somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

ছুট

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ১৮ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮



কোন এক শেষ বিকেল যখন হাতছানি দেয়, ডাক দেয়-
আয়।

ছোট ছোট ঢেউগুলি
ছোট ছোট
ছুটছে ছুটছে
আলো নাচছে নাচছে
নদীর বুক জুড়ে।ঢেউ এর মাথাতে

ক্লান্ত নয়ন আমার
আর এক পড়ন্ত বিকেল
সময় নাচছে,নাচছে
জীবন ছুটছে

১৮/০৪/২০১৮ বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৪ বার পঠিত     like!

লেবু পাতায় অতীত লুকায়

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ১৬ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১১:৪২



লেবু পাতায় নাক ডুবিয়ে ঘ্রাণ নিলে,হ্যাঁচকা টানে অতীত চলে আসে আমার সামনে।
আর দেখো আমার দুই নয়ন জোড়া শুধু সামনেই দেখে।পিছনে নয় কেন?উত্তর
নাই বা দিলে।অথবা ভাবতে পারো,-মাইরি,পাগল আছে লোকটা।অথচ আমার হাতে
থালা নেই।যে থালা আমি উল্টো করে ধরে রেখেছি।তবে অতীত কেন সামনে আসে?

আমি তুমি,-ওই যারা সেদিন জন্মেছি।অথবা আরও ছোট যারা,তারা কি... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৬০ বার পঠিত     like!

শব্দ নেই

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০১



আকাশটা ঢেকে ছিল আঁধারে,উজ্জল আলোয় ছিলোনা
আশার কোন আলো।মিসাইলগুলিও জানতোনা কেন তারা উড়ছে
সিরিয়ার আঁধারকালো আকাশ জুড়ে-
পুঁজিবাদের সর্বনাশা লালসায় সিক্ত সিরিয়ার মানুষ
আর ঠিক তখন পশ্চিমা সংবাদপত্রে লুকিয়ে থাকা শৃগাল- হায়েনার
উল্লসিত নির্লজ্জ ডাকে ঘুম পাড়ানি সুর।

ছাগলগুলি বেশ আরামেই বসে ছিল ট্রাকের ত্রিপল জুড়ে।তাদের জ্ঞানী
চোখে রাজ্যের ক্ষুধা।কর্কশ রোদে সিক্ত বৈশাখী দিন।
আমিও চলেছি
সামনে ছাগল-
মৃত্যুর তারিখ... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৩৯ বার পঠিত     like!

কঙ্কাবতীর জন্য এক বিকেল

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ০৮ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১২:৪৩



কি জানি কেমন ছিল সে বিকেল
অনেকটা পথ পাড়ি দিয়ে,পেছন ফিরে তাকাই যখন- সেই বিকেলে
সবছিল!
আলো ছিল
রঙ ছিল
ভালোলাগা ছিল
শুধু- কথা ছিলোনা আমার মুখে
কিম্বা ছিল
কিম্বা কেন? আসলেই ছিল
কথা বলছিলাম।কিন্তু যা বলতে চেয়েছিলাম- তা কি হয়েছিল বলা?

কঙ্কাবতী-
আমি তোমাকে এক বিকেল দিয়েছিলাম উপহার,- শুধু তোমাকে-
তোমার কাছে গচ্ছিত রেখেছি আমার এক অমূল্য বিকেল

আমি আজও সেই... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৯৪ বার পঠিত     like!

এবার নাহয় চলি

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ০৫ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১১:০৯




জ্যোৎস্না থই থই বর্ষার রাত-জানালা পার হয়ে ঘরময় বাস।তোমাতে-
আমাতে,শরীরে-শরীরে;আছড়ে পড়ে সাগরের ঢেউ।আমি বুঝি বেলাভূমি?

ইন্দ্রও চেয়েছিল রতির সুখ!দেবতা ছিল সে?-পুরুষ কি নয়?
অহল্যার দোষ?-রতি শয্যায়-প্রেম-ভালোবাসায়, দোষ-সে তো ভেসে যায়

হেলে পড়ে চাঁদ-ভোর ওই এলো বুঝি-এবার নাহয় চলি
শেষ হয়েও হয়না শেষ-চুম্বনে চুম্বনে হবে শেষ?
যাবার সময় হলো-আলো ওই মেঘের শরীর জুড়ে
আমি তো ইন্দ্র... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৭২ বার পঠিত     like!

