somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

‘ভালোবাসা ব্যাংক’: ভালোবাসা জমানো হয় যেখানে।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ১:০৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

ভালোবাসার আরেক রূপ বিরহ। আর বিরহের কথা বললে চলে আসে উইলিয়াম শেক্সপিয়ারের অমর সৃষ্টি রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েটের কথা। রোমিও আর জুলিয়েট ছিল কাল্পনিক চরিত্র, কিন্তু স্লোভাকিয়ার কবি আন্দ্রেজ স্লাদকোভিচ আর তার প্রেমিকা মারিনা পিসচলোভা ছিলেন বাস্তবের চরিত্র। আর সেই দুজনের অমর প্রেমকে স্মরণ করতে এক স্লোভাক শহরে ভ্যালেন্টাইন ডেতে প্রেমিক-প্রেমিকারা ভিড় করছেন ‘লাভ ব্যাংক’-এ নিজেদের ভালোবাসা জমা রাখতে। খবর এএফপি।



মারিনার ধনী বাবা-মা হতদরিদ্র স্লাদকোভিচের বদলে তাকে এক ধনী জিঞ্জারব্রেড নির্মাতার সঙ্গে বিয়ে দেন। সেই বিরহে ১৮৪৪ সালে স্লাদকোভিচ ‘মারিনা’ নামে যে ২ হাজার ৯০০ ছত্রের কবিতা লিখেছিলেন সেটি আজো বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ প্রেমের কবিতা।

বানসাকা স্টিয়াভনিকা শহরের যে বাড়িতে মারিনা থাকতেন, সেটিকে এখন ডাকা হয় ‘ভালোবাসার কেন্দ্র’ বলে। এখানে নানা প্রদর্শনীর মধ্যে আছে ‘লাভ-ও-মিটার’ যা দিয়ে যুগলদের ভালোবাসা পরিমাপ করা হয়।

তবে বেশিরভাগ যুগলের কাছে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে ‘লাভ ব্যাংক’। বাড়িটির বেসমেন্টের লম্বা টানেলটিকে একটি ভল্টে পরিণত করা হয়েছে। সেই ভল্টে ১৭৪ বছরের পুরনো ‘মারিনা’-এর পাণ্ডুলিপিটির প্রতিটি বর্ণ, শূন্যস্থান এবং বিরামচিহ্নের জন্য ঠিক ১ লাখ ছোট ড্রয়ার রাখা আছে।



বছরে বিশেষ কয়েক দিন, যেমন ভ্যালেন্টাইন ডের, দিনে প্রেমিক-প্রেমিকারা এখানে তাদের ভালোবাসা ‘জমা’ রাখতে পারেন। যেমন ২৪ বছর বয়স্ক ডোমিনিকা হ্রাবুসোভা বলেন, আমি ও আমার বাগদত্তা দুয়েকদিনের মাঝে এখানে আসব এবং আমাদের প্রথম ডেটের দিন দেখা সিনেমার টিকেট এখানে লুকিয়ে রাখব।

৩৮ বছরের ইয়ান মনে করেন শহরটি একটি রত্নবাক্স আর প্রদর্শনীটি অন্য। সম্ভবত ইয়ানের মতোই মুগ্ধতা থেকেই ১৯৯৩ সালে শহরটিকে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

দেখুন ভিডিওতে:
view this link

বোনাস হিসেবে থাকল একটা ভালবাসার কবিতাঃ

ধূসর মরুর ঊষর বুকে
বিশাল যদি শহর গড়,
একটি জীবন সফল করা
তার চাইতে কঠিন বড়-
একটি উদাস হৃদয় যদি
বাঁধতে পারো প্রেমের ডোরে
বন্দি শতেক মুক্তি দানের
চাইতে জেনো শ্রেষ্ঠ!


Happy Valentine’s Day!

সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ 'বণিক বার্তা'য় প্রকাশিত এক নিবন্ধের আলোকে।
লেখার লিঙ্কঃ Click This Link
সর্বশেষ এডিট : ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ২:৫৫
৫টি মন্তব্য ৫টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

'শুভ জন্মদিন' বিদ্রোহী ভৃগু

লিখেছেন কি করি আজ ভেবে না পাই, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৭



কবিতার ধ্যানে হেথা
আছেন এক মশগুল;
উপমার রাজা তিনি
আমাদের নজরুল।

সামুর সে দুখুমিয়া
রচেন যা কাব্য;
দিশকুল যাই খুঁয়ে
যত তারে ভাববো।

সুগভীর বচনের
কাব্যের গাঁথুনি;
দাঁতভাঙ্গা উপমায়
হৃদে উঠে কাঁপুনি।

কবিদেরও কবি তুমি
এ ব্যপারে নো ডাউট;
গুরু মানে পাইকারি
রাজা-প্রজা,হক্ব-টাউট।

তোমার... ...বাকিটুকু পড়ুন

ভুলক্রমে ছাত্রী টয়লেটে অনুপ্রবেশ; বাকিটা ইতিহাসঃ একটি বিড়ম্বনায় পরিপূর্ণ দিবসের স্মৃতিচারণ

লিখেছেন রূপক বিধৌত সাধু, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:০৯

বহুকাল পূর্বেকার কথা। আমি তখন সবেমাত্র বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তি হইয়াছি। অতি নাদান এক পোলা। মুখ দিয়া দুধের গন্ধ আসে। দুনিয়ার হাবভাব তেমন কিছু বুঝি না। আপনাকে লুকাইয়া রাখি, আড়ালে-আবডালে থাকি।... ...বাকিটুকু পড়ুন

একটি সুখের অপমৃত্যু (মোটেই রম্য নহে)

লিখেছেন কি করি আজ ভেবে না পাই, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:৫৮



ইউনিভার্সিটি ফার্স্ট কি সেকেন্ড ইয়ারে পড়ি। তখন রেলের 'সুবর্ণ এক্সপ্রেস' সার্ভিস কেবল নয়া নয়া শুরু হয়েছে ঢাকা-চিটাগং রুটে। সৌদিয়া এস.আলম ছেড়ে আমি এবার নিপাট গুড বয়টি সেজে বাংলাদেশ... ...বাকিটুকু পড়ুন

বাংলা বানান সমস্যা সমাধানে একটি পূর্ণাঙ্গ পোস্ট !থাকছে অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রায় সকল গুরুত্বপূর্ণ লিংক এবং বেশ কিছু বইয়ের নাম ।

লিখেছেন রাকু হাসান, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:০৩

আমার মতো যাদের বাংলা বানানের সমস্যায় আছেন তাঁদের এই পোস্টটি খুব কার্যকরি হবে । থাকছে অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নানান লিংক । আপনি অনলাইনেও এই সব লেখা পড়তে পারেন... ...বাকিটুকু পড়ুন

নৈসর্গিক অপরুপ সৌন্দর্যে ভরা সুনামগঞ্জের প্রকৃতি

লিখেছেন সৈয়দ তাজুল ইসলাম, ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:১৯


সবাইকে জানাই শারদীয় দুর্গোৎসবের নির্মল শুভেচ্ছা। সুনামগঞ্জের সুনাম সকলেই জানেন =p~ , তারপরও খণ্ডাকারে আজ কিছুটা নিয়ে এলাম। ভারতের মেঘালয় পাহাড়ের কুল ঘেষা প্রাকৃতিক সম্পদ আর নৈসর্গিক অপরুপ দৃশ্যবলীতে পরিপূর্ণ... ...বাকিটুকু পড়ুন

×