somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

হাসান
Jinnatul Hasan Blog | জিন্নাত উল হাসান ব্লগ

নতুন ব্লগাররা ওয়েবসাইটের দিকে নজর দিন ~ পাঠককে ওয়েবসাইটকে ধরে রাখুন

৩০ শে জুলাই, ২০০৯ রাত ২:৫৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

পোষ্টটির সূত্র: নতুন ব্লগাররা ওয়েবসাইটের দিকে নজর দিন ~ পাঠককে ওয়েবসাইটকে ধরে রাখুন

ব্লগ আর ওয়েবসাইট – যেটাই শুরু করেন না কেন, প্রথমদিন থেকে ক্ষেত্রবিশেষে পরবর্তী ৩/৪ মাস ওয়েবসাইটের জন্য অগ্নিপরীক্ষার সময়। এসময়ের মধ্যেই প্রায় ২৫ থেকে ৩০ ভাগ নতুন ওয়েবসাইট বন্ধ হয়ে যায়। ওয়েবসাইটের মালিকগণ হয় পরিকল্পনা ছাড়াই ওয়েবসাইট শুরু করে ভুল বুঝতে পারেন কিংবা মহাপরিকল্পনা করেও লাভ হয় না। য়থেষ্ট ভিজিটর পান না কিংবা ভিজিটরদের ধরে রাখতে পারেন না। এর জলজ্যান্ত প্রমান পাবেন আমার ফোরামে , ওখানে অনেকেই অনেক উদ্যোমের সাথে ফোরামে অংশগ্রহন শুরু করে কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই তাদের আর খুঁজে পাওয়া যায় না।

ওয়েবসাইটের অপটিমাইজেশন নিয়ে অনেকবারই অনেক কথা বলেছি , ওয়েবসাইটের ভিজিটর পেতে অপটিমাইজেশনের বিকল্প নেই। আর আজকে ওয়েবসাইটের গঠন এবং এর উপাদান নিয়ে কিছু কথা বলব। ওয়েবসাইটের ডিজাইন পাঠককে ওয়েবসাইটে ধরে রাখার অন্যতম প্রধান হাতিয়ার। কোনো ওয়েবসাইটে প্রবেশের ৩ সেকেন্ডের মধ্যে পাঠক ওই ওয়েবসাইটে থাকা কিংবা না থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয়। এই ক্ষুদ্র সময়ের মধ্যে ডিজাইন ছাড়া পাঠকের চোখে আর কিছুই পড়ার কথা নয়।