কঙ্কাবতীর জন্যে ভালোবাসা

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১০:০৬



এখনও রাত অযোধ্যায়,রাবণ কি নিদ্রাহীন?-সত্যিই কি সে জেগে আছে আজও?
শুধু কি প্রতিশোধ,পর নারীর লোভ?-ভালোবাসা ছিলোনা বুঝি?রাম নিয়ে গেলো সীতারে,-অযোধ্যায়!
হোক একতরফা!তবুও তো প্রেম।

এতোটা সুন্দর তুমি- কই-আগে তো বুঝিনি
আমি বুঝি খেলার পুতুল-তাই-দিন নেই রাত নেই
সাজাতে আমায়।

আমি চোরাকারবারী নই-নই মাদকের কারবারী
তবু চুরি করতে চেয়েছি-ভালোবাসা-কই পাচার তো করিনি-প্রেম
মাদক ছুঁয়েও দেখিনি কখনও-তবুও নেশায়... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৫৯ বার পঠিত     like!

ভেসে যাওয়া

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ০৩ রা এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১১:৪৫



ফুলেও রঙ ছিল, ছিল সুন্দর তার দেহ জুড়ে
কবরেও সুন্দর ছিল,সুন্দর ছিল সাদা হাড়ে

মুঠো ভরা উচ্ছলতা, ছিল তার মনে
সুর ছিল,রাগ ছিল,লয় ছিল গানে

আকাশের বিশালতা ছিল তার প্রেমে

আমি তাই ডুবে যাই,- নদীতে
ভালোবাসা নদী এক,- কী বল?
চল যাই ডুবে।

ডুবে যাই, বেদনায়,
না পাওয়ার হতাশায়

প্রেমে বুঝি ফাঁকি ছিল?
তাই কি,- মিলনের পরে
বাসি ফুল ভেসে যায় সময়ের... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৫৫ বার পঠিত     like!

ছাপ

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ০২ রা এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১২:৩০



প্রথম দেখায় ছেলেটাকে আহামরি তেমন মনে হয়নি।শাহবাগে রবিন একদিন পরিচয় করে দিয়েছিল।পরিচয়ের সময় বলেছিল,তূর্য বেশ ভাল ছবি আঁকে।আর এভাবেই সম্পর্কের সূত্রপাত হয় মৌমিতার সাথে তূর্যের।ছুটির দিনে রবিন শাহবাগ,টি এস সি ছাড়া আর কোথাও যেতে চায়না।রবিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে পাশ করার পর বেশ কিছুদিন বেকার ছিল।তারপর আঠাশতম বিসিএস পরীক্ষায় প্রশাসনে হয়ে... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১৮ বার পঠিত     like!

মেঘ বালিকার গোল্লাছুট

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ৩০ শে মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:৫০



অফিস ছুটির পর নিলয় বেইলী রোড ধরে হাঁটতে থাকে।আজ তার সাথে জামাল সাহেব।বেইলী রোডের সন্ধ্যা পরিণত হয় ছেলে-মেয়ের মিলন মেলায়।নিলয় জামাল সাহেবকে নিয়ে পিঠাঘর পার হয়।
-নিলয়, চলেন কিছু খাই।
জামাল সাহেবের কথায় কিছুক্ষণ চিন্তা করে নিলয়।কি খাওয়া যায়? ষাট টাকায় মিনি বার্গার পাওয়া যায়।প্রতিদিন জামাল সাহেবেই বিল পে করেন।নিলয় স্থির করে... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ১৪৮ বার পঠিত     like!

শান্তি যখন কিনতে হয়

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ২৮ শে মার্চ, ২০১৮ রাত ১২:২০




অদেখা কোন বোমারু বিমান উড়ছিল,-নিঃশব্দে,পেটভর্তি ছিল তার মৃত্যুর পরোয়ানা।ঠিক সে সময় মরুর
বুকে কোন এক নাম না জানা পিতা হেঁটে চলেছিল সন্তানের হাতে হাত রেখে।ধবংসস্তুপ নীরবে কেঁদে বলেছিল
-আমরা যুদ্ধ বুঝিনা।জানিনা ইরাকের হাতে কি কি অস্ত্রের ভান্ডার আছে।তবে আমেরিকা তার দোকান “শান্তি”
নামক পণ্যের পসরা দিয়ে সাজিয়েছে।আমেরিকা!স্বপ্নের আমেরিকা!-“শান্তি নেবেন গো? শান্তি।হরেক রকম শান্তি
আমার... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ৭২ বার পঠিত     like!

