somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বাংলাদেশ: ফিরে দেখা ৩ আগস্ট

০৩ রা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ২:৪৬
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


সহজলভ্য রেফারেন্সের অভাবে বাংলাদেশের ইতিহাসের অনেক ঘটনা বিভিন্ন ব্যক্তি বিভিন্নভাবে বিশ্লেষণ করেন। এতে ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত হচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে অসংখ্য বিতর্কের। তাই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য কিছু ঘটনার সূত্র সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে আমার এই ক্ষুদ্র প্রয়াস।'ফিরে দেখা বাংলাদেশ'। সংবাদপত্র হচ্ছে চলমান ইতিহাসের ধারক। প্রায় সব তথ্য যাচাই-বাচাই করে দেশের প্রধান সংবাদপত্রসমূহ থেকে নেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে ৩ আগস্ট ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক ও সামাজিক ঘটনাবলি:

১৯৭৩
=====
চট্টগ্রামে সান্ধ্যআইন জারি করে তল্লাশি অভিযান।

১৯৭৭
=====
ঢাকা-রেঙ্গুন বিমানচুক্তি স্বাক্ষরিত।

১৯৮২
=====
২২ খুনসহ অসংখ্য গুম ও ডাকাতি মামলার আসামি দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী বিএনপি ক্যাডার এমদাদুল হক ইমদুর ফাঁসি কার্যকর।


প্রসঙ্গত: কালীগঞ্জের সাতানিপাড়া গ্রামের কৃষক আশরাফ আলীর ছেলে এমদাদুল হক ইমদু। স্বাধীনতার পর ইমদু জাসদের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। কালীগঞ্জের জাসদ নেতা আলী হোসেন তালুকদারের অন্যতম সহযোগী ছিলেন তিনি। জাসদ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর ইমদু বিএনপিতে যোগদান করেন। তৎকালীন যুবমন্ত্রী আবুল কাশেমের হাত ধরে তিনি বিএনপিতে যোগদান করেন ১৯৮০ সালে। সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় তিনি দানবে রূপ নেন। শুরু হয় তার ‘জাসদ খতম’ মিশন। জয়দেবপুর উপজেলার খিলগাঁও গ্রামের বাবুল, আবদুল কাদের ভূইয়া, কফিলউদ্দিন সামসুকে নিজ হাতে খুন করেন। এরা প্রত্যেকেই তার একসময়ের সহযোগী ছিলেন। ১৯৮১ সালের ৪ এপ্রিল ইমদু ও তার বাহিনীর হাতে খুন হন জাসদ নেতা আলী হোসেন। ঢাকার তেজগাঁও রেলওয়ে কলোনির বাসার সামনেই আলী হোসেনকে খুন করেন ইমদু। শত শত মানুষের সামনে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ রাস্তায় ফেলে রেখে যায় ইমদু বাহিনী।

ইমদু রাজনৈতিকভাবে কতটা দাপুটে ছিলেন, কয়েকটি ঘটনায় তার প্রমাণ মেলে। পুবাইল স্টেশনে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের এক জনসভা ছিল। সেদিন মঞ্চে ছিলেন শুধু রাষ্ট্রপতি এবং ইমদু। সে সভায় বাঘা বাঘা মন্ত্রীদের বসতে হয়েছিল মঞ্চের সামনে, সাধারণের কাতারে। আরও একবার বিএনপির জনসভায় তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজের গলার মালা খুলে ইমদুকে পরিয়ে দেন। খুনের নেশায় মত্ত ইমদু দিনে দিনে বেপরোয়া হয়ে উঠতে থাকেন। বিএনপি সরকারের ভিত পর্যন্ত কেঁপে উঠেছিল ইমদুর সন্ত্রাসে। জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর কয়েক দিন আগে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয় ইমদুকে। কিন্তু তখন তিনি যুবমন্ত্রী আবুল কাশেমের ক্যাডার হিসেবেই থেকে যান।

