somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ব্লগে নারী ব্লগারদের আক্রমন:প্রগতিশীল কিবোর্ডের আড়ালে মোল্লাতন্ত্র

২৬ শে এপ্রিল, ২০১২ রাত ১১:৪১
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

নগর পুড়লে দেবালয় এড়ায় না।বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বাংলা কম্যুনিটি প্ল্যাটফরম সামহোয়্যারইন ব্লগে যখন পারস্পরিক কাঁদা ছোড়াছুড়ি,সিন্ডিকেটিং আর মিথ্যার বেসাতীর পাশাপাশি নারী ব্লগারদেরও আক্রমন করা হচ্ছে,সেইক্ষেত্রে আমার মত সামান্য বিবেকসম্পন্ন নিকেরও গা বাঁচিয়ে চলা উচিত নয়-মহারথিরা কি করবেন তা তাদের বিষয়।

সিন্ডিকেটিং আজ থেকে সামহোয়্যারে চলছে না।ব্লগে প্রভাব বিস্তারের উদ্দেশ্যে সিন্ডিকেটিং এই ব্লগের জন্ম থেকেই চলে আসছে।কেউ কেউ বলেন মহৎ উদ্দেশ্যে সিন্ডিকেট বানিয়েছিলেন,সেই মহৎ উদ্দেশ্য সাধন কতদূর করা হয়েছিলো,তা পুরনো ব্লগাররা অনেকেই জানেন।মতের অমিলে 'ছাগু' ট্যাগিংয়ের বিশ্রী প্রচলনটাও সেই যে ছোটখাট পরিসরে শুরু হলো,এখন তা মহীরুহ আকারে ধারন করেছে।জামায়াতে ইসলামীর ঘৃনিত সমর্থকদের চিহ্নিত করার উদ্দেশ্যে রক্ষিত 'ছাগ/ছাগু' শব্দটি তার ঘৃনার ওজন বোঝানোর ক্ষমতা হারিয়েছে অনেক আগেই।এখন ব্যক্তি অথবা দলের স্বার্থে অযথা বহুল ব্যবহারে এই শব্দটি তেমন একটি গুরুত্ব বহন করছেনা!জাতীয়তাবাদি মতের প্রজন্ম৮৬ যখন রাকাই নিকে ম্যালফাংশান করে,তখন তার ওপর একই মতাদর্শের অনেককে চড়াও হতে দেখেছি ছাগু ট্যাগিংয়ের ঝোলা হাতে।সেই একই ট্যগা দেয়া লোকেদেরই আবার দেখেছি প্রজন্মের পাশে দাড়িয়ে সবাককে গালিগালাজ করতে।সেই সবাককেই দেখেছি আবার প্রজন্ম৮৬কে ট্যাগিং করতে।অর্থাৎ ব্যক্তিস্বার্থে আপনি আপনার কোনো একসময়ের শত্রুকেও বন্ধু বানিয়ে নিচ্ছেন,ব্লগে যতই মতাদর্শের বানী প্রচার করে যান না কেন!

এই সিন্ডিকেট এখন শুধু মাত্র ব্যক্তিস্বার্থ রক্ষা আর পারস্পরিক পিঠ চুলকাচুলকিতে ব্যবহৃত হচ্ছে।এটা ওপেন একটা সিক্রেট যে ব্লগে ছাগু সিন্ডিকেটের পাশাপাশি নাস্তিক সিন্ডিকেট,আওয়ামী ঘরানার সিন্ডিকেট,মামা সিন্ডিকেট এবং জাতীয়তাবাদি আস্তিক ঘরানার সিন্ডিকেট রয়েছে।এদের কোনো একজনের জন্য বাকি সবাই ন্যায় অন্যায়ের বিচারবিবেচনা তোয়াক্কা না করে ঝাপিয়ে পড়েন অশ্লীল গালিগালাজে,অপরের চরিত্রহননে।সাম্প্রতিক সময়ে গোপনে আরেকটি সিন্ডিকেট গঠনের পায়তারা চলছে যার ব্যাপারে পরে বলবো।নিজ নিজ নিকে সবাই বেশ ভালো থাকেন,মনের ভেতরের যত ঈর্ষাকাতর কুৎসিত দিক তারা উগড়ে দেন মাল্টি নিক নিয়ে।এই ইর্ষাকাতর মানসিকতার বলি হয় ফারজুল আরেফিনের সংকলন,রেজোওয়ানা আক্রান্ত হয় তথাকথিত মহিলা ব্লগার দ্বারা,ফাঁদে পড়ে পুশকিন হয় জেনারেল।