১. প্রথমত ওয়েবসাইটের background এ কোনো ছবি ব্যবহার করবেন না, নিতান্তই ব্যবহার করতে হলে খুবই হালকা রংয়ের ব্যবহার করুন। কখনই কালো কিংবা গাঢ় background এ সাদা ফন্ট ব্যবহার করবেন না।
২. অনেকে চোখের শান্তির জন্য ফন্টের রং কালোর (#000000) এর পরির্বতে গাঢ় ধূসর (#333333) ব্যবহার করে থাকেন।
৩. সুন্দর একটা ব্যানার ব্যবহার করুন। নিজে ডিজাইন না করতে পারলে বন্ধুদের সাহায্য নিন। ব্যানারে ওয়েবসাইটের নামের সাথে সাথে ওয়েবসাইটের সাবটাইটেলও ব্যবহার করুন।
৪. Wordpress.com এর ফ্রি ব্লগে ডিজাইনে কোনো পরিবর্তন করা যায় না, তবে blogger.com এর ব্লগের ডিজাইন পরিবর্তন করা যায়। এজন্য পারলে blogger.com এর ব্লগের বোরিং ডিজাইন পরিবর্তন করে ফেলুন। এখানে ব্লগারের জন্য কিছু সুন্দর ম্যাগাজিন স্ট্যাইল ডিজাইন আছে।এছাড়াও গুগলে সার্চ দিয়েও হাজার হাজার ব্লগারের জন্য টেমপ্লেট পাওয়া সম্ভব। আর নিজের সার্ভারে ওর্য়াডপ্রেস কিংবা জুমলা ব্যবহার করলে তো কোনো কথাই নেই – হাজার হাজার টেমপ্লেট পাওয়া যায়।
৫. ওয়েবসাইটে যতসম্ভব কম রং ব্যবহার করুন। এবং রংগুলো যেন একে অপরের সাথে ম্যাচ করে।
৬. প্রতিটি ক্যাটাগরি, সাবক্যাটাগরি, লেবেল ইত্যাদি পরিস্কারভাবে নির্বাচন করুন।
৭. প্রতিটি পোষ্ট সম্ভবমতো প্যারা করে, পয়েন্ট আকারে, হেডিং ব্যবহার করে লিখুন। এক নাগাড়ে লিখবেন না – তাতে পড়তে যেমন অসুবিধা তেমনি যারা দ্রুততার সাথে পড়তে চায় তারা স্ক্যান করতে পারে না।
৮. অনেকেই নানা ধরনের এনিমেশন ব্যবহার করেন, ওয়েবসাইটের সাথে সর্ম্পকিত না হলে ওগুলোর কোনো প্রয়োজন নেই।
৯. অহেতুক হোমপেজে সংবাদপত্র, বিনোদনের ওয়েবসাইটের লিংক দেবার দরকার নেই। যতদূর পারেন পাঠককে নিজের ওয়েবসাইটেই আটকে রাখুন।
পাঠককে ওয়েব ট্রাফিকের তথ্য দেবার দরকার নেই। এতে পাঠক সংখ্যা কম হলে পাঠকের মনে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হতে পারে।
১০. কার্সরে এনিমেশন, বিভিন্ন widgets, অহেতুক background এ গান ব্যবহারের দরকার নেই। এগুলো কেবল ওয়েবসাইটকে ধীরগতিরই করে না বরং বিরক্তির উদ্রেকও করে।
১১. ভদ্রতার সাথে প্রতিটি মন্তব্যের উত্তর দিন। এমনকি ইমেইল করেও মন্তব্যের উত্তর দিতে পারেন।
১২. পাঠককে RSS Feed কিংবা ইমেইল নিউজলেটার সাবস্ক্রাইবে উৎসাহিত করুন। এমনকি বুকমার্কেও উৎসাহিত করতে পারেন।
১৩. যত্রতত্র বিজ্ঞাপন ব্যবহার থেকে দূরে থাকুন। এ বিষয়ে পরর্বতীতে বিস্তারিত লিখতে চেষ্টা করব।
১৪. নিয়মিত নির্দিষ্ট বিষয়ে ব্লগ পোষ্ট করুন, কপি-পেস্ট করা থেকে দূরে থাকুন।
১৫. প্রথম পাতায় অনেকগুলো পোষ্ট প্রকাশিত করা থেকে বিরত থাকুন। ৪/৫টির বেশি পোষ্ট একসাথে দেখানোর প্রয়োজন নাই।
১৬. আবার পোষ্ট বড় হলে পুরো পোষ্টও দেখানোর দরকার নেই। এতে করে স্ক্রলিং বেড়ে যায়।
১৭. ইংরেজিতে ব্লগ বানালে, বাংলিশ শব্দ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

আপাতত এই পয়েন্টগুলো মনে পড়ছে। তাই একটানে লিখে ফেললাম। পয়েন্টগুলো পড়তে থাকুন, নতুন আরও কিছু টিপস নিয়ে আবার হাজির হব।
৬টি মন্তব্য ১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

৭টি অসাধারন বইয়ের কালেকশন, যার ইচ্ছা ডাউনলোড করে পড়ে নেবেন

লিখেছেন আটলান্টিকের প্রবাল, ২৫ শে মে, ২০১৫ রাত ৮:৩০

ইংল্যান্ডে এমবিএ পাশ করে ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে ঢাকায় রিকশা চালান বাদশা ভাই :(

