somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

লাডাইটসঃ প্রযুক্তি যাদের চাকরি কেড়ে নিয়েছিল

২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:০২
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



কর্মক্ষেত্রে আধুনিক যন্ত্রপাতি আর প্রযুক্তির ব্যবহারের একটা অর্থ হচ্ছে কিভাবে আরো কম লোকবল ব্যবহার করে আরো বেশি পরিমান কাজ করানো যায় ! আর এআই এর বেলাতে এই লোকবলের সংখ্যা একশ থেকে মাত্র একজনেও নেমে আসতে পারে ! অর্থ্যাৎ আগে যে কোম্পানিটি চালাতে ১০০ জন লোক দরকার পড়তো এখন সেখানে মাত্র একজন দিয়ে সেই কাজ হয়ে যাচ্ছে । একদিন দিয়ে হিসাব করে দেখলে এটা কোম্পানির জন্য খুবই চমৎকার একটা ব্যাপার কিন্তু আবার অন্য দিক দিয়ে খেয়াল করে দেখলে ব্যাপারটা ভয়ংকর একটা ব্যাপার । এখানে ৯৯ জন মানুষ তাদের কাজ হারিয়ে ফেলছে !
প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে মানুষের চাকরি হারানোর ব্যাপারটা কিন্তু অনেক আগে থেকেই হয়ে আসছে । এটা নতুন কিছু না । ইতিহাসে যতবার এই রকম বড় প্রযুক্তিগত পরিবর্তন ঘটেছে ততবারই দেখা গেছে সাধারন মানুষ তাদের চাকরি হারিয়েছে । এই রকমই একটা গল্প হচ্ছে লাডাইটসদের গল্প ।
লাডাইটস (Luddites) শব্দটা যদি আপনারা ডিকশনারীতে খোজেন তাহলে এর অর্থ দাড়ায় (a person opposed to new technology or ways of working) যে মানুষটি নতুন কর্ম প্রযুক্তির বিরোধীতা করে । তবে এই অর্থ দিয়ে আসলে পুরোপুরি ভাবে লাডাইটসদের বোঝা সম্ভব না । তারা কেন নতুন প্রযুক্তির বিরোধী ছিল সেই গল্পটা যদি আমরা জানি তাহলে তাদের নামের অর্থ পরিস্কার ভাবে আমাদের বোধগম্য হবে ।

গল্পটা ইংল্যান্ডের শিল্প বিপ্লবের সময়ের । সেই সময়ে কাপড় খুবই দামী বস্তু ছিল এবং এবং এই কাপড় তৈরি করা খুব কঠিন একটা কাজ ছিল। বেশ কয়েক ধাপে কাজগুলো করতে হত । এবং যারা কেবল দক্ষ কারিগর কেবল তারাই এই কাজগুলো করতে পারতো ! সেই সময়ে এই দক্ষ কারিগড়রা সুন্দর এবং স্বচ্ছল জীবন যাপন করতো । কিন্তু যখন প্রযুক্তি আসতে শুরু করলো তখন ধীরে ধীরে যন্ত্রপাতি তাদের কাজের স্থান গুলো দখল করে নেওয়া শুরু করল। একজন এমন একটি যন্ত্র আবিস্কার করল যেটা তন্তুকে সুতায় পরিণত করত। কেউ এমন একটি যন্ত্র আবিস্কার করল যেটা কিনা আপনার সুতোকে অল্প কর্মী দিয়েই কাপড়ে পরিনত করতে পারত। অন্য একজন এমন একটি যন্ত্র আবিস্কার করেছিল যা দিয়ে সহজেই কাপড় কাটা যেত । মানে হচ্ছে কাজ গুলো আগে কর্মীরা করতো সেই কাজ গুলোই এখন যন্ত্রগুলো করতে শুরু করল।
সেই সময়ের আগে ব্রিটিশ আইন এমন ছিল যে নতুন এমন কোন যন্ত্রপাতি চলবে না যা মানুষজনের কাজ কর্মের জন্য হুমকি হয়ে দাড়ায়। তবে এই সময়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিল যে এই নীতি পরিবর্তন করবে। ফলে দেখাগেল নানান রকম যন্ত্রপাতি আবিস্কার হতে থাকল এবং একে একে মানুষজন যারা এক সময়ে দক্ষ কারিগর ছিল তারা নিজেদের কাজ কর্ম হারিয়ে বেকার হতে থাকল। এই সময়েই তারা সিদ্ধান্ত নিল যে তারা এটার প্রতিবাদ করবে। যুদ্ধ ঘোষণা করবে যারা তাদের কাজ কেড়ে নিচ্ছে ।

