somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

মিঃ গওহর রিজভী এবং ডঃ মসিউর রহমানের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাই

০৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০১১ রাত ৯:৪৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



গওহর রিজভী এবং মসিউর রহমানের কর্মকাণ্ড, কথাবার্তা শুনে নিশ্চিতভাবেই বোঝা যায় যে এই দুইজন দেশের চেয়ে ভারতের স্বার্থকেই বড় করে দেখেন।এদের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চাই। এদের অতীত কর্মকান্ড, প্রকাশিত সরকারী কাজের বাইরে ভারত সফরের পরিমাণ, ব্যাংক হিসাবে লেন-দেনের পরিমাণ ও উৎস, বিদেশে কোন স্থাবর সম্পতি থেকে থাকলে তার বিবরণ-এসব অনুসন্ধান চালানো এখন সময়ের দাবি।

মিঃ গওহরের ব্যাপারে বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক তথ্যসূত্রে থেকে জানা যায় তিনি ১৯৯৮ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত "ফোর্ড ফাউন্ডেশনের" হয়ে নয়াদিল্লীতে চাকুরী করেন। আর তার প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্ঠা হওয়া ছিল চরম নাটকীয়। কারন উপদেষ্ঠা হবার আগে ভদ্রলোককে এখানের তেমন কেউই চিনতোনা। মিঃ রিজভী ২০০৯ সালের ৯ জুলাই বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাস করা অবস্থায় হটাত করে মন্ত্রী পদমর্যাদার প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ বিষয়ক উপদেষ্ঠা হিসেবে নিয়োগ পান। এই নিয়োগের ৯ দিন পর তিনি দেশে এসে ১৮ জুলাই দায়িত্ব গ্রহণ করে আবার বিদেশে চলে যান। এর আগের প্রায় ২৫ বাংলাদেশের সাথে তার কোন যোগাযোগ ছিলনা। এমনকি আওয়ামীলীগের অনেক এম্পি মন্ত্রীও তাকে চিনতোনা। তিনি বহু পুর্বে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব গ্রহণ করেছেন। তার স্ত্রী এঞ্জেস বারলো একজন ইতালীয় নাগরিক। যুক্তরাষ্ট্রে থাকা প্রধানমন্ত্রী পুত্র জয়কে বিভিন্ন বিষয়ে পড়ান তিনি এবং সেই সুত্রে তার সাথে ঘনিষ্ঠতা হয় বলে জানা যায়। পরবর্তিতে তার অনুরোধেই গওহর কে ৭ম উপদেষ্ঠা হিসেবে নিয়োগ দেন তার আম্মি শেখ হাসিনা।

অন্যদিকে সাম্প্রতিক শেয়ার বাজার বিপর্যয়ের অন্যতম পিছনের মানুষ ডঃ মশিউর রহমান ছিলেন সাবেক বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর। তিনি আমাদের প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্ঠা হয়েও শেয়ার বাজার চরম ক্রান্তিকালের সময় বলেছিলেন, পুঁজিবাজারের দায় সরকার কোনোভাবেই নেবে না। এছাড়া সাম্প্রতিক ভারত-বাংলাদেশ আলোচনায় গওহর এর পর এই উপদেষ্ঠা ছিলেন সবচেয়ে সরব। তবে তার সরবতা ছিল যতটা না বাংলাদেশের জন্য তার ছেয়ে বেশি ভারতের স্বার্থে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সক্ষমতায় পিছিয়েছে। আজকে প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ২০১১-১২ অর্থবছরের বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা সক্ষমতা প্রতিবেদনে (জিসিআর) বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্ব অর্থনৈতিক সক্ষমতা সূচক অনুযায়ী জিসিআর এ গতবছর বাংলাদেশ ১০৭তম অবস্থানে থাকলেও এ বছর তা একধাপ নেমে ১০৮-এ এসে দাঁড়িয়েছে।

সুতারাং সবদিকে থেকে মাকাম ফল এই দুই উপদেষ্ঠাকে দ্রুত বিদায় করা হোক সাথে আরেক ভাঁড় দিপু মনিকেও।

***বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষনঃ সবাইকে এই পেইজটায় যোগ দিয়ে আলোচনার অনুরোধ থাকলো। ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র এমন অনলাইন উদ্যেগে একদিন আমাদের তরুণ প্রজন্ম সত্যিকার দেশপ্রেমের দিকে এগিয়ে যাবে সেটাই পেইজটার প্রত্যাশা।
১৯টি মন্তব্য ১৩টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

কষ্ট থেকে আত্মরক্ষা করতে চাই

লিখেছেন মহাজাগতিক চিন্তা, ২৩ শে এপ্রিল, ২০২৪ দুপুর ১২:৩৯



দেহটা মনের সাথে দৌড়ে পারে না
মন উড়ে চলে যায় বহু দূর স্থানে
ক্লান্ত দেহ পড়ে থাকে বিশ্রামে
একরাশ হতাশায় মন দেহে ফিরে।

সময়ের চাকা ঘুরতে থাকে অবিরত
কি অর্জন হলো হিসাব... ...বাকিটুকু পড়ুন

রম্য : মদ্যপান !

লিখেছেন গেছো দাদা, ২৩ শে এপ্রিল, ২০২৪ দুপুর ১২:৫৩

প্রখ্যাত শায়র মীর্জা গালিব একদিন তাঁর বোতল নিয়ে মসজিদে বসে মদ্যপান করছিলেন। বেশ মৌতাতে রয়েছেন তিনি। এদিকে মুসল্লিদের নজরে পড়েছে এই ঘটনা। তখন মুসল্লীরা রে রে করে এসে তাকে... ...বাকিটুকু পড়ুন

মেঘ ভাসে - বৃষ্টি নামে

লিখেছেন লাইলী আরজুমান খানম লায়লা, ২৩ শে এপ্রিল, ২০২৪ বিকাল ৪:৩১

সেই ছোট বেলার কথা। চৈত্রের দাবানলে আমাদের বিরাট পুকুর প্রায় শুকিয়ে যায় যায় অবস্থা। আশেপাশের জমিজমা শুকিয়ে ফেটে চৌচির। গরমে আমাদের শীতল কুয়া হঠাৎই অশীতল হয়ে উঠলো। আম, জাম, কাঁঠাল,... ...বাকিটুকু পড়ুন

= নিরস জীবনের প্রতিচ্ছবি=

লিখেছেন কাজী ফাতেমা ছবি, ২৩ শে এপ্রিল, ২০২৪ বিকাল ৪:৪১



এখন সময় নেই আর ভালোবাসার
ব্যস্ততার ঘাড়ে পা ঝুলিয়ে নিথর বসেছি,
চাইলেও ফেরত আসা যাবে না এখানে
সময় অল্প, গুছাতে হবে জমে যাওয়া কাজ।

বাতাসে সময় কুঁড়িয়েছি মুঠো ভরে
অবসরের বুকে শুয়ে বসে... ...বাকিটুকু পড়ুন

Instrumentation & Control (INC) সাবজেক্ট বাংলাদেশে নেই

লিখেছেন মায়াস্পর্শ, ২৩ শে এপ্রিল, ২০২৪ বিকাল ৪:৫৫




শিক্ষা ব্যবস্থার মান যে বাংলাদেশে এক্কেবারেই খারাপ তা বলার কোনো সুযোগ নেই। সারাদিন শিক্ষার মান নিয়ে চেঁচামেচি করলেও বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরাই বিশ্বের অনেক উন্নত দেশে সার্ভিস দিয়ে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×