somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ব্যান্ডউইথ, সময় আর টাকা গাছে ধরে না - আসুন সবগুলোই বাঁচাই (অনলাইন ভিডিও ডাউনলোডের যুগান্তকারী পদ্ধতি) B-)

২৩ শে আগস্ট, ২০১৩ রাত ১১:৩৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



কতবার এমন হয়েছে? বলুনতো? ইউটিউবে হয়তো ৩০ মিনিটের একটা টিউটোরিয়াল দেখে ফেলেছেন অথবা হয়তো ২ ঘণ্টার কোন ম্যুভি। দেখার পরে এতোই ভালো লেগেছে যে ডাউনলোড/সেইভ করে রাখতে চান। আপনি আপনার ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোডের বিভিন্ন মেধা খাটিয়ে (Internet Download Manager, Video DownloadHelper জাতীয় এক্সটেনশন বা অন্য কোন থার্ড পার্টি সফটওয়্যার) হয়তো ভিডিওটা ডাউনলোডে দিলেন। কিন্তু আপনি কি করলেন বুঝলেন তো? একই ভিডিও আপনি ২ বার ডাউনলোড করলেন! প্রথমবার, যখন পুরো ভিডিওটা সরাসরি Stream হয়ে লোড হলো, তখন একবার। দ্বিতীয়বার, যখন অন্য কোন সফটওয়্যার দিয়ে ডাউনলোড দিলেন। সুতরাং, আসুন... অপচয়টা একটু হিসাব করি... ক্যালকুলেটরেরও দরকার নেই...

-> ৪০০ মেগাবাইটের ভিডিও -> ২ বার ডাউনলোড
-> ৪০০ মেগাবাইট × ২
= ৮০০ মেগাবাইট!!

একইভাবে, ১ গিগাবাইটের ভিডিওর ক্ষেত্রে -> ২ বার ডাউনলোড
-> ১ গিগাবাইট × ২
= ২ গিগাবাইট!!

আর কিছু বলার প্রয়োজন নেই। এবারে আসল কথায় আসি। যখন আমরা, ব্রাউজারে ভিডিও Stream করি (অনেকে বাফার হওয়ার বা লোড করাও বলেন) তখন পুরো ভিডিওটা একবার লোড হয়ে গেলে টানা পুরোটাই চলে। কোথাও আটকায় না, ভিডিও টেনে আগে বা পিছনে নিয়ে গেলেও যে কোন জায়গা থেকেই চলে। এর অর্থ হচ্ছে ভিডিওটা আপনার পিসিতেই কোথাও সেইভ হয়ে আছে। এই জায়গাটার নাম হচ্ছে Cache (ক্যাশ)।

কিন্তু ক্যাশেতো আর শুধু একটা-দু'টা ভিডিও থাকে না, ইনফ্যাক্ট শুধু ভিডিওই থাকে না - ব্রাউজিংয়ের সময় ছবি/অ্যানিমেশন যা যা দেখা যায় সবই সেইভ হয়। সাধারণ মানুষের সাধ্য নেই এই ক্যাশ এর জঙ্গল ঘেঁটে মাত্র দেখা কোন ভিডিও উদ্ধার করবে। দরকার কি? সফটওয়্যার আছে তো! ;) চমৎকার এই কারসাজিতে আপনাকে সাহায্য করবে VideoCacheView (ভিডিও ক্যাশ ভিউ) নামের ১০০ কিলোবাইটের অত্যন্ত ছোট্ট একটি সফটওয়্যার। আপনি চাইলে ইন্সটল করতে পারেন। কিন্তু এতোই ছোট সফটওয়্যার যে আমি ইন্সটলও করিনি।

ডাউনলোড লিংক:
# ইন্সটল করে চালাতে চাইলে: লিংক
# পোর্টেবল (৩২-বিট): [link|[http://www.nirsoft.net/utils/videocacheview.zip|লিংক]
# পোর্টেবল (৬৪-বিট): [link|[http://www.nirsoft.net/utils/videocacheview-x64.zip|লিংক]

ব্যবহারবিধি:
এবারে দেখি সফটওয়্যারটি কি করে চালাবো। অবশ্যই আপনার ডাউনলোড করার জন্য একটা ভিডিও লাগবে। অনলাইনে যে কোন ভিডিও বের করে প্লে দিন। আমি পোস্টে উদহরণের খাতিরে YouTube থেকে AR Rahman এর Coke Studio পারফর্ম করা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘চিত্ত যেথা ভয়শূন্য’ কবিতায় সুরারোপিত ‘Jagao Mera Des’ গানটি প্লে দিলাম: লিংক



আপনিও যে ভিডিওটি ডাউনলোড করবেন পছন্দের সেই ভিডিওটি ওপেন করে নিশ্চিন্তে মন ভরে দেখতে থাকুন। পুরো ভিডিওটা লোড হতে দিন।



