somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার পরিচয়

সপ্ন

আমার পরিসংখ্যান

আমার সকল পোস্ট (ক্রমানুসারে)

স্প্লিট ৮

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:১৮



যিনি আমাকে এখানে বসিয়ে গেলেন, সম্ভবতঃ বাসার মেইড। অপেক্ষা করতে বলে গেলেন। সেটাই করছি। কাজটা ঠিক করছি কি না জানি না। এখানে আসাটা খুব অড না, এই কাকভোরে আসাটা রিয়েলি এম্ব্যারাসিং। স্পেশালি এমন একজনের বাসায়, যাকে মাত্র দুদিন হল চিনি। তা ও, এমন এক পরিস্থিতে, যেখানে মানুষটার জন্য আমি আমার... বাকিটুকু পড়ুন

৩ টি মন্তব্য      ১২১ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ৭

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৬



বেশ কিছুক্ষণ আগেই দীপা আংটিটা ফেরত দিয়েছে। এরপরে শান্তভাবেই দুজন কফি খেলাম। একবার রিকোয়েস্ট করলাম, যেন চাকরীটা না ছাড়ে। কথাটা রাখবে কি না, জানি না। উত্তরে কেবল একটা ফ্যাকাসে হাসি দিল। যে দীপাকে আমি চিনি, এরপরে আর ওর থাকার কথা না। ‘আসি' বলে উঠে যাওয়ার কথা। বাট… মনে হচ্ছে দীপা... বাকিটুকু পড়ুন

২ টি মন্তব্য      ১১৫ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ৬

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০০



দীপা আর আমি। মুখোমুখি বসে আছি। কফি হাউজে। জব ছাড়বার ডিসিশান চেঞ্জ করবে না। কিছুক্ষণ আলাপও হল। নাহ, বোঝানোর চেষ্টা করলাম না। আমি জানি, এই মুহূর্তে ও আমার সব কথারই বিরুদ্ধে যাবে। চুপচাপ কফি খাচ্ছে। একবার শুধু আমার দিকে তাকিয়েছিল। এরপরে আর তাকায়নি। অপেক্ষা করে আছে, আমি কিছু বলি কি... বাকিটুকু পড়ুন

১২ টি মন্তব্য      ১৫৩ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ৫

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৪



যে ভয়টা পাচ্ছিলাম, সেটাই হল। দীপা রিজাইন করল। পরের দিনই। নাহ, কোন জব অফার পেয়ে ছাড়েনি। এমনি ছেড়েছে। আমি পরের দিন অফিসে দৌড়েছিলাম, এনগেজমেন্ট উপলক্ষে নেয়া ছুটিটা এক্সটেন্ড করতে। ঠিক করেছিলাম, কক্সবাজার ঘুরতে যাব। বাট, গিয়ে জানতে পারলাম, দীপা মেইলে রিজাইন লেটার পাঠিয়ে দিয়েছে।
ব্যাপারটা জানতে পেরে সঙ্গে সঙ্গেই দীপাকে... বাকিটুকু পড়ুন

৯ টি মন্তব্য      ১৯২ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ৪

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২০ শে অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:১৩



এরপর? এরপরের কাহিনী বলার আগে দীপার ক্যারেক্টারটা একটু ডিস্ক্রাইব করে নিই। পরের ঘটনাগুলো বিশ্বাসযোগ্য মনে হবে। দীপার চোখ যে ছলছল হয়ে উঠেছিল, ওটা ইউজুয়াল না। নিজের কষ্ট অন্যকে দেখানো টাইপ মেয়ে ও না। যতক্ষণ আমি ওর ফিয়সে ছিলাম, ততক্ষণ এমনটা করলেও করতে পারত, বাট এখন, ইম্পসিবল। তারপরও...কাজটা করে ফেলল।
ওর মনের... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১৬ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ৩

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪১



দীপা আমার দিকে তাকিয়ে আছে। চোখের ইম্প্রেশানটাকে কি বলে ডিস্ক্রাইব করব? এটা অবাক দৃষ্টি না। কষ্ট ও না। সামথিং এলস। সামথিং ডিফ্রেন্ট। আই গেস, ওটা, ‘আই সাসপেক্টেড’ টাইপ কিছু। আর সেটা হলে, ব্যাপারটা বেশ অ্যালার্মিং। কিছুটা ভ্রু কুঁচকানো।
আমার বুক তখন ঢিপঢিপ করছে। প্রেম টাইপ না, টেনশান টাইপ। আসলে, কি... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১০ বার পঠিত     like!

