somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বাংলাদেশ: ফিরে দেখা ২০ আগস্ট

২০ শে আগস্ট, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৪
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


সহজলভ্য রেফারেন্সের অভাবে বাংলাদেশের ইতিহাসের অনেক ঘটনা বিভিন্ন ব্যক্তি বিভিন্নভাবে বিশ্লেষণ করেন। এতে ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত হচ্ছে, সৃষ্টি হচ্ছে অসংখ্য বিতর্কের। তাই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনার তথ্য সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে 'ফিরে দেখা বাংলাদেশ' সিরিজ। প্রায় সব তথ্য যাচাই-বাচাই করে দেশের প্রধান সংবাদপত্রসমূহ থেকে নেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশের ইতিহাসে ২০ আগস্ট ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক ও সামাজিক ঘটনাবলি:

১৯৭৩
====
লৌহজংয়ে লঞ্চডাকাতি। দুরৃত্তদের সাথে রক্ষীবাহিনীর গুলি বিনিময়।

১৯৭৫
====
৫ জন নতুন প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ববন্টন। বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরীর পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে নিয়োগ।

১৯৭৬
====
মসজিদুল আকসা সপ্তাহ পালন শুরু।

১৯৭৭
প্রতি থানায় উলশী ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নেরজন্য প্রেসিডেন্ট জিয়ার নির্দেশ।

১৯৮১
====
৯৮ কোটি টাকার মার্কিন সাহায্য মঞ্জুরি।

১৯৮২
====
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নীহারবানুর চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের আসামী নীলুর ফাঁসি কার্যকর।

১৯৮৬
====
মাওলানা আবদুর রশীদ তর্কবাগীশ (৮৬)-এর ইন্তেকাল।

১৯৮৭
====
রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিস্তীর্ণ এলাকায় বন্যা, তিন শতাধিক নিহত।

১৯৮৯
====
'৮৭ সালের হরতালে ক্ষতির পরিমাণ ১১২৫ কোটি টাকা'—মন্ত্রীর তথ্য

১৯৯০
====
আদমজী জুট মিলে শ্রমিক সংঘর্ষে ২৮ জন আহত।

১৯৯১
====
উপ নির্বাচনে ৬৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। রংপুরে জাতীয় পার্টির দুই নেতা মিজান চৌধুরী ও শাহ মোয়াজ্জেম প্রার্থী।

১৯৯২
====
রাশেদ খান মেননকে হত্যার প্রচেষ্টার প্রতিবাদে হরতাল। ছাত্রমৈত্রী-শিবির সংঘর্ষ।

১৯৯৩
====
মানিক মিয়া এভিনিউতে আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত।

১৯৯৪
====
চাঁদপুরে মেঘনার প্রবল স্রোতে লঞ্চডুবি। দ'শ যাত্রী নিঁখোজ।

১৯৯৫
====
বিএনপি ক্যাডার গোলাম ফারুক অভির মুক্তিলাভ।

১৯৯৯
=====
বিএনপি'র সাবেক মহাসচিব ও মন্ত্রী ব্যারিস্টার আবদুস সালাম তালুকদার (৬৪)-এর মৃত্যু।

২০০০
=====
ঢাকার সুত্রাপুরের বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান মন্ডল (৪২) খুন, পুরোনো ঢাকায় দিনভর বিক্ষোভ, পুলিশসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ। সুপ্রিম কোটে আতঙ্ক, বিচার কাজ মুলতবি।
- - - - - - - -
বাগেরহাটে আওয়ামী নেতা অ্যাডভোকেট কালীদাস বড়াল ((৪৩) খুন।

২০০১
=====
১। কুষ্টিয়ায় আ. লীগ-বিএনপি বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১।
- - - - - - - -
২। রাজনৈতিক দকগুলোর বিশ্বাস ও সহনশীলতার অভাব আশন্কাজনক।—প্রধান উপদেষ্টা বিচারপতি লতিফুর রহমান।
- - - - - - - -
৩। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রথম একমাসে পুলিশ ৩ হাজার ৬৫টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে। ৫৭ হাজার ৯৭০ জনকে গ্রেফতার এবং প্রায় ৪০ হাজার ওয়ারেন্ট তামিল করেছে।
- - - - - - - -
৪। মাহী বি চৌধুরীর 'শাবাশ বাংলাদেশ' নামীয় বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণার ভিডিও ছবি প্রদর্শনী।
- - - - - - - -
৫। চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে ব্রাশফায়ারে ৪ ছাত্রলীগ নিহত।

২০০২
=====
১। গাজীপুরে গার্মেন্টস শ্রমিক ও পুলিশ সংঘর্ষে এক শ্রমিক নিহত।
- - - - - - - -
২। যুবদলের এক নেতাকে চাকরি না দেয়ায় রাজশাহীর বিআইটিতে হামলা। পরিচালক লাঞ্চিত।
- - - - - - - -
২। ৪ মারচ ২০০২ সালে নওগাঁয় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার অভিযোগে আদালতে খালিদ বিন হেদায়েতকে ১২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড।

২০০৫
=====
১। সারা দেশে ১৪ দল ও সিপিবির ডাকে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল।