**ভিডিও লোড শেষ হলে ব্রাউজারের উইন্ডো বা ট্যাব বন্ধ করবেন না!!**



এবারে চলুন আমাদের সফটওয়্যারে। খোলার পর প্রথমে দেখে একটু হিজিবিজি লাগতে পারে। বিশাল একটা তালিকা নজরে পড়বে।



এগুলো হচ্ছে আপনার কম্পিউটারের ক্যাশে জমা থাকা সব ভিডিও যা আপনি ‍Stream করে দেখেছেন। দেখার সুবিধার জন্য ম্যাক্সিমাইজ বাটন চেপে সফটওয়্যারটা ফুল স্ক্রিন করে নিন। Options এ গিয়ে File Size Unit MB (মেগাবাইট) করে দিন। এটা করা খুব জরুরী না, তবে আমাদের কাজ করতে একটু সুবিধা হবে।



এবার F5 চেপে বিশাল তালিকাটা Refresh করে নিন - যাতে ক্যাশে জমা থাকা সবগুলো ভিডিওর নাম তালিকায় চলে আসে। লক্ষ্য করুন সফটওয়্যারটির উইন্ডোর ওপরে Last Accessed Date, Last Modified Date এবং File Size নামে ৩টি কলাম আছে।



আমাদের মূলত কাজে লাগবে Last Accessed Date। এই কলামের Last Accessed Date কথাটার ওপর ক্লিক করুন। দেখবেন একটা ছোট তীর চিহ্ন আছে। এটায় এক বা দু'বার ক্লিক করলেই দেখবেন তীর চিহ্নটা নিচের দিকে মুখ করবে।



তীর চিহ্ন নিচের দিকে দিয়ে আপনি ক্যাশে জমা ভিডিওগুলোকে তারিখ অনুযায়ী সাজালেন। সবার শেষে দেখা ভিডিওগুলো এখন তালিকায় সবার ওপরে। আর তার আগে দেখাগুলো নিচে। বুদ্ধিমানরা এতাক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝে ফেলেছেন কেন এটা করলাম। খুশি হয়ে যান, কারণ আমাদের কঠিন কাজটুকু শেষ! :)

যেহেতু এখন লিস্টটা তারিখ অনুযায়ী সাজানো হয়েছে, এর মানে হচ্ছে - আমাদের একটু আগে দেখা ভিডিওটা তালিকার একদম ওপরেই দিকেই আছে। Browser এর নাম, তারিখ, সময় এবং File Size দেখে একটা আন্দাজ পাবেন ভিডিওটা কোনটা। তবুও সাবধানের মার নেই। আসুন পরীক্ষা করে দেখি। আমার তালিকার প্রথম ফাইলটি ৪১ মেগাবাইটের এবং ব্রাউজার দেখাচ্ছে গুগল ক্রোম। যেহেতু আমার ফাইলটা প্রায় ৭ মিনিটের তাই আমি মোটামুটি নিশ্চিত এটাই ওই ভিডিও।



তালিকার একদম প্রথম ভিডিওটায় রাইট ক্লিক করে Play Selected File সিলেক্ট করলাম।



ভিডিওটা আপনার কম্পিউটারের প্লেয়ারে ওপেন হবে। দেখলেই বুঝে যাবেন, এটাই আপনার আকাঙ্ক্ষিত ভিডিও কি-না! ;)

আমার ক্ষেত্রে প্রথম ভিডিওটাই কাজ করেছে! :D



আপনার ক্ষেত্রে প্রথমটা সবসময় না-ও মিলতে পারে। ওপরের দিকের বেশ কয়েকটা ট্রাই করা লাগতে পারে। তবে মিলবেই! :)
যদি ভিডিও মিলে গিয়ে থাকে তবে ভিডিওটার ওপর রাইট ক্লিক করে Copy Selected Files To অপশনে ক্লিক করুন।



এবারে ফোল্ডার নির্বাচন করে সেইভ করুন। আমি Desktop-এই দিলাম।



সচরাচর ক্যাশ থেকে কিছু সেইভ দিলে ফাইলের নামটা হিজিবিজি আসে। সেইভের পর চাইলে নাম পরিবর্তন করে নিতে পারেন।

ব্যস! এটুকুই ছিলো টিউটোরিয়াল! আমি ইচ্ছে করেই একটু বেশি ধাপে-ধাপে লিখলাম। যাতে সবাই ফলো করতে পারেন। আসলে পুরো প্রোসেসটা খুব বেশি হলে ২০-২৫ সেকেন্ডের। একবার করার পরে দেখবেন আপনার দৈনন্দিন নেট ব্যবহারে কি বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। :) :D

কারণ, এ পদ্ধতিতে -
১. আপনি একটা ভিডিও একবারই ডাউনলোড করছেন, অন্যদের মত দু’বার নয়। দেখার সময় ভিডিও ডাউনলোড হয়ে যাচ্ছে। ফলে: সময়, ব্যান্ডউইথ এবং নেটের টাকা - ৩টাই বাঁচবে।
২. Internet Explorer, Firefox, Chrome এবং Opera প্রায় প্রতিটি ব্রাউজারেই কাজ করে।
৩. শুধু YouTube না, প্রায় সব অনলাইন ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইটেই ইটি কাজ করে!

