somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন বারাক ওবামা (লাইভব্লগ)

০৭ ই নভেম্বর, ২০১২ সকাল ৭:৩৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
মূল লাইভব্লগ (ইংরেজি)


ঢাকা প্রেসিডেন্সিয়াল ইলেকশন গালায় উৎসব!

ব্রেকিং: সিএনএন প্রজেকশন অনুযায়ী বারাক ওবামাই দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

ঢাকায় আমেরিকান অ্যাম্বাসির সৌজন্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইউনাইটেড স্টেটস প্রেসিডেন্সিয়াল ইলেকশন গালা ২০১২। এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাম্বাসেডর Dan Mozena সহ আমেরিকান অ্যামবাসির বিভিন্ন কর্মকর্তা উপস্থিত থাকবেন।

প্রেসিডেন্সিয়াল ইলেকশন উপলক্ষ্যে আয়োজিত ঢাকার এই অনুষ্ঠান থেকে সরাসরি লাইভ ব্লগিং করা হচ্ছে। তাই যে কোনো মূহুর্তে আপডেটের জন্য পোস্ট রিফ্রেশ করুন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আমাদের মাথা ঘামানোর কথা না। কিন্তু এ বিষয়ে একটি কথাই যথেষ্ট, 'নির্বাচন যুক্তরাষ্ট্রের, কিন্তু প্রভাব সারাবিশ্বের।

আরও আপডেটের জন্য ঢাকার আমেরিকান অ্যামবাসির ফেসবুক পেজে দেখতে পারেন।

লাইভ আপডেটঃ

অতিথিরা আসতে শুরু করেছেন।







মূল রুমে চলছে সিএনএন স্ক্রিনিং।



সংগ্রহে রাখার মতো কিছু জিনিস। এগুলোর মধ্যে রয়েছে সম্পূর্ণ বাংলায় লেখা যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার ইতিহাস সহ যুক্তরাষ্ট্র নিয়ে অনেক তথ্য।



৭.৫০ মিনিট - এসেছেন হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ



অনুষ্ঠানে এইমাত্র হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ এসে পৌঁছেছেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বললেন, যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র আছে। সেখানে ভোট অনুষ্ঠিত হয় সুষ্ঠুভাবে। তিনি মন্তব্য করেন, যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচনে যেই জিতুক, বাংলাদেশের রাজনীতিতে কোনো পরিবর্তন আসবে না।

বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, "আল্লাহই জানেন নির্বাচন হবে কি না।"

ব্যক্তিগতভাবে তিনি বারাক ওবামার সমর্থক বলেও জানান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।
--

নিউ ইয়র্কের এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং-এ আলোকসজ্জা করা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ওবামা জিতলে পুরো বিল্ডিং-এর রং হবে নীল; আর রমনি জিতলে হবে লাল। এবারই প্রথম এলইডি প্রযুক্তির লাইট ব্যবহার করে নির্বাচনী কাজে কাজে লাগানো হচ্ছে নিউ ইয়র্কের এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং।



- ভয়েস অফ আমেরিকা

৭.৫০ মিনিট - সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বললেন মার্কিন অ্যাম্বাসেডর




রমনি কিছুটা এগিয়ে থাকায় এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়েও লাল রং একটু বেশিই উঁচু।

---

৯.০০ মিনিট



বক্তব্য রাখলেন মার্কিন অ্যাম্বাসেডর ড্যান মোজেনা । তিনি প্রথমেই উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ দিয়েছেন। "যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানা প্রাকৃতিক দুর্যোগ নিয়ে আপনাদের সহানুভূতি আমার হৃদয় ছুঁয়ে গেছে।"

তিনি আরও বলেন, এটা কেবলই যুক্তরাষ্ট্রের একটি নির্বাচন নয়। বরং, আসল গণতন্ত্রের রূপ যেখানে প্রত্যেক নাগরিকের রয়েছে পছন্দ করার অধিকার ও পছন্দ অনুযায়ী ভোট দেয়ার অধিকার।



উপস্থিত সাংবাদিকবৃন্দের ক্যামেরা।

--

৯.২৪ মিনিট

এই মূহুর্তে এগিয়ে আছেন রিপাবলিকান প্রার্থী রমনি।



নির্বাচনী ঢঙে আছেন টার্মিনেটর খ্যাত হলিউড অভিনেতা আরনল্ড শোয়ার্জনেগার।



স্থানীয় ভোট!
প্রেসিডেন্সিয়াল গালায় উপস্থিত অ্যামবাসির কর্মকর্তা এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য এখানেই একটি ভোটের আয়োজন করা হয়। বুথে গিয়ে সবাই ব্যাপক উৎসাহের সঙ্গে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেন। এই ভোটের গণনা চলছে। কিছুক্ষণের মধ্যেই জানা যাবে বাংলাদেশে বসবাসরত আমেরিকানদের কাছে কে বেশি জনপ্রিয় - ওবামা নাকি রমনি।