হরতালে মহিলা নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশের পিটুনি
মহিলা রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের ওপর পুলিশের বেপরোয়া লাঠিচার্জ, বেধড়ক পিটুনি, আটকের মধ্যদিয়ে দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হয়েছে। জঙ্গীগোষ্ঠী কর্তৃক দেশব্যাপী ভয়াবহ বোমা হামলার প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ, জাসদ, ১১ দল ও ন্যাপসহ (মোজাফফর) ১৪টি রাজনৈতিক দল এই হরতাল ডাকে। পুলিশের পিটুনিতে রাজধানীতে প্রায় ৬০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়। পুলিশ মহিলা নেতা-কর্মীসহ ৩২ জনকে গ্রেফতার করে।
- - - - - - - -
২। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যর্থতায় প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ক্ষুদ্ধ। ৪ সিনিয়রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, দুই উপদেষ্টা ও তিন বাহিনীর প্রধানের সঙ্গে বৈঠক।
প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া গতকাল শনিবার তিনজন সিনিয়র মন্ত্রীর সঙ্গে প্রায় ৩ ঘন্টা রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন। পৃথকভাবে আলোচনা করেছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর এবং গোয়েন্দা সংস্থা প্রধানদের সাথে। দিনভর দফায় দফায় এই বৈঠকের মূল প্রসঙ্গ ছিল গত বুধবারের দেশজুড়ে বোমা হামলার নজিরবিহীন ঘটনা।
- - - - - - - -
৩। একে রাইফেলসহ ২ পুলিশ সার্জেন্ট ও ২ শিবির ক্যাডার গ্রেফতার।
চট্টগ্রামে গত বছরের ২ এপ্রিল সিইউএফএল জেটিতে আটক চাঞ্চল্যকর দশ ট্রাক অস্ত্রের চালান থেকে ৬টি একে-৪৭ রাইফেল সরিয়ে নেয়ার ঘটনার নেপথ্য নায়ক ২ পুলিশ সার্জেন্ট তাদের সহযোগী ২ অস্ত্র ব্যবসায়ীসহ ৪ জন র‌্যাব সদস্যদের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। তাদের স্বীকারোক্তি মতে, গত ১৮ আগস্ট র‌্যাব চট্টগ্রাম-৭ এর সদস্যরা ফেনী ও নোয়াখালীর মাইজদিতে অভিযান চালিয়ে ২টি একে-৪৭ রাইফেল উদ্ধার করেছে। অপর ৪টি একে-৪৭ রাইফেল শিবির ক্যাডারদের কাছ বিক্রি করা হয়েছে।
- - - - - - - -
৪। আলোচিত দশ ট্রাক অস্ত্র থেকে অস্ত্র সরিয়ে রেখে বিক্রি করার অভিযোগ।
- - - - - - - -
৫। আরো ৪৭ জঙ্গি গ্রেফতার। টুপিপরা, দাড়িওয়ালা বা মাদ্রাসার ছাত্রদের হয়রানি না করার নির্দেশ।

২০০৬
=====
১। নির্বাচন কমিশনের ভোটার তালিকা হালনাগাদের কাজ শেষ।
- - - - - - - -
২। হরিপুর সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত।
- - - - - - - -
৩। মুক্তিপণ আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকা থেকে অপহৃত সচিব নুরউদ্দিন আহমেদের ছেলে বিবিএ ছাত্র মহিউদ্দীনের লাশ পাবনার তেলিগ্রাম থেকে উদ্ধার।
- - - - - - - -
৪। উখিয়ায় দোকানে তল্লাশির ঘটনায় বিডিআর- জনতা সংঘর্ষে শতাধিক আহত।
- - - - - - - -
৫। ১৯ আগস্ট পর্যন্ত ভোটার বেড়েছে এক কোটি ৩৯ লাখ ৬০ হাজার। শতকরা ৫% ভোটাররা হালনাগাদ করতে পারেনি।
- - - - - - - -
৬। দুই বছর আগের ২১ আগস্টের বোমা হামলা সম্পর্কে ১৮ জন কংগ্রেসম্যান প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠিতে জানিয়েছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশ গ্রেনেড হামলার তদন্তের জন্য যে সহযোগিতা করেছিল তা কাজে লাগানো হয়নি। তদন্তে ব্যর্থতার জন্য বাংলাদেশে আইনের শাসন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
- - - - - - - -
৭। একাধিক আসনে নির্বাচন করার বিধান সম্পর্কে হাইকোর্টের রুল।

২০০৭
=====
১। সেনাসদস্যদের হাতে ছাত্র প্রহৃত হওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ, পুলিশের লাঠিপেটা। আহত ১০০, হাসপাতালে ৩০ জন।
- - - - - - - -
২। ২১ আগস্ট হারকাতুল জিহাদের ১২ জঙ্গি গ্রেনেড হামলা চালায়।
- - - - - - - -
৩। অস্ত্র মামলায় ডিপজল দম্পতির ৭ বছর জেল।
- - - - - - - -
৪। মাওয়া-জাজিরায় পদ্মা নদীর ওপর ৫.৫৮ কিলোমিটার সেতুর জন্য ১০ হাজার ১৬২ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন।
- - - - - - - -
৫। ফোন ও ইন্টারনেট সেবাদাতা বিদেশি কোনো প্রতিষ্ঠান লাইসেন্স পাবে না : ভিওআইপি নীতিমালা প্রকাশ।
- - - - - - - -
৬। ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয়পত্রের জন্য ৫৪৭ কোটি টাকা বরাদ্দ।
- - - - - - - -
৭। জামালপুরের খ্রিস্টান প্রচারক হৃদয় রায় হত্যা মামলায় সালাউড্দীনের মৃত্যুদন্ড।

২০০৮
=====
১। গ্রেনেড হামলার মামলা দ্রুত বিচার আদালতে যাচ্ছে, সিআইডির সাবেক তন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি
- - - - - - - -
২। ছাত্র সংঘর্ষের কারণে রাবি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা।
- - - - - - - -
৩। চট্টগ্রাম বন্দরে সাড়ে তিন হাজার টন চালবাহী জাহাজ ডুবি।

