somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

সৈয়দ মেহবুব রহমান
আমি মেহবুব । সামহোয়্যারইন ব্লগের সকল ব্লগারপাঠকভাইবোনদের আমার পক্ষ থেকে সালাম ও শুভেচ্ছা । আশা করি আপনাদের আমি আবহমান বাংলার সব সুন্দর রচনা উপহার দিতে পারবো ।।

আসলে মানুষই কি এলিয়েন বা ভিনগ্রহী ?

২১ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:২৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

এখানে একটা ইন্টারেস্টিং বিষয়ে আলোচনায় আসা যাক ।বিষয়টা একান্ত আমার ধারনা থেকে আলোচনা করি ।কথাটা হলো আমাদের মানব সভ্যতা বা মানুষের উৎপত্তি সম্বন্ধে । মূলত মানুষ কত বছর আগে এসেছে পৃথিবীতে, এই বিতর্কের কোন শেষ নেই ।এটা একটা ভয়াবহ রহস্য, যার উত্তর খুজতে জন্ম নিয়েছে বিবর্তনবাদ, ফসিলতত্ব তথা অনেক মতবাদই ।


আর আমাদের ধর্মমগ্রন্থের আদি মানব-মানবী তথা আদিপিতা-মাতার কথা তো উল্লেখ আছেই ।এই যেমন ধরুন ইসলাম ধর্মমতে আদম-হাওয়া, হিন্দু ধর্মমতে মনু-শতরূপা, খ্রিষ্ট ধর্মমতে অ্যাডাম-ঈভ।এতো গেলো প্রধান তিনটি ধর্মের উল্লেখিত কথা ।বিজ্ঞানীরা গবেষনালব্ধ ভাবে যেটা বলেন সেটা মূলত বিভিন্ন স্থানে প্রাপ্ত ফসিল ও বিবর্তনবাদী ব্যাখ্যার মাধ্যমে । মানুষের উৎপত্তির যত বৈজ্ঞানিক যুক্তি বা তত্ব উপস্থাপন করা হয় সবই কিন্তু প্রাপ্ত জীবাশ্ম, ফসিল, অথবা বিবর্তনবাদ নির্ভর। ডারউইন এর বিবর্তন তত্ত্ব(১৮৫৯ সালে দ্যা অরিজিন অফ দি স্পিসিস গ্রন্থে সর্বপ্রথম প্রকাশিত ) অনুযায়ী মানুষ এর পৃথিবীতে আগমন রাতারাতি কোন ঘটনা নয় । এটা এক দীর্ঘ প্রক্রিয়া মাধ্যমে এক প্রকার প্রাইমেট বা বানর জাতীও প্রানী হতে দীর্ঘ এক বিবর্তন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মানুষ পৃথিবীতে এসেছে ।এবং মানব আগমনের এই ইতিহাসটাও বেশ পুরাতন ও জটিল কিন্তু বুঝতে অসুবিধা হবার কথা নয় ।বিবর্তনের মাধ্যমে মানবজাতি সৃষ্টির পুরো ইতিহাস টা সংক্ষেপে এমন যে, গরিলা, শিম্পাঞ্জী, এবং হোমিনিন বংশের মধ্যে প্রাপ্ত জীবাশ্মের প্রমান হিসেবে শুরু তে প্রাপ্ত জীবাশ্ম এর প্রথম নমুনা, অর্রোরিন|টিউগেনেসিস(০৫ কোটি ৭০ লক্ষ বছর আগের), সালেন্থ্রপাস টিচডেনেসিস (০৭ মিলিয়ন পুরনো), আর্দিপিথেকাস কাদাব্বা (৫.৬ মিলিয়ন বছর) আগের ।এই প্রজাতি গুলোর বিবর্তন শেষ হবার পর এলো হোমো প্রজাতির প্রাথমিক সদস্য হিসাবে এলো হোমো হাবিলিস(২.`৪ মিলিয়ন বছর পূর্বে), হোমো ইরেকটাস (১.৩-১.