somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আফগানিস্থানে বিশ্ব বাহিনী ও তালেবান যুদ্ধে প্রায় প্রতি দিন নিরহ-দরিদ্র জন-গনের মৃত্যু হচ্ছে........

২২ শে আগস্ট, ২০১০ বিকাল ৪:৪০
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
A Civilian Casualty in Afghanistan -TIME Photos
আফগানিস্থানে বিশ্ব বাহিনী ও তালেবান যুদ্ধে প্রায় প্রতিদিন নিরহ-দরিদ্র জন-গনের মৃত্যু হচ্ছে........ TIME ম্যাগাজিনের সংবাদিকের ছবিতে দেখুন..
আমেরিকা ও অন্যান্য দেশের সন্যরা প্রতি মূহর্তে তালবানের আক্রমনের ভয়ে ভীতু থাকে....
প্রতি দিনেই লোকাল ইনফরমারের মাদ্ধ্যমে খবর আসে তালেবানের আবস্থনের সন্পর্কে..তথাকথিত মিত্র বাহিনীর এতোই ভয়ে থাকে যে, মিত্র বাহিনীর পক্ষে ঐ সংবাদ যাচাই করার মত অবস্থায় থাকে না । তারা আক্রমন করে বসে..আর প্রায় সময় ইনফরমেসন ভুল থাকে কিন্তু এই ভুলের জন্য প্রায় প্রতি দিনই সাধানার- নিরহ-দরিদ্র জনগনের মৃত্যু হয়...

The Marines attempt to locate the shooter. "A man, ducking between a haystack and a village compound, was shooting at them from about 820 ft. (250 m) away.
US Marines কাছে খবর আসে এবং তারা দেখে এক তলেবান তাদেরকে গুলি করছে

The Marines called in coordinates for a mortar strike from a nearby operations post.
US Marines যাচাই না করে বেইস থেকে মটর সেল নিক্ষেপের জন্য বার্তা পাঠায়...।

"Mortars dropped from the sky; the engagement was over," says Ferguson. "No one knew whether any insurgents had been killed. It was the usual game of cat and mouse.
আকাশ থেকে মটর সেল পরলো ! কিন্তু কেহ জানে না কে মরলো?? এই হলো আফগানিস্থানে মিত্র বাহিনির ইদুর-বিড়াল খেলা..

"I have seen U.S. troops smile and swear with pleasure amid the hunt. But if there were smiles this time, they did not last long.
US Marines বেশি ক্ষন হাসি মুখে থাকতে পারে না.।

"Fearing an ambush, the Marines chose not to investigate. But not long after, the man returned leading a tractor carrying the father, family members and the body of the girl, who was called Gulmakay."
আমবুসের ভয়ে US Marines এলাকা ঘুরে দেখে না।কিছু ক্ষন পরে খবর আসে -সাথে আসে ট্রক্টা করে ১৪ বছরের মেয়ের গুলমাকের মৃত দেহ...।

Corporal Nathaniel Matos averts his eyes from the body of Gulmakay, in the back of the tractor.
করপোরল ট্রক্টের উপর উকি দিয়ে মৃত দেহ টি দেখে..

Lieutenant Kevin Gaughan wipes his eyes while meeting the family of the young girl killed.
ল্যুটেনেন্ট তার চোখ মুছে..যখন বালিকার পরিবারের সাথে কথা বলছিলো..

patrol leader Lieutenant Gaughan asked, "What is...what is the father's name?" "Mohammad Karim," said the translator. "Just tell him I'm...I cannot say sorry enough. This is the worst possible thing that could happen.
পেটরোল লিডার বালিকার পিতা কে বলে আমরা খুবই দুঃখিত যাহা আমরা কল্পনাও করি নাই...
Mohammad Karim replied, "Now, what should I do with 'sorry'?" The girl's family slowly bears Gulmakay away.
বালিকার পিতা বলে আমরা তোমাদের 'sorry' দিয়ে কি করবো. তারা গুলমাকের মৃতদেহ সেখান থেকে নিয়ে যায়..
Gulmakay's body lies outside of her home.
গুলমাকের মৃতদেহ তার বাসার সামনে শেষ বারের মত রাখা..