ভাষা

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ২৬ শে মার্চ, ২০১৮ রাত ১০:২৯




একটা সময় এই ঘটনা আমাদের সামনে আসতোই।আমি জানতাম,তাই
আমি কোন কথা বলছিলাম না।সেও চুপ ছিল।তবুও থেমে ছিলোনা
আমাদের ভাব বিনিময়।আমি তার হাত ধরে ছিলাম।এই হাত আমাকে
এক সময় হাঁটতে শিখিয়েছে।খাইয়ে দিয়েছে।আদর করেছে।করেছে শাসন।
আমরা হয়তো কথা বলছিলাম,- না জানা ভাষায়।এই ভাষা হয়তো খুব
ক্ষণস্থায়ী।খুব দ্রুতই আমরা শিখি, আবার ভুলেও যাই।

এক সময় আমার হাতের মুঠোতে থাকা... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ২১ বার পঠিত     like!

খন্ডিত রুপকথা (শেষপর্ব)

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ২৩ শে মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৩০


পরদিন বিকেলে রাজু ১১৫ নং নিউ সার্কুলার রোডের বাড়িটির সামনে এসে দাঁড়ায়।কিছুক্ষণ এদিক ওদিক পায়চারী করে।ছাদের দিকে তাকায়।সাংবাদিক সেলিনা পারভীন সুমনকে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে।একটু দূরে দাঁড়িয়ে আকাশ দেখছে জনাব উজির। উনারা রাজুকে খেয়াল করেন।
-সেলিনা ওই ছেলেটি গতকালও এসেছিলনা? সেলিনার মা সেলিনাকে প্রশ্ন করেন।
-হ্যাঁ মা।আজ কালকার ছেলেরা যে কি বুঝিনা।খালি মুক্তিযুদ্ধ... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৬৪ বার পঠিত     like!

মন্দির দর্শন

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ২১ শে মার্চ, ২০১৮ রাত ১২:০১


কোন কারণ ছাড়াই আমি ফটকের সামনে দাঁড়িয়ে যাই
আর কোন কারণ ছাড়াই আমি মন্দিরে প্রবেশ করি
আগেও যেমন ছিল দাঁড়িয়ে,এখনও তেমনি দাঁড়িয়ে, খড়গ হাতে
লাল জিহ্বা।
কোন কারণ ছাড়াই হাত তুলি
আর প্রণামও করি
কারণ ছাড়াই।

দুটি ধাতব অস্ত্র পড়ে আছে টেবিলে,অসহায়
প্রাণ ফিরে পাবে মানুষের হাতের ছোঁয়ায়
দেবতার হাতের খড়গ অসহায়
লাল জিহ্বায় প্রাণ নেই।আমি দুটি অস্ত্রই দেখি
আর... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৩৫ বার পঠিত     like!

দ্বিখন্ডিত

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ১৭ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:০৫



আলো পড়ে,আর দ্বিখন্ডিত হয় শরীরের ছায়া
আলো পড়ে,আর দ্বিখন্ডিত হয় আমার হৃদয়
ছায়া পালিয়ে যায় আঁধারে
বিবেক পালিয়ে যায় স্বার্থের জঙ্গলে
আমি হেঁটে যাই
ইট-পাথরের রুক্ষ বনে।

ছায়া হাত বাড়িয়ে দেয়,পথ চেনাবে বলে।

১৬/০৩/২০১৮ বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ২৮ বার পঠিত     like!

খন্ডিত রুপকথা(১০ম অংশ)

লিখেছেন সুদীপ কুমার, ১০ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১২:১৭


-ভেড়ামোহনার কালো জল কেমন শীতল,দীপ্ত তুমি জানো?
জগতজ্যোতির কথায় দীপ্ত কোন উত্তর করেনা। জগতও যেন উত্তর জানতে চাওয়ার জন্য প্রশ্ন করেনি।সে বলতে থাকে-রাতেই আমার লাশ তারা বিলের জলে খুঁজে পায়।পরদিন ছিল ঈদ।বাজারের মধ্যে এক খুঁটির সাথে রাজাকাররা আমার লাশ বেঁধে রাখে, সবাইকে দেখানোর জন্যে।পাকিস্থানীরা আমাকে যেমন ভয় পেতো তেমনই আমার লাশকেও... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ৫৫ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ২৯৮১৫ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