এই ভয়ঙ্কর অপরাধীকে গ্রেফতার করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তিন দিন ধরে তৎকালীন যুবমন্ত্রী আবুল কাশেমের বাসভবন ঘিরে রাখতে হয়েছিল। সংশ্লিষ্টদের মতে, স্বাধীন বাংলাদেশে ইমদুই একমাত্র সন্ত্রাসী যাকে সরকারের একজন প্রভাবশালী মন্ত্রীর বাসভবন থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ফাঁসি : ১৯৮২ সালের ৪ আগস্ট ভোর পৌনে ৪টায় কুখ্যাত খুনি ইমদুর ফাঁসির রায় কার্যকর হয়। এর আগে বেশ কয়েকটি খুনের বিচারে তার ফাঁসির রায় দেওয়া হয়। অনেক মামলার একটি হলো আবদুল মজিদ হত্যা মামলা। মামলার বিচার হয় ঢাকার ‘ক’ অঞ্চলের ১ নম্বর বিশেষ সামরিক আইন আদালতে। ১২ মে আদালত তার বিরুদ্ধে সর্বসম্মতভাবে ফাঁসির রায় ঘোষণা করেন।

১৯৮৩
=====
চট্টগ্রামে ৫০ বৎসরের রেকর্ড ভঙ্গকারী ২৪ ঘন্টায় ২০ ইঞ্চি বৃষ্টিপাত।

১৯৮৯
=====
চট্টগ্রামে ১ কোটি টাকার হেরোইন আটক

১৯৯২
=====
সংসদে তিনটি বিল অনুমোদিত। বিরোধীদল আওয়ামী লীগের বক্তব্য, 'স্বৈরাচারী শাসকের মতো প্রধানমন্ত্রীর হাতে ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত করা হচ্ছে।'

১৯৯৯
=====
সরকারি কর্মকর্তাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, 'কাজশেষে লাইট-ফ্যানের সুইচ বন্ধ করতে পিয়নের জন্য অপেক্ষা করবেন না।'
- - - - - - - - -
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে দখল-বেদখলের পেছনে ২৪ কোটি টাকার টেন্ডার।
কর্তৃপক্ষ, শিক্ষক, ছাত্র ও রাজনীতিক জড়িত।

২০০১
=====
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে দখল-বেদখলের পেছনে ২৪ কোটি টাকার টেন্ডার। কর্তৃপক্ষ, শিক্ষক, ছাত্র ও রাজনীতিক জড়িত
- - - - - - - -
"সুষ্ঠু নির্বাচন হলে সবার উচিত ফল মেনে সংসদে যোগ দেয়া।"—জিমি কার্টারকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
"আগে চাই পরিবেশ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ফলাফল মেনে নেব।"— জিমি কার্টারকে খালেদা জিয়া

২০০৩
=====
শেখ হাসিনা, সাবেক নৌবাহিনীর কর্তাব্যক্তি এবং ব্যবসায়ী আবদুল আউয়াল মিন্টুর বিরুদ্ধে ফ্রিগেট কেনার দুর্নীতির মামলায় চার্জশিট

২০০৬
=====
জঙ্গি গ্রেফতার
'চার-পাঁচবার বোমা হামলার পেছনে বাইরের যোগাযোগ রয়েছে।'—সংবাদ সন্মেলনে মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিচার্ড বাউচার

২০০৭
=====
র‌্যাংগস ভবন ভাঙ্গা শুরু : হুলস্থুল কাণ্ড খরচ এক কোটি টাকা ।। সময় লাগবে ১২০ দিন
উচ্চ আদালতের রায়ের পর ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে বহুল আলোচিত র‌্যাংগস ভবন ভাঙ্গা শুরু। বাংলাদেশের ইতিহাসে এত বড় ভবন ভাঙ্গার ঘটনা নজিরবিহীন। দীর্ঘ আইনী লড়াইয়ের অবসানে উচ্চ আদালতের রায়ের পর মাত্র এক দিনের মধ্যে সাড়ে তিনশ শ্রমিক হাতুড়ি শাবল গাইতি নিয়ে 'দেড় দশকের অন্যায়ের মনুমেন্ট' গগনচুম্বী র‌্যাংগস ভবন ভাঙ্গার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। এ সময়ে রাস্তায় ও আশেপাশের ভবনে ছিল শত শত উৎসুক মানুষের ভিড়। ভবনের ৭ তলা থেকে ২২ তলা পর্যন্ত সামনের সুদৃশ্য কাঁচ হাতুড়ির প্রচণ্ড আঘাতে এক সঙ্গে ঝন ঝন শব্দে রাজপথে পড়তে শুরু করলে দুর্ঘটনার আশংকায় সাময়িকভাবে সামনের রাস্তা কিছু সময়ের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়। রাস্তায় ভাঙ্গা কাঁচের স্তূপ জমে গেলে বুলডোজার দিয়ে সেগুলো সরিয়ে নেয়া হয়। ভাঙ্গা কাঁচের সঙ্গে ভবন থেকে প্রচুর কাগজপত্র উড়ে আসছিল। ভেঙ্গে পড়ছিল জানালার এলুমিনিয়াম ফ্রেম। সব মিলিয়ে র‌্যাংগস ভবন এলাকায় চলছিল এক হুলুস্থূল কাণ্ড।

