somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

অভ্র বিজয় লেআউট ব্যবহার করেছে এই মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে একটি পোস্ট

১৯ শে এপ্রিল, ২০১০ রাত ১০:২৪
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

অভ্র নিয়ে মোস্তফা জব্বার কথা বলেছে জন্যে আল্টিমেটলি অনেক ভাল হয়েছে। এখন মানুষজন বিজয় নামক ভয়াবহ সফটওয়ারটি’র সম্পর্কে জানতে পারবে ও সেটি থেকে দূরে থাকবে।এবং একইসাথে জানতে পারবে ইন্টারনেটে বাংলা প্রসারের পিছনে কোন সফটওয়ারটির অবদান সবচেয়ে বেশী।

আমি টেকি/নন-টেকি সবাইকে বিষয়টি সম্পর্কে জানানোর জন্যে এটি নিয়ে লিখছি। প্রথমে লিখেছি সচলায়তনে কারণ অভ্রের মেহেদী ভাইয়া ওখানকার একজন লেখক+পাঠক। আপনারাও পড়তে পারেন লিখাটা:
অভ্রকে পাইরেটেড বলার কারণ বিশ্লেষণ ও একটি দাবী

এখন এখানে আমি ওখানকারই আমার করা একটা কমেন্ট ব্যাখ্যা করব। মোস্তফা জব্বার প্রশ্ন তুলেছেন “যেহেতু অভ্রতে বিজয় লেআউট ইনক্লুড করা হয়েছে” সুতরাং এটি কপিরাইট অ্যাক্ট ভেঙ্গেছে।

তাহলে আমাদের প্রশ্ন হল:
■ কিবোর্ড লেআউট পেটেন্ট করা যেতে পারে ????
■ কতগুলি পেটেন্ট হতে পারে ??
■ কিসের বেসিসে পেটেন্ট হতে পারে ???
■ ব্যাকগ্রাউন্ড সাপোর্ট কতটুকুন প্রয়োজন একটি পেটেন্ট পেতে গেলে ??
■ এখন পর্যন্ত কতগুলি পেটেন্ট করা হয়েছে ???

উত্তরগুলি হল:
■ হ্যা, করা যেতে পারে
■ যতগুলি কম্বিনেশন সম্ভব প্রতিটার পেটেন্ট সম্ভব যদি না সেই লেআউটটি পাবলিক ডোমেইনের জিনিস হয়ে থাকে। পাবলিক ডোমেইন অর্থ যেটি এত বেশী বহুল প্রচলিত যে সরকার কর্তৃক সেটিকে সবার জন্যে উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে, কেউই সেটার মালিক নয়। উদাহরণ: ইংরেজী কিবোর্ডের লেআউট (QWERTY লেআউট যাকে বলে)
■ পেটেন্টের কোন বেসিস নাই, যেইভাবে খুশী করা যেতে পারে যদি পেটেন্ট অথরিটিকে “সন্তুষ্ট” করা যেতে পারে
■ ব্যাকগ্রাউন্ড সাপোর্টে ম্যাথমেটিক্যালি ও স্ট্যাটিসটিক্যালি প্রুফ দেখালে ভাল তবে সেটি ম্যান্ডেটরী নয়
■ অনেক। এবং চলছেই।

তাহলে কি অভ্রতে ব্যবহৃত ইউনিজয় লেআউটটি কি বিজয় লেআউটের পেটেন্ট ভেঙ্গেছে ?? দেখা যাক:

ইউনিজয় ও বিজয়ে সাদৃশ্য থাকলেও এখানে অন্ততঃপক্ষে একটি কি পজিশনে ভ্যারিয়েশন রয়েছে। ফলে এরা সম্পূর্ণ আলাদা কিবোর্ড।
সহজ করে বলি, ১২১ এবং ১O১ কি একি লাগছে আপনার কাছে ??? সংখ্যা দু’টি অলমোস্ট একই যদি আমরা শুণ্যটাকে বাদ দেই। কিন্তু আপনারাই বলুন, এই দুটি সংখ্যা কি এক ??? লেআউটও সংখ্যার মতই একটা ব্যাপার তাই একটা জিনিস আলাদা তো পুরাই আলাদা।
বিজয়ের পেটেন্ট শুধুমাত্র একটি ফিক্সড লেআউটের জন্যে।এবং পেটেন্টটি আলাদা আলাদা করে অক্ষরের অবস্থান সম্পর্কে বলবে না। সম্মিলিতভাবে কি সেটাই হল ফ্যাক্টর এখানে।
আমি ওদের পেটেন্টের ডিটেইলস না দেখে আর কিছু বলতে পারবো না তবে এটুকুন বলতে পারি ওখানে g বাটনে হসন্ত ছাড়া আর কোন লেআউটে ব্যবহৃত হতে পারবে না এই ব্যাপারটি নেই। যদি থাকে তাহলে ওই পেটেন্টকে ইনভ্যালিড ধরতে হবে কারণ ম্যাথমেটিক্যাল ও স্ট্যাটিসটিক্যালি প্রুভড যে বাংলায় যুক্তাক্ষরের সংখ্যা যেহেতু খুব বেশী এবং যুক্তাক্ষর টাইপ করতে হয় হসন্ত চেপে (অভ্র ব্যবহারকারীরা এটা টের পান না কারণ অভ্র ব্যাকগ্রাউন্ডে এটা করে দেয়, ফোনেটিক অথবা রোকেয়া ইউজাররা এটা টের জানেন) সুতরাং হসন্তকে f এর জায়গায় দেয়াই সবচেয়ে যুক্তিসংগত যাতে টাইপিং স্পিড+কি স্ট্রোক উভয়ই কম লাগে।

