somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক, ইতালিয়ান মহা কবি দান্তে আলিগিয়েরির জন্মদিনে ফুলেল শুভেচ্ছা

১৫ ই জুন, ২০১৩ সকাল ১১:১০
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


ইতালিয়ান কবি ও সাহিত্যিক দান্তে। পুরো নাম দুরান্তে দেইলি আলিগিয়েরি বা দান্তে (Dante) ছিলেন একজন বিখ্যাত ইতালীয় কবি। দান্তে শুধু একজন কবিই ছিলেন না, তিনি একাধারে গদ্যকার, পত্রলেখক এবং চিন্তাবিদ দার্শনিকও ছিলেন। তিনি ১২৬৫ সালের ১৫ জুন তিনি ইতালিতে জন্মগ্রহণ করেন। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট এই ইতালিয়ান কবির জন্মদিন। জন্মদিনে কবির জন্য ফুলেল শুভেচ্ছা।


দুরান্তে দেইলি আলিগিয়েরি বা দান্তে , ১২৬৫ সালের ১৫ জুন ইতালির ফ্লোরেন্স নগরীতেজন্মগ্রহণ করেন। তার পরিবার তেমন একটা বিত্তশালী না হলেও অভিজাত হিসেবে পরিচিত ছিল। ব্রুনেত্তো লাটিনি এর কাছে তিনি ক্ল্যাসিক্যাল লিবারেল আর্টস এর জ্ঞান লাভ করেন। এর মধ্যে ল্যাটিন এবং গ্রিক ভাষা সংক্রান্ত জ্ঞানও ছিল। ১২৯২ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর ‘লা ভিটা নোভা’ কাব্যগ্রন্থ যেটা অনেকটা দান্তের স্মৃতিচারণামূলক কাব্যগ্রন্থ। এরপর তিনি তার সবচেয়ে বিখ্যাত গ্রন্থ "দ্য ডিভাইন কমেডি" রচনা শুরু করেন। উল্লেখ্য যে বইটি রচিত হয় স্থানীয় ভেনেশিয়ান কথ্য ভাষায়। এই গ্রন্থ টি তিন খন্ডে বিভক্ত এবং এখানে চার্চ এবং সমসাময়িক বিখ্যাত ঘটনা এবং ব্যক্তিবর্গের প্রতি ব্যাঙ্গাত্মক বিদ্রূপ স্থান পেয়েছে। উল্লেখ্য ইতালির সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ কবি, সাহিত্যিক দান্তে বিশ্বে একটা অনন্যস্থান অধিকার করে আছেন তাঁর মহাকাব্য ‘দি ডিভাইন কমেডি’র জন্য।


ডিভাইন কমেডি ((Divine Comedy) দান্তে আলিগিয়েরির লেখা একটি মহাকাব্য কবিতা। একে ইতালীয় সাহিত্যের অসাধারণ কাজ এবং বিশ্ব সাহিত্যগুলোর একটি বিরাট সফলতম কার্যাবলী হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। মধ্যযুগে পাশ্চাত্য গির্জাগুলো কিভাবে জীবনযাত্রা বিকশিত হয়েছিল তা দান্তের কবিতার মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কবিতাটি ইতালির পশ্চিমের তুস্কান অঞ্চলের আঞ্চলিক ভাষায় ইতালিয় স্টান্ডার্ডে লেখা হয়েছিল।


কবিতাটি তিন ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে যথাঃ ইনফেরনো, পুরগাতোরিও এবং পারাদিসো। এগুলো প্রত্যেকটিকে আবার ৩৩টি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। কবি এই কবিতায় একটি পরলোক যাত্রার কথা বর্ণনা করে যা এই তিন রাজ্যের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। তার কল্পনাত্মক এবং রূপকাত্মকতা মধ্যযুগের খ্রীষ্টানদের দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখা মৃত্যুর পরের জীবন যা ক্যাথলিক গির্জাগুলোর মাধ্যমে বিকশিত হয়েছিল।


ইনফেরনো (Inferno বা নরক)ঃ দান্তে আলিগিয়েরির লেখা মহাকাব্য কবিতা ডিভাইন কমেডির প্রথম অংশ। এটি পুরগাতোরিও এবং পারাদিসোকে অনুসরণ করে। এখানে দান্তের ভিজিলিওর সাথে দেখা হয় এবং ইনফেরনো অতিক্রম করতে সাহায্য করে। ইনফেরনো বা নরক নয় স্তর বিশিষ্ট্য বৃত্ত দ্বারা গঠিত হয়েছে, যার এক একটি বৃত্ত এক এক ধরনের শাস্তি দেয়। আসলে, ডিভাইন কমেডি ঈশ্বরের প্রতি আত্মার যাত্রা প্রতিনিধিত্ব করে এবং ইনফেরনো গুনার স্তর ও তার শাস্তির ধরনের কথা বর্ণনা করা।


পুরগাতোরিও (Purgatory)ঃ হল দান্তে আলিগিয়েরির লেখা মহাকাব্য কবিতা ডিভাইন কমেডির দ্বিতীয় অংশ। এখানে ইনফেরনো (নরক) থেকে আসা সমস্ত আত্মারা যন্ত্রণাভোগ করে। পুরগাতোরি সাগর দিয়ে পরিবেষ্টিত একটি সুউচ্চ পর্বত। এখানে দান্তে এবং ভিরজিলিও ইনফেরনোথেকে একটি দীর্ঘ পাতাল বারান্দার মাধ্যমে পুরগাতোরি পৌছায়, যেটি লূসিফেরের পায়ের থেকে শুরু হয়। আর সমস্ত আত্মারা তাদের পাপ পূর্ণপ্রাশচিত্ত করে, পরে একটি নৌকা দ্বারা সেখান থেকে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয় পারাদিসোতে।