এই সময়েই জন্ম হল এডওয়ার্ড নেড লাড এর । আমরা রবিন হুডের নাম সবাই শুনেছি । ঠিক এমন ভাবেই ইংল্যান্ডে জন্ম হল বিদ্রোহী নেতা নেড লাড । সে রবিন হুডের মত নটিংহ্যামশায়ারের শেরউড ফরেস্টে লুকিয়ে ছিল। যদিও এই নামে কেউ আদৌও ছিল কিনা সেটা কেউ নিশ্চিত ভাবে বলতে পারে না । কেউ কেউ বলে নেড লাড নামের একজন কারিগর ছিল বটে । যেকিনা কাজ হারিয়ে পাগল হয়ে গিয়েছিল। সে থাকুক বা না থাকুক তার নামে মিথ ঠিকই চালু হয়ে গেল । বিশাল এক গোপন বাহিনী তৈরি হয়ে গেল! প্রথমে সকল কারখানা মালিকদের কাছে চিঠি পাঠানো হল যাতে যন্ত্রপাতি গুলো নষ্ট করে দেওয়া হয় । তারপর তারা সরাসরি কারখানাতে হামলা করা শুরু করল । দিনের পর পর দিন হামলা বেড়েই চলল ।
একসময় সরকার তাদের বিরুদ্ধে কঠিন আইম তৈরি করল । সর্বোচ্চ শাস্তি রাখা হল মৃত্যুদণ্ড। গ্রেফতার শুরু হল বিচার হল দ্রুত । ফলে হামলা কমে এল । ১৮১৭ সালের পর সেটা একেবারেই কমে গেল ।

সেই সময়ে লাডাইটসদের এটা বোঝানো হয়েছিলো যে প্রযুক্তির এই উন্নতির ফলে সবার ভাল হবে । এবং এটা সত্যিই সবার জন্য ভালই হয়েছিলো । ইংল্যান্ড সেই সময়ে উন্নতির শিখরে পৌছে গিয়েছিল সত্য কিন্তু এটা লাডাইটসদের জন্য মোটেই ভাল হয় নি। বাকি জীবন তাদের অবস্থা উন্নত হয় নি। কারখানার মালিকেরা ধনী হচ্ছিল। যে শ্রমিকরা কালকারখানা তৈরি করত বা যারা যন্ত্রপাতি মেরামতের কাজ করত সেই শ্রমিকরা খেয়ে পড়ে ভাল ভাবে বেঁচে ছিল । কিন্তু একজন দক্ষ কারিগরদের জন্য সময়টা ভাল ছিল না।

আজকে ডেইলি স্টারে একটা সংবাদ চোখে পড়ল । সেখানে একটা লাইন রয়েছে স্কাইটেক সলিউশনসের দারুণ একটি প্রকল্প ছিল, ৫০ জনেরও বেশি মানুষ তাতে প্রত্যেকে ঘণ্টায় সাড়ে আট ডলার করে ইনকাম করতে পারতো। কিন্তু, গত বছরের শেষের দিকে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ব্যবহারের ফলে এক ধাক্কায় এই প্রকল্পের ৮০ শতাংশেরও বেশি কর্মী চাকরি হারিয়েছেন।


ধীরে ধীরে এই সংখ্যাটা আরো বাড়বে । প্রযুক্তিগত উন্নয়ন যত ঘটবে তত কম দক্ষ মানুষরা কর্মহীন হয়ে পড়বে । হয়তো আপনারা বলতে পারেন যে আমাদের দক্ষ হয়ে উঠতে হবে । কিন্তু বললেই কি এটা এতো সহজে হয়ে যাবে? যে হারে প্রযুক্তিগত উন্নয়ন ঘটছে সেই হারে আমাদের দেশের মানুষের দক্ষতা বাড়ছে না । এটা বাড়ানো সম্ভবও না । বিপুল সংখ্যক মানুষ পিছিয়ে পড়বে ।

