somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বিশ্ব পরিবেশ দিবস ২০২৪

০৫ ই মে, ২০২৪ বিকাল ৫:০৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



করবো ভূমি পুনরুদ্ধার, রুখবো মরুময়তা
অর্জন করতে হবে মোদের খরা সহনশীলতা


এই বছরের বিশ্ব পরিবেশ দিবসের প্রচারণা "আমাদের জমি" স্লোগানের অধীনে ভূমি পুনরুদ্ধার, মরুকরণ এবং খরা প্রতিরোধের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করা হয়েছে। সৌদি আরব ২০২৪ সালের বিশ্ব পরিবেশ দিবসের বৈশ্বিক উদযাপনের আয়োজন করবে।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস (WED) প্রতি বছর ৫ জুন বিশ্বব্যাপী রাজনৈতিক কর্মোদ্যোগ আর জনসচেতনতার মাধ্যমে পরিবেশ সচেতনতার লক্ষ্যে পালিত দিবস। এই দিনটিতেই জাতিসংঘের মানবিক পরিবেশ সম্মেলন (United Nations Conference on the Human Environment) শুরু হয়েছিল।

প্রাকৃতিক ভারসাম্য ঠিকমতো বজায় রেখে মানুষ যাতে এই পৃথিবীর বুকে অন্যান্য সমস্ত জীবের সাথে একাত্ম হয়ে এক সুন্দর পরিবেশে বেঁচে থাকে সেজন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করাই বিশ্ব পরিবেশ দিবসের উদ্দেশ্য। জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি (ইউএনইপি) সৌদি আরবকে ২০২৪ সালের বিশ্ব পরিবেশ দিবসের আয়োজক হিসেবে ঘোষণা করেছে, যা পরিবেশ রক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধি এবং বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণে স্থানীয়, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশটির অগ্রণী ভূমিকাকে তুলে ধরবে।

ভূমি পুনরুদ্ধার, মরুকরণ এবং খরা সহনশীলতার মত বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে, এই দিবসে, প্রকৃতি রক্ষা ও পুনরুদ্ধার এবং একটি টেকসই ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সঠিক নীতি ও কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নে বিশ্বব্যাপী সহযোগিতা এবং সম্মিলিত প্রচেষ্টার প্রয়োজনীয়তার কথা পুনর্ব্যক্ত করা হবে।

G20 এর সভাপতি হিসেবে সৌদি আরবের নেতৃত্বে বিশ্বব্যাপী কোরাল গবেষণা এবং উন্নয়নের অ্যাক্সিলারেটর প্ল্যাটফর্ম এবং ভূমিক্ষয় হ্রাস এবং স্থলভাগের আবাসস্থল সংরক্ষণের জন্য বৈশ্বিক উদ্যোগ চালু হয়েছে, যার মূল লক্ষ্য সামুদ্রিক এবং স্থল, উভয় আবাসস্থল রক্ষা এবং পুনরুদ্ধার করা। জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচির (ইউএনইপি) নির্বাহী পরিচালক মিসেস ইঙ্গার অ্যান্ডারসন জমি পুনরুদ্ধার এবং খরা সহনশীলতা অর্জনে সম্মিলিত বৈশ্বিক উদ্যোগে সৌদি আরবের অংশগ্রহণকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি উল্লেখ করেন যে, প্রকৃতি পুনরুদ্ধার এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আমাদের গ্রহকে সংরক্ষণের প্রচেষ্টা জোরদার করার জন্য ইউএনইপি এবং সৌদি আরব তাদের কাজ অব্যাহত রাখবে।

১৯৭৩ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী সচেতনতা বৃদ্ধি এবং পরিবেশ রক্ষার বিভিন্ন পদক্ষেপকে উত্সাহিত করার জন্য জাতিসংঘের বৃহত্তম বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে পরিণত হয়েছে এই বিশ্ব পরিবেশ দিবস। ইউএনইপির নেতৃত্বে, প্রতি বছর বিশ্বব্যাপী ১৫০ টিরও বেশি দেশ এই দিবস পালন করে থাকে।