(ডিভাইন কমেডিয়ার চিত্রে দান্তে নরকে বেত্রিচের সাথে)
পারাদিসো (বাংলা: স্বর্গ)ঃ দান্তে আলিগিয়েরির লেখা মহাকাব্য কবিতা ডিভাইন কমেডির তৃতীয় এবং শেষ অংশ ।


দান্তের উল্লেখযোগ্য রচনাসমূহঃ
১। লা ভিতা নুওভা (LA VITA NUOVA), ১২৯৩ - The New Life
২। ইল কনভিভিও (IL CONVIVIO), ১৩০৭ - Dante's Convivio
৩। দে ভুলগারি এলোকুয়েন্তিয়া (DE VULGARI ELOQUENTIA),
৪। লা দিভিনা কোম্মেদিয়া LA DIVINA COMMEDIA,
৫। The Divine Comedy (হেনরি লংফেলো কর্তৃক অনূদিত)
৬। দে মনার্কিয়া DE MONARCHIA, ১৩১৩ - On Monarchy
৭। ইকলোগুয়েস, ECLOGUES, ১৩১৯
৮। কোয়েস্টিও ডি সিটু এ্যকুয়ি ইট টিরি QUAESTIO DE SITU AQUE ET TERRE, ১৩২০
৯। রিমি, (RIME), ১৯৪৩
১০। ওপিরি, (OPERE), ১৯৪৪
১১। দ্য পোর্টেব্‌ল দান্তে, ১৯৪৭ (পাওলো মিলানো সংস্করণ)
১২। লা ওপিরি ডি দ্যান্তে (LE OPERE DI DANTE), ১৯৬০
১৩। চিঠিপত্র, ১৯৬৬
১৪। দান্তে'স লিরিক পোয়েট্রি, ১৯৬৭ (২ খন্ড)


সাহিত্য রাচনার বইরে দান্তে মাঝে-মাঝে রাজনীতি চর্চা এবং যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। তিনি ১৩০০ সালে সানজিমিগনানোতে এবং ১৩০২ সাল পর্যন্ত রোমে ইটালির রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করেন। ইতালিয়ান এই মহাকবি ১৩২১ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ৫৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরন করেন। আজ এই মহান কবির জন্মদিন, তাঁর প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা।
সর্বশেষ এডিট : ১৫ ই জুন, ২০১৩ সকাল ১১:১০
৪টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

স্কুলের বাচ্চাদের ভয় দেখানো উচিত হয় নাই

লিখেছেন সাড়ে চুয়াত্তর, ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ৮:৪৫

ফরিদপুরে একটা গার্লস স্কুলের ১৫ থেকে ২০ জন মেয়েকে দিনে দুপুরে এক বা একাধিক ভুত এসে ভয় দেখিয়ে গেছে। আমার মতে ভুতেরা এই কাজটা ঠিক করে নাই। ক্লাস সিক্স থেকে... ...বাকিটুকু পড়ুন

লাডাইটসঃ প্রযুক্তি যাদের চাকরি কেড়ে নিয়েছিল

লিখেছেন অপু তানভীর, ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:০২



কর্মক্ষেত্রে আধুনিক যন্ত্রপাতি আর প্রযুক্তির ব্যবহারের একটা অর্থ হচ্ছে কিভাবে আরো কম লোকবল ব্যবহার করে আরো বেশি পরিমান কাজ করানো যায় ! আর এআই এর বেলাতে এই লোকবলের সংখ্যা... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাত্র ৯৭ রানের জন্য প্রথম টি-টুয়েন্টি সেঞ্চুরি মিস করলো শান্ত!!!

লিখেছেন ভুয়া মফিজ, ২২ শে মে, ২০২৪ দুপুর ১২:০২



বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন লর্ড শান্ত'র ব্যাডলাকের ভাগ্য খারাপ। চমৎকার খেলছিল। ১১ বলে ৩ রান করার পর হঠাৎই ছন্দ পতন। এতো কাছে গিয়েও সেঞ্চুরি মিস। কি আর করা.........আসলে শান্তর... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্বর্গের নন্দনকাননের শ্বেতশুভ্র ফুল কুর্চি

লিখেছেন মরুভূমির জলদস্যু, ২২ শে মে, ২০২৪ বিকাল ৫:১৭


কুর্চি
অন্যান্য ও আঞ্চলিক নাম : কুরচি, কুড়চী, কূটজ, কোটী, ইন্দ্রযব, ইন্দ্রজৌ, বৎসক, বৃক্ষক, কলিঙ্গ, প্রাবৃষ্য, শক্রিভুরুহ, শত্রুপাদপ, সংগ্রাহী, পান্ডুরদ্রুম, মহাগন্ধ, মল্লিকাপুষ্প, গিরিমল্লিকা।
Common Name : Bitter Oleander, Easter Tree, Connessi Bark,... ...বাকিটুকু পড়ুন

হরিপ্রভা তাকেদা! প্রায় ভুলে যাওয়া এক অভিযাত্রীর নাম।

লিখেছেন মনিরা সুলতানা, ২২ শে মে, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩৩


১৯৪৩ সাল, চলছে মানব সভ্যতার ইতিহাসের ভয়াবহ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। টোকিও শহর নিস্তব্ধ। যে কোন সময়ে বিমান আক্রমনের সাইরেন, বোমা হামলা। তার মাঝে মাথায় হেলমেট সহ এক বাঙালী... ...বাকিটুকু পড়ুন

×