বিশ্বে সর্বত্র ব্লগ প্ল্যাটফরম যখন শক্তিশালীভাবে নাগরিক সাংবাদিকতার সমার্থক নাম হয়ে উঠছে,সেখানে বাংলাদেশের চলছে চর দখলের মতো ব্লগে কিছু প্রভাব দখল আর ফসল চাষের মতো কমেন্টের চাষের অসুস্থ প্রতিযোগিতা।এই অসুস্থ ব্লগিংয়ের ইতিহাস খুব একটা পুরনো নয়।নতুন ব্লগাররা এমনিতেই ব্লগ রাজনীতি সম্পর্কে অজ্ঞ থাকেন,সবাই চান 'হিট' ব্লগার হতে।১০০+,২০০+ অর্থহীন হাহাহিহিমূলক কমেন্ট দিয়ে 'নাম' কামানোর লোভে তারাও জড়িয়ে পরেছিলেন।মডারেটরদের সাথে ভালো সম্পর্ক আছে,কর্তৃপক্ষকে টাকা দিয়ে সাহায্য করি-এই জাতীয় মিথ্যার বেসাতি ছড়িয়ে তাদের কেউ কেউ চেষ্টা করেছিলেন ভিলেজ পলিটিক্সের দাদাগিরি দেখানোর।

কি লাভ এই সব অযথা হামবড়া দেখিয়ে?কি লাভ গালিগালাজ করে ব্লগের পরিবেশ নষ্ট করে 'প্রভাব' বিস্তার দেখানোর?সাধারন ব্লগাররা নিজের নেট বিল খরচ করেই আসেন ব্লগে।কপিপেস্ট পোস্ট,অর্থহীন হাহাহুহুহিহি কমেন্ট চালাচালি আর ক্যাঁচালে অশ্লীলতম গালিগুলো পড়ার জন্য না।কার লুঙ্গি কখন ঢিলে হয়ে গেলো আর কার ব্লগীয় লুঙ্গির গিঁট শক্ত হলো,তা দেখতে কেউই ব্লগে আসিনা।লিখতে পারলে ঠিকঠাক লিখে প্রতিবাদ করুন,না লিখতে জানলে ব্লগের বাইরে গিয়ে মোলাকাত করে আসুন।গালিগালাজ সম্বল করে বাস্তব জীবনে চলেন,তার প্রতিফলন ব্লগে দেখলে ঘাড় ধরেই বের করে দেয়া প্রয়োজন।

সাম্প্রতিক এই 'প্রভাববিস্তারী' বা 'হৃতসাম্রাজ্য পুনরুদ্ধার'-এর উদ্দেশ্যে চলতে থাকা গালিগালাজ এবং মিথ্যার বেসাতির যুদ্ধে যোগ হয়েছে ব্লগের মহিলা ব্লগারদের ব্যক্তিগতভাবে আক্রমন করা।রেজোওয়ানাকে নিয়মিত আক্রমন করেছে ফাইরুজ নামের সন্দেহজনক এক ব্লগার।ব্লগার জুনকে জিজ্ঞেস করা হয়,তার সংসার ঠিকমত চলে কিনা,আরজুপনিকে রাতে নেটে কি করেন তা নিয়ে বাজে ইঙ্গিত করা হয়।ব্লগস্পটে জানাকে নিয়ে করা হয় ক্যারিকেচার।

কেন এই আক্রমন?
মূল নিকে নারী সম্মান অন্তঃপ্রান দেখানো ব্লগারের মাল্টিনিককে কি একজন মহিলা ব্লগারের জমাখরচ দিয়ে ব্লগে আসতে হবে?ব্লগটাকি এখনই পাকিস্তান আফগানিস্তানের তালেবান শাসন হয়ে গেছে যে নির্ধারিত সময়ে একজন আরজুপনিকে ব্লগ থেকে লগআউট করতে হবে?একজন আরজুপনি ১৮+ পোস্টে মন্তব্য কাউকে হিসাব করে করবে কেন?

সমঅধিকারের কথা আমরা প্রায়ই বলি।বাংলাদেশের যৎকিঞ্চিত শিক্ষিতের মাঝে অধিকতর সুযোগপ্রাপ্ত শিক্ষিতরাই ব্লগিং করে।সেই 'শিক্ষিত'দের শিক্ষার এমন করুন হাল দেখে চমকিত হই।এসব শিক্ষিত ব্লগীয় নেতারা ইসলামের অথবা নাস্তিকের যুক্তির আলোকে নারীদের অনেক অধিকারের কথা বলেন,কে কত নারীকে সম্মান করে চলেন-তাও জানাতে পিছপা হন না।ব্লগে আশকারি রহমানের মতো দুয়েকজন ছাড়া সবাই ১৮ বা তদুর্ধ্ব।ব্লগের পিকনিকে আশকারিকে সাথে নিয়ে হালকা ১৮+ জোকসও নাকি বলা হয়েছে।সেখানে আপনি কোন গুপ্তকেশওয়ালা বালস্য বাল যে একজন মহিলা ব্লগার কোন ধরনের পোস্টে কমেন্ট করতে পারে কিনা আপনি নির্ধারন করে দেবেন?একজন আরজুপনি 'কামসুত্রখানা পড়িয়াছেন কিনা' জিজ্ঞেস করলে কার কার সুশীলানুভুতির আড়ালে মোল্লানুভুতি জাগ্রত হয়,সাহস করেই বলে যাবেন।