আমাদের দেশে যত এআইয়ের ব্যবহার বাড়বে তত মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়বে । যারা ফ্রিলাঞ্চার আছেন তারা এরই ভেতরে সেটা টের পাচ্ছেন । কম দক্ষতার কাজগুলো এখন পাওয়া যায় না বললেই চলে ! সামনে আরো কঠিন দিন আসছে ।



কয়েকদিন আগে একটা বই পড়ে শেষ করেছি । এই লাডাইটসদের গল্পটা সেখানে থেকে জেনেছি।
ডেইলি স্টারের সংবাদ

ছবি সুত্র

সর্বশেষ এডিট : ২২ শে মে, ২০২৪ সকাল ১১:০৩
৭টি মন্তব্য ৭টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

এখনো নদীপারে ঝড় বয়ে যায়

লিখেছেন সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই, ১২ ই জুন, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩৭

এ গানটি এর আগে মিউজিক ছাড়া (খালি গলায়) এই পোস্টে এখনো নদীপারে ঝড় বয়ে যায় শেয়ার করা হয়েছিল। এবার মিউজিক যোগ করে শেয়ার দিলাম। আশা করি কারো কারো ভালো লেগে... ...বাকিটুকু পড়ুন

শাহ সাহেবের ডায়রি ।। ২৪ ঘণ্টা পর সাইন ইন করলাম

লিখেছেন শাহ আজিজ, ১২ ই জুন, ২০২৪ রাত ৮:৫৪

সামু বন্ধ থাকলে কি যে যাতনা তা এবারি বুঝতে পারলাম । দুপুরে জাদিদকে ফোন করে জানলাম সমস্যা সার্ভারে এবং তা সহসাই ঠিক হয়ে যাবে । মনের ভিতর কুচিন্তা উকি ঝুকি... ...বাকিটুকু পড়ুন

ওয়েলকাম ব্যাক সামু - সামু ফিরে এল :D

লিখেছেন অপু তানভীর, ১২ ই জুন, ২০২৪ রাত ৯:২৩



সামুকে নিয়ে আমি এর আগে কোন দিন স্বপ্ন দেখেছি বলে মনে পড়ে না । তবে অনেক দিন পরে গতকাল আমি সামুকে নিয়ে স্বপ্ন দেখলাম।তবে সেটাকে আদৌও সামুকে নিয়ে স্বপ্ন... ...বাকিটুকু পড়ুন

বয়কটের ব্যবচ্ছেদ

লিখেছেন শূন্য সময়, ১২ ই জুন, ২০২৪ রাত ১১:৪৫

আপনি বয়কটের পক্ষে থাকুন, বিপক্ষে থাকুন- এই বিষয় নিয়ে কনসার্ন্ড থাকলে এই লেখাটা আপনাকে পড়ার অনুরোধ রইলো। ভিন্নমত থাকলে সেটা জানানোর অনুরোধ রইলো। কটাক্ষ করতে চাইলে তাও করতে পারেন। কিন্তু... ...বাকিটুকু পড়ুন

ইসলামে আলেম নয়, ওলামার রেফারেন্স হবে

লিখেছেন মহাজাগতিক চিন্তা, ১৩ ই জুন, ২০২৪ রাত ২:৫০



সূরাঃ ৩৫ ফাতির, ২৮ নং আয়াতের অনুবাদ-
২৮। এভাবে রং বেরং- এর মানুষ, জন্তু ও আন’আম রয়েছে। নিশ্চয়ই আল্লাহর বান্দাদের মধ্যে আলেমরাই তাঁকে ভয় করে।নিশ্চয়্ই আল্লাহ পরাক্রমশালী ক্ষমাশীল।

সূরাঃ ২৯... ...বাকিটুকু পড়ুন

×