somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আর মাত্র ৮ দিন : দেশজুড়ে ফুটবল ম্যানিয়া

০৪ ঠা জুন, ২০১৪ সকাল ৯:১৭
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


ঘরে বাইরে শুরু হয়েছে ফুটবল ম্যানিয়া। অফিস আদালত পাড়া মহল্লায় কিশোর ও যুবকদের মধ্যে এখনি শুরু হয়েছে সমর্থক গোষ্ঠী তৈরির কাজ।

প্রিয় দলের পতাকা তৈরি এবং আকাশে উড়িয়ে দেওয়ার ধুমও লেগেছে সবখানে। প্রিয় তারাকাদের পোস্টার ফেস্টুন আর স্টিকার লাগানো হচ্ছে যত্রতত্র। এমনকি তাদের হেয়ার স্টাইলেও নিজেদের সাজাচ্ছেন অনেকে।

ফুটবলের অর্থনৈতিক বাজারও গরম হয়ে উঠতে শুরু করেছে চলতি সপ্তাহ থেকে। বাজারে এসেছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, স্পেন, পুর্তগালসহ অনেক দেশের পতাকা খচিত জার্সি, ক্যাপ, হেড ব্যান্ড।


রাজধানীর পথে-ঘাটে ফেরি করে বিক্রি হচ্ছে পতাকা। প্রতি চার বছর অন্তর এমনই ক্ষুদ্র বাণিজ্যের সূচনা হয়। ব্যতিক্রম থাকছে না এবারও।

ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে বসছে এবারের বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর। সাত সমুদ্র তের নদী ছাপিয়ে সেই খেলার উচ্ছ্বাসের ঢেউ এসে পড়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ বাংলাদেশেও। উম্মাতাল করা এই খেলাটি যেন জরা প্রাণেও চাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনে। আনন্দ হুল্লোরে মেতে ওঠে শিশু কিশোর যুব যুবরা।

বাড়ী, ঘর, অফিস, আদালত এমনকি চায়ের দোকানের ওপরেও পতপত করে উড়তে শুরু করেছে অনেক দেশের পতাকা। ১২ জুন সাও পাউলোতে শুরু হচ্ছে ফুটবল যুদ্ধ। এই যুদ্ধে বাংলাদেশের আপমর জনতা মূলত ভাগ হয়ে যাবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা শিবিরে। ঘরে ঘরে চলবে এই সমর্থন যুদ্ধ।
এলাকা মহল্লায় কার আগে কে কত বড় পতাকা উত্তোলন করতে পারে, কাদের সমর্থক বেশি তা নিয়ে চায়ের টেবিলে ঝড় উঠেছে। বসে নেই ক্ষুদ্র আর্থিক মানের জুয়াড়িরাও। প্রিয় দলের জন্য এক লিটার কোক থেকে শুরু করে ৫০০ টাকা পর্যন্ত উঠে যাবে তাদের বাজির দর।



স্কুল ,কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একটি বড় অংশ ইতিমধ্যে বাক যুদ্ধ শুরু করেছে ফেসবুকে। প্রিয় দলের সমর্থন আদায়ে প্রিয় তারকার দুর্দান্ত খেলার মুহুর্তের ছবি ট্যাগ এবং স্ট্যাটাস পোষ্ট করে কমেন্ট ও শেয়ার আদায় করার কৌশল নিয়েছে তারা।


প্রিয় দলের জন্য জীবন বাজিও রেখেছেন অনেকে। রোববার আদাবরে সোহাগ নামে এক আর্জেন্টিনা সমর্থক প্রিয় দলের পতাকা টানাতে গিয়ে বিদ্যুতিক শকে মারা গেছেন। আনন্দ বেদনার দুর্বার মহাকর্ষণে মাতোয়ারা সবাই।


শুধু সমর্থক গোষ্ঠিই নয়, রীতিমতো বাজার দখলে নেমেছে ইলেক্ট্রিক কোম্পানিগুলো। কে কত ছাড় দিয়ে ক্রেতা টানতে পারে তাদের টিভি আর ডিশ এন্টিনা বিক্রিতে। তারই প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে বিশ্বব্যাপী। সেই প্রতিযোগিতা আছে বাংলাদেশেও। তাও দারুণ দারুণ সব অফার নিয়ে।

তবে সব থেকে এগিয়ে আছে প্রিন্ট এবং ইলেক্ট্রিক মিডিয়া। যাদের কল্যাণে বিশ্বকাপের সব খবর প্রতিমূহুর্তে পাবে প্রিয় দলের সমর্থকরা। বিশেষ ক্রোড়পত্র, বিশেষ ফিচার, বিশেষ খবর, রিপ্লে এমনকি এসএমএসের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, খবরের কাগজ, টেলিভিশন চ্যানেল এবং অনলাইন পত্রিকাগুলোতে।

এতো আয়োজন এতো মহোৎসব যে ফুটবলকে ঘিরে এই বাংলাদেশে , সেই বাংলাদেশের ফুটবল চিত্রটা কিন্তু পুরো উল্টো।



হেমায়েতপুর টু ব্রাজিল ...... ! ! !