২০০৯
=====
১। আজ বিজয়ী বীরের বেশে ফিরেছে ওরা
এর আগেও বাংলাদেশ ক্রিকেট দল বিদেশ সফর শেষে ফিরেছে। তবে এবারের ফেরাটা একটু অন্য রকমই। এবার ওরা ফিরেছে বিজয়ী বীরের বেশে। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জয়— বাংলাদেশের ক্রিকেটে স্মরণীয় এক অধ্যায়ের রচয়িতাদের এমিরেটস এয়ারলাইনসের বিমানে চড়ে ঢাকা পৌঁছে। ক্রিকেটারদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার, বোর্ড সভাপতি সিনা ইবনে জামালীসহ বিসিবির শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা।

২০১০
=====
১। সস্ত্রীক ঢাকায় এসেছেন টনি ব্লেয়ার


যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার তিন দিনের সফরে আজ দুপুরে তাঁর স্ত্রী চেরি ব্লেয়ারকে নিয়ে ঢাকায় এসেছেন। বেলা তিনটা ৪৫ মিনিটে তাঁদের বহনকারী বিশেষ বিমানটি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত মো. জিয়াউদ্দিন ও পররাষ্ট্রসচিব মোহাম্মদ মিজারুল কায়েস বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানান। বিমানবন্দর থেকে টনি ও চেরি ঢাকায় ব্রিটিশ হাইকমিশনার স্টিভেন ইভান্সের বাসভবনে যান। সন্ধ্যায় পররাষ্ট্র ভবনে তাঁদের সম্মানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির দেওয়া নৈশভোজে যোগ দেবেন। বাংলাদেশে অবস্থানের সময় টনি ব্লেয়ার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন।
- - - - - - - -
২। রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় কোকোর প্যারোল বাতিল হয়েছে: ফখরুল
রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর প্যারোল বাতিল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোট আয়োজিত এক আলোচনায় তিনি এ অভিযোগ করেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘প্যারোলে কীভাবে শর্ত ভঙ্গ হয়েছে, সে ব্যাপারে সরকার স্পষ্ট করে কিছু বলেনি। কোকো এখনো হাঁটাচলা করতে পারে না এবং সে তীব্র শ্বাস কষ্টে ভুগছে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে প্যারোলে মুক্তি নিয়ে চিকিত্সার জন্য বিদেশ গিয়েছিলেন। এখন তাঁর সরকারই এভাবে হঠাত্ করে কোকোর প্যারোলে মুক্তি বাতিল করে দিল কেন?’
- - - - - - - -
৩। ৪৮ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠিয়েছে স্পেন
অবৈধভাবে স্পেনে যাওয়া ৪৮ বাংলাদেশি আজ শুক্রবার দেশে ফিরেছে। স্পেনের পুলিশ কয়েক দিন আগে কোনো কাগজপত্র না পেয়ে এদের আটক করেছিল।
জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) বিমানবন্দরের কল্যাণ ডেস্কের উপসহকারী পরিচালক মাহমুদুল্লাহ আকন্দ প্রথম আলোকে জানান, স্পেন থেকে আজ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে ওই ৪৮ বাংলাদেশি। বিমানবন্দরের অভিবাসন পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) শামসুজ্জামান প্রথম আলোকে জানান, ওই ৪৮ জনের কারও কাছেই কোনো পাসপোর্ট ছিল না। আউট পাস নিয়ে তাদের পাঠানো হয়েছে।
- - - - - - - -
৪। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে বাইরের কোনো দেশ থেকে চাপ আসেনি: দীপু মনি
পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, ‘যুদ্ধাপরাধীদের বিচার না করার জন্য বাইরের কোনো দেশ থেকে চাপ আসেনি। তবে এ বিচার সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আমরা বিভিন্ন দেশের পরামর্শ ও সহযোগিতা চেয়েছি এবং তাদের কাছ থেকে ব্যাপক সমর্থন পাওয়া গেছে।’ তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করলে মুসলিম দেশগুলোয় কর্মরত বাংলাদেশি শ্রমিকদের চাকরি চলে যাবে বলে যারা অপপ্রচার ছড়াচ্ছে, তারা হয় যুদ্ধাপরাধে জড়িত ছিল অথবা তারা যুদ্ধাপরাধীদের লালন-পালন করেছে বা পৃষ্টপোষকতা দিয়েছে। আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাত্ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত ‘বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের আত্মদান: যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও গণপ্রত্যাশা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন।
- - - - - - - -
৫। মতিঝিলে পুলিশ নিহত, পাল্টা গুলিতে সন্ত্রাসীর মৃত্যু
রাজধানীতে এক সন্ত্রাসীর গুলিতে পুলিশ কনস্টেবল মঞ্জুরুল ইসলাম (২৫) নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত একটার দিকে মতিঝিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের পাল্টা গুলিতে মারা গেছেন ওই সন্ত্রাসী। পুলিশের মতিঝিল বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার মারুফ হোসেন প্রথম আলোকে জানান, রাত একটার দিকে মতিঝিলে পূবালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে একটি রিকশা তল্লাশি করার সময় রিকশারোহী ব্যক্তি পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করেন। এতে কনস্টেবল মঞ্জুরুলের বুকে ও হাবিবুল্লাহর হাতে গুলি লাগে। দ্রুত তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিত্সক কনস্টেবল মঞ্জুরুলকে মৃত ঘোষণা করেন। হাবিবুল্লাহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।
মারুফ হোসেন জানান, পুলিশের পাল্টা গুলিতে ওই রিকশারোহী ব্যক্তিও গুরুতর আহত হন। তাঁকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত দুইটার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। কিন্তু তাঁর নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তাঁর কাছ থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার সময় ওই এলাকায় দুটি দলে ভাগ হয়ে ছয়জন পুলিশ টহল দিচ্ছিল বলে মারুফ হোসেন জানান।
- - - - - - - -
৫। সরবরাহকারী ঋণে বরাবরই আগ্রহী বাংলাদেশ
বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ২১টি দেশ এবং সংস্থা থেকে সরবরাহকারী ঋণ নিয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি নেওয়া হয়েছে চীন থেকে, ২০ বার। এরপরই ভারতের অবস্থান। ভারত থেকে নেওয়া সরবরাহকারী ঋণের সংখ্যা ১৮ বার। এ ছাড়া রাশিয়া থেকে নেওয়া হয়েছে ১০ বার এবং নেদারল্যান্ড থেকে আটবার।
বাংলাদেশ প্রথম সরবরাহকারী ঋণ বা সাপ্লায়ার্স ক্রেডিট নেয় স্বাধীনতার কিছু পরেই। প্রথম ঋণটি নেওয়া হয় অস্ট্রিয়া থেকে ১৯৭২ সালে, সিলেট পাল্প মিলের জন্য। আর এরপর ১৯৭৩ সালের ২ জুলাই একসঙ্গে পাঁচটি সরবরাহ ঋণের চুক্তি করা হয়েছিল।
সরবরাহকারী ঋণ বা সাপ্লায়ার্স ক্রেডিটকে বলা হয় কঠিন শর্তের ঋণ। এর সুদহার বেশি থাকে, পরিশোধের সময়সীমা থাকে কম, পাশাপাশি ঋণ প্রদানকারীর কাছ থেকে পণ্যও কিনতে হয়। ফলে এই ঋণ নিতে আগ্রহীর সংখ্যা বেশি থাকার কথা নয়। কেননা, ঋণদাতা দেশ থেকে পণ্য ও যন্ত্রপাতি কিনতে হয় বলে এর মান নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়। অথচ সরবরাহকারী ঋণ নিতে বাংলাদেশ বরাবরই আগ্রহ দেখিয়ে আসছে।