৮ মিলিয়ন বছর পূর্বে), আফ্রিকান হোমো ইরেকটাস এর বংশধররা ৫,০০,০০০(পাঁচ লক্ষ)বছর পূর্বে ইউরেশিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে ।এভাবে আরো ক্রম বিবর্তনের মাঝ দিয়ে এসে মানুষ তার বর্তমান প্রজাতি তথা বর্তমান মানুষ হোমো স্যাপিয়েন্স (Homo Sapiens) এ এসে পৌঁছেছে । এবারে আসি প্রচলিত ধর্মীয় বিশ্বাসের কথায় ।আপনারা অনেকে হয়তো হবুতি সন সম্বন্ধে পড়েছেন ।হবুতি সন বলা হয় ইসলাম ধর্ম মতে মানবজাতির আদি পিতা হজরত আদম (আঃ) এর পৃথিবীতে অবতরনের বছরকে ।আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) এর জন্ম গ্রহনের বছর ছিল হবুতি(৪৫৭৪) চার হাজার পাঁচশো চুয়াত্তর সাল । বর্তমানে এর সাথে আরো ১৪৪৭ হবুতি সাল পেরিয়ে গেছে ।তার মানে মানুষ এসেছে পৃথিবীতে ৪৫৭৪+১৪৪৭=৬০২১ হবুতি বছর আগে ।আর হিব্রু বাইবেল অনুসারে হুজুর (সাঃ) পর্যন্ত ৫৯৯২ বছর । সে হিসাবে এখন হবুতি ৫৯৯২ +১৪৪৭ =৭৪৩৯ বছর চলছে এই ২০১৭ তে একবার এখন দেখা যাক বিজ্ঞানীদের লক্ষ লক্ষ প্রাপ্ত বছরের ফসিল তত্তের কাছে এই যুক্তি কতটুকু টেকে । উইকিপিডিয়ার দেওয়া তথ্যমতে খৃস্টপূর্ব ১০,০০০ সনে মানুষ আনুমানিক ০১ থেকে ০৪ মিলিয়ন ছিল । যদিও সেখানে বলা আছে সেই সংখ্যাটা আনুমানিক । জোরাল এভিড্যান্স নেই এর পক্ষে ।খ্রিষ্টাব্দ ০১ এ এসে দাড়ায় ২৭০ থেকে ৩৩০ মিলিয়ন এর মধ্যে । ১৫০০ শতাব্দীতে ৪৪০ থেকে ৫৪০ মিলিয়ন এর মাঝে এসে দাড়ায় । ১৯৫০ সালে ছিল ২৩৫ কোটির মত ।২০১৭ সালের দিকে এসে দাঁড়িয়েছে ৭৩৫ কোটির মত । তাহলে এখন যদি আমরা কেউ বর্তমান থেকে বা অতীত থেকে একটা আনুমানিক জনসংখ্যা হ্রাস বা বৃদ্ধির হিসাব করি তাহলে কিন্তু আমরা মানবজাতির শুরুটা খুব সহজেই পেয়ে যেতে পারি । আরো বড় সমস্যা কি জানেন মানবজাতি পূর্ব থেকেই তার পূর্ব পুরুষের বংশানুক্রমিক জন্ম তালিকা সংরক্ষন করবার প্রয়োজনীয়তা বোধকরেনি । তাহলে হয়তো আমরা সঠিক একটা তথ্য পেয়ে যেতাম মানবজাতির সঠিক উৎপত্তি কত বছর আগে ।তবে বিজ্ঞানিরা যে লক্ষ লক্ষ বছর আগের কথা বলেন সেটা কিন্তু মানবজাতির জনসংখ্যার এই ধাপে ধাপে বৃদ্ধির পরিসংখ্যান এর দিকে তাকালে এটা স্পষ্টরূপে প্রতীয়মান হয় যে আমাদের এই মানবজাতির শুরু বা আমাদের আদি পিতা লক্ষ লক্ষ বছর আগের নয় , বিবর্তন ও নয় ,মানব জাতির আদি পিতা স্বর্গ থেকেই পৃথিবীতে এসেছেন , অবিশ্বাসী যদি হন তবে বড়জোর বলা যেতে পারে তিনি এ গ্রহের নন ,ভিনগ্রহের থেকে এসেছিলেন ।তবে এলিয়েন এর জেনেটিকস বা DNA আমাদের মাঝে আছে কিনা সেটা নিয়েও অনেক বিজ্ঞানী আশাবাদী গবেষক হিসেবে চেষ্টা চালাচ্ছেন

