somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

নিমগাছ---বনফুল

০১ লা মার্চ, ২০০৯ সকাল ১১:৪৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

কেউ ছালটা ছাড়িয়ে নিয়ে সিদ্ধ করছে।
পাতাগুলো ছিড়ে শিলে পিষছে কেউ।
কেউবা ভাজছে গরম তেলে।
খোস দাদ হাজা চুলকানিতে লাগাবে।
চর্মরোগের অব্যর্থ মহৌষধ।
কচি পাতাগুলো খায়ও অনেকে।
এমনি কাঁচাই...
কিংবা ভেজে বেগুন-সহযোগে।
যকৃতের পক্ষে ভারী উপকার।
কচি ডালগুলো ভেঙ্গে চিবায় কত লোক...দাঁত ভালো থাকে।
কবিরাজরা প্রশংসায় পঞ্চমুখ।
বাড়ির পাশে গজালে বিজ্ঞরা খুশি হ'ন
বলে--নিমের হাওয়া ভালো, থাক, কেটো না।
কাটে না, কিন্তু যত্নও করে না।
আবর্জনা জমে আসে চারদিকে।
শান দিয়ে বাঁধিয়ে দেয় কেউ...সে আর এক আবর্জনা।
হঠাৎ একদিন এক নূতন ধরণের লোক আসলো।
মুগ্ধ দৃষ্টিতে চেয়ে রইলো নিমগাছের দিকে। ছাল তুললে না, পাতা ছিড়লে না, ডাল ভাঙলে না, মুগ্ধ দৃষ্টিতে চেয়ে রইল শুধু।
বলে উঠলো,--বাঃ, কি সুন্দর পাতাগুলো ... কি রূপ!
থোকা থোকা ফুলেরই বা কি বাহার... এক ঝাঁক নক্ষত্র নেমে এসেছে যেন নীল আকাশ থেকে সবুজ সায়রে। বাঃ--
খানিকক্ষণ চেয়ে থেকে চলে গেল।
কবিরাজ নয়, কবি।
নিমগাছটার ইচ্ছে করতে লাগলো লোকটার সঙ্গে চলে যায়। কিন্তু পারলে না। মাটির ভিতর শিকড় অনেকদূর চলে গেছে। বাড়ির পিছনের আবর্জনাস্তূপের মধ্যে দাঁড়িয়ে রইলো সে।
ওদের বাড়ির গৃহকর্ম-নিপুণা লক্ষী বউটির ঠিক এক দশা।









-----------------------------------------------------------------------

পাঠক হিসেবে সবসময়ই উপন্যাসের ভক্ত ছিলাম। কখনো ছোট গল্প পেলে হতাশ হতাম। নিতান্তই স্টক খালি থাকলে ছোটগল্পে চালাতাম, কিন্তু তাতে পেট ভরতো না। ব্লগে এসে নানা ব্লগার তথা লেখকের লেখা পড়তে লাগলাম। ছোট-বড় সব ধরণের লেখা। বড় বড় সব লেখা যখন অপর বাস্তবে ছাপা হলো, আমি টাশকি খেয়ে গেলাম! এত্তো বড় লেখা মাত্র ২-৩ পৃষ্ঠা?! প্রথমবারের মতো উপলব্ধি করলাম যে ব্লগীয় প্লাটফর্মের বই কবিতার হতে পারে। অথবা ছোট-গল্পের হতে পারে, কিন্তু তা ওই ছোটর সীমানা ছাড়িয়ে বড় হবে না। এই হতাশাটা আরো বেড়ে গেল এইজন্য যে আমিও উপলব্ধি করলাম, ছোটগল্পের সাইজে যেই হাবিজাবিটাই আমি লেখি না কেন, সেটা উপন্যাস সাইজের জীবনেও হবে না। তাই এবারের বইমেলা থেকে ছোটগল্পকে উৎসাহ দেবার জন্যই ছোটগল্পের একটা সংকলন কিনে ফেললাম!

