somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

আগামি
জেনেছি দৈন্য ঘুঁচাও এবার দীনতা

আমরা টিপাইমুখ বাঁধের বিরুদ্ধে

১৫ ই মে, ২০০৯ বিকাল ৪:৪৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

ব্লগের শক্তি কতটুকু ? ক'জন পড়ে ব্লগ ? ব্লগের উদ্যোগে এ যাবৎকালে বড় কি সাফল্য এসেছে ? ব্লগ কর্তৃপক্ষ কি সাহসী ? তাদের কি দেশের প্রতি দরদ আছে ? তারা ভালবাসে দেশকে ? দেশের মাটিকে ? মানুষকে ?

এক ফারাক্কার ছোবলে বিকলাংগ জীবন বয়ে বেড়াচ্ছে ভাটি জনপদের মানুষগুলো । ধুঁকতে ধুঁকতে সবুজ বনানী এগিয়ে যাচ্ছে মরুময় অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে । আমাদের খাল-বিল-জীববৈচিত্র-নদীনালা উৎকণ্ঠিত মানবসৃষ্ট অশনিসংকেতে ।বাংলাদেশের প্রাকৃতিক ভারসাম্যের প্রতি সবচেয়ে বড় হুমকি ফারাক্কা । আমরা কোনদিন মেনে নিতে পারবনা ফারাক্কা ।

আমাদের ততোধিক বিকলাঙ্গ রাজনীতিকদের নিস্ক্রিয়তা আর দেশের প্রতি ভালবাসাহীনতা আমাদের পোড়ায় ভীষণ । আমরা বৃথা আস্ফালনে হাত-পা কামড়াই নিজেদের । আমাদের রক্ত যুদ্ধের ডাক দেয় । আমরা প্রাচীন মানুষের জীবনকে এখনকার চেয়ে ভাল মনে করি - যেখানে বেঁচে থাকা মানেই বীরের জীবন । আর এখানে কেবল নপুংশকেরাই বেঁচে থাকে । সকল অন্যায় অবিচারের সাথে আপোস করেই আমাদের পথ চলতে হয়, যে যত বেশী আপোসী সে তত ভব্য-সভ্য-আধুনিক !

চলমান বৈশ্বিক ও রাষ্ট্রিক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমরা দাঁড়াতে পারিনা । আমরা শক্তিমানের শক্তিকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারিনা ।আমরা ক্ষমতাবানদের ক্ষমতার দর্প ভেঙ্গে দিতে পারিনা ।আমরা পোস্ট মডার্ণ দাসত্বের জীবনে হেসে খেলে বেড়াই । আমরা সন্তুস্ট আমাদের দাসজীবনে ।

তবু কিছু ব্যতিক্রম থাকে । এদের কারণে এখনো টিকে আছে প্রতিবাদ, প্রতিরোধ, মনুষ্যত্ব । বিবেকের ঘুণ ধরা দরজায় আঘাত হানুক নয়া কালবৈশাখী 'টিপাইমুখ বাঁধ' ।
সহব্লগার ধীবর তুলে ধরেছেন এই বাঁধের অশুভ প্রভাবের কথা ।আরো জনাকয়েক ব্লগার এ প্রসংগে একটা আন্দোলন গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে পোস্ট দিয়েছেন । ধীবরের লেখাটা স্টিকি করা দাবী জানানো হয়েছে ।আমরা কর্তৃপক্ষের সাড়া পাইনি ।

ধীবর কিছু মতামত চেয়েছেন ব্লগের নবীন প্রবীণ সবার কাছে - কিভাবে ভারতের এই হীন প্রচেষ্টা রুখে দেয়ার জন্য আমরা কাজ করতে পারি ।আমার কিছু প্রস্তাব বিবেচনা করে দেখার অনুরোধ করছি-

১.নেটের মাধ্যমে সারা পৃথিবীতে ভারতের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তোলা । এখানে বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশীদের হত্যা করা, ফারাক্কার প্রভাব, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতের অনধিকার চর্চা সহ অন্যান্য আরো বিষয় স্থান পেতে পারে ।

২.বাংলাদেশের বাইরে অবস্থানরত সকল বাংলাদেশীসহ পৃথিবীর প্রতিটি প্রান্তে অবস্থিত মানবতাবাদী এবং পরিবেশবাদী সংগঠনগুলোকে এর সাথে সম্পৃক্ত করা ।

৩.পৃথিবীর সকল রাস্ট্র ভারতের বন্ধু নয় । সুতরাং ভারতের বন্ধু নয় এমন রাষ্ট্রগুলোর কাছে বাংলাদেশের যৌক্তিক দাবীগুলো এবং ভারতের অন্যায়গুলো তুলে ধরা । প্রয়োজনে এদেশে অবস্থিত সকল বিদেশী দুতাবাসসহ অন্যান্য সংস্থায় স্মারকলিপি প্রদানের ব্যবস্থা করা ।

৪."একশন কমিটি এগেইনস্ট টিপাইমুখ ড্যাম" এর সাথে যোগাযোগ করা এবং তাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করা ।

৫.যার যেখানে একসেস আছে প্রতিটি যায়গায় টিপাইমুখ বাঁধের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তোলা ।