২০০৮
=====
যাত্রা শুরু যুগান্তকারী ট্রুথ কমিশনের

আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল পাঁচ মাস মেয়াদী ট্রুথ কমিশন (সত্য ও জবাবদিহিতা কমিশন)। রাজধানীর হেয়ার রোডের কার্যালয়ে প্রথম দিনের মতো অফিস করলেন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি হাবিবুর রহমান খান ও দুই সদস্য সাবেক মহাহিসাব নিরীক্ষক আসিফ আলী এবং মেজর জেনারেল (অব.) মঞ্জুর রশীদ খান। কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি হাবিবুর রহমান খান বলেছেন, অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে দেশকে রক্ষা করতেই এই ট্রুথ কমিশন গঠন করা হয়েছে। ওয়ান ইলেভেনের পর দুর্নীতি বিরোধী গ্রেফতার অভিযানে এক ধরনের অস্থিরতা দেখা দিয়েছিল। এ অবস্থায় কেউ কেউ পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন। কেউ বিনিয়োগ করতে সাহস পাচ্ছিলেন না। ট্রুথ কমিশনের মাধ্যমে ক্ষমাপ্রাপ্ত বা সুবিধাপ্রাপ্তরা পাঁচ বছরে কোন ধরনের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না এবং কোন রাজনৈতিক দল, ব্যবসায়ী সংগঠনসহ কোন সংগঠনের পদে থাকতে পারবেন না। তবে কোন গোষ্ঠী বা ব্যক্তিকে রক্ষা করার জন্য এই কমিশন গঠন করা হয়নি। তিনি বলেন, এবার পরিশুদ্ধির অভিযান চালিয়ে যেতে হবে। যাতে দোষী ব্যক্তিরা নিজেদের পরিশুদ্ধ করে সামাজিকভাবে জীবন-যাপন করতে পারেন। তবে কারও নাম প্রকাশ করা হবে না। পাঁচ মাসে যতটুকু করা সম্ভব, ততটুকুই করা হবে। জনসাধারণের উদ্দেশে ট্রুথ কমিশন গতকাল একটি গণবিজ্ঞপ্তি সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রকাশার্থে বিতরণ করেছে। এদিকে কেউ ট্রুথ কমিশনের সুবিধা নেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করলেই আজ সোমবার থেকে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কমিশনের কাছে আবেদন করতে পারবেন। এক্ষেত্রে কোন ব্যক্তি কমিশনের অনুমতিসাপেক্ষে তার পক্ষে আইনজীবীও নিয়োগ করতে পারবেন।

বিচারপতি হাবিবুর রহমান খান আরো বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় নেলসন ম্যান্ডেলা প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর সেই দেশে ট্রুথ কমিশন গঠন করা হয়েছিল। এছাড়া দক্ষিণ আমেরিকা ও শ্রীলংকায় ট্রুথ কমিশন গঠন করা হয়েছিল। তবে সেগুলো ছিল মানবাধিকার সম্পর্কিত। আমাদের দেশে যে কমিশন গঠন করা হয়েছে, তা অর্থনীতি সম্পর্কিত। এই কমিশন কতটুকু সফল হবে তা নির্ভর করবে সম্পূর্ণ জনগণের ওপর। জনগণ এই কমিশনকে গ্রহণ করলেই সফল হওয়া সম্ভব।

