somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

বিপদজনক ব্লগ

আমার পরিসংখ্যান

 কৌশিক
quote icon
নিদারুণ প্রহসনের দিনগুলি
আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

প্রকৃতিতে ধ্বংস বলতে কিছু নাই

লিখেছেন কৌশিক, ০১ লা মার্চ, ২০১৬ রাত ১০:২৭

ঘাস হলে ভালো হতো। প্রাণীর প্রাণ আমার না থাকলে ভালো হতো। অথবা ঘাস না হয়ে মাটি হলে ভালো হতো। বা পাথর। মাটি-পাথর হাজার হাজার বছর বেঁচে থাকতে পারে। আমরা মরে গিয়ে যা হবো! মাটিদের আলাদা করলেও মাটি। কিছু মাটি বিচ্ছিন্ন হলেও মাটিরা সম্পূর্ণ থাকে, কমে না তাদের কিছুই। অথচ আমাদের... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৬৯ বার পঠিত     like!

অপরিকল্পিত অবকাঠামো গড়ে তোলার 'উন্নয়ন'কে আত্মহত্যা বলতে হবে

লিখেছেন কৌশিক, ২৯ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:৪৭

অস্বস্তিকর একটা বাতাস ঘিরে ধরেছে ঢাকাকে। দিল্লীর মত হয়তো ভয়াবহ নয়, কিন্তু একদিন হয়তো ছাড়িয়ে যাবে দিল্লীকেও। আমার দম বন্ধ হয়ে আসে। দেহের ভেতরে প্রতিদিন লক্ষবার এই অস্বস্তিকর বাতাস ঢোকে। কোনো নিস্তার নাই। ঢাকায় থাকতে হলে এই বাতাসের আঘাত সহ্য করতে হবে। বাতাস পণ্ডিতেরা বলে কোনো ক্ষতিকর কেমিকেলের অস্তিত্বের কথা।... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ৮৬ বার পঠিত     like!

তিন নম্বর হাত

লিখেছেন কৌশিক, ০৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ দুপুর ১২:২০

পরে আমি এটা মেনে নিয়েছিলাম। প্রশ্ন শুনে কোনো বিকার হতো না। শারীরিক রক্ষণশীলতা তো ছিলোই। প্রতিক্রিয়াহীন থাকতে পারতাম। তবে আমার তিন নম্বর হাত দেখে মানুষের বিস্মিত হওয়া উপভোগও করতাম। তাদের মন্তব্যগুলো মজার হতো। খুব কম সেখানে ভীতি থাকতো, তবে তিয়শা ছাড়া। মাঝবয়সেও তার কিশোরীর মত আঁতকে ওঠা মানিয়ে গেছিলো, বয়সও... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ২০৯ বার পঠিত     like!

তারা মাটির মানুষ...আর আমরা সিমেন্টের

লিখেছেন কৌশিক, ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২০

একজন কৃষকের বাড়িতে গেলাম। ভাত খেলাম। মুরগী দিয়ে। বেগুন আর চাপিলা মাছ ভাজি। একটা ঘর কাম বেড রুম কাম ড্রয়িং রুম কাম ডাইনিং রুমের ভেতরে বিশাল একটা তক্তাপোষের সাইডে থাকা টেবিলে প্লেট রেখে। চেয়ারে বসে। কৃষক খেলো মাটির ফ্লোরে ফ্রি'তে। নিজের পুকুরের মাছ, নিজের ক্ষেতের চাল আর সবজি খাওয়ালো কৃষক।... বাকিটুকু পড়ুন

৩৪ টি মন্তব্য      ৫০০ বার পঠিত     ১২ like!

এভারেস্ট দেখতে চাই

লিখেছেন কৌশিক, ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৫:৩৩

এভারেস্টকে দেখে আমার আনন্দ হয় শুধু, ভয় হয় না। সরাসরি পাহাড়টার নিচে দাঁড়িয়ে দেখি নি বলেই বোধহয়। তবে কাঠমান্ডু থেকেও দেখি নি। অথচ আমি জানতাম কাঠমান্ডু থেকে এভারেস্ট দেখা যায়। কি ভুল জানতাম! কাঠমান্ডু নামার পরেও আমার ভুল ভাঙেনি। হোটেলে যাবার পথটুকুতে গাড়ি থেকে অতিদূরে অণুবীক্ষণী দৃষ্টি ছুড়েও আমি এভারেস্টের... বাকিটুকু পড়ুন

১৩ টি মন্তব্য      ২৪৭ বার পঠিত     like!