৬.দেশের সরকারী বা বিরোধী সব দলের কাছেই এ ব্যাপারে স্পস্ট বক্তব্য চাওয়া এবং সব দলের পক্ষ থেকেই যেন ভারতীয় দুতাবাসে প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হয় এ ব্যাপারে আলাপ আলোচনা করা ।

৭.বিশেষ করে যুক্তরাস্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশীরা যেন এই ব্যাপারে উদ্যোগী ভূমিকা নেয় সে ব্যাপারে তাদের সাথে যোগাযোগ করা ।

আমি একজন নবীন । কিছু মতামত দিলাম ।অযৌক্তিক হলে গ্রহণের দরকার নেই । আমি চাই যৌক্তিক কিছু বেরিয়ে আসুক আমাদের লেখা থেকে । যেভাবে এগুলে ভারতকে এই চক্রান্ত থেকে রুখা যাবে সেভাবে যেন এগুতে পারি আমরা । আমি সবার মতামত আশা করছি । সেই সাথে সাথে টিপাইমুখ বাঁধ বিরোধী আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করছি ।
সর্বশেষ এডিট : ১৫ ই মে, ২০০৯ রাত ১১:২০
৪৭টি মন্তব্য ২১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

অতীব অবাক বৃক্ষ উর্ধ্বে রহে মূল

লিখেছেন দীপংকর চন্দ, ০৪ ঠা জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:২১



আরে-
শোনেন শোনেন জ্ঞানীজন শোনেন মন দিয়া,
কথার প্রারম্ভে ক্ষমা নিলাম চাহিয়া।
সামান্য কথা অতি, গুরুতর নয়;
ক্ষমিবেন অধমের ক্রটি সুনিশ্চয়॥

পরথমে গুরুজীর নামটি করিয়া স্মরণ,
অল্পে এক বৃক্ষকথা করিব বর্ণন।
সকলে প্রণাম দিয়া আদাব সালাম,
অধমের দীন... ...বাকিটুকু পড়ুন

হযরত আয়েশা (রাঃ)-এর বিয়ের বয়স নিয়ে নাস্তিকদের প্রপাগান্ডা! মহানবী কি শিশু বিয়ে করেছেন? তিনি কি তাহলে সর্বকালের আদর্শ হতে পারেননি?

লিখেছেন আনোয়ার আলী, ০৪ ঠা জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:৫৫

বলা বাহুল্য, মহানবীর সাথে আয়েশার বিয়ের বয়স নিয়ে নাস্তিকেরা তাদের লেখায় তুমুল ঝড় তুলেছেন এবং নানা কার্টুন ও কটুক্তি করে মুসলমানদের নানাভাবে অপমান করে আসছেন। বিদেশে তো বটেই, বাংলার ইন্টারপাশ... ...বাকিটুকু পড়ুন

ইসলাম এবং আল্লাহ সম্পর্কে 'গাফফার চৌধুরীর' ধৃষ্টতাপূর্ণ অবমাননাকর বক্তব্যের জবাব

লিখেছেন আলোকিত আধারে, ০৪ ঠা জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:৫৮


"সম্প্রতি কলামিস্ট আবদুল গাফফার চৌধুরী নিউইয়র্কে বসে ইসলাম সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেছে। তার ধৃষ্টতাপূর্ণ ছাগলামি মন্তব্যের জবাব নিম্নে দেয়া হলো---

:
গাফফার চৌধুরী বলেছে, "আল্লাহর ৯৯ গুণবাচক নাম কাফেরদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে চমৎকার পাঁচটি সাই-ফাই মুভি

লিখেছেন এহসান সাবির, ০৫ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ১:০১



আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে মুভির কথা বলতেই Steven Spielberg এর A.I. Artificial Intelligence মুভির কথা মনে পড়ে যায়, অথবা The Matrix ট্রিলজি, Stanley Kubrick এর 2001: A Space Odyssey কিংবা... ...বাকিটুকু পড়ুন

ধর্ষণে শীর্ষ স্থানাধিকারী ১০ টি দেশ, নেই কোন মুসলিম দেশ !!!

লিখেছেন নৈশ শিকারী, ০৫ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ১:১২


সারা বিশ্বে ক্রমেই বেড়ে চলেছে ধর্ষণ, নারী নিগ্রহের ঘটনা। নারীর সম্ভ্রম লুঠ করার প্রবণতা বাংলাদেশের মতো দেশেও হচ্ছে। তবে পশ্চিমা দেশগুলোতে ধর্ষনের সংখ্যা বেশি। ধর্ষণে শীর্ষ স্থানাধিকারী ১০টি দেশের... ...বাকিটুকু পড়ুন

ঘুরে এলাম Stonehenge

লিখেছেন ইচ্ছের ঘুড়ি, ০৫ ই জুলাই, ২০১৫ সকাল ৯:১১

পৃথিবীর যে কয়েকটি রহস্য অমীমাংসিত রয়েছে তার মধ্যে মনে হয় Stonehenge একটি। দেশি বিদেশী হাজার হাজার পর্যটক প্রতিবছর ছুটে আসে কেবল এই রহস্যটাকে নিজ চোখে দেখার জন্যে, গত বছরের এক... ...বাকিটুকু পড়ুন