গত ২৫ মে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা পরিষদ ‘স্বপ্রণোদিত তথ্য প্রকাশ অধ্যাদেশ-২০০৮’ অনুমোদন করে। ৮ জুন রাষ্ট্রপতি অধ্যাদেশ জারি করেন। এরপর ২৩ জুলাই অধ্যাদেশটি সংশোধন করা হয়। মাত্র পাঁচ মাসের জন্য গঠিত এই কমিশনের কাছে দুর্নীতির দায়ে ২ বছর কিংবা তারও বেশি সাজাপ্রাপ্তরা ছাড়া যে কেউ সত্য প্রকাশ করে দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত অর্থ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ফেরত দিয়ে ক্ষমা চাইতে পারবেন। তবে ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা কিংবা বিভ্রান্তিকর তথ্য দিলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনধিক ছয় মাসের কারাদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডের আদেশ দিতে পারবে কমিশন।

২০১০
=====
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর ভ্যাট প্রত্যাহার
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) প্রত্যাহার করতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) নির্দেশ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

২০১১
=====
১৩ আইনজীবীকে পেশা পরিচালনা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ
এজলাস কক্ষে হাতাহাতি, হইচই ও বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ১৩ আইনজীবীর আইন পেশা পরিচালনায় বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। আজ বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
সংবিধান নিয়ে ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের চেয়ারম্যান ফজলুল হক আমিনীর কটাক্ষপূর্ণ বক্তব্যের অভিযোগে করা রিট আবেদনের ওপর আদালতে গতকাল মঙ্গলবার শুনানি হয়। শুনানির সময় আদালতের অভিমতে বিরোধীদলীয় নেতার প্রসঙ্গ আসায় দুই পক্ষের আইনজীবীদের মধ্যে হাতাহাতি ও বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়।
- - - - - - - -
মুক্তি পেয়েই নিষ্ঠুরতার বিচার চাইলেন কাদের
পুলিশের হাতে নির্যাতিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবদুল কাদের তিনটি মামলাতেই জামিন পেয়ে মুক্তি পেয়েছেন। তিনি সাংবাদিকদের বললেন, ‘আমি নির্দোষ। যারা আমার মতো অসহায়ের ওপর নির্মম অত্যাচার চালিয়েছে, তাদের বিচার চাই। আমি সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি, যেন সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষী পুলিশ অফিসারদের শাস্তি দেওয়া হয়।’ এ সময় কাদের তাঁকে গ্রেপ্তার ও নির্যাতনের বিবরণ দিতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন।

২০১৪
=====
সংগ্রাম সম্পাদকসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে অবমাননার রুল
আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে বিচারাধীন বিষয় নিয়ে সাক্ষাতকার দেওয়ায় এবং তা পত্রিকায় প্রকাশ করায় দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করা হয়েছে।

২০১৫
=====
অবৈধ রাষ্ট্রপতিরা পেনশন সুবিধা পাবেন না


সর্বোচ্চ আদালত ঘোষিত অবৈধ রাষ্ট্রপতিরা অবসরভাতা, আনুতোষিক ও অন্যান্য সুবিধার যোগ্য হবেন না। তবে স্বাধীনতাত্তোর যেসব রাষ্ট্রপতি এ সুবিধা নেননি তারাও প্রাপ্য হবেন।
এমন বিধান রেখে ‘রাষ্ট্রপতির অবসরভাতা আনুতোষিক ও অন্যান্য সুবিধা আইন, ২০১৫’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এই খসড়া আইনে পরিণত হলে অবৈধভাবে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা দখলকারী হিসেবে সাবেক সামরিক শাসক ও রাষ্ট্রপতি জেনারেল জিয়াউর রহমান ও লে. জেনারেল এইচ এম এরশাদ রাষ্ট্রপতি পদের জন্য কোন অবসরকালীন আর্থিক সুযোগ-সুবিধা পাবেন না। এ তালিকায় আরো আছেন খোন্দকার মোশতাক আহমেদ ও আবু সা’দত মো. সায়েম। তবে সাবেক রাষ্ট্রপতি হিসেবে জিয়া ও এরশাদ পেনশন ও গ্রাচুইটি গ্রহণ করছেন না। রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগে তারা যে প্রতিষ্ঠানে (সামরিক বাহিনী) কর্মরত ছিলেন,সেখান থেকেই পেনশন পাচ্ছেন। সামরিক কর্মকর্তা হিসেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে তারা পেনশন সুবিধা পাচ্ছেন।