টিপস:
১. বলে রাখা ভালো - এটি শুধু ভিডিও নয়, অডিও ও ছবির ক্ষেত্রেও কাজ করে! Options ক্লিক করলেই দেখতে পারবেন। এখানে কিছু টিক চিহ্ন উঠিয়ে বা বসিয়ে চাইলে তালিকা আরো ছোট করে নিতে পারবেন:



২. এক্সপার্ট ইউজাররা চাইলে Options এর ভেতরে Advanced Options এ গিয়ে Show only files larger than ফিচারটি ব্যবহার করতে পারেন। এটা করলে তালিকায় শুধুমাত্র নির্দিষ্ট ফাইল সইজ বা তার চেয়ে বড় ভিডিওগুলোই দেখাবে।



এতে করে তালিকাটা হিজিবিজির বদলে আরেকটু পরিষ্কার দেখাবে। তবে মাথায় রাখবেন, এটা করলে খুব ছোট সাইজের ভিডিওগুলো মিস হয়ে যেতে পারে।

সতর্কতা:
# ভিডিও একবারে পুরোটা লোড হতে দিন! আপনি যদি দেখার সময় টেনে টেনে ফরওয়ার্ড করে দেখে থাকেন তবে ভিডিওটা ক্যাশে টুকরো টুকরো হয়ে সেইভ হবে! সেক্ষেত্রে পুরো ভিডিও ঠিকমত সেইভ করা যাবে না!
# আবারো বলছি ভিডিও লোড হওয়ার পর ব্রাউজারের উইন্ডো বা ট্যাবটা বন্ধ করে দেবেন না। দিলেও অনেক সময় ভিডিও পাওয়া যায়। তবে কি দরকার চান্স নেবার?
সর্বশেষ এডিট : ২৩ শে আগস্ট, ২০১৩ রাত ১১:৩৬
৮০টি মন্তব্য ৪৬টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

আমি কবিতা

লিখেছেন জাহিদ অনিক, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৫২


আমি কবিতা;
আমার ডান হাতে রয়েছে প্রেম বাম হাতে রয়েছে বিদ্রোহ !
পায়ে আছে হতাশার শিকল চোখে আছে অপূর্ণতার অগ্নি
উত্তাল খোলা চুলে বইছে অবাধ স্বাধীনতা !
ঠোঁটে রয়েছে কামনার... ...বাকিটুকু পড়ুন

"ডিপ ফ্রম দ্যা হার্ট: ওয়ান আমেরিকা আপীল কনসার্ট” -আর আমার যা চেয়েছি যা পাবোনা ভাবনা

লিখেছেন মলাসইলমুইনা, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ রাত ৩:৪৮



আজকে আমেরিকার প্রায় সব নিউজ আউটলেটের প্রথম পাতাতেই "ডিপ ফ্রম দ্যা হার্ট: ওয়ান আমেরিকা আপীল কনসার্ট” -এর উপরের ছবিটা জ্বল জ্বল করছে I প্রায় প্রত্যেকটা স্যাটেলাইট টিভির... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমার মতে ঐশীর মত মেয়েদের খারাপ হওয়ার জন্য তাদের অবিভাবক ও এই সমাজ দায়ী আপনার মত কি ?

লিখেছেন :):):)(:(:(:হাসু মামা, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:১০


এই সেই ঐশী যে কিনা মালিবাগে নিজ ফ্ল্যাটে পুলিশের পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার হ স্ত্রীকে হত্যা করেছিল ।আর সেই পুলিশ ও তার স্ত্রী ছিল ঐশীর নিজেরিই মাতা পিতা।... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমাদের সহব্লগার উনি, অথচ :(

লিখেছেন কাজী ফাতেমা ছবি, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:২৩

উনি আমাদের সহ ব্লগার শাহানাজ সুলতানা। আমি আগে জানতাম না উনি ব্লগার এবং উনার বই্ও বের হইছে। অথচ সেদিন আমার লেখা উনার লেখার মাঝখানে ঢুকিয়ে পোস্ট দিলেন। ফ্রেন্ড একজন সেখানে... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমি বাংলায় ডাকি প্রভু

লিখেছেন বিদ্রোহী ভৃগু, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৬

আমি বাংলায় ডাকি প্রভু
খূঁজি বাংলায় অবতার
বাংলাতে বুঝি মায়ের দরদ
বাংলায় মুক্তি আমার।

বাংলা আমার প্রেম বিরহ
বাংলাতে সূখ উন্মুখ
বাংলাতেই হাসি-কান্না আমার
বাংলায় স্বর্গ সূখ।

বাংলায় করি প্রার্থনা
করি বাংলায় উপবাস,
বাংলায় করি তীর্থ ভ্রমণ
বাংলায় যোগাভ্যাস।

বাংলায়... ...বাকিটুকু পড়ুন

×