এই লেখা কপি পেস্ট না করাই ভালো কপি পেস্ট করলে আমার ক্রেডিট দেবেন । কারন এটি বাংলাদেশ কপিরাইট অফিস থেকে কপিরাইট সার্টিফিকেট প্রাপ্ত আমার লেখা ২০১৮ তে প্রকাশিত রহস্য ও বিজ্ঞান এর মিশেলে লিখিত বইকালোজাদু এর সামান্য অংশ মাত্র ।বইটি সম্পূর্ণ ফ্রি তে অ্যাড মুক্ত পড়তে চাইলে ঘুরে আসুন এখান থেকে
সর্বশেষ এডিট : ২১ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৩২
৩টি মন্তব্য ১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

অটোপসি

লিখেছেন জাহিদ অনিক, ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৩২

যে পাহাড়ে যাব যাব করে মনে মনে ব্যাগ গুছিয়েছি অন্তত চব্বিশবার-
একবার অটোপসি টেবিলে শুয়ে নেই-
পাহাড়, ঝর্ণা, জংগলের গাছ, গাছের বুড়ো শিকড়- শেকড়ের কোটরে পাখির বাসা;
সবকিছু বেরিয়ে আসবে... ...বাকিটুকু পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধ আমাদের গৌরব গাঁথা আমাদের ইতিহাস : ঘটনাপঞ্জি ও জানা অজানা তথ্য। [১]

লিখেছেন ইসিয়াক, ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৮


আমার এ পোষ্টটি সবার ভালো না ও লাগতে পারে । যাদের মুক্তিযুদ্ধ ও আমাদের স্বাধীনতার গৌরবগাঁথা সর্ম্পকে বিন্দু মাত্র শ্রদ্ধাবোধ বা আগ্রহ নাই তারা... ...বাকিটুকু পড়ুন

নিজ দেশে অবহেলিত এশিয়া কাপে স্বর্ণ পদক বিজয়ী!

লিখেছেন ঘূণে পোকা, ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০৪

‘আমার দেশে আমার কোনো দাম নেই’



রোমান সানা (তীরন্দাজ) : ‘বড় পর্যায়ের কারও কাছ থেকে কোনো শুভেচ্ছা পাইনি। এটা নিয়ে কষ্ট হচ্ছে। অথচ ক্রিকেটে জিম্বাবুয়েকে হারানোর পর আফিফ হোসেনকে কত... ...বাকিটুকু পড়ুন

ঢাকার পথে পথে- ১৪ (ছবি ব্লগ)

লিখেছেন রাজীব নুর, ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৩



ঢাকা শহরের মানুষ গুলো ঘর থেকে বাইরে বের হলেই হিংস্র হয়ে যায়। অমানবিক হয়ে যায়। একজন দায়িত্বশীল পিতা, যার সংসারের প্রতি অগাধ মায়া। সন্তনাদের প্রতি সীমাহীন ভালোবাসা- সে-ও... ...বাকিটুকু পড়ুন

ছাত্রলীগ নিয়ে শেখ হাসিনার খোঁড়া সমাধান!

লিখেছেন চাঁদগাজী, ১৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৫



Student League News

স্বাধীনতা যুদ্ধের পর, ছাত্র রাজনীতির দরকার ছিলো না; ছাত্ররা ছাত্র, এরা রাজনীতিবিদ নয়, এরা ইন্জিনিয়ার নয়, এরা ডাক্তার নয়, এরা প্রফেশালে নয়, এরা শুধুমাত্র ছাত্র;... ...বাকিটুকু পড়ুন

×