লিখেছেন জিয়া উদ্দিন আহমেদ, ২৫ শে মে, ২০১৫ রাত ৯:০০

কোনো এক সময়কার ঘরোয়া ক্রিকেটার মো. বাদশা। খেলতেন রাজশাহী ও পাবনার হয়ে। এক সময় স্টুডেন্ট ভিসায় চলে যান লন্ডন। সেখান থেকে এমবিএ করেন। ভালো টাকা-পয়সা হয় তার। কিন্তু তার স্ত্রী... ...বাকিটুকু পড়ুন

ধোঁয়া বাবা

লিখেছেন হাসান মাহমুদ ডিজি, ২৫ শে মে, ২০১৫ রাত ১১:১৬

ধোঁয়া বাবা ধোঁয়া বাবা !
অন্তর খানি জুড়াই দিবা
ভুলে যাব তাহার কষ্ট
জীবন হবে নষ্ট-ভ্রষ্ট- হায়রে ভুলে যাব তাহার কষ্ট.. জীবন হবে নষ্ট-ভ্রষ্ট
তবু কেন মনের মাঝে উঁকি দেয় তাহার ওষ্ঠ... (২)

ধোঁয়া বাবা... ...বাকিটুকু পড়ুন

অজানা সেই মেয়ের অজানা জেদ আর কঠোর পরিশ্রমের গল্প [Never Underestimate Anybody: জীবন থেকে নেয়া একগুচ্ছ প্রেরণার গল্প - ০৭]

লিখেছেন বোকা মানুষ বলতে চায়, ২৬ শে মে, ২০১৫ রাত ১২:০৩


ইদানীং যে সকল ঘটনা ঘটছে তার প্রেক্ষিতে প্রায় ভুলে যাওয়া এই মেয়েটার কথা মনে পড়ে গেল হঠাৎ করে। আমি ব্যক্তিগতভাবে মেয়েটাকে চিনি না, কিন্তু আমার এক পরিচিতজনের সহপাঠী ছিল... ...বাকিটুকু পড়ুন

পবিত্র কোরানের অলোকে বিজ্ঞান। (পর্ব:৫) সমুদ্র বিজ্ঞানের এযুগের আবিষ্কার,সমুদ্রের পানির মাঝখানে অদৃশ্য দেয়ালের অস্তিত্ব! চলুন দেখি পবিত্র কোরান ১৪০০বছর আগে এই ব্যাপারে কি বলেছিল।

লিখেছেন নৈশ শিকারী, ২৬ শে মে, ২০১৫ রাত ১২:২৩

কুরআন কারিম
সর্বকালের সর্ব
যুগের মানুষের জন্য
এক আলোকবর্তিকা
ও বৈজ্ঞানিক
সাংকেতিক
সংক্ষিপ্ত বার্তা।
পৃধিবীর মাঝে
একমাত্র আল-
কোরআন ও তার
নিয়মাবলী মানুষকে
শান্তির ধারায়
আনয়ন করতে পারে।
কুরআনের এ telegraphic
message নাস্তিকতা ও
বহুঈশ্বরবাদ হতে
মানুষকে হটিয়ে এক
আল্লাহর দিকে
আহবান করে। আসুন
দেখি কি scientific
message লুকিয়ে আছে
কুরআনের... ...বাকিটুকু পড়ুন

গল্প - শাহরুখ খান

লিখেছেন মাহমুদ০০৭, ২৬ শে মে, ২০১৫ রাত ১:৪০

উৎসর্গ - (ছোটবেলার বন্ধুদের, যারা হারিয়ে গেছে।এবং ব্লগিং করতে এসে একজন পজিটিভ হাসিমাখা মুখের মানুষটি - মাইনুদ্দিন মইনুল ভাই।)


সময়ের দূরত্বে সাধারণ কথাই রুপকথা হয়ে যায়... ...বাকিটুকু পড়ুন