রাজধানী ঢাকার পাশেই হেমায়েতপুর। সেখান থেকে সিঙ্গাইর রোড ধরে এগোলেই এজেআই গ্রুপ। বিশাল কারখানা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে এ প্রতিষ্ঠান। এর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুপালি পর্দার আলোচিত নায়ক এম এ জলিল অনন্ত। তাঁর বিশাল কারখানায় তৈরি পোশাকের অন্যতম ক্রেতা মার্কিন প্রতিষ্ঠান ইউএস পোলো অ্যাসোসিয়েশন। এ বছরের শুরুর দিকে ওই প্রতিষ্ঠান এজেআই গ্রুপকে পাঁচ লাখের বেশি পোশাকের অর্ডার দেয়। সবই বিশ্বকাপের জার্সি। এর মধ্যে মেয়েদের জার্সির অর্ডার দিয়েছে প্রায় দেড় লাখ পিস, ছেলেদের সাড়ে তিন লাখের বেশি। ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা তো আছেই; মেক্সিকো, ইংল্যান্ড, ইতালি ও চীনের জার্সিও তৈরি করা হয়েছে এখানে। এরই মধ্যে সেই জার্সি চলে গেছে ইউএস পোলো অ্যাসোসিয়েশনের কাছে। সেখান থেকে যাচ্ছে সোজা ফুটবল-ভক্তদের হাতে। বলাবাহুল্য, এবারের বিশ্ব ফুটবল আসরের প্রাণকেন্দ্র ব্রাজিলেই গেছে বেশির ভাগ অংশ। তবে এজেআই গ্রুপের কারখানা ঘুরে দেখা গেল আরও কিছু জার্সির কাজ এখনো বাকি। কর্মীরা দ্রুত সেগুলোর কাজ করছেন। দু-এক দিনের মধ্যেই এই জার্সিগুলো জাহাজে চাপবে। পাড়ি দেবে তেরো নদী সাত সমুদ্র।

2014 FIFA World Cup Brazil

সর্বশেষ এডিট : ০৪ ঠা জুন, ২০১৪ সকাল ৯:২০
৩টি মন্তব্য ৩টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

বিমান দূর্ঘটনার আদ্যোপান্ত

লিখেছেন ওয়াসীম সোবাহান চৌধুরী, ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:০৪

বেশীরভাগ বিমান দূর্ঘটনা ঘটে বিমান উড্ডয়নের প্রথম ৩ মিনিটের মধ্যে অথবা ল্যান্ডিং করার আগের শেষ ৮ মিনিটে। এই ১১ মিনিটই যাত্রীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। আর প্রকৃতপক্ষে বিমান মাটিতে আছড়ে পরার সময়... ...বাকিটুকু পড়ুন

সায়েন্স ফিকশনের আড়ালে জাফর ইকবালের নাস্তিক্যবাদের প্রচারনা- যার ফলাফল বিজ্ঞানমনা, ইসলামবিরোধী শাহবাগি প্রজন্ম

লিখেছেন ডা: এনামুল হক মনি, ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:২৮





ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। বাংলাদেশের সর্বাধিক আলোচিত, সায়েন্স ফিকশন লেখক।একজন নিখাদ, চতুর সেক্যুলারপন্থী। তার লেখা "ঈশ্বর" নামকগল্পটিতে সৃষ্টিকর্তার প্রতি অবিশ্বাস ও নাস্তিকতার স্বরুপ পুরোপুরি উন্মোচিত হয়েছে। আপনাদের জন্য... ...বাকিটুকু পড়ুন

কাফনের কাপড় পড়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সামনে মেডিকেল ও ডেন্টাল শিক্ষার্থীরা

লিখেছেন মোঃ শামীম আহমেদ (অনিক), ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:০৪


গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ের সামনে কাফনের কাপড় পড়ে মানব বন্ধনের চেষ্টা করে ২০১৩/১৪ ও ২০১৪/১৫ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের রেজিষ্ট্রেশন... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্মৃতিচারণ (ফেলে আসা সেই দিনগুলো) #ছবিব্লগ

লিখেছেন রহস্যময়ী তনয়া, ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৪৪

গত বিশবছরে মনে হয় পৃথিবীটা একটু বেশিই বদলে গেছে। তথ্য-প্রযুক্তির উন্নয়ন খুব বেশি দ্রুত হচ্ছে। স্বীকার করতে দ্বিধা নেই যে এতে আমাদের জীবন অনেক সহজ-সাবলীল হয়েছে, কিন্তু সেই ফেলে আসা... ...বাকিটুকু পড়ুন

তাজা ট্যাংরা

লিখেছেন প্রামানিক, ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:০৭


শহীদুল ইসলাম প্রামানিক

সকাল বেলা রমনা পার্কে হাঁটতে যাওয়ার পথে সেগুন বাগিচার রাস্তার পাশে দেখি এক লোক কিছু গোলসা মাছ নিয়ে বসে আছে। মাছগুলি তাজা। সবগুলো মাছ লাফালাফি করছে। এমন... ...বাকিটুকু পড়ুন

যুদ্ধবাজ যুক্তরাষ্ট্রঃ শান্তির নামে অশান্তির দূত (পর্ব-১)

লিখেছেন মারুফ তারেক, ০৪ ঠা সেপ্টেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:১০


যুক্তরাষ্ট্র শান্তি প্রতিষ্ঠার নামে সমগ্র পৃথিবীতে যুদ্ধের আগুন সৃষ্টি করেছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় ১৪৮ টি যুদ্ধের মধ্যে ১৪১ টি যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পৃক্ততা রয়েছে।শত হলেও... ...বাকিটুকু পড়ুন