাটার্ন, শেপ (shape):



এই ধরণের শেপ, বাক্স বা জ্যামিতিক প্যাটার্ন যারা ডুডুল হিসেবে অনেকে তারা নিজেদের আশেপাশের জিনিস বাক্সবন্দী করতে চায় মানে এধরণের মানুষ আসে পাশের পরিস্থিতির ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখা পছন্দ করে । এদের ভাবনা চিন্তা খুব স্পষ্ট। এরা খুব গোছানো স্বভাবের হয়।এই সব মানুষরা তাদের পারিবারিক, কর্ম ও সামাজিক জীবনেই মধ্যে সীমারেখা টানে স্পষ্ট ভাবে অথ্যাৎ এরা পারিবারিক জীবনের সাথে কর্ম জীবনকে মিশিয়ে ফেলে না।

যারা ডুডুল হিসেবে অনেক প্যাটার্ন আঁকে অন্যরা তাদের নেতা হিসেবে দেখে মূলত । ত্রিকোণ (ট্রায়াঙ্গল) খুবই কমন একটা ডুডুল। এটা ডুডুলারের দৃঢ়,যৌক্তিক মনের বৈশিষ্ট্যের কথাই বলে। যাদের স্কয়ার শেপগুলো ডুডুল কিউব বা বক্সের আকার হয় সাধারণত তারা খুব পটু (efficient) হয় তাদের কাজের ক্ষেত্রে । এরা খুব বিশ্লেষণী মনোভাবের হয় ।

৪. এলোমেলো বা জিগজ্যাগ রেখা :


আপনি আঁকতে পারেন না ভাবছেন? কাজের অবসরে সামনের কাগজে এলোমেলো রেখা আঁকেন একবার এদিকে গেছে তো আরেকবার সেদিকে তার মানে আপনি জিগজ্যাগ ডুডুল এঁকেছেন যারও একটা অর্থ আছে । জিগজ্যাগ সাধারণত নিজস্ব অসাচ্ছন্দ তুলে ধরে । অনেক সময় বাস্তবের চাপে পরিস্থিতি থেকে পালিয়ে যাওয়া হতে পারে এর মানে । আবার গারো রেখায় টানা জিগজ্যাগ রেখাগুলো সতেজ চিন্তা ভাবনা, কোনো নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছুনোর ইচ্ছার কথাও বলে ।

৫. মুখ :



ডুডুল হিসেবে মুখ বা চোখ আঁকা খুব ব্যক্তিগত স্বভাবকে তুলে ধরে । একটা সুখী মুখ আঁকার অর্থ ডুডুল আঁকিয়ে একজন সুখী মানুষ । একটি সুখী, সুন্দর করে আঁকা ডুডুল মুখ ডুডুলার সম্পর্কে এটাই বলে যে সে অন্যের ভালো দিকগুলোই দেখতে পায় । অসুখী, কুৎসিত করে আঁকা একটা ডুডুল মুখ ডুডুলারের অসুখী বা অন্যের ব্যাপারে অবিশ্বাসী এই মনোভাবটাই প্রকাশ করে ।

৬. চোখ :


বড় চোখ বড় করে আঁকা মানে হলো ডুডুল আঁকিয়ে ঘরকুনো প্রকৃতির কোনো মানুষ নয় বহির্মুখী ব্যক্তিত্বের অধিকারী। ছোট চোখ অন্তর্মুখীতা বোঝায় । চোখ বন্ধ আঁকা সাধারণত বোঝায় আঁকিয়ে কোনো কিছু এড়িয়ে যেতে চাচ্ছে বা ভাবতে চাচ্ছে না ।

৭. বৃত্ত (circle):


আপনি ডুডুল হিসেবে যদি একটির ভেতর আরেকটি বৃত্ত আঁকেন তার মানে হলো আপনি ঐক্য বা ইউনিটি খুঁজছেন হতে পারে পরিবারে বা জব প্লেসে আপনি এর অভাববোধ করছেন । আবার আপনার আঁকা ডুডুলগুলো এলোমেলো বিচ্ছিন্ন বৃত্ত হলে আপনি সম্ভবত একজন বন্ধু খুঁজছেন বা ইমোশনাল সাপোর্ট খুঁজছেন অন্যের থেকে। এটা আপনি প্রবলভাবে অন্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাচ্ছেন সেটাও হতে পারে ।

৮. বাড়ি :


ডুডুল হিসেবে আপনার বাড়ি আঁকা আসলে আপনার নিরাপত্তা প্রয়োজন সেটারই প্রকাশ । একটি গোছানো কিন্তু অনেক ডিটেইলসহ আঁকা বাড়ি একটি নিরাপদ বাড়ির মানে জীবনের ইঙ্গিত করে । অগোছালো আঁকা বাড়ির ডুডুল একটা বাড়ির ভেতরকার অসুখী জীবনের কথাই বলে । পাহাড়ের ওপর আঁকা একটা ডুডুল বাড়ির মানে হলো আপনি খুব নিঃসঙ্গতায় ভুগছেন ।

৯. তারা :