আমি জীবনেও ভাবতে পারিনা মহিলা বা পুরুষ নির্বিশেষে কোন ব্লগার কখন ব্লগে থাকবেন,তা নির্ধারন করা হবে।সামহোয়্যারইনে আসলে এখনো অনেক পুরুষ নামের কিছু পশু রয়ে গেছেন,যারা মাল্টিনিকের আড়ালে এক একটা কাঠমোল্লা।নিভৃত ভালোবাসা নামের কবি,আপনি তো মহান মানুষ,আপনি কি করে অশ্লীল ইঙ্গিত করেন?কিভাবে বলেন নারী ব্লগার এত রাত জেগে ব্লগে কি করেন?আপনার কাছে দাসখত দিয়ে কি মেয়েদের ব্লগিং করতে হবে?

নারীনিক নিয়ে অনেকেই ব্লগে আইডি খোলেন।সেই আইডি দিয়ে ফেসবুকেও খুলতে দেখেছি একাউন্ট,আমাকেও পাঠানো হয়েছিলো তার রিকোয়েস্ট।কেন ?ফেসবুকে একাধিক আইডি খুলে যুক্ত হবার মোটিভ কি?এত নোংরা মানসিকতা নিয়ে উদারপন্থি হবার আর মহৎ সাজার অভিনয় না করলেই নয়?

নারী ব্লগারদের এমনও কনভারসেশান দেখেছি,যেখানে মানসিকতার মিল না হওয়ায় নিজস্ব আড্ডায় বন্ধুবান্ধব নিয়ে সেই নারী ব্লগারকে কুৎসিত গালিগালাজের নহর বইয়ে দিতে।এই আপনাদের সুন্দরমনের ব্লগিং?এই আপনাদের দেশোদ্ধার?এই আপনাদের বড় বড় বুলি?

মধ্যযুগের মানসিকতা নিয়ে সুশীল কথা বলে কিবোর্ড কাঁপাবেন আর অন্যদিকে মাল্টি নিক নিয়ে একের পর এক মহিলা ব্লগারকে কে আক্রমন করে যাবেন।এমনকি এই ব্লগের ব্লগার জানাকেও আক্রমন করেছেন বিভিন্ন ব্লগস্পটে একাউন্ট খুলে,তাকে সাহায্য করেছেন বলে মিথ্যার বেসাতি রটিয়ে নিজেকে মহৎ করে তুলতে চেয়েছেন,প্রমান করতে চেষ্টা করছেন আপনি কত মালদার,আপনারা কত ওচাঁ।

নিজের মায়ের জাত কে এত অসম্মান করে বড়জোর পশ্চাৎদেশে কিছু সাগরেদের চাপড়ানি পাবেন।কমেন্টবাজি আর হিটবাজির ব্যবসায় মানুষকে গালমন্দ করে ভীতিকর একটা অবস্থান তৈরী করতে পারবেন।কিন্তু আমার মত সাধারন ব্লগার যারা আছি,তারা এসবের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেই যাবো।কারন নারীকে অন্তত সম্মান দিতে শিখেছি,তাদের নিয়ে সিন্ডিকেটের ভয়ভীতি প্রদর্শনের বিরুদ্ধে রুখেই দাড়াঁবো।গালির ভয়ে ভীত নই,কারো ট্যাগিংয়ের পরোয়াও করিনা।

সাধারন ব্লগাররা এসব লুঙ্গি টানাটানি নিয়ে আগ্রহী নয়,কোনো ব্লগারের চরিত্রে কালিমা লেপনে আমোদ পায়না,অবসরে এইখানে গালি প্র‌্যাকটিস দেখতেও আসেনা,আসেনা মোল্লাতন্ত্রের স্যান্ডোগেন্জি পরিহিত সুশীল জোব্বার নারী নিয়ে বড় বড় কথার আড়ালে মাল্টি নিকে কুৎসা দেখতে।এসব নিককে অবিলম্বে ব্যান করা উচিত।