মহিষ প্রিয় গাইড - জানি না দেহের রঙ

লিখেছেন কৌশিক, ২০ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২৮

তুমি ছাড়া কখনও একটা দিন ভাবিনি। এটাকে ভালোবাসা বলে না, বলে জীবন। জীবনের জন্য তুমি, কিন্তু আর সব কিছুর জন্য না। ওসবে আছে বাজেট, আছে সায়েন্স। সংবিধান। আদর্শ - উত্তরের সাথে দক্ষিণের সংঘাত। কিন্তু তোমার বেলায় সব নিয়ম-ভাঙা-যাপন।

তুমি ছাড়া মূলত তীব্র জঙ্গিপনা নেই, হারাবার জন্য ন্যুনতম পিছুবোধ নেই। নাটক... বাকিটুকু পড়ুন

৯ টি মন্তব্য      ৫৮ বার পঠিত     like!

হ্যালো বাংলাদেশ, হাউ আর ইউ?

লিখেছেন কৌশিক, ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৪:১২

বাংলাদেশের সাথে অনেকদিন কোনো কথা হয় না। আড়ি। আগে ফোনে মাঝেমাঝে কথা হতো। কিন্তু এখন তাও হয় না। এর আগে চ্যাটিং করতাম প্রচুর। কত বিষয় নিয়ে আলাপ হতো। আলাপের পরে প্রলাপ হতো। তারপরে দুজন ঘুরতে বের হতাম। ঢাকা শহরে উন্মুক্ত প্রান্তর বলে যে বিখ্যাত জায়গাটি আছে সেখানে যেতাম। বাদাম খেতে... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৮৯ বার পঠিত     like!

ফেসবুকের উপরে চাপ কমান, বেশী বেশী ব্লগিং খান

লিখেছেন কৌশিক, ১৯ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১২:৩৬

আলুর উৎপাদন এতই হয়েছে যে দাম কমতে কমতে শূন্য প্রায়। অথচ চালের দাম আকাশ ছোঁয়া। একটা রাজনৈতিক দলতো ঘোষণা করে বসলো তারা ক্ষমতায় আসলে প্রতি কেজি চালের দাম করবে দশ টাকা। তখন ছিলো তত্ত্বাবধায়ক সরকার। ২০০৭ এর জানুয়ারির কোনো একদিন সেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসলো ক্ষমতায়। যেদিন আসলো সেদিন বেশ ঢাক-ঢোল... বাকিটুকু পড়ুন

২৭ টি মন্তব্য      ৫৫৮ বার পঠিত     like!

সু-পালিশ করতে করতে দেখতে থাকি কন্যার ছোট জুতা বড় হয়ে যায় দিনেদিন

লিখেছেন কৌশিক, ০২ রা আগস্ট, ২০১৫ সকাল ১১:০২

সকাল বেলা মেয়ের সু পালিস করা আমার অন্যতম একটা প্রিয় কাজ। পালিশ করার আগে ছোট্ট দুটি কালো জুতো দেখে আমি বুঝতে পারি মেয়েটা আগের দিন স্কুলে কতটুকু খেলেছে। স্কুল গ্রাউন্ডের কোন অংশে গিয়েছে - কোন রাইডে চড়েছে, ইত্যাদি। জুতায় লেগে থাকা ময়লা অথবা কাদার পরিমাণ বলে দেয় তার স্কুল টাইম... বাকিটুকু পড়ুন

২২ টি মন্তব্য      ৪২৮ বার পঠিত     ১৫ like!

চিত্রনায়ক জলিল আমার সবচেয়ে প্রিয় হিরো

লিখেছেন কৌশিক, ৩০ শে জুলাই, ২০১৫ সকাল ১১:৩১

অনন্ত জলিলকে নিয়ে আমি খুবই এলার্জিতে ভূগতাম। এতই ভূগতাম যে সারা শরীর চুলকাতো। অনন্তকে সেলিব্রিটি হতে দেখা আমার কাছে পেইনফুল ছিলো। তার দেয়া মিডিয়ায় সাক্ষাৎকার দেখে মনে হতো হোয়াট এ মেস...কত অনুপযুক্ত একটা লোক কত বেশী এট্রাকশন পাচ্ছে। রং পার্সন ইন রং প্লেস। ভয়াবহ জাজ করতাম। যা যা জাজ করতাম... বাকিটুকু পড়ুন

২৭ টি মন্তব্য      ৫৮৮ বার পঠিত     like!

