somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

চিত্রনায়ক জলিল আমার সবচেয়ে প্রিয় হিরো

৩০ শে জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:৩১
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

অনন্ত জলিলকে নিয়ে আমি খুবই এলার্জিতে ভূগতাম। এতই ভূগতাম যে সারা শরীর চুলকাতো। অনন্তকে সেলিব্রিটি হতে দেখা আমার কাছে পেইনফুল ছিলো। তার দেয়া মিডিয়ায় সাক্ষাৎকার দেখে মনে হতো হোয়াট এ মেস...কত অনুপযুক্ত একটা লোক কত বেশী এট্রাকশন পাচ্ছে। রং পার্সন ইন রং প্লেস। ভয়াবহ জাজ করতাম। যা যা জাজ করতাম তাহলো তার কথা হয় না, অভিনয় হয় না, তার চেহারাই খারাপ, বাইট্টা...আরো স্পেসিফিক করে তার পোশাক খারাপ বলতাম.চুলের সমালোচনা করতাম..দাড়ির সমালোচনা করতাম..এমনকি বাপদাদার দেয়া নামটাকেও ছাড়তাম না...কি খ্যাত নাম! পারলে অনন্তের প্রতি ফোটা রক্তকে আমি প্রমাণ করে দেই যে সেটা আলাদা আলাদ পয়জন ধারণ করে আছে! এত প্রচ্ছ্ন্ন ঘৃনাও সে এলার্জিতে লেগে থাকতো......যে আমি অনন্তকে জগতের সকল অশান্তির কেন্দ্রবিন্দু মনে করতাম!

অথচ আমার এলার্জিতে ভোগার কোনো দরকার ছিলো না। তাকে ইগনর করলে হতো। না দেখলে এলার্জি থেকে দূরে থাকতে পারতাম। কিন্তু সেটা আমি করি নাই। আমি খুঁজে খুঁজে তার ইন্টারভিউ দেখেছি, সিনেমা দেখেছি। তার বলা কথা শুনেছি। তার সব নিউজ চোখে পড়লে মনযোগ দিয়ে পড়েছি এবং প্রতি অক্ষরের নিচে লাল দাগ দিয়ে রেখেছি।

অনন্তকে নিয়ে আমার এই এলার্জিতে ভোগার কারণ ভিন্ন ছিলো, সে নয়। সে বরঞ্চ আমাকে ন্যাংটো করে দেখিয়েছে আরে ব্যাটা তুই কতবড় একটা ফেইলিয়র। আমার ব্যর্থতা ও অযোগ্যতা উৎকট হয়ে ধরা পড়েছে অনন্তের আবির্ভাবে। হীনমন্যতা জন্ম নিছে আমার ভেতর...অনন্তের মত একটা নিকৃষ্ট আর্ট-সমঝদার আর্ট-কালচার করে জনপ্রিয় হয়ে যায় আর আমি নিজে এত বড় একজন লেখক-কবি-সম্পাদক-ব্লগার-অ্যাক্টিভিস্ট (নিজেকে তো নিজের কাছে তাই মনে করি) শো-বিজ তো দূরের কথা, মিডিয়ার বিন্দুমাত্র এট্রাকশনের ধারে কাছে নাই। একটা লোকও এক পয়সা খরচ করে আমার সারাজীবনের কাহিনী কিনতে চাইবে না। নিকৃষ্ট অনন্ত আসলে উৎকৃষ্ট আমার চেয়ে জনপ্রিয় কেনো হলো বা হয় - সেটা যে পৃথিবীর ইতিহাসের একটা বড়ধরণের ভুল, সমাজ সভ্যতার একটা বড় ধরণের ব্যর্থতা - প্রাকৃতিক অন্যায় - ইত্যাদিই মূলত আমার উৎকৃষ্ট আর্গুমেন্টের ক্যাপিটাল ছিলো।

অনন্তকে জাজ করতে করতে আমি আরো বেশী ফেউলিয়র হয়ে গেলাম যে আমার আর কোনো যুক্তিও আর থাকলো না। অনন্তের জন্য সকল শব্দ ব্যবহারও আমার শেষ হয়ে গেলো। এবং তারপর আমি কমপেয়ার করতে বসলাম এবং তখনই আমি আবিস্কার করলাম আমার কাজ আমাকেসহ কমপক্ষে শ বার কিনে ফেলতে পারে সে - এটলিস্ট সে এই জাজটা আমার সম্বন্ধে করতে পারে। যদিও সে সেই জাজটা করার মত সময়ও ব্যয় করে নাই।
সর্বশেষ এডিট : ৩০ শে জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:৩১
২০টি মন্তব্য ৭টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ভারতের সরাসরি হস্তক্ষেপে সুরেন্দ্র কুমার প্রধান বিচারপতি হন --- অলিউল্লাহ নোমান

লিখেছেন নাজমুস সাকিব অর্ক, ২২ শে আগস্ট, ২০১৭ রাত ৮:৩৮


সুপ্রিমকোর্টের রায় নিয়ে রায়েসমাতি অব্যাহত আছে। তেল নিয়ে তেলেসমাতি হলে রায় নিয়েও রায়েসমাতি হবে না কেন! সুরেন্দ্র কুমার ব্যাকগিয়ারে নাকি শক্ত অবস্থানে সেটা বলার সময় এখনো আসেনি। তবে গত রবিবার... ...বাকিটুকু পড়ুন

রাষ্ট্রপতি হবার দৌড়ে প্রধান বিচারপতি, দুদক পারবে কি বাধা হয়ে দাঁড়াতে!!

লিখেছেন আল-শাহ্‌রিয়ার, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৭ সকাল ১১:০৪

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরুদ্ধে ১২৬টি অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনে!!


অভিযোগ গুলো সবই প্রধান বিচারপতি হবার আগে সংগঠিত। অভিযোগ গুলোর মধ্যে দুদকের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগও... ...বাকিটুকু পড়ুন

তোম- খা- কাই ...(এক মজাদার থাই স্যুপ)

লিখেছেন জুন, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:১৫



অনেক দিন হলো আপনারাও আমার সাথে থাইল্যান্ড ঘোরঘুরি করে আমার মতই ক্লান্ত হয়ে পরেছেন। ভাবলাম একটা ভুতের গল্প আপনাদের পাতে যদি তুলে দেই তাহলে হয়তো ক্লান্তি আর একঘেয়েমীর... ...বাকিটুকু পড়ুন

ডায়েরীর পাতা ও কবিতা !:#P

লিখেছেন সেলিম আনোয়ার, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৮




প্যান্টের ব্যাক পকেটে একটা ছোট্ট ডায়েরি । কাঁধে ঝোলা ব্যাগ নিয়ে ঘুরতে অস্বস্তি লাগে তাই। বুকপকেটে একটা কলম ।তুর তুর অভ্যস হয়েছে। এটা বাড়ছে। আগে অফিসে... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমি ভুলে যাই তুমি আমার নও

লিখেছেন মৌমুমু, ২৩ শে আগস্ট, ২০১৭ বিকাল ৩:৫২



তোমাকে আঁকুল হয়ে আমার খুঁজে যাওয়াটা আমাকে বেশ ভাবায়...
তবে কি এখনো আগের মতই ভালোবাসি তোমায়,
সময় কি খানিকটাও বদলাতে পারেনি আমায়!

তোমার ব্লক লিস্টে থাকলেই যে তোমার প্রতি ভালোবাসা কমে যাবে,
অথবা তোমার... ...বাকিটুকু পড়ুন

×