আকাশের তারা খাতায় ডুডুল হিসেবে আঁকারও কিন্তু কিছু বিশেষ অর্থ হতে পারে ।সাধারণত ডুডুল হিসেবে 'তারা' আশাবাদিতা বোঝায়। সফল ও উচ্চাকাঙ্খী মানুষেরা ডুডুল হিসেবে তারা আঁকে । ছোট ছোট অনেক তারা আশাবাদী চিন্তাকে বোঝায় । আবার ডুডুল হিসেবে আঁকা একটা বড় তারা বিশেষ লক্ষ্য অর্জনের দিকে দৃঢ় ভাবে এগুনো বোঝায় ।

১০. হার্ট:


এই ডুডুল আঁকিয়েরা স্বভাবতই রোমান্টিক ।

১১. বাস, প্লেন, জাহাজ : আপনার যদি অভ্যেস থাকে বাস, প্লেন এসব আঁকার তবে এরোনটিকাল ইঞ্জিনিয়ার হবেন বা নিদেন পক্ষে পাইলট সেটা ভেবে পুলকিত হবেন না যেন ! এই সব ট্রান্সপোর্ট রিলেটেড জিনিস গতিময়তা বোঝায় ।এই ডুডুলগুলো মানসিক বা বাস্তবেই নতুন কোনো জায়গায় যাবার প্রবণতাকেই বোঝায় । যেমন কেউ একটা কাজ খুঁজছে তার আঁকা গাড়ি বা জাহাজ সেই চাহিদা পূরণের জন্য নতুন কোনো জায়গায় যাওয়ায় তারণাকেও বোঝাতে পারে ।অন্যদিকে কিছুক্ষেত্রে পলায়নি মনোভাবও বোঝাতে পারে -আপনি আপনার বাস্তব পরিস্থিতি থেকে পালাতে চাইছেন ।



১২. প্রজাপতি, মৌমাছি বা পাখি:


একটা হুশিঁয়ারিমূলক ডুডুল সংবাদ দিয়ে শেষ করি আজকের লেখা । সেটা হলো প্রজাপতি, পাখি বা মৌমাছি নিয়ে সাহিত্য যতই প্রিয় কবিতা কবিরা লিখুন না কেন ডুডুল হিসেবে এটা কিন্তু আশংকাজনক হয়ে যেতে পারে কখনো কখনো। যারা এসব ডুডুল আঁকে তারা সহজেই বাঁধা পড়তে পছন্দ করে না। তাই আপনার উনি যদি খাতায় এই উড়ন্ত ব্যাপার স্যাপার আঁকে তাহলে হুল ফোটার আশংকা না থাকলেও ব্যাথা বেদনার খোঁচা খাবার সম্ভাবনা ষোলো আনাই আছে ভাবতেই হবে !

উপসংহার : ডুডুল আঁকা আর এর ব্যাখ্যা কোনো রকেট সাইন্স নয় । এটা মানুষের ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ঠ্য বোঝার একটা পথ ।অনেক ফ্যাক্টর দিয়ে এটা প্রভাবিত হতে পারে । ডুডুলে ব্যবহার করা রঙও ডুডুলারের ব্যক্তিত্বের বৈশিষ্ঠ্য সম্পর্থে তথ্য দিতে পারে । নীচে দেওয়া হলো ডুডুল আর্টের রং ও তার সাথে ডুডুলারের ব্যক্তির বৈশিষ্ঠ্যর সম্ভাব্য সম্পর্কে I

লাল রং -চড়া অনুভূতি যেমন ভালোবাসা, রাগ, ঘৃণা
নীল -শান্তি, বিশ্বাস, শৃঙ্খলা, আনুগত্য ও আধ্যাত্বিকতা
গোলাপি - আদর, উষ্ণতা, সহানুভূতি
বেগুনি -অন্তদৃষ্টি, সততা,সন্মান ও কর্তৃত্ব
কমলা রং- গতি,শক্তি
ভায়োলেট -ইনটুইশন, প্রেরণা ও আধ্যাত্বিকতা
হলুদ -ভয় উত্তেজনা
বাদামি -বাস্তবযোগ্য ও নির্ভরযোগ্য
সবুজ- স্বাভাবিক পরিবর্তন, শিথিল আনন্দ, অসুন্তুষ্টি, উন্নতি (গ্রোথ)
কালো -তথ্য,শৃঙ্খলা, এবং কি গুরুত্বপূর্ণ ও কি নিরানন্দ
টর্কয়েজ (আকাশি)-অসম্পৃক্ততা, আত্ম নিয়ন্ত্রণ, গর্ব

অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিই ডুডুল আঁকতেন।আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ওবামা, ক্লিনটন, কেনেডি থেকে শুরু করে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের ডাকসাইটে সেনাপতি, মিত্রবাহিনীর প্রধান ও পরে আমেরিকান প্রেসিডেন্ট আইসেনহাওয়ারের মতো গুরুগম্ভীর মানুষও ডুডুল আঁকতেন। নীচে কয়েকটা বোনাস ডুডুল আর্ট দেওয়া হলো । চাইলে নিজেরাই মিলিতে নিতে পারবেন এই সব ডুডুলারদের সাথে তাদের ডুডুলের মিল অমিল I


-দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মিত্রবাহিনীর নেতা জেনারেল আইসেনহাওয়ারের দৃঢ়তা কি বোঝা যায় কঠিন চেহারার মানুষ,ব্যাটেল শিপ ডুডুল থেকে ?