হ্যাঁ মহাশয়েরা,আপনাদেরই বলছি-যত তাড়াতাড়ি বোঝেন,তত তাড়াতাড়িই মঙ্গল।






_______________________________________________________________
সংযুক্তি:
( সামহোয়্যারইনে এই পোস্টটি প্রকাশিত এবং স্টিকি হবার পর এই পোস্টকে আলোচনায় রেখে প্রাসঙ্গিক বা অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্যের বেশ কিছু পোস্ট এসেছে যা এখানে যুক্ত করা হলো )
সুশীল ব্লগার বিষয়ক কিছু তিতা কথা- উৎসর্গ : দূর্যোধনদার পোস্টে হায় হায় সুশীলদের-নাহোল
মডারেটর এর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি-তুমি আমায় ডেকেছিলে ছুটির নিমন্ত্রনে
সামু ব্লগে বেশিরভাগ প্রগতিশীল শুসীলরা চরম সাম্প্রদায়িক, বিশেষ করে ইসলামের প্রতি-ঘুনেপোকা
আসেন প্রতিবাদী হই !!! -প্রজন্ম৮৬
ব্লগে নারী ব্লগারদের আক্রমন : মন্দা হিট কাটিয়ে আ্যালেক্সা রেটিং বাড়ানোর সুশীলীয় উপায়-অতৃপ্ত অনুভূতি
হায় খোদা, মাটি ফারাক করো, ঢুকি যাই- আমি কিসসসসসু জানি না পরিবেশনা-নাহোল
আসেন সামুর মজা দেখি আর আনন্দ লুটি:) -ঘুমন্ত আমি
মাল্টি নিকের অশুভ ম্যাতকারে কণ্ঠরোধ “ফ্রেশ ব্লগিং” এর- পুশকিন
দুর্যোধনেরা কুরুক্ষেত্রে ভিলেন, সামুক্ষেত্রের ফালতুপোস্টে নায়ক হয় কেমনে?- মৌ-মাছি
ভিন্ন ভিন্ন নদী কিন্তু গন্তব্য এক .........-জিসান শা ইকরাম(এডিটেড)
জাতির নানা একজন খারাপ ব্লগার!!! কিন্তু কেন???- জাতির নানা
জিশান শা ইকরাম কি ব্যান খেয়েছে? -অনর্থ


সর্বশেষ এডিট : ১১ ই মে, ২০১২ রাত ৮:৩০
৫৪৭টি মন্তব্য ৪২৬টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

"সুবোধ" এর জয়গান

লিখেছেন ফয়সাল হাওড়ী, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ১২:২৮



সুবোধ নাকি পালিয়ে গেছে ? নির্বোধেই দেশ !
পালায়নি কো , সুপ্ত ছিল , গুপ্ত ছিল বেশ।
তুমিই বলো সুবোধ জনের পালিয়ে যাওয়া সাজে?
এই যে দেখো কোটি সুবোধ বান ভাসীদের মাঝে... ...বাকিটুকু পড়ুন

এ ট্রিবিউট টু লিজেন্ড নায়করাজ রাজ্জাক!!!

লিখেছেন রেজা ঘটক, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ ভোর ৪:৩০



১৯৮৮ সাল। বিএমএ লং কোর্সে পরীক্ষা দিতে খুলনা গেছি। খুলনার জাহানাবাদ ক্যান্টনমেন্টে আমার পরীক্ষা ছিল। আগেই পরিকল্পনা ছিল পরীক্ষা শেষেই বন্ধু আজিজের সাথে ঘুরবো। আজিজের গার্লফ্রেন্ড পড়ে তখন খুলনার সুলতানা... ...বাকিটুকু পড়ুন

সুবোধ তুমি পালাবে কেন, আমরা আছি তোমার সাথে!

লিখেছেন নূর মোহাম্মদ নূরু, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৫২


‘সুবোধ তুই পালিয়ে যা, এখন সময় পক্ষে না’, ‘সুবোধ তুই পালিয়ে যা তোর ভাগ্যে কিছু নেই’ কিংবা ‘সুবোধ এখন জেলে! পাপবোধ নিশ্চিন্তে করছে বাস মানুষের হৃদয়ে’ -এই কথাগুলো... ...বাকিটুকু পড়ুন

অনু-গল্পঃ তৃষা

লিখেছেন অপু তানভীর, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১:২৭

-আমরা বিয়ে করছি !

তৃষা খুব স্বাভাবিক ভাবেই কথাটা বলল । চোখটা তখনও মোবাইলের দিকেই । মোবাইল টা ছাড়া ও একটা মুহুর্তও কাটে না । কেউ যে মোবাইল টিপতে টিপতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

দিনাজপুরে ফ্লাশ ফ্লাড ও সোনাভানের ৪ ছেলেমেয়ের মৃ্ত্যু

লিখেছেন চাঁদগাজী, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৫



আপনারা সংবাদে দেখেছেন, দিনাজপুরের কোন এক এলাকায়, সোনাভান নামে এক মহিলা ফ্লাশ ফ্লাডের ( দুরবর্তী এলাকার এলাকার পানি হঠাৎ এলাকায় স্রোতাকারে প্রবেশ করে বন্যার সৃষ্টি) শুরুতে ৪ ছেলেমেয়েকে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×