বাংলাদেশে ওবামা জয়ী!
দূতাবাস আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিতদের দেয়া ভোটের ফলাফল অবশেষে ঘোষণা করেছেন রাষ্ট্রদূত ড্যান মোজেনা। তার ভাষ্যে, ইউনাইটেড স্টেটস অফ আমেরিকা ইন ঢাকা, বাংলাদেশে রিপাবলিকান ভোট পেয়েছে মাত্র ১৩টি। অন্যদিকে বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা পেয়েছেন ২৭০-এরও বেশি ভোট! এ থেকে বোঝা গেলো, দেশের আমেরিকানরা বারাক ওবামাকেই আরও ৪ বছর প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান।



সিএনএন-এর প্রজেকশনে বারাক ওবামা জয়ী
সিএনএন প্রজেকশন অনুযায়ী বারাক ওবামাই দ্বিতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।


ঢাকা প্রেসিডেন্সিয়াল ইলেকশন গালায় উৎসব!



সিএনএন প্রজেকশন অনুযায়ী নিউ ইয়র্কের এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং এখন সম্পূর্ণ নীল রঙে রঙীন।

সর্বশেষ এডিট : ০৮ ই নভেম্বর, ২০১২ রাত ১২:৫৬
৮৯টি মন্তব্য ৪টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ভ্রমর কুয়াসার রাত....

লিখেছেন আহমেদ জী এস, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:২৫


ভ্রমর কুয়াসার রাত...

পাকুড় বৃক্ষের ডাল বেয়ে নেমে আসা করুন গিরগিটির মতোন কী ভয়ঙ্কর এক একটা রাত অবলীলাক্রমে হেটে আসে কাছে । ভ্রমর কুয়াসার সে রাত তার... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমাদের জাফর স্যার আর এরশাদ কাকুর সাথে কোন পার্থক্য দেখছি না

লিখেছেন ব্লগ সার্চম্যান, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৩২


কতো বিনোদন যে স্যার আপনি দেখাইলেন । আরো কত যে দেখাইবেন । স্যার আপনি ইউনিভার্সিটি বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া পুলাপাইন গুলারে পিচ্ছি পোলা এরা কিছুই বুঝেনা বললেন । আমার কাছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

সোনালি ও অন্যান্য

লিখেছেন সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সকাল ১১:৪৭

দূরবীক্ষণ

একটা নিহত দিনের সবটুকু মায়া মাটির আধারে গেঁথে রেখে
ক্ষয়িষ্ণু স্মৃতির বুকে লুটিয়ে পড়ে দিশেহারা চোখ;
ক্ষুব্ধবাক পিঁপড়ের রাশি চঞ্চলতা ভুলে গিয়ে খুবলে খায়
দুর্বৃত্ত ঘাস। একজোড়া সংসপ্তক কাক আচানক ডানা ভেঙে
মাটিতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

গুলিস্থান না গোরোস্থান

লিখেছেন প্রামানিক, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৩৩


শহীদুল ইসলাম প্রামানিক

ওই বেটা কই যাস
যাবি নাকি রমনা
দশ টাকা ভাড়া দিমু
ভাড়া কিন্তু কম না?

অন্য কোথাও যামু না
সোজা যামু গুলিস্থান
পানিত নাইমা নাক ডুইবা
রিক্সা ধইরা দিছি টান।

ওই বেটা যাবি কেমনে
রিক্সাটাতো হইছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

বিয়ের আগে শারীরিক সম্পর্কের কারণে যে সব সমস্যায় পরতে হয়..?

লিখেছেন মুহাম্মদ রেজাউল হাসান, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:৫০

বিয়ে এমন একটি সামাজিক বন্ধন, যা সামাজিক ও ধর্মীয়ভাবে শারীরিক সম্পর্কের অনুমতি দেয়। পাশ্চাত্যের দেশগুলো লিভ টুগেদার প্রথাটি ব্যাপকভাবে প্রচলিত। আমাদের দেশে আজকাল এ প্রথার উদাহরণ দেখা দিলেও তা সামাজিকভাবে... ...বাকিটুকু পড়ুন

নজরবন্দি বাজিকর

লিখেছেন জেন রসি, ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৯



বিধাত্রীর নীলনকশায় নজরবন্দি বাজিকর
চাবুকের লাগামহীন যন্ত্রণা থেকে নিংড়ে
পাওয়া সুখের শেষ সমুদ্রঝড়ে খুন হবে
বলে জানু পেতে বসে আছে-আমরন!
মহাত্মা হৃদয় তবু বেওয়ারিশ লাশেই
অস্ত্রোপচার করে... ...বাকিটুকু পড়ুন