স্প্লিট ২

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:১৮



আর কিছুক্ষণের ভেতরে দীপা আসবে। অবশেষে ফোনটা করেছিলাম। গতকালকেই করেছিলাম। দীপা বেশ অবাক হয়েছিল। নাহ, ফোন করার জন্য না, অবাক হয়েছিল, এমন জরুরী তলব করছি দেখে। আমার গলার আওয়াজেো হয়তো কিছু ছিল। দীপা সম্মতি জানাল।
এনগেজমেন্ট উপলক্ষে আজকে অফিস থেকে দুজনেই ছুটি নিয়েছিলাম। এমনটা না হলে হয়তো কথাগুলো অফিসেই বলা... বাকিটুকু পড়ুন

৪ টি মন্তব্য      ১১৭ বার পঠিত     like!

স্প্লিট

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:২৪


প্রবলেমটা অস্বাভাবিক না। আবার স্বাভাবিকও না। বলা যায়, টেকনিক্যালি পসিবল, বাট নট ইউজুয়াল। তবে হতবাক হওয়ার মত ঘটনা। আমি নিজেও অবাক হয়েছি। শুধু অবাক না, বলা যায়, আমার অবস্থা এখন রীতিমত বিধ্বস্ত। সঙ্গে আরও একটা ব্যাপার ঘটেছে। নিজের ওপর থেকে বিশ্বাস উঠে গেছে। এতদিন ধারণা ছিল, আমি নিজেকে ভালোই চিনি।... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ২০০ বার পঠিত     like!

ইতি, অপরাজিতা

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:১২


মেয়েটার ব্যাপারে আগেই আমাকে ওয়ার্ন করেছিল জসীম। বলেছিল,
— নেক্সট ভিজিটে ইউ উইল বি সারপ্রাইজড। শী ইজ ডিফ্রেন্ট।
কথাটা শোনার পর থেকেই এক্সাইটেড ছিলাম। অনেকটা প্রথমবারের মত। জসীম মিথ্যে বলে না। এর আগে যতজনকে দিয়েছে, সবার ছোট্ট একটা ইন্ট্রো দিয়ে দিয়েছে। সেভাবেই এক্সপেক্টেশান তৈরি হয়ে থাকত। ওর হিন্টের ভেতরে থাকত... বাকিটুকু পড়ুন

১১ টি মন্তব্য      ১৮৩ বার পঠিত     like!

দ্যা বার্থডে গিফট

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৬


ডাক্তার হিসেবে আমার চেম্বার প্র্যাক্টিস আহামরি কিছু না। আবার নেহাত কমও না। আসলে আমাদের, আই মিন সার্জনদের আসল ইনকাম হয় অপারেশান থেকে। তবে কার্ডিয়াক সার্জারী যেহেতু কেবল শুরু হচ্ছে, তাই এখনও সেভাবে কেউ আমাদের কাছে করাতে চায় না। একটু পয়সা থাকলেই ইন্ডিয়া দৌড়ায়। সরকারী হাসপাতালে হাত পাকাচ্ছি। বাইরে থেকে বছর... বাকিটুকু পড়ুন

২২ টি মন্তব্য      ২৬২ বার পঠিত     like!