-উচ্চাকাঙ্খী দুঃসাহসিক আশাবাদী টম স্যারের লেখক মার্ক টোয়েন কে কি চেনা যায় চাঁদ সূর্য তারা মেঘ এসব থেকে ?মনে হয় যায় তাই না ?


-লেখনীর মতোই খানিকটা সুররিয়ালিজমের ছায়া আছে না ফ্রান্জ কাফকার ডুডুলে ?


মূল সোর্স (এবং আরো অসংখ্য না বলা সোর্স রয়ে গেলো অগোচরে )


What Your Doodling Says About You
https://www.huffingtonpost.com.au/2015/10/15/what-do-my-doodles-mean_n_8309036.html

This is what your doodles really say about you
https://www.walesonline.co.uk/lifestyle/fun-stuff/what-your-doodles-really-say-13364980

What your doodles really say about you
https://www.dailymail.co.uk/femail/article-2036328/What-doodles-really-say-Arrows-ambition-flowers-family.html

The meaning of doodles: when a squiggle isn’t just a squiggle
https://99designs.com/blog/creative-inspiration/meaning-of-doodles/

What your work doodles really say about you
https://www.theguardian.com/careers/2016/sep/01/what-work-doodles-say-about-you-personality-career-ambitions

All the Presidents’ Doodles -A history in sketches
https://www.theatlantic.com/magazine/archive/2006/09/all-the-presidents-doodles/305115/

Idle Doodles by Famous Authors
http://flavorwire.com/147177/idle-doodles-by-famous-authors
সর্বশেষ এডিট : ০২ রা নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:২৩
৩৮টি মন্তব্য ৩৮টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

করোনার মাঝে ভয়ংকর প্রতিবাদে জ্বলছে আমেরিকার অনেক শহর

লিখেছেন চাঁদগাজী, ৩০ শে মে, ২০২০ সকাল ৯:৪১



*** হোয়াইট হাউজের ২০০ গজের মধ্যে পুলিশ ও প্রতিবাদকারীদের মাঝে ধাক্কাধাক্কি চলছে , মানুষ হোয়াইট হাউসে প্রবেশের চেষ্টা করছে, অনেকেই আহত হয়েছে; এখনো গ্রেফতার করা হচ্ছে না।... ...বাকিটুকু পড়ুন

যেভাবে হত্যা করা হয় প্রেসিডেন্ট জিয়াকে-

লিখেছেন গিয়াস উদ্দিন লিটন, ৩০ শে মে, ২০২০ বিকাল ৩:৫৪

১/



রাতের শেষ প্রহরে তিনটি সামরিক পিকআপ জিপ এসে দাঁড়ালো চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের গেটের সামনের রাস্তায়। একটি পিকআপ থেকে একজন লেফটেন্যান্ট কর্নেলের কাঁধে র রকেট লঞ্চার থেকে... ...বাকিটুকু পড়ুন

আজ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ২৯তম মৃত্যু বার্ষিকী

লিখেছেন রাজীব নুর, ৩০ শে মে, ২০২০ বিকাল ৫:৫৬



আমি জিয়াকে পছন্দ করি।
কারন উনি একজন সৎ লোক ছিলেন। ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে উনি কোনো দূর্নীতি করেন নি। কিন্তু অনেক ভুল কাজ করেছেন। রাজাকার গোলাম আযমকে দেশে ফিরিয়ে এনেছেন।... ...বাকিটুকু পড়ুন

অশিক্ষা, কুশিক্ষায় নিমজ্জিত, রাজনৈতিক জ্জানহীনরা সামরিক শাসনকে মিস করে।

লিখেছেন চাঁদগাজী, ৩০ শে মে, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪৮



১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধারা পরাজিত হলে, ২ কোটী বাংগালীর ঘরে জেনারেল ইয়াহিয়ার ছবি ঝুলতো সেদিন; কিছু বাংগালী আছে, মুরগীর মতো, চিলে বাচ্চা নিলে টের পায় না। নাকি আসলে মুসরগী টের... ...বাকিটুকু পড়ুন

পৃথিবী বিখ্যাত ব্যক্তিদের মা'য়েরা .............. এট্টুসখানি রম্য :D

লিখেছেন আহমেদ জী এস, ৩০ শে মে, ২০২০ রাত ৮:০৫



পৃথিবীর সব মা’য়েরাই একদম মা’য়ের মতো ।
সন্তান বিখ্যাত কি অবিখ্যাত, সে জিনিষ তার কাছে কোনও ব্যাপার নয়। তার কাছে সে কোলের শিশুটির মতোই এই টুকুন । যাকে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×