প্রতি বছরই দিবসটি আলাদা আলাদা শহরে, আলাদা আলাদা প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে পালিত হয়। উল্লেখ্য ২০২৩ সালে প্লাস্টিক-দূষণ বন্ধের আহ্বানে ‘প্লাস্টিক দূষণ সমাধানে শামিল হই সকলে' প্রতিপাদ্য নিয়ে সারাবিশ্বে দিবসটি পালিত হয়েছিল।
.
............................................................................................
.
আমরা ঘুড়ি স্কুল, প্রকৃতির মঞ্চPRAS একসাথে ২০২৩ সালে এই আয়োজন করেছিলাম। এ বছরেও রয়েছে আমাদের একই ধরণের কর্মসূচী।

এই কদিন ধরে আপনারা অনেকেই বৃক্ষ রোপণ, বৃষ্টি, তাপদাহ ইত্যাদি নিয়ে নানা আলোচনায় ছিলেন/আছেন। সময় হয়েছে এই নিয়ে শুধু আলাপ আলোচনা আর ফেসবুকে স্ট্যাটাসেই সীমাবদ্ধ না থেকে একসাথে কাজে নেমে যাবার।

আগ্রহী ব্যক্তি/সংস্থা/সংগঠনকে আমরা উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি, আসুন সম্মিলিতভাবে সবাই পরিবেশ দিবস উপলক্ষে কাজে নামি!! আমাদের দেশটাকে সবুজ করে তুলি। নদী দখল বন্ধে সোচ্চার হই, বৃক্ষ রোপণ করি ও তা যেন ঠিকঠাক বেড়ে উঠে তা খেয়াল রাখি। বনায়নে অবদান রাখি। প্লাস্টিক দূষণ বন্ধে পদক্ষেপ নেই।


.
নীলসাধু

















সর্বশেষ এডিট : ০৫ ই মে, ২০২৪ বিকাল ৫:০৪
০টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

মৃত ১১০ জনকে জীবিত ফিরিয়ে আনুন

লিখেছেন চাঙ্কু, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ ভোর ৪:০৬



খুব সিম্পল একটা সামাজিক আন্দোলন - কোটা সিস্টেম সংস্কার করে একটা ফেয়ার কোটা সিস্টেম রাখা। আহামরি অন্য কোন দাবীও নাই যা সরকারের পক্ষে রাখা সম্ভব না। শিক্ষামন্ত্রী বা সরকারের... ...বাকিটুকু পড়ুন

আদালতের রায়ে কি সমাধান আসবে? কি হতে পারে বর্তমান অবস্থায়:

লিখেছেন সরলপাঠ, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ সকাল ১১:৪৯

কোটা সংস্কার নিয়ে আজকের অগ্নিগর্ভ বাংলাদেশ মূলত সরকারের রাজনৈতিক ভুল সিদ্ধান্তের ফল। গত কয়েকদিনে ২০০ এর অধিক মানুষকে হত্যার জন্যে সরকারই দায়ী। বর্তমান অবস্থায় সরকারের জন্যে সহজ কোন পথ... ...বাকিটুকু পড়ুন

সব কোমলমতি "কোটা পরিবর্তনের" আন্দোলন করেনি!

লিখেছেন সোনাগাজী, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ বিকাল ৪:৩৬



**** কোর্ট কোমলমতি ফেইসবুকারদের "মোয়া" ধরায়ে দিয়েছে: কোটার ৯৩% নয়, ১৯৩% চাকুরীও যদি কোমলমতিদের দেয়া হয়, তারপরও ৪০ লাখ শিক্ষিত বেকার থাকবে; কারণ, কোটার শতকরা হার বাড়োনো হয়েছে কোমলমতিদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

দেশে ইন্টারনেট আসার আগে, এই পোষ্টটা সরিয়ে নেবো। (সাময়িক )

লিখেছেন সোনাগাজী, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:০৯



ভোলার মানুষজনের ১টা শান্ত্বনা আছে, উনারা সামান্য পয়সা দিয়েও মাঝে মাঝে ইলিশ পেয়ে থাকেন; অনেকে বিনা পয়সায়ও পেয়ে থাকেন মাঝে মাঝে; ইহা ব্যতিত অন্য কিছু তেমন নেই; ও... ...বাকিটুকু পড়ুন

×