ডিপ্রেশন থেকে বাঁচার জন্য নিজেকেই পথ খুঁজে নিতে হয়

লিখেছেন কৌশিক, ২০ শে জানুয়ারি, ২০১৫ সকাল ১০:৫০

মানুষ একা থাকলে ডিপ্রেশন তৈরী হতে পারে। বিশেষত যারা কখনও একা থাকে না। ডিপ্রেশন কিভাবে চিহ্নিত করা যায় তার একটা বাস্তব জ্ঞান অর্জন হলো এবার আমার।

মূলত অস্থিরতা ডিপ্রেশনের প্রধান লক্ষণ। হুদাহুদিই অস্থির। অপেক্ষা করা ইমপসিবল হয়ে যায়। একইসাথে মানুষ যে দুইচারদিকে স্বাভাবিক মনযোগ দিতে পারে সেটা একদমই বন্ধ হয়ে যায়।... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১৪৫ বার পঠিত     like!

একবছর চশমা ছাড়া পৃথিবী দেখতে পেরেছিলাম!

লিখেছেন কৌশিক, ১৯ শে জানুয়ারি, ২০১৫ সকাল ১১:২২

এটা ভালো করে বুঝতে পারছি আমার পেইন কেউ বুঝবে না। আমারই বুঝতে হবে। চশমা পরিহিত প্রথম সকালে আমার যে কষ্ট তার পরিমাণ কোনো হিসাবে রাখা সম্ভব না। চশমা পরিহিত বলাও ঠিক হচ্ছে না, এটাকে বলা উচিত আবার চশমা শৃঙ্খলিত জীবন অতিবাহিত করতে বাধ্য হওয়া। পরিহিত হলে যেকোনো সময় খুলে রাখা... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ১২২ বার পঠিত     like!

পোড়ার সব স্মৃতি পুড়ে যায় চিরতরে রাষ্ট্রের ইতিহাসে

লিখেছেন কৌশিক, ১৫ ই জানুয়ারি, ২০১৫ বিকাল ৫:১১

যখন একটা আস্ত বাস কে বারবি-কিউ বানানো হয়, তার ভেতরে যাত্রীদের শরীর, হাত-পা, বুক-পেট, মাথা-চুল-চোখ-মুখ সম্পূর্ণ পুড়ে যেভাবে ঝলসে যায় - কালো হয়ে দুমড়ে-মুচড়ে কাচামাংশ যেভাবে বেরিয়ে থাকে তা আর কোনভাবেই মানব শরীর মনে হয় না। যা আর মানব মনে হয় না তার সাথে আর মানবীয় হয়ে ওঠার কোনো সুযোগ... বাকিটুকু পড়ুন

৫ টি মন্তব্য      ৬৫ বার পঠিত     like!

যেখানে দরজা নাই বলে ছিলো জাগতিক বিভ্রম

লিখেছেন কৌশিক, ২৪ শে ডিসেম্বর, ২০১৪ রাত ১:০৯

দরজা খুলে নেমে যাই।

সিঁড়ির ধাপগুলো চওড়া ও উঁচু। সতর্ক পায়ে ভারসাম্য হারাতে হারাতে নামতে থাকি দ্রুত। মনে হচ্ছে এখন আমি অনেক কিছুই করতে পারি। দৌড়ে নামতে পারি। অথচ একটু আগেও আমার নিষেধ ছিলো। আরোপিত বাধার কল্পিত শঙ্কা চেপেই উঠেছিলাম। কষ্ট হচ্ছিলো - ক্ষয়ে যাচ্ছিলো ধৈর্য। কিন্তু সফলভাবে ঢুকে পড়ার... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ৫০ বার পঠিত     like!

একটা দীঘল সময় হচ্ছে নিয়মের বাই-প্রোডাক্ট

লিখেছেন কৌশিক, ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০১৪ রাত ৮:৫৯

কোনো কাজ না থাকার স্টেট টা ভাবতাম বেশ উত্তেজনাকর হবে। কিন্তু এখন দেখছি পেইনফুল। সময়ের দীর্ঘতা ক্লান্তিকর। এরচেয়ে হুটহাট করে সময় চলে গেলে - সময় না পাওয়া গেলে - ভাবনা জমতে পারে না। জমে জমে জটিল অনুভূতি তৈরী করে ফেলতে পারতো না।

জটিল অনুভূতির সাইড-ইফেক্ট অনেক। আপ-ইফেক্টও। অনিয়ম সম্ভবত নিয়মের... বাকিটুকু পড়ুন

৭ টি মন্তব্য      ৭০ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ৯৩১০৭১ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