২০১৬
=====
জামায়াত ছাড়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়নি: ফখরুল
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ২০ দলীয় জোটে জামায়াতে ইসলামীকে আর না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মর্মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর এমাজউদ্দীন যে বক্তব্য দিয়েছে সেটা তার ব্যক্তিগত অভিমন বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, এমাজউদ্দীন সাহেব যে বক্তব্য দিয়েছেন এটা কোনো দলীয় সিদ্ধান্ত নয়। এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। তিনি বলেন, জামায়াত ছাড়ার ব্যাপারে ২০ দলীয় জোটে নীতিগত কোনো আলোচনা কিংবা সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করছি।
- - - - - - - -
পুলিশের ধাওয়ায় এক ব্যক্তির মৃত্যু, পরে কনস্টেবলকে পিটিয়ে হত্যা
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে পুলিশের ধাওয়ায় পুকুরে ডুবে আব্দুল মতিন (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ সময় এলাকাবাসীর ‘পিটুনিতে’ পুলিশ কনস্টেবল আরিফুজ্জামান নিহত হয়েছেন।
- - - - - - - -
রেলের ইউসুফ মৃধার ৫ বছরের কারাদণ্ড
অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের দায়ে রেলওয়ের মহাপরিচালক (বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত) ইউসুফ আলী মৃধাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড।
উল্লেখ্য, ২০১২ সালে সেসময়ের রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) ওমর ফারুক তালুকদারের গাড়িতে বিপুল পরিমাণ অর্থসহ ধরা পড়ার পর ইউসুফ মৃধার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন।

২০১৭
=====
২৬১ পাকিস্তানি যুদ্ধাপরাধীর তালিকা প্রকাশ
একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে চিহ্নিত ২৬১ পাকিস্তানি সামরিক কর্মকর্তার নামের তালিকাসহ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ গণবিচার আন্দোলনের তথ্য অনুসন্ধান কমিটি।
এতে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জেনারেল আগা মোহাম্মদ ইয়াহিয়া খান, সেনাপ্রধান জেনারেল আবদুল হামিদ খান, প্রেসিডেন্টের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লে. জেনারেল পীরজাদা, লে. জেনারেল আমির আবদুল্লাহ খান নিয়াজীসহ ৪৩ জন সিনিয়র পাকিস্তানি জেনারেল, মেজর জেনারেল, ব্রিগেডিয়ার, লে. কর্নেল এবং কয়েকজন বেসামরিক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার অপরাধের সংক্ষিপ্ত বিবরণও তুলে ধরা হয়।
- - - - - - - -
রানওয়ে থেকে ছিটকে গেল উড়োজাহাজ
নৌবাহিনীর একটি উড়োজাহাজ অবতরণের সময় বিকেলে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়েছে। এ কারণে বিকেল পৌনে ছয়টা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত এই বিমানবন্দরে সব ধরনের পরিচালন কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

২০১৮
=====
ছুটির দিনেও রাস্তায় শিক্ষার্থীরা


শুক্রবার ছুটির দিন। ঢাকার সড়কে যান চলাচলও কম। তবু সাতসকালেই নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকার বিভিন্ন রাস্তায় নেমে পড়ে শিক্ষার্থীরা। তারা গাড়ির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যাচাই করেছে, চালকের লাইসেন্স আছে কি-না দেখতে চেয়েছে। সড়কের লেন মেনে গাড়ি চালানোর উদ্যোগ এবং আহ্বানও ছিল তাদের। কোথাও কোথাও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তাদের অভিভাবকদেরও দেখা গেছে সড়কে। তবে কয়েকদিনের তুলনায় গতকাল আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ছিল খুবই কম।
- - - - - - - -
মৃত্যু-মিছিল চলছেই
সড়ক-মহাসড়কে কোনভাবেই থামানো যাচ্ছে না মৃত্যুর মিছিল। নিরাপদ সড়কের প্রতিবাদে যখন দেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে, তারই মধ্যে এইদিন দেশের ৬টি স্থানে চালকদের বেপরোয়া গাড়ি চালনায় ৮ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৫৩ জন।
- - - - - - - -
পরিবহন শ্রমিকদের নৈরাজ্য, অঘোষিত ধর্মঘটে মহাসড়ক অচল, সীমাহীন জনদুর্ভোগ
ঘোরেনি বাসের চাকা। দূরপাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ। গতকাল শুক্রবার ঢাকা থেকে কোনো বাস ছাড়েনি। বাস চলেনি রাজধানীর ঢাকার অভ্যন্তরীণ পথেও। সড়ক যোগাযোগ প্রায় অচল।
- - - - - - - -
অপশক্তির উস্কানির ফাঁদে পা দিও না :কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘তোমাদের উস্কানি দিতে একটি অপশক্তি চেষ্টা করছে। তাদের উস্কানির ফাঁদে পা দিও না। এই কুচক্রী মহল তোমাদের আন্দোলন ব্যর্থ করতে চায়। তোমরাই আগামী দিনের নেতা, আগামীর ভবিষ্যত্। তোমাদের কাছে আমার অনুরোধ তোমরা শান্ত হও, ঘরে ফিরে যাও। তোমাদের দাবিগুলো যৌক্তিক এবং সব দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। দ্রুত তা বাস্তবায়ন হবে। তোমাদের দাবি পূরণে সরকারের আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই।