ফলে আমরা দেখতে পারছি অভ্র ইউনিজয় নামের নতুন একটি লেআউট ওদের সফটওয়ারে ব্যবহার করেছে, মোটেও বিজয় লেআউট ব্যবহার করেনি।
এছাড়া কোন বর্ণে কি হবে এটার কোন পেটেন্ট হতে পারেনা সুতরাং জব্বার কাগু’র কোন দাবীই টিকে না।

জব্বার কাগু’র মিথ্যাচার বন্ধ হোক, ****-টা নির্বাচন কমিশনকে নিজের সফট বেঁচতে পারেনাই দেখে পাগল হয়ে গেছে। জুতাপেটা করা দরকার ওটাকে।
২৮টি মন্তব্য ২৫টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ধর্ম দুষ্টলোকদের জন্য

লিখেছেন রাজীব নুর, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৫



সাপের খোলস আছে তেমনি দুষ্টলোকদের খোলস হলো ধর্ম। দুষ্টলোকরা ধর্মকে ব্যবহার করে সাধু সাঁজার জন্য। আমাদের সমাজে বেশির ভাগ লোক হলো দুষ্ট। এইসব দুষ্টলোক আবার বিরাট ধার্মিক। আমি বলতে চাই-... ...বাকিটুকু পড়ুন

আসুন, আগে জীবনদাতা মহান মালিককে চিনি-১

লিখেছেন নতুন নকিব, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৬


অপরূপ প্রকৃতি। মহান আল্লাহর নিপূন সৃষ্টিশৈলীতার পরিচয় বহন করে।

প্রাক কথন:
আলহামদুলিল্লাহি রব্বিল আলামীন। অসসালাতু অসসালামু আলা সাইয়্যিদিল আমবিয়ায়ি ওয়াল মুরছালীন। অআলা আ-লিহী অআসহাবিহী আজমায়ী'ন। আমাদের জীবনদাতা, সৃষ্টিকর্তা, রিযিকদাতা মহান... ...বাকিটুকু পড়ুন

কিছু পর্যবেক্ষণ এবং.......

লিখেছেন জেন রসি, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৫



শুরু

জঙ্গলে তিনটি হরিণ আছে। শিকারি আছে একশো জন। এদের মধ্যে জন্মান্ধ আছে। বিকলাঙ্গ আছে। অপুষ্টিতে ভোগা দুর্বল মানুষ আছে। তবে জঙ্গল সবার জন্য মুক্ত। অর্থাৎ যে... ...বাকিটুকু পড়ুন

অতি-প্রাকৃত গল্পঃ আগমন

লিখেছেন অপু তানভীর, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ৯:৪৩

কতটা সময় আমি ঘুমিয়ে ছিলাম আমি নিজেই বলতে পারবো না । হঠাৎ করেই আমার ঘুম ভেঙ্গে গেল । একটু যেন শীত শীত করছে । নভেম্বরের শুরুতে শীত পরে যাওয়ার কথা... ...বাকিটুকু পড়ুন

অন্ধদের মাঝেও ক্ষমতার দ্বন্দ্ব হয়...

লিখেছেন বিচার মানি তালগাছ আমার, ২৩ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ১০:৫০




১. আমাদের দেশের পারিবারিক রাজনীতির একটা ভালো দিক আছে। তা হলো, দলীয় প্রধান হওয়ার লোভ নেই কারো। যে কারণে নেতায় নেতায় খুব সখ্যতা। কারণ. অবধারিতভাবেই আওয়ামী লীগ... ...বাকিটুকু পড়ুন

×