ছোটগল্প লেখক হিসেবে বনফুল অসাধারণ, রসবোধ আর সরল লেখনীতে আমি মুগ্ধ! এক লাইনে তিনি পুরা গল্পের চেহারা পালটে দেন। এ জিনিসটাই অবাক করার মতো। উপরের গল্পটার শেষ লাইনে এসেই আমি মুগ্ধ হয়ে গিয়েছি। শেষ লাইনের ধাক্কাটা তার অনেক গল্পেই উল্লেখযোগ্য। তবে বই পড়ার পর একটা শংকায় আছি। উনার লেখাও কিছুটা "আমি আমি গোছের" ! ভয়ে আছি... রিমিক্স না হয়ে যায়! থাক বাবা...কিছুদিন আসল জিনিসই পোস্টাই!
সর্বশেষ এডিট : ১৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১০ সন্ধ্যা ৬:১৮
২৪টি মন্তব্য ১৬টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

যাপিত সময়...

লিখেছেন রোদেলা, ০৬ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:২৭

মনে হচ্ছে অল্প কিছুক্ষনের মধ্যেই আমার হিট স্ট্রোক হবে।কিন্তু হতে হতেও কেন জানি হচ্ছে না,কই মাছের প্রাণ নিয়ে জন্মেছি মনে হয়।সৃষ্টিকর্তা আর কিছু সময় পেলেন; এবার আয়েশ করে চ্যাপ্টা পার্টিদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

মুক্তকথা: এপিঠ-ওপিঠ

লিখেছেন সকাল রয় , ০৬ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ৯:৪৩



:: এপিঠ ::
আকাশ ভর্তি মেঘ কোন তারা নেই, কাচের মতো জোছনা; যেদিকে তাকাই জোছনার থই থই আহ্লাদ, ডুব দিতে ইচ্ছে করে জোছনার সমুদ্রে, আহা! কত রুপ বাংলার আকাশে জমিনে।
জীবন... ...বাকিটুকু পড়ুন

"তোমাকে বেঁচে দেব জোড়া শালিকের কাছে"

লিখেছেন দিশেহারা রাজপুত্র, ০৭ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ১২:২৫



নীলাদ্রীতা,
আজ রাতে সময়কে ধরে বেঁধে বেঁচে দেব
লাল নীল ফানুসে উড়িয়ে দেব স্বপ্ন সাধ
কৃষ্ণপক্ষের রাত মুখ বাঁকা চাঁদ
শ্রাবণের অপেক্ষায় তুমি নিও নির্ঘুম যত রাত।

কিছু অবাঞ্চিত স্মৃতিকথা বাতাসের বুক চেপে সুর... ...বাকিটুকু পড়ুন

শোন সনাতনী বন্ধু শোন

লিখেছেন চাঁপাডাঙার চান্দু, ০৭ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ১২:২৭

আগাচৌ এর কাহিনী দেখি বেশ সিরিয়াস মোড় নিচ্ছে, এমনটা আশা করি নাই। ভেবেছিলাম এই অথর্ব বুড়ার বাকোয়াজ সবাই বুড়া বয়সের ভীমরতি হিসেবে ধরে নিবে। কিন্তু গণজাগরণ মঞ্চ দেখি রীতিমতো কোমর... ...বাকিটুকু পড়ুন

নয়ন-১

লিখেছেন উর্বি, ০৭ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ১:৫৯

প্রিয়তমেষু,


এতদিন যা ছিল নয়নে নয়নে
আজ তাই এড়োই বড় সযতনে
ingredients:
CAMLIN 10B
Pelikan 2B

...বাকিটুকু পড়ুন

পাথর বন্ধু । (অণুগল্প )

লিখেছেন কলমের কালি শেষ, ০৭ ই জুলাই, ২০১৫ রাত ২:৪১

রাতুল আজও পাথরটাকে লালন করছে । এই পাথরটা তাকে সঙ্গ দিচ্ছে গত পনেরটি বছর । এক মুঠি পাথরটির দিকে তাকালে তার সেই ছোটবেলার বন্ধু আবিরের কথা মনে পড়ে । তারা... ...বাকিটুকু পড়ুন