somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বাংলাদেশ: ফিরে দেখা ১১ আগস্ট

১১ ই আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:৩০
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


সহজলভ্য রেফারেন্সের অভাবে বাংলাদেশের ইতিহাসের অনেক ঘটনা বিভিন্ন ব্যক্তি বিভিন্নভাবে বিশ্লেষণ করেন। এতে ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত হচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে অসংখ্য বিতর্কের। তাই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনার তথ্য সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে 'ফিরে দেখা বাংলাদেশ' সিরিজ। প্রায় সব তথ্য যাচাই-বাচাই করে দেশের প্রধান সংবাদপত্রসমূহ থেকে নেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশের ইতিহাসে ১১ আগস্ট ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক ও সামাজিক ঘটনাবলি:

১৯৭২
====
বুরিগঙ্গায় জোনাকী লঞ্চ দুর্ঘটনা, শতাধিক প্রাণনাশের আশঙ্কা।

১৯৭৩
====
চট্টগ্রামের দেশবাংলা অফিসে তালা এবং ১০ জনকে গ্রেফতার।

১৯৭৮
====
আদমজীতে শ্রমিক সংঘর্ষ।

১৯৭৯
====
অবাঙ্গালিদের প্রস্তাবিত লংমার্চ রোধে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বন্ধ।

১৯৮১
====
জিয়া হত্যায় দায়ের করা 'চট্টগ্রাম সেনা বিদ্রোহ মামলায়' ১৩ জন সামরিক অফিসারের প্রাণদন্ডাদেশ।


উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম জেলখানার ভেতরে ভবনের একটি অংশকে আদালত হিসেবে ঘোষণা করে ’৮১ সালের ১০ জুলাই থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত কঠোর গোপনীয়তায় কোর্ট মার্শালের বিচারকাজ চলে। এই ১৩ জন অফিসারের পক্ষের আইনজীবীরা বিচারের সময় আত্মপক্ষ সমর্থনের সামান্যতম সুযোগ না পাওয়ায় পরবর্তীতে বিচারকার্যটিকে "প্রহসনমূলক বিচার" বলে দাবি করেন।

১৯৮৬
====
সার্ক সচিবালয় নেপালে স্থাপনের সিদ্ধান্ত।

১৯৯২
====
১। বাহরাইন ও পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় সফরশেষে প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার প্রত্যাবর্তন।
- - - - - - - -
২। ঢাকা-ইসলামাবাদ যুক্ত বিবৃতিতে বলা হয় ডিসেম্বরের আগেই আটকে পড়া ৩ হাজার পাকিস্তানি পরিবারের পাকিস্তান প্রত্যাবসন শুরু হবে।

১৯৯৪
=====
গাইবান্ধায় গোলাম আজমের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা।

১৯৯৯
====
পাবনায় নৈশকোচ-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ২১, আহত ৫০।

২০০০
====
১। খুলনায় আওয়ামী লীগ নেতা এস এম এ রবকে গুলি করে হত্যা।
- - - - - - - -
২। 'বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বিশেষ আদালতে না করে ভুল করেছি।'—স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

২০০১
====
বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের কর্মী সাইদুল হক মিলনকে খুন করে লাশ লাগেজে ভরে পাঠানো হয় সৈয়দপুরে।

২০০২
====
৩৬ দিন বন্ধ থাকার পর বুয়েটে ক্লাস শুরু।

২০০৩
====
ঢাকায় মিরপুরে পুলিশের গুলিতে চাঁদাবাজ বুলবুল ও কুদ্দুস নিহত।

২০০৪
====
১। জার্মানীর মিউনিখে অধ্যাপক ড. হুমায়ুন আজাদ (৫৭)-এর মৃত্যু।


উল্লেখ্য, ২৭ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত বইমেলা থেকে বেরিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নিজের বাসায় যাওয়ার পথে ঘাতকদের আক্রমণের শিকার হন তিনি। বিদেশে নিবিড় চিকিৎসার মাধ্যমে তিনি কিছুটা সুস্থ হন।
- - - - - - - -
২। ফতুল্লায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ৪০ খুনের হোতা রহমত নিহত।

২০০৫
====
সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ৩৫ শিশু উটের জকি দেশে ফিরেছে।

২০০৬
====
১। ঢাকার মিরপুরে পুলিশের চাঁদাবাজির প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মিছিল।
- - - - - - - -
২। চট্টগ্রামে জঙ্গি হিজবুত তাওহিদের জেলা আমীরসহ ৭ সদস্য গ্রেফতার।
- - - - - - - -
৩। 'এরশাদ জিয়া হত্যাকান্ডে জড়িত, তাঁর সঙ্গে বিএনপির সখ্য হতে পারে না।'—কর্ণেল অলি।

২০০৭
====
১। 'আমি আশ্বস্ত করতে চাই, জাতির যে কোনো ক্রান্তিকালে সুপ্রিককোর্ট এগিয়ে আসবে।'
প্রধান বিচারপতি মো: রুহুল আমিন বলেছেন, দেশের যে-কোনো ক্রান্তিকালে অতীতের মতোই এগিয়ে আসবে সুপ্রীমকোর্ট। আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে। তিনি বলেন, অতীতের দিকে তাকিয়ে ভবিষ্যতের জন্য শিক্ষা নিতে হবে, যাতে ভবিষ্যতে ভাল কিছু করা যায়। তিনি বলেন, সংবিধান যারা লংঘন করে, তারাই আবার পরবর্তীতে সংবিধানের ব্যাপারে বেশি সোচ্চার হয়।
- - - - - - - -
২। না'গঞ্জে আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলা মামলা বাতিল
জোট সরকারের দায়ের করা মামলা হাইকোর্টে বাতিল। প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করতে আইজির প্রতি নির্দেশ।
প্রসঙ্গত ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাঢ়ায় আওয়ামীলীগ অফিসে ভয়াবহ বোমা হামলায় ২০ জন নিহতের ঘটনায় বিস্ফোরক ও হত্যা আইনে পরবর্তীতে দুটি মামলা হয়। কয়েক দফা তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিবর্তন শেষে দুটি মামলায় ২০১৩ সালের ২ মে মামলাটির তদন্তকারী সংস্থা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) আদালতে চার্জশিট জমা দেন।
- - - - - - - -
৩। ঢাকায় ডায়ারিয়া ও কলেরায় একাকার
গত অর্ধশতাব্দীর মধ্যে ডায়রিয়া-কলেরা এ বছর সবচেয়ে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। মহাখালী আন্তর্জাতিক উদরাময় কেন্দ্র (কলেরা হাসপাতাল) সূত্রে জানা যায়, ১৯৬২ সালে কলেরা হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর গত ২৪ ঘন্টায় এক হাজার ডায়রিয়া-কলেরা রোগী এই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। আগে কখনো এত রোগী কলেরা হাসপাতালে ভর্তি হয়নি।

২০০৯
====
১। জিয়ার পক্ষে ফারুক-রশীদ অস্ত্র কিনতে মার্কিন দূতাবাসে যান


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারের অগোচরে ১৯৭২ সালেই মেজর ফারুক রহমান রহস্যজনকভাবে ঢাকার মার্কিন দূতাবাসে গিয়েছিলেন অস্ত্র সংগ্রহের ব্যাপারে আলোচনা করতে। এরপর বছর না ঘুরতেই ১৯৭৩ সালের ১১ জুলাই একইভাবে অস্ত্র সংগ্রহের জন্য মার্কিন দূতাবাসে যান আরেকজন মেজর। তিনি ফারুকের ভায়রাভাই মেজর রশীদ। দুজনই বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।
রশীদ ওই সময় তত্কালীন ব্রিগেডিয়ার জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বাধীন একটি কমিটির পক্ষে সেখানে যান। এ ঘটনার ২৪ মাসের মধ্যে মুজিববিহীন বাংলাদেশে সম্ভাব্য ভারতীয় হামলা প্রতিহত করতে ফারুক-রশীদ ও জিয়াউর রহমান আলাদাভাবে সেই যুক্তরাষ্ট্রের কাছেই সামরিক সহায়তার জন্য ধরনা দেন।
- - - - - - - -
২। নতুনের বন্যায় ভেসে গেলেন আ.লীগের ‘সংস্কারপন্থী’রা
শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের ২৬টি সদস্য পদেও স্থান করে নিতে পারেননি দলের মধ্যম সারির কথিত সংস্কারপন্থীরা। এর আগে সভাপতি ও সম্পাদকমণ্ডলী থেকে বাদ পড়েন এক-এগারোর পর সংস্কারপন্থী বলে পরিচিত নেতারা। এর মাধ্যমে একঝাঁক নতুন মুখ নিয়েই গতকাল সোমবার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করলেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা।
পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের পর দেখা যাচ্ছে, আগের কমিটির অর্ধেকেরও বেশি নেতা বাদ পড়েছেন। সর্বশেষ কেন্দ্রীয় যে ২৬টি সদস্য পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়, এর মধ্যে ১৪ জনই নতুন। গতকাল পর্যন্ত দলের ৭৩ সদস্যবিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটির ৭২ জনের নাম ঘোষিত হয়েছে।
- - - - - - - -
৩। কুষ্টিয়ায় তিন ব্যক্তিকে জবাই করে হত্যা
কুষ্টিয়ায় তিন ব্যক্তিকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে শহরের জনাকীর্ণ এলাকা সাদ্দাম বাজারে সড়ক ও জনপথ (সওজ) কার্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ফেলে রাখা হয়। আর মস্তকবিহীন দেহ তিনটি পাওয়া যায় ২০ কিলোমিটার দূরে সোনাডাঙ্গার মাঠে।

২০১০
====
১। বিদ্যুতের দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ


বিদ্যুতের দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ কার্যালয় ঘেরাও, ভাঙচুর, মিছিল-সমাবেশ ও সড়ক অবরোধ করেছে ক্ষুব্ধ মানুষ। রাজশাহীতে বিক্ষোভকারীদের হামলা ঠেকাতে গিয়ে চার আনসার সদস্য আহত হন। বিক্ষোভকারীরা রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়ক অবরোধ করে। বাঘা উপজেলায় বিক্ষোভকারীদের ছোড়া ইটের আঘাতে পুলিশের দুই উপপরিদর্শকসহ চারজন আহত হন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আঞ্চলিক কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। বিক্ষোভ হয়েছে নাটোর, কুমিল্লা, ময়মনসিংহ, ঝালকাঠিতেও।
- - - - - - - -
২। শ্রীপুরে ডাকাত সন্দেহে ৬ জনকে পিটিয়ে হত্যা
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটী ইউনিয়নের ছাতির বাজার গ্রামে আজ বুধবার রাতে ডাকাত সন্দেহে জনতা ছয়জনকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত ব্যক্তিদের সহযোগী সন্দেহে চারজনকে আটক করেছে।
- - - - - - - -
৩। দুবাইয়ে কারখানায় আগুন, ৯ বাংলাদেশি শ্রমিকের মৃত্যু
সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে একটি সুগন্ধী তৈরির কারখানায় আগুনে নয় বাংলাদেশিসহ ১১ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। গভীর রাতে এ মর্মন্তুদ ঘটনা ঘটে। রাত দুইটার দিকে কারখানাটিতে আগুন লাগে। এ সময় ওই শ্রমিকেরা কারখানাটিতে ঘুমাচ্ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। আগুনে ১১ বিদেশি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে নয়জন বাংলাদেশের, একজন ভারতের ও একজন পাকিস্তানের নাগরিক। অগ্নিকাণ্ডের কারণ তাত্ক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।
- - - - - - - -
৪। কুষ্টিয়ায় জামায়াত নেতা তাহেরের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নেতা আবদুল্লাহ মো. তাহেরের বিরুদ্ধে আজ বুধবার কুষ্টিয়ায় রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে মামলা হয়েছে। দুপুরে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে জজ কোর্টের পিপি নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলাটি করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করেছেন।
মামলার আরজিতে বলা হয়েছে, ৪ আগস্ট সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম আয়োজিত ‘সংবিধান সংশোধন: বর্তমান ও ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের বাস্তবতা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে জামায়াত নেতা তাহের তাঁর বক্তব্যে বলেছেন, ‘সময় এলে যথাযথ ব্যক্তি ও সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সরকার সব কিছুতেই বাড়াবাড়ি করছে। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে না, জামায়াতের দেড় থেকে দুই কোটি সমর্থক রয়েছে। ফোর্স রিজার্ভ আছে, যথাযথ সময় যথাযথ ব্যক্তি ও সরকারের ওপর প্রয়োগ করা হবে।’ এটি রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল।
- - - - - - - -
৫। রপ্তানি আয়ে প্রধান হয়েও পোশাক খাত থেকে শীর্ষ করদাতা নেই: অর্থমন্ত্রী
তৈরি পোশাক খাত রপ্তানি আয়ের দিক থেকে দেশের সবচেয়ে বড় খাত হলেও এ খাতের উদ্যোক্তাদের মধ্যে কোনো শীর্ষ করদাতা নেই। এমনকি এ খাতের উদ্যোক্তাদের কোনো ধরনের শুল্ক ও ভ্যাট দিতে হয় না। এসব বক্তব্য রেখে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ‘তৈরি পোশাক খাতে নতুন করে আর কোনো প্রণোদনা প্যাকেজ দেওয়া হবে না।’ তবে এ খাতের বিদ্যমান সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট বাণিজ্য সংগঠনগুলোর সঙ্গে বৈঠক করা হবে।

২০১১
====
১। অন্যতম প্রভাবশালী নারী সরকার প্রধান হাসিনা


যুক্তরাষ্ট্রের টাইম সাময়িকী প্রকাশিত ২০১১ সালে বিশ্বের ১২ প্রভাবশালী নারী সরকার প্রধানদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি এই তালিকার সপ্তম স্থানে রয়েছেন। সবার ওপরে আছেন সদ্য দায়িত্ব নেওয়া থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা। এরপরে রয়েছেন—জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল (দ্বিতীয়), আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজ দে ক্রিশনার (তৃতীয়), ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রোসেফ (চতুর্থ), অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী জুলিয়া গিলার্ড (পঞ্চম), লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্ট অ্যালেন জনসন স্যারলিফ (ষষ্ঠ), বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (সপ্তম), আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জোহানা সিগার্ডারডট্টির (অষ্টম), কোস্টারিকার প্রেসিডেন্ট লুরা সিনচিলা (নবম), ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট তারজা হ্যালোনেন (দশম), লিথুনিয়ার প্রেসিডেন্ট দালিয়া গ্রেইবুস্কাইতে (১১তম) এবং ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর প্রধানমন্ত্রী কামলা পার্সাড-বিসেসার (১২তম)।

২। আমিনীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা


ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের চেয়ারম্যান ও ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান মুফতি ফজলুল হক আমিনীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়েছে। মামলায় অভিযোগ করা হয়, গত ১৪ জুলাই মুফতি ফজলুল হক আমিনী ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটির লালবাগের অস্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাশূন্য করার হুমকি দেন। এ ছাড়া বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া সংশোধিত সংবিধান ছুড়ে ফেলার যে বক্তব্য দিয়েছেন, এ জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়ে ফজলুল হক আমিনী বলেন, সংবিধান শুধু ছুড়ে ফেলা নয়, ডাস্টবিনে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হবে। এ ধরনের বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল।
এ বিষয়ে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি চাওয়া হলে ২৬ জুলাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মামলা করার অনুমতি দেয়।

৩। পাপিয়াসহ তিন আইনজীবীর জামিন নাকচ
সুপ্রিম কোর্টের অপ্রীতিকর ঘটনা ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার মামলায় বিএনপির সাংসদ সৈয়দা আসিফা আশরাফি পাপিয়াসহ তিন আইনজীবীর জামিন ও রিমান্ডের আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

২০১২
====
১। ২০১ বিশিষ্ট নাগরিকের বিবৃতি : গ্রামীণ ব্যাংক রক্ষায় সবাই এগিয়ে আসুন


গ্রামীণ ব্যাংক রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন দেশের ২০১ জন বিশিষ্ট নাগরিক। শত নাগরিক কমিটির এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
বিশিষ্ট নাগরিকেরা বলেন, প্রায় ৮৪ লাখ দরিদ্র নারীর মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত এ ব্যাংকটি পরিচালনার মূল দায়িত্ব রয়েছে তাদেরই নির্বাচিত নারী পরিচালকদের হাতে। সরকার এ ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগের ক্ষমতা নির্বাচিত বোর্ডের কাছ থেকে কেড়ে নিয়ে তাদেরই মনোনীত চেয়ারম্যানের কাছে হস্তান্তর করার এক হঠকারী উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই মন্ত্রিপরিষদ গ্রামীণ ব্যাংক অধ্যাদেশ সংশোধনের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, যা ব্যাংকটির অস্তিত্বকে হুমকির মুখে ফেলে দেবে। বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ ও অধ্যাপক এম মনিরুজ্জামান মিঞা, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি মোহাম্মদ আবদুর রউফ, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা অধ্যাপক এম এ মাজেদ, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক তালুকদার মনিরুজ্জামানসহ ২০১ জন।
- - - - - - - -
২। ‘তারা প্রত্যেক সরকারেরই ভাড়াটে গুন্ডা’
দমনমূলক কাজে অপব্যবহারের জন্য বাংলাদেশের আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর বেশ কুখ্যাতি রয়েছে। তারা প্রত্যেক সরকারেরই ভাড়াটে গুন্ডা। দীর্ঘদিন ধরেই দেশটিতে পুলিশ হলো নির্যাতন এবং সাধারণ নাগরিক ও রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা সাজানোর এক কারখানা। দুর্নীতিই এখন পুলিশের চেইন অব কমান্ডে পরিণত হয়েছে।
হংকংভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশনের (এএইচআরসি) এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ পুলিশের দুর্নীতি সম্পর্কে এসব কথা বলা হয়েছে।

৩। মুক্তিযোদ্ধা শাফায়াত জামিল আর নেই
বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল (অব.) শাফায়াত জামিল বীর বিক্রম হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি... রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। তাঁকে বনানীর কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। জামিল ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা নেতৃস্থানীয় বাঙালি সামরিক কর্মকর্তাদের একজন ছিলেন।
পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ২৬ মার্চ কাল রাতে তাদের কুখ্যাত অপারেশন সার্চলাইট অভিযান শুরু করলে জামিল চতুর্থ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের (ডাকনাম বেবি টাইগারস) বাঙালি সেনা কর্মকর্তা ও সৈনিকদের নিয়ে বিদ্রোহ করেন। তিনি অক্টোবরের ১০ তারিখ পর্যন্ত ১১ নম্বর সেক্টরে পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেন। পরে তিনি সিলেট সেক্টরে যুদ্ধ করেন। স্বাধীনতার পর জামিল লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদে পদোন্নতি পান এবং বীর বিক্রম উপাধিতে ভূষিত হন। ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর সেনা অভ্যুত্থানে তিনি ব্রিগেডিয়ার খালেদ মোশাররফকে সহায়তা করেন এবং খন্দকার মোশতাক আহমদের শাসনের বিরুদ্ধে বঙ্গভবনের দিকে অগ্রসর হন। ৭ নভেম্বর তাঁর প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয় এবং খালেদ মোশাররফ নিহত হন। কর্নেল জামিল গ্রেপ্তার হন এবং তাঁকে অবসরে পাঠানো হয়।

২০১৩
====
আদিলুর পাঁচ দিনের রিমান্ডে
মানবাধিকার সংগঠন অধিকারের সম্পাদক আদিলুর রহমান খানের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। পুলিশ বলেছে, তথ্যপ্রযুক্তি আইন-২০০৬-এর ৫৭-এর ১ ও ২ ধারায় আদিলুর অপরাধ করায় তাঁকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা অনুযায়ী অভিযোগ আনা হয়েছে। ৫৭ ধারা অনুযায়ী ইলেকট্রনিক ফরমে মিথ্যা, অশ্লীল অথবা মানহানিকর তথ্য প্রকাশ দণ্ডনীয় অপরাধ।
ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির তথ্যকেন্দ্রে সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত ৫ মে রাতে রাজধানীর মতিঝিলে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশের ঘটনার ওপর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে অধিকার। এতে কাল্পনিকভাবে ৬১ জন মারা গেছে এমন দাবি করা হয়। প্রতিবেদনের প্রচ্ছদে ফটোশপের মাধ্যমে ছবি বিকৃত করা হয়েছে। এতে করে দেশের ভাবমূর্তি ও ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লেগেছে।’

২০১৪
====
১। সমাজকল্যাণমন্ত্রীকে ক্ষমা চেয়ে বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে


সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলী সাংবাদিকদের সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য করায় সাংবাদিক সমাজ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিউজে) বলেছে, সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলীকে ক্ষমা চেয়ে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে।
- - - - - -
২। সমাজকল্যাণমন্ত্রীকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী
সাংবাদিকদের সম্পর্কে অশালীন বক্তব্য দিয়ে দেশব্যাপী সমালোচিত সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, 'মন্ত্রী হয়েছেন; এখন থেকে হিসাব করে কথা বলতে হবে। যা ইচ্ছা তা বলা যাবে না। তা না হলে আপনারই ক্ষতি হবে।'
গত শনিবার সিলেটে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় সাংবাদিকদের 'খবিশ' ও 'চরিত্রহীন' বলেন মন্ত্রী মহসিন আলী। সাংবাদিকদের ‘খবিশ’ ও ‘চরিত্রহীন’ বলার এক দিনের মাথায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী। একদিন পর এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, সাংবাদিকদের সম্পর্কে তিনি যেসব মন্তব্য করেছেন তা গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচারিত হওয়ায় তিনি ‘কষ্ট বোধ’ করছেন।
- - - - - -
৩। দুই ব্লগারের পুরস্কার লাভ
মানবতাবাদী ব্লগার হিসেবে আসিফ মহিউদ্দিন ২০১৪ সালের ‘ফ্রি এক্সপ্রেশন অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেছেন। প্রয়াত ব্লগার আহমেদ রাজীব হায়দারকে দেওয়া হয়েছে মরণোত্তর পুরস্কার। ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিস্ট কংগ্রেসে এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।
উল্লেখ্য, ব্লগার রাজীবকে গত বছর কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ইন্টারনেটে ইসলাম ও শরিয়াহ আইনের সমালোচনা করার জেরে গত বছরের (২০১৩) শুরুর দিকে আসিফ মহিউদ্দিনকে একদল দুর্বৃত্ত ছুরিকাঘাত করে। পরে সরকার তাঁর ব্লগটি বন্ধ ও তাঁকে গ্রেপ্তার করে।
- - - - - -
৪। সম্প্রচার নীতিমালা দিকনির্দেশক, আইন নয়: তথ্যমন্ত্রী
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, সম্প্রচার নীতিমালা দিকনির্দেশক, আইন নয়। সম্প্রচারের দায়বদ্ধতা নিশ্চিতে এই নীতিমালা করা হয়েছে। বিভিন্ন বিষয়ে দিক-নির্দেশনা দিয়ে গত ৪ আগস্ট টেলিভিশন ও রেডিওর জন্য 'জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪' অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। ৭ আগস্ট তার গেজেট প্রকাশ করে তথ্য মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশে প্রথম এই পূর্ণাঙ্গ সম্প্রচার নীতিমালা গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করবে বলে বিএনপিসহ বিভিন্ন মহল দাবি করলেও সরকারের পক্ষ থেকে তা নাকচ করা হয়।

২০১৫
====
১। সিরাজের মৃত্যুদণ্ড, আকরামের আমৃত্যু কারাদণ্ড


একাত্তরের যুদ্ধাপরাধ মামলায় বাগেরহাটের শেখ সিরাজুল হক ওরফে সিরাজ মাস্টারের মৃত্যুদণ্ড ও খান আকরাম হোসেনকে আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মুক্তিযুদ্ধের সময় বাগেরহাটে হত্যা, গণহত্যা ও লুণ্ঠনসহ মোট পাঁচটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া সিরাজ মাস্টারকে মৃত্যুদণ্ড ও আকরামের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়।
- - - - - -
২। যুক্তরাষ্ট্রের জিএসপির তালিকায় নেই বাংলাদেশ
যুক্তরাষ্ট্রে বাজারে পোশাক শিল্পে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা জেনারেলাইজড সিস্টেম অব প্রিফারেন্স (জিএসপি) পায়নি বাংলাদেশ। এদিকে জিএসপির সুবিধাপ্রাপ্ত নতুন ওই তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার সার্কভুক্ত অন্য দেশের নাম থাকলেও বাংলাদেশ নেই। ১২২টি দেশের তালিকায় সার্ক সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে আফগানিস্তান, পাকিস্তান,ভারত, নেপাল, ভুটান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ রয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে তাজরীন ফ্যাশনসে অগ্নিকাণ্ড ও রানা প্লাজা ধসে শ্রমিক নিহত হওয়ার প্রেক্ষাপটে কারখানার কর্মপরিবেশের উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের পণ্যে অগ্রাধিকারমূলক বাজার-সুবিধা (জিএসপি) ২০১৩ সালের ২৭শে প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র।
- - - - - - -
৩। জিএসপি নিয়ে সব শর্ত পূরণ করেছি: বাণিজ্যমন্ত্রী
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের জিএসপি পুনর্বহালের বিষয়ে নতুন করে কোনো উদ্যোগ নিতে রাজি নই। তাদের সব শর্ত আমরা পূরণ করেছি। আর কিছু করার নেই। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশ জিএসপি ফিরে পাক তা দেশি-বিদেশি একটি পক্ষ চাচ্ছে না । বিশ্বব্যাংকের টাকায় পদ্মা সেতু হওয়াটা যেমন অনেকে চায়নি, তেমনি বাংলাদেশ জিএসপিও ফিরে পাক, তারা তা চাচ্ছে না।

২০১৬
====
১। ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার সংখ্যাগরিষ্ঠ রায় প্রকাশ


উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে দিয়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ রায় (১৬৫ পৃষ্ঠার) প্রকাশ। এর আগে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী, বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চ সংখ্যাগরিষ্ঠ মতের ভিত্তিতে গত ৫ মে সংক্ষিপ্ত এ রায় ঘোষণা করেন।
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে যে দুইজন বিচারপতি রায় দিয়েছিলেন, তাদের লিখিত রায় প্রকাশিত হয়েছে। সংশোধনী বৈধ ঘোষণা করে কনিষ্ঠ বিচারপতি আশরাফুল কামাল ভিন্নমত পোষণ করেছিলেন তার লেখা রায় প্রকাশিত হয়নি।
২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা জাতীয় সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনা হয়। বিলটি পাসের পর ২২ সেপ্টেম্বর তা গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়। সংবিধানের এ সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ওই বছরের ৫ নভেম্বর সুপ্রিমকোর্টের অ্যাডভোকেট আছাদুজ্জামান সিদ্দিকীসহ ৯ আইনজীবী জনস্বার্থে হাইকোর্টে এ রিট করেন। প্রাথমিক শুনানি শেষে ২০১৪ সালের ৯ নভেম্বর এ সংশোধনী কেন অবৈধ, বাতিল ও সংবিধান পরিপন্থী ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে সরকারের সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রুলের দীর্ঘ শুনানি শেষে গত ৫ মে সংক্ষিপ্ত রায়ে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ, বেআইনী ও বাতিল ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট।
- - - - - - -
২। জামায়াতকে নিষিদ্ধ করার দাবি সিপিবি'র
বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)'র নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে বলেছেন, 'যারা জামায়াতকে নিয়ে রাজনীতি করে এদের মদদ দিচ্ছে তারা প্রকান্তরে অপশক্তির পক্ষেই অবস্থান নিয়েছে।'
- - - - - - -
৩। মিয়ানমারের ৯২ জেলেকে মুক্তি
বন্ধুত্বের নির্দশনস্বরূপ মিয়ানমারের ৯২ জেলেকে মুক্তি দিয়েছে বাংলাদেশ। ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে এসব জেলেকে বাংলাদেশের জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ১২টি মাছ ধরার নৌকাসহ গ্রেফতার করা হয়েছিল।
- - - - - - -
৪। বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল সৌদি
বাংলাদেশের শ্রমিক নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে সৌদি আরবের শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়। গত ছয় বছর ধরে গৃহকর্মী ছাড়া সব ধরনের শ্রমিক নেয়া বন্ধ রাখে সৌদি সরকার।
- - - - - - -
৫। রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
রাজধানীর মতিঝিল থানায় বিস্ফোরক আইনের একটি মামলায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ ৫৬ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

২০১৭
====
১। 'আমার চোখের আলোর বিনিময়ে লেখাপড়ার পরিবেশ স্বাভাবিক হোক'


দৃষ্টিশক্তি হারানো তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান ভারতের চেন্নাইয়ের শংকর নেত্রালয়ে চিকিৎসা শেষে আজ দেশে ফিরেন। পরে বিকেল পৌনে ৫টায় সাংবাদিকদের বলেন, 'আমার চোখের আলোর বিনিময়ে এ দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য লেখাপড়ার পরিবেশ স্বাভাবিক হোক।'
সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘আমার রক্ত, আমার চোখ অবশ্যই সার্থক হবে, যদি সাত কলেজে লেখাপড়ার স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে। আমি তা–ই চাই। আমি রাষ্ট্রকে ধন্যবাদ জানাই। আমার সামর্থ্য ছিল না দেশের বাইরে গিয়ে চিকিৎসা করানোর। রাষ্ট্র আমার পাশে দাঁড়িয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আমার খোঁজ নিয়েছেন।’
উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই বেলা ১১টার দিকে রুটিনসহ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সাতটি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা শাহবাগে অবস্থান নেন। পুলিশের বেঁধে দেওয়া আধা ঘণ্টা সময়ের পরও অবস্থান চালিয়ে গেলে আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে ও লাঠিপেটা করে পুলিশ। এ সময় পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেট সিদ্দিকুর রহমান নামের এক শিক্ষার্থীর চোখে বিদ্ধ হয়েছে বলে দাবি করেন সহপাঠীরা। সে সময়কার একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, পুলিশের ছোড়া টিয়ার সেলে রাজপথে পড়ে যান সিদ্দিকুর। তার চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছিল। ঘটনার পর প্রথমে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং পরে জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ২৭ জুলাই ভারতে পাঠানো হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সিদ্দিকুরের চিকিসার সব ব্যয় বহন করেছে।
- - - - - - -
২। ইবি হল থেকে শিবিরের ৪০ কর্মীকে বের করে দিল ছাত্রলীগ
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল থেকে শিবিরের ৪০ কর্মীকে বৃহস্পতিবার রাতে বের করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। এ ছাড়া অন্যান্য আবাসিক হল থেকেও শিবিরকর্মীদের বের করে দেওয়া হয়েছে।
- - - - - - -
৩। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে সরকার: মান্না
নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেওয়া রায়ে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ন্যায়সঙ্গত কথা বলেছে। এ জন্য সরকার সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

৪। শাহজালাল বিমানবন্দরের মূল ভবনে আগুন
ঢাকার হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরের মূল ভবনের তৃতীয় তলায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনের কারণে বিমানবন্দরে প্রচুর ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে বিমানবন্দরে বহির্গমন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিটের দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় এ আগুন নিভেলে বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়।


২০১৮
====


সূচীপত্র:→ বাংলাদেশ: ফিরে দেখা

________________
তথ্য ও ছবিসূত্র:
দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক সমকাল, দৈনিক যুগান্তর এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ মাধ্যম।
বাংলাদেশের তারিখ : বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান।
বাংলাদেশের ইতিহাস সংক্রান্ত বিভিন্ন বই-পুস্তক ও পত্রপত্রিকা।
ইন্টারনেট, উইকিপিডিয়া, বাংলাপিডিয়া।
সর্বশেষ এডিট : ১১ ই আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:৩১
৭টি মন্তব্য ৭টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

কাজে যোগদান ভুল হচ্ছে, ইউরোপ আমেরিকায় শীপমেন্ট বন্ধ থাকার কথা

লিখেছেন চাঁদগাজী, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ২:১৭



গত ৪০ বছরে, গার্মেন্টস'এর মালিকরা ও অন্যান্য মধ্যভোগীরা যেই পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছে, তাতে তাদের কর্মচারীদের বিনা কাজে ২/১ বছর মিনিমাম বেতন দেয়ার ক্ষমতা তারা রাখে। গার্মেন্টস'এর... ...বাকিটুকু পড়ুন

আল্লাহ কেলা?

লিখেছেন মোহাম্মাদ আব্দুলহাক, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৮




মানুষ মারার সব আছে, আহত অথবা অসুস্থ মানুষকে সম্পূর্ণ সুস্থ করার কিচ্ছু নেই। কেন জানেন? আঁতেলরা বলেন, মানুষ মানুষকে মারতে পারে, মানুষ মানুষকে বাঁচাতে পারে ন। জন্ম মৃত্যু মুসলমানদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

— করোনার সাথে পথে চলতে চলতে———

লিখেছেন ওমেরা, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:২২



সারা পৃথিবী লক-ডাউন হয়ে আছে কভিড- ১৯ করোনা আতংকে। মানুষের প্রতিটা মূহুর্ত কাটছে ভয় আর উৎকন্ঠায়। এই মূহুর্তে সম্ভবত পৃথিবীর একমাত্র ব্যাতিক্রম দেশ,সেই দেশের বাসিন্দা আমি, নাম তার... ...বাকিটুকু পড়ুন

থটস

লিখেছেন জেন রসি, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:৪৬





১৮৪৬ সালে মার্কস এবং এঙ্গেলস মিলে “The German Ideology” নামে একটা বইয়ের পান্ডুলিপি লিখেছিলেন। কিন্তু বইটা প্রকাশিত হয় ১৯৩২ সালে। এই বইতে তারা শুধু ভাববাদকেই না ফয়েরবাখের... ...বাকিটুকু পড়ুন

শেখ হাসিনা কমপক্ষে গার্মেন্টস'এর ছুটিটা নিজ হাতে কন্ট্রোল করতে পারতো

লিখেছেন চাঁদগাজী, ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:৫২



শেখ সাহেব জানতেন যে, উনার মেয়ে বুদ্ধিমতি নন, সেজন্য মেয়েকে রাজনীতিতে আসতে দেননি; কিন্তু রাইফেল জিয়া শেখ হাসিনার জন্য পথ রচনা করে গেছে। কমবুদ্ধিমানরা অনেক সময় খুবই নিবেদিত... ...বাকিটুকু পড়ুন

×