সূচীপত্র:→ বাংলাদেশ: ফিরে দেখা

________________
তথ্য ও ছবিসূত্র:
দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক সমকাল, দৈনিক যুগান্তর এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ মাধ্যম।
বাংলাদেশের তারিখ : বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান।
বাংলাদেশের ইতিহাস সংক্রান্ত বিভিন্ন বই-পুস্তক ও পত্রপত্রিকা।
ইন্টারনেট, উইকিপিডিয়া, বাংলাপিডিয়া।
সর্বশেষ এডিট : ০৬ ই আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৪
৫টি মন্তব্য ৪টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

কাজে যোগদান ভুল হচ্ছে, ইউরোপ আমেরিকায় শীপমেন্ট বন্ধ থাকার কথা

লিখেছেন চাঁদগাজী, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ২:১৭



গত ৪০ বছরে, গার্মেন্টস'এর মালিকরা ও অন্যান্য মধ্যভোগীরা যেই পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছে, তাতে তাদের কর্মচারীদের বিনা কাজে ২/১ বছর মিনিমাম বেতন দেয়ার ক্ষমতা তারা রাখে। গার্মেন্টস'এর... ...বাকিটুকু পড়ুন

আল্লাহ কেলা?

লিখেছেন মোহাম্মাদ আব্দুলহাক, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৮




মানুষ মারার সব আছে, আহত অথবা অসুস্থ মানুষকে সম্পূর্ণ সুস্থ করার কিচ্ছু নেই। কেন জানেন? আঁতেলরা বলেন, মানুষ মানুষকে মারতে পারে, মানুষ মানুষকে বাঁচাতে পারে ন। জন্ম মৃত্যু মুসলমানদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

— করোনার সাথে পথে চলতে চলতে———

লিখেছেন ওমেরা, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২২



সারা পৃথিবী লক-ডাউন হয়ে আছে কভিড- ১৯ করোনা আতংকে। মানুষের প্রতিটা মূহুর্ত কাটছে ভয় আর উৎকন্ঠায়। এই মূহুর্তে সম্ভবত পৃথিবীর একমাত্র ব্যাতিক্রম দেশ,সেই দেশের বাসিন্দা আমি, নাম তার... ...বাকিটুকু পড়ুন

থটস

লিখেছেন জেন রসি, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:৪৬





১৮৪৬ সালে মার্কস এবং এঙ্গেলস মিলে “The German Ideology” নামে একটা বইয়ের পান্ডুলিপি লিখেছিলেন। কিন্তু বইটা প্রকাশিত হয় ১৯৩২ সালে। এই বইতে তারা শুধু ভাববাদকেই না ফয়েরবাখের... ...বাকিটুকু পড়ুন

শেখ হাসিনা কমপক্ষে গার্মেন্টস'এর ছুটিটা নিজ হাতে কন্ট্রোল করতে পারতো

লিখেছেন চাঁদগাজী, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:৫২



শেখ সাহেব জানতেন যে, উনার মেয়ে বুদ্ধিমতি নন, সেজন্য মেয়েকে রাজনীতিতে আসতে দেননি; কিন্তু রাইফেল জিয়া শেখ হাসিনার জন্য পথ রচনা করে গেছে। কমবুদ্ধিমানরা অনেক সময় খুবই নিবেদিত... ...বাকিটুকু পড়ুন

×