অ্যাডাল্ট্রি

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ০৪ ঠা অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:১৫


তিথির সাথে দেখাটা হঠাৎ করেই। চিনতে অসুবিধে হয়নি। দেখতে একেবারে আগের মতই আছে। সেই ফিগার, সেই শার্প চেহারা। বরং একটু সুন্দর হয়েছে মনে হচ্ছে। চুলে বব কাট দিয়েছে। সেটায় আরও বেশি মানিয়েছে মনে হচ্ছে। স্মার্ট তো ছিলই। এখন তার সাথে যোগ হয়েছে সেক্সিনেস। সব মিলিয়ে দারুণ লাগছে। যাকে বলে অপ্রতিরোধ্য... বাকিটুকু পড়ুন

২৩ টি মন্তব্য      ৩৫৪ বার পঠিত     like!

আওয়ামী কেক ওয়াক? অর সামথিং ডিফ্রেন্ট?

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ০৩ রা অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:৩৯

এদেশের রাজনীতিতে দুটো ক্যাম্প ক্লিয়ার কাট। একদিকে আওয়ামী অ্যান্ড গং অন্যদিকে বিএনপি অ্যান্ড গং। দুই গংয়েই, রাজনৈতিক দলগুলোকে দুটো গ্রুপে ভাগ করা যায়। একটা হচ্ছে মূল দল। আর এটা ছাড়া যা আছে, তাঁরা দুধভাত টাইপ। স্পেশালি আওয়ামী ক্যাম্পে আওয়ামী লীগ ছাড়া আর যারা আছে, তাঁরা থাকলেও চলে আবার না থাকলেও... বাকিটুকু পড়ুন

০ টি মন্তব্য      ১০০ বার পঠিত     like!

অ্যান্ড দেন ইট হ্যাপেন্ড (১ম পর্ব)

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ৩১ শে মে, ২০১৮ দুপুর ২:০৩


বাস জার্নিতে আমার কপাল বেশ ভাল। প্রায়ই পাশের সিটে সুন্দরী পাই। আমার এই সৌভাগ্য দেখে আপনি জেলাস ফিল করতে পারেন, তবে কথা সত্য। আমি আসলেই বেশ কপাল নিয়ে জন্মেছি। ইভেন ট্রেন জার্নিতেও এমনটা হয়েছে। দুবার তো গল্প গুজব বেশ রোমান্টিক চেহারা নিয়ে ফেলেছিল। তারপর? নাহ তারপর আর এগোয়নি। আর তাই,... বাকিটুকু পড়ুন

৮ টি মন্তব্য      ২৭৯ বার পঠিত     like!

অতিথি (২২ তম পর্ব)

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৯ শে মে, ২০১৮ রাত ১:৪০

আমার পেজে

http://www.zainuddinsani.com/otithi_22/ বাকিটুকু পড়ুন

৩ টি মন্তব্য      ২৫১ বার পঠিত     like!

অতিথি (২১ তম পর্ব)

লিখেছেন আহমাদ যায়নুদ্দিন সানী, ২৭ শে মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৫

২১

লন্ডনে আমার ট্রান্সজিট। ঘন্টা ছয়েক দেরী। একটা চেয়ারে বসেছিলাম এমন সময় ফোনটা বেজে উঠল। ফোনটা পকেটে রেখেছিলাম। হাতে নিয়ে বেশ বড়সড় ধাক্কা খেলাম। ইটস জেসমিন। এমন না যে ও আমাকে আগে ফোন করেনি। করেছে, বাট হাসপাতাল রিলেটেড ব্যাপারে। রুগী সম্পর্কে ডিসিশান জানতে কিংবা রুগীর ফলো আপ দিতে। ইভেন, ওকে... বাকিটুকু পড়ুন

৬ টি মন্তব্য      ২৪৪ বার পঠিত     like!
আরো পোস্ট লোড করুন
ব্লগটি ২৩৭৪৮ বার দেখা হয়েছে

আমার পোস্টে সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার করা সাম্প্রতিক মন্তব্য

আমার প্রিয় পোস্ট

আমার পোস্ট আর্কাইভ