After accompanying the dead girl and her family home, Lieutenant Gaughan and the other Marines sit with an interpreter and family members, offering condolences and exchanging details of the episode. The family will be offered compensation.
সেদিন রাতে US Marines এর দল গুলমাকের পরিবারের সাথে বসে কি ভাবে ক্ষতি পূরন করা যায়.....

US Marines কি ?? বালিকা গুলমাকের জীবন ফিরিয়ে দিতে পারবে.।


সূত্র: TIME Photos
Click This Link
সর্বশেষ এডিট : ২২ শে আগস্ট, ২০১০ বিকাল ৪:৪৫
৮টি মন্তব্য ৮টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

সভ্য জাপানীদের তিমি শিকার!!

লিখেছেন শেরজা তপন, ১৭ ই মে, ২০২৪ রাত ৯:০৫

~ স্পার্ম হোয়েল
প্রথমে আমরা এই নীল গ্রহের অন্যতম বৃহৎ স্তন্যপায়ী প্রাণীটির এই ভিডিওটা একটু দেখে আসি;
হাম্পব্যাক হোয়েল'স
ধারনা করা হয় যে, বিগত শতাব্দীতে সারা পৃথিবীতে মানুষ প্রায় ৩ মিলিয়ন... ...বাকিটুকু পড়ুন

রূপকথা নয়, জীবনের গল্প বলো

লিখেছেন রূপক বিধৌত সাধু, ১৭ ই মে, ২০২৪ রাত ১০:৩২


রূপকথার কাহিনী শুনেছি অনেক,
সেসবে এখন আর কৌতূহল নাই;
জীবন কণ্টকশয্যা- কেড়েছে আবেগ;
ভাই শত্রু, শত্রু এখন আপন ভাই।
ফুলবন জ্বলেপুড়ে হয়ে গেছে ছাই,
সুনীল আকাশে সহসা জমেছে মেঘ-
বৃষ্টি হয়ে নামবে সে; এও টের... ...বাকিটুকু পড়ুন

যে ভ্রমণটি ইতিহাস হয়ে আছে

লিখেছেন কাছের-মানুষ, ১৮ ই মে, ২০২৪ রাত ১:০৮

ঘটনাটি বেশ পুরনো। কোরিয়া থেকে পড়াশুনা শেষ করে দেশে ফিরেছি খুব বেশী দিন হয়নি! আমি অবিবাহিত থেকে উজ্জীবিত (বিবাহিত) হয়েছি সবে, দেশে থিতু হবার চেষ্টা করছি। হঠাৎ মুঠোফোনটা বেশ কিছুক্ষণ... ...বাকিটুকু পড়ুন

আবারও রাফসান দা ছোট ভাই প্রসঙ্গ।

লিখেছেন মঞ্জুর চৌধুরী, ১৮ ই মে, ২০২৪ ভোর ৬:২৬

আবারও রাফসান দা ছোট ভাই প্রসঙ্গ।
প্রথমত বলে দেই, না আমি তার ভক্ত, না ফলোয়ার, না মুরিদ, না হেটার। দেশি ফুড রিভিউয়ারদের ঘোড়ার আন্ডা রিভিউ দেখতে ভাল লাগেনা। তারপরে যখন... ...বাকিটুকু পড়ুন

মসজিদ না কী মার্কেট!

লিখেছেন সায়েমুজজ্জামান, ১৮ ই মে, ২০২৪ সকাল ১০:৩৯

চলুন প্রথমেই মেশকাত শরীফের একটা হাদীস শুনি৷

আবু উমামাহ্ (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, ইহুদীদের একজন বুদ্ধিজীবী রাসুল দ. -কে জিজ্ঞেস করলেন, কোন জায়গা সবচেয়ে উত্তম? রাসুল দ. নীরব রইলেন। বললেন,... ...বাকিটুকু পড়ুন

×