২০১১
=====
১। মন্ত্রীদের ব্যর্থতায় নেতারা বিব্রত


যোগাযোগমন্ত্রী ও নৌপরিবহনমন্ত্রীসহ কয়েকজন মন্ত্রীর ব্যর্থতা এবং বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের দায়ভার নিতে চায় না ক্ষমতাসীন মহাজোটের শরিক দলগুলো। এমনকি আওয়ামী লীগের নেতা-সাংসদেরাও এসব মন্ত্রীর কর্মকাণ্ডে বিব্রত, ক্ষুব্ধ। মহাজোটের শরিকদের আশঙ্কা, ভবিষ্যতে এই মন্ত্রীদের নিয়ে মহাজোট আরও বিপর্যয়ের মধ্যে পড়তে পারে। এ জন্য তারা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।
যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন, নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, বাণিজ্যমন্ত্রী ফারুক খান ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের ব্যর্থতা নিয়ে মহাজোটে ব্যাপক আলোচনা আছে। তাঁদের কর্মকাণ্ড, বক্তব্য ও দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতায় শরিক দলগুলো প্রকাশ্যেই সমালোচনামুখর। এসব মন্ত্রীর পদত্যাগ চায় দলগুলো। মহাজোটের রাজনৈতিক ভবিষ্যতের কারণেই তাঁদের সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত বলে মনে করেন দলগুলোর নেতারা। এ নিয়ে আওয়ামী লীগের মধ্যেও আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। তাঁদের বক্তব্য ও কর্মকাণ্ডে দলে অসন্তোষ আছে। বিশেষ করে, মন্ত্রীদের পরস্পরের প্রতি দায় চাপানোর প্রবণতায় নেতারা বিব্রত। সরকারের মধ্যে সমন্বয়হীনতার কথাও বলছেন তাঁরা।
- - - - - - - -
২। ব্যর্থ মন্ত্রীদের স্নেহের আঁচল থেকে বের করুন: ইনু
অদক্ষ ও ব্যর্থ মন্ত্রীদের স্নেহের আঁচলের নিচ থেকে বের করে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাসদ ঢাকা মহানগর আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে তিনি এ কথা বলেন।
এবিসি রেডিওতে প্রচারিত খবরে ইনু বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, যোগাযোগব্যবস্থা ও দ্রব্যমূল্য সরকারের নিয়ন্ত্রণে নেই। এগুলো নিয়ন্ত্রণে কয়েকজন মন্ত্রী অদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন এবং তাঁরা ব্যর্থ হয়েছেন। এতে জনগণের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, এসব মন্ত্রীকে স্নেহের আঁচলের নিচ থেকে বের করে দিন।

৩। সীমান্তের মানচিত্রে সই শুরু
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে চার হাজার ১৫৬ কিলোমিটার সীমানার ওপর তৈরি করা মানচিত্রে আজ শনিবার ঢাকায় প্রথম দফায় সই করা হয়েছে। বাংলাদেশের পক্ষে দিল্লিতে নিযুক্ত হাইকমিশনার তারেক এ করিম এবং ভারতের পক্ষে ঢাকায় নিযুক্ত হাইকমিশনার রজিত মিত্তার সই করেন। ভূমি জরিপ অধিদপ্তরের এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি ও ভূমিমন্ত্রী রেজাউল করিম হীরা।
ভূমি জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবদুল মান্নান প্রথম আলোকে জানান, দুই দেশের চার হাজার ১৫৬ কিলোমিটার সীমান্তের জন্য এক হাজার ১২৯টি স্ট্রিপ ম্যাপ (সূক্ষ্ম রেখাভিত্তিক মানচিত্র) তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি মানচিত্রের আটটি কপি করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব মানচিত্রে প্রথমে ঢাকায় ও পরে দিল্লিতে সই করা হবে। আজ থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত দুই হাইকমিশনার ঢাকায় মানচিত্রগুলোতে সই করবেন। এরপর তাঁরা দিল্লিতে ওই মানচিত্রগুলোতে সই করবেন।
উপমহাদেশের বিভক্তির ৬৪ বছর পেরোনোর পর এসব মানচিত্রে সইয়ের মাধ্যমে সীমান্ত নিয়ে জটিলতা দূর হচ্ছে। ১৯৫৫ সালে এই মানচিত্র তৈরির কাজ শুরু হয়। আর এর প্রক্রিয়া চলে চলতি বছর পর্যন্ত।

২০১৩
=====
১। হল-মার্ককে ছাড়িয়ে গেছে বেসিক ব্যাংক : সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার ঋণ কেলেঙ্কারি


প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার ঋণ কেলেঙ্কারিতে সংকটে পড়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বেসিক ব্যাংক। সরকার গঠিত পরিচালনা পর্ষদ কোনো কিছুর তোয়াক্কা করেনি। ইচ্ছেমতো হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে। কোনো আইন বা বিধিমালা নয়, বেসিক ব্যাংকে পরিচালনা পর্ষদই সর্বেসর্বা। এমনকি প্রধান কার্যালয়ের ঋণ যাচাই কমিটি বিরোধিতা করলেও পর্ষদ ঠিকই ঋণের অনুমোদন দিয়েছে। গ্রাহকদের অর্থ নিয়ে যা ইচ্ছা তাই করেছে ব্যাংকটি।
বাংলাদেশের ইতিহাসে এভাবে আর কখনোই ঋণ বিতরণ করা হয়নি। বহুল আলোচিত হল-মার্ক কেলেঙ্কারির সময় পরিচালনা পর্ষদের দাবি ছিল, তারা কিছু জানত না, শাখাই প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের সুযোগ করে দিয়েছে। কিন্তু বেসিক ব্যাংক করেছে উল্টোটা। পর্ষদই প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের সব আয়োজন করে দিয়েছে।
পর্ষদের মাত্র ১১টি সভায় তিন হাজার ৪৯৩ কোটি ৪৩ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক বলেছে, ‘৪০টি দেশীয় তফসিলি ব্যাংকের কোনোটির ক্ষেত্রেই পর্ষদ কর্তৃক এ ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়া পরিলক্ষিত হয় না।’ বাংলাদেশ ব্যাংক এ বিষয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন তৈরি করে বলেছে, অধিকাংশ ঋণই গুরুতর অনিয়ম করে দেওয়া হয়েছে। এই ঋণ পরিশোধ বা আদায় হওয়ার সম্ভাবনাও কম। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ যে শুরু থেকে গত মার্চ পর্যন্ত বেসিক ব্যাংকের মোট বিতরণ করা ঋণের পরিমাণ নয় হাজার ৩৭৩ কোটি টাকা। আর এর মধ্যে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকাই দেওয়া হয়েছে গত ১১ মাসে।
ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হচ্ছেন শেখ আবদুল হাই। তিনি এরশাদ সরকারের আমলে বাগেরহাট-১ আসন থেকে জাতীয় পার্টির হয়ে একবার সাংসদ হয়েছিলেন। কিন্তু বর্তমান সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা ব্যাংকে নানাভাবে প্রচার করা হয়। ব্যাংকের পরিচালক ও সরকারের সাবেক একজন যুগ্ম সচিব এ কে এম রেজাউর রহমান গত ১১ জুলাই ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব এম আসলাম আলমের কাছে একটি চিঠি দেন। আবদুল হাই সম্পর্কে তাতে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ছাড়া তাই অন্য কাউকে পরোয়া করেন না তিনি। ব্যাংকের কার্যালয় ও লবিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তোলা তাঁর ছবিতে ভরপুর। সব সময় এবং সব জায়গায়ই তিনি বলে থাকেন, প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত “কাছের লোক” তিনি। গোটা বেসিক ব্যাংকে এ রকম একটি আবহ অবস্থা তৈরি করেছেন আবদুল হাই।’
- - - - - - - -
২। 'আন্দোলনের বাতাসে চুল তো থাকবেই না, অস্তিত্বও যাবে। '—প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে খালেদা জিয়া
বিএনপির চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেছেন, ‘আন্দোলনের বাতাস শুরু হলে চুল তো থাকবেই না, অস্তিত্বেও টান পড়তে পারে। জনগণের আন্দোলনের বাতাসে চুল এলোমেলো হয়ে যাবে। দিশেহারা হয়ে যাবেন।’ বিএনপির অঙ্গসংগঠন জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সোমবার বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত সমাবেশে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।
গত রোববার বিকেলে সরকারি বাসভবন গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনকালীন সরকারব্যবস্থা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন, ‘আমি সংবিধানে বিশ্বাস করি। যা হবে সংবিধান মোতাবেক হবে। তার থেকে একচুলও নড়া হবে না, ব্যস।’
প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাবে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমাদের দাবি ছোট্ট। তত্ত্বাবধায়ক বা অন্য যে নামেই হোক, নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন। দেশের ৯০ ভাগ মানুষ এটা চায়, এখন এই সংখ্যা আরও বেড়েছে, ৯৫ বা ৯৮ শতাংশ হয়েছে।’ খালেদা জিয়া বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ এমন যে যত কাজই করুক না কেন, তারা পরিবর্তন চায়। একবার এরা, আরেকবার ওরা।’ তিনি বলেন, ‘আন্দোলন করতে চাই না। চাই আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমঝোতায় পৌঁছে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে। চাই সমানে সমান খেলতে।’ খালেদা জিয়া সংসদের আগামী অধিবেশনে নির্দলীয় সরকারের বিল এনে তা পাস করার দাবি জানান।

২০১৪
=====
১। গ্রামে অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প একনেকে অনুমোদন


দেশে জনসংখ্যার তুলনায় কৃষি জমি কম। বর্তমানে যে হারে কৃষি জমি বসতভিটা বা শিল্পায়নে দখল হয়ে যাচ্ছে, এর ফলে অদূর ভবিষ্যতে খাদ্য সংকট চরম আকার ধারণ করতে পারে। এ হুমকি মোকাবেলায় সব নাগরিক সুযোগ-সুবিধা দিয়ে কম জমিতে বেশি মানুষ বসবাসে গ্রাম পর্যায়ে 'পল্লী জনপদ' নামক একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটির মাধ্যমে জনগণের জন্য অ্যাপার্টমেন্ট নির্মিত হবে। এ জন্য প্রাথমিকভাবে সাতটি বিভাগে সাতটি বহুতল আবাসিক ভবন নির্মাণের জন্য ৪২৪ কোটি টাকা অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি বা একনেক। মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
- - - - - - -
২। গডফাদারের হুঙ্কারে ভীত নই: আইভী
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, গডফাদার যতই হুঙ্কার দিক, আমি ভীত নই। আমি নাজমা রহমান নই যে নারায়ণগঞ্জ ছেড়ে যাব, আকরাম নই যে দল ছেড়ে চলে যাব; গিয়াস নই, অন্য দলে চলে যাব। আমি আওয়ামী লীগে আছি, আওয়ামী লীগেই থাকব। আমি মেয়র না থাকলেও নারায়ণগঞ্জেই থাকব। তবু অন্যায়ের প্রতিবাদ করে যাব।
আজ সোমবার দুপুরে বন্দরের ২০ নম্বর ওয়ার্ড সোনাকান্দা এলাকায় মদনগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে নবীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ১৮২ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০০ ফুট প্রশস্ত রাস্তা নির্মাণকাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এ কথা বলেন।

২০১৫
=====
১। বঙ্গবন্ধুর কবরের সামনে বসে কাদের সিদ্দিকীর রাত্রি যাপন


টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর কবরের সমানে বসে রাত্রি যাপন করেছেন কাদের সিদ্দিকী । বুধবার সারা রাত বসে ইবাদত-বন্দেগি করেছেন তিনি। টুঙ্গিপাড়া থানার ওসি মো. মাহামুদুল হক জানান, বুধবার বিকালে ৫টি গাড়িতে স্ত্রী পরিবারের সদস্য ও দলীয় নেতা কর্মীদের নিয়ে কাদের সিদ্দিকী টুঙ্গিপাড়া আসেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর কবরের সমানে বসে রাত্রি যাপন করেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে তিনি টুঙ্গিপাড়া ত্যাগ করেন।
বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের চেয়ারম্যান বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর কেউই প্রতিবাদ করেনি। ৭৫ এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ১৯ আগস্ট আমিই প্রথম প্রতিবাদ করেছিলাম। বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা জানাতে এবার ১৯ আগস্ট টুঙ্গিপাড়ায় এসেছি। তিনি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত, ফাতেহা পাঠ, বঙ্গবন্ধু ও ৭৫ এর ১৫ আগষ্টের শহীদদের জন্য দোয়া-মোনাজাত করেন।
বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় তার সহধর্মিনী বেগম নাসরীন সিদ্দিকী, ছেলে দীপ সিদ্দিকী, দুই মেয়ে কুড়ি সিদ্দিকী, কুশি সিদ্দিকী, সংগঠনের সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার, যুবনেতা হাবিবুর নবী সোহেল, ছাত্রনেতা রিফাতুল ইসলাম দীপসহ যুব ও ছাত্র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
- - - - - - -
২। জনসভায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ৬৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা
ফরিদপুরের সালথায় জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর জনসভায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন এবং তার ভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেনসহ ৬৭ জনের বিরুদ্ধে দ্রুতবিচার আইনে মামলা করা হয়েছে। গত বুধবার রাতে উপজেলার ইউসুফদিয়া গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার মোল্যা বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। বিএনপি সমর্থিত বর্তমান উপজেলার চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামানের নেতৃত্বে প্রায় ২ শতাধিক কর্মী বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান উপলক্ষে এ জনসভার আয়োজন করা হয়েছিল।
- - - - - - -
৩। হাজিদের পকেটমারতে পকেটমার, আটক ১২
হাজিদের পকেটমারতে সৌদি আরবে যায় পকেটমাররা। প্রতি বছরই পকেটমারের একটা বা দুটো গ্রুপ হজে গিয়ে পকেটমারসহ নানা ধরনের অপরাধ কর্মকাণ্ড করে থাকে। এ বছর এ চক্রের তিন সদস্য বাংলাদেশ থেকে হজে যাচ্ছিলেন পকেটমারের জন্য। এ তিনজনকে হজে পাঠাতে পরিকল্পনাকারী হাজি আব্দুল গফুর ১২ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। এ বছর হজ থেকে তার আয়ের টার্গেট ছিল এক কোটি টাকা। আজ দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম এসব কথা জানান। তিনি জানান এই চক্রের ৬ জন সহ মোট ১২ জন পকেটমার ও অজ্ঞান পার্টির সদস্যকে আটক করা হয়েছে। হাজিদের পকেটমার গ্রুপের ৬ জনের মধ্যে হাজি আব্দুল গফুর বিনিয়োগ ও পরিকল্পনাকারী
- - - - - - -
৪। সুরাইয়াকে মায়ের কোলে তুলে দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী


যাকে ঘিরে এত আয়োজন, সেই সুরাইয়া এক চিকিৎসকের কোলে গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন। এরই মধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম মায়ের কোলে সুরাইয়াকে তুলে দেন। মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ সুরাইয়া জন্মের পর ২৯ দিন হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে মায়ের কোলে চড়ে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেয়। এর আগে বাবা বাচ্চু ভুইয়ার হাতে দেওয়া হয় হাসপাতাল ত্যাগের ছাড়পত্র। এ সময় ঢামেকের শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে সুরাইয়ার বাবার কাছে নগদ ৬৫ হাজার টাকাও তুলে দেওয়া হয়।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে নাজমা খাতুন বলেন, 'অনেক আগে মাকে হারিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মায়ের ছায়া দিয়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি বিনামূল্যে চিকিৎসা নিশ্চিত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আর্থিক সহযোগিতাও পেয়েছি। এখন শুধু একটাই দাবি-যিনি আমাদের জন্য এতো কিছু করলেন, একবার তার সাক্ষাৎ চাই।'
গত ২৩ জুলাই মাগুরায় ছাত্রলীগের দু'পক্ষের সংঘর্ষে মাতৃগর্ভে গুলিবিদ্ধ হয়ে সদর হাসপাতালে জরুরি অস্ত্রোপচারের পর ওইদিন রাতে সুরাইয়ার জন্ম হয়। ২৬ জুলাই ভোরে সংকটাপন্ন অবস্থায় সুরাইয়াকে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। নির্ধারিত সময়ের আগে জন্ম নেওয়ার কারণে সুরাইয়ার ওজন কম ছিল। এ কারণে তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন চিকিৎসকরাও।

২০১৬
======
১। বয়োজ্যেষ্ঠ বাংলাদেশিদের জন্য পাঁচ বছর মেয়াদী পর্যটক ভিসা
বয়োজ্যেষ্ঠ বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য এক বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর মেয়াদী পর্যটক ভিসার করার ঘোষণা দিয়েছে ভারত। শুক্রবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, পয়ষট্টির বেশি বয়সী বাংলাদেশি নাগরিকরা পাঁচ বছর মেয়াদী 'মাল্টিপল এন্ট্রি'র এই ভিসা সুবিধা পাবেন। এতে বলা হয়, 'পর্যটন উৎসাহিত করতে ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করায় সরকারের নীতির অংশ হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই উদ্যোগ মানুষে মানুষে যোগাযোগে বাড়ানোসহ বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে বিবৃতি আশা প্রকাশ করা হয়।
- - - - - - -
২। হাসনাত টিএফআই সেলে, তাহমিদকে আদালতে নেয়া হতে পারে
গুলশানে হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলার ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটির সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজাউল করিমকে টিএফআই (টাস্কফোর্স ফর ইন্টারোগেশন) সেলে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গত শনিবার ১৩ আগস্ট তাকে জিজ্ঞাসাবাদের আদালত ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। শুক্রবার ছিল তার রিমান্ডের ৬ষ্ঠ দিন। এই দিনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য টিএফআই সেলে নেয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হলেই তিনি এ হামলার সঙ্গে জড়িত কিনা তা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে। এদিকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার শিল্পপতি পুত্র তাহমিদ হাসিব খানের ৬ দিনের রিমান্ডের জিজ্ঞাসাবাদ শুক্রবার শেষ হয়েছে।
- - - - - - -
৩। নৌযান শ্রমিকদের লাগাতার কর্মবিরতির ঘোষণা
ন্যূনতম মজুরি ১০ হাজার টাকা, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় মৃত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ পুনঃনির্ধারণ, নৌপথে সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি বন্ধ এবং নদীর নাব্য রক্ষার দাবিতে লাগাতার কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছে নৌ শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ। আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, দাবি আদায়ে আগামীকাল সোমবার মধ্যরাত থেকে সারাদেশে নৌযান শ্রমিকদের লাগাতার কর্মবিরতি শুরু হবে।

২০১৭
======
১। শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় ১০ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ


২০০০ সালের ২২ জুলাই গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় আওয়ামী লীগের জনসভার কাছে বোমা পুঁতে রেখে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের (হুজি) ১০ সদস্যের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। আজ রবিবার ঢাকার ২নং দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মমতাজ বেগম এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতরা হলেন ওয়াসিম আক্তার ওরফে তারেক ওরফে তারেক হোসেন ওরফে মারফত আলী, রাশেদ ড্রাইভার ওরফে আবুল কালাম ওরফে রাশেদুজ্জামান খান ওরফে শিমন খান, ইউসুফ ওরফে মোসহাব মোড়ল ওরফে আবু মুসা হারুন, শেখ ফরিদ ওরফে মাওলানা শওকত ওসমান, হাফেজ জাহাঙ্গীর আলম বদর, মাওলানা আবু বকর ওরফে হাফেজ সেলিম হাওলাদার, হাফেজ মাওলানা ইয়াহিয়া, মুফতি শফিকুর রহমান, মুফতি আব্দুল হাই ও মাওলানা আ. রউফ ওরফে মুফতি আ. রউফ ওরফে আ. রাজ্জাক ওরফে আবু ওমর। চৌদ্দ বছর সশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন মেহেদী হাসান, আনিসুল ইসলাম, মহিবুল্লাহ ও সারোয়ার।
মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ২০০০ সালের ২২ জুলাই তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া সফর উপলক্ষে কোটালীপাড়ায় শেখ লুৎফর রহমান সরকারি আদর্শ কলেজ মাঠ প্রাঙ্গণে জনসভার প্যান্ডেল তৈরির সময় একটি শক্তিশালী বোমা পাওয়া যায়। পরে সেনাবাহিনীর একটি দল ৭৬ কেজি ওজনের বোমাটি উদ্ধার করে। পরদিন ২৩ জুলাই ৪০ কেজি ওজনের আরও একটি বোমা উদ্ধার করা হয়। হুজির অন্যতম শীর্ষস্থানীয় নেতা মুফতি হান্নানের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, ২০০০ সালের জুলাই মাসে হুজির কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে শেখ হাসিনাকে হত্যার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। ওই বছরের ২০ জুলাই কোটালীপাড়ায় শেখ হাসিনার সমাবেশস্থল ও হেলিপ্যাডের কাছে দুটি শক্তিশালী দূরনিয়ন্ত্রিত বোমা পুঁতে রাখা হয়েছিল, যা সমাবেশের সময় বিস্ফোরণ ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল।
- - - - - - - -
২। টাকা দিলেই নিয়োগ
টাকা দিলেই এখন নিয়োগ পাওয়া যায়! সে যে ধরনের চাকরিই হোক না কেন। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী থেকে শুরু করে আধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দফতরি বা পিওন পদে চাকরির জন্যও ঘুষ দিতে হয়? আর এই ঘুষের রেট এমন পর্যায়ে গেছে যা সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে। এসব কারণে চাকরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সাধারণ মেধাবী শিক্ষার্থীরা। টাকা দিয়ে বেশিরভাগ চাকরি মিলছে, জঙ্গি-জামায়াত শিবিরের। টাকার নেশায় ‘জামায়াত না জঙ্গি জিজ্ঞেসে কোনজন’।
তবে রাষ্ট্রের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক বিষয় হলো জঙ্গি-জামায়াতও ঘুষ দিয়ে ঢুকে যাচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীতে। অস্ত্র নিয়ে তারা দায়িত্ব পালন করছেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আশপাশে। ঘুষের কারণে এদের পরিচয়ও বদলে যাচ্ছে, হয়ে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের লোক। গ্রামের বাড়িতে যে পুলিশ ভেরিফিকেশন হয়, সেখানেও এক-দুই হাজার টাকায় পরিচয় বদলে ফেলা যায়। টাকা দিলে আওয়ামী লীগ সমর্থক আর টাকা না দিলে আওয়ামী লীগ সমর্থক পরিবারের সদস্যরাও হয়ে যাচ্ছেন জামায়াত-বিএনপি বা জঙ্গি গ্রুপের সদস্য।
- - - - - - - -
৩। পদ্মার স্রোতে একঘণ্টায় বিধ্বস্ত ১৪ বাড়ি


পদ্মার তীব্র স্রোতে মাত্র একঘণ্টার মধ্যে বিধ্বস্ত হয়েছে ঢাকার দোহার উপজেলার নারিশা পশ্চিমচর এলাকার ১৪টি বাড়ি। এর মধ্যে নিমিষেই পানিতে তলিয়ে গেছে চারটি ঘর। ভাঙন আতঙ্কে বাড়িঘর সরিয়ে নিতে ব্যস্ত এলাকার বাসিন্দারা। এলাকাজুড়ে চলছে সর্বস্বহারা মানুষের আহাজারি।
এলাকাবাসী জানান, গত কয়েকদিন ধরে পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদীতে তীব্র স্রোত প্রবাহিত হচ্ছিল। রবিবার রাতে আকস্মিক স্রোত এসে সেখানে থাকা চারটি ঘর মুহূর্তেই নদীতে তলিয়ে নিয়ে যায়। ভেঙে যায় আরও ১০টি ঘর। ভাঙনের ভয়াবহতা দেখে নদীপারের বাসিন্দারা আতঙ্কিত হয়ে ছুটোছুটি করতে থাকে। এসময় অন্তত পাঁচজন আহত হয়। এদিকে ঘরে থাকা খাবারটুকু সহ সবকিছু হারিয়ে বাড়ি-ঘরহারা মানুষগুলো যেন একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো। এ পরিস্থিতিতে দ্রুত সরকারি সাহায্য কামনা করেছেন তারা।
- - - - - - - -
৩। ‘বাংলাদেশে একটি মানুষও গৃহহীন হয়ে থাকবে না’


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রবল বর্ষণ ও উজানের পানি আসায় দিনাজপুরে বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটে। বহু রাস্তাঘাট, কার্লভাট, ব্রিজ, রেল লাইন, মহাসড়ক পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বন্যার তোড়ে জেলার বেশিরভাগ মাটির বাড়ি ঘর সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়েছে, নষ্ট হয়েছে কাঁচা বাড়িঘর। আমার সরকার কাউকে গৃহহীন রাখবে না। প্রত্যেকের বাড়ি তৈরি করে দেয়া হবে। যাদের নিজস্ব জায়গা নেই তাদের খাস জমির উপর বাড়ি করে পুনর্বাসন করা হবে। বাংলাদেশে একটি মানুষও গৃহহীন হয়ে থাকবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুরের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি ও ত্রাণ শিবির পরিদর্শনের জন্য আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় হেলিকপ্টারযোগে দিনাজপুর বড় মাঠে নেমে সরাসরি দিনাজপুর জিলা স্কুল আশ্রয় শিবিরে উপস্থিত হন।
- - - - - - - -
৪। চট্টগ্রামে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫
গতকাল মধ্যরাতে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী ব্রিজের টোল প্লাজায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৪জন সহ মোট পাঁচজন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে এক দম্পতি ও তাদের দুই সন্তান রয়েছেন। নিহতরা হলেন, সোহেল, তার স্ত্রী বিলকিস এবং তাদের দুই শিশু সন্তান শারমিন ও সাব্বির। নিহত অপরজন অটোরিকশাচালক। নগরীতে সোহেলের এক ভাইয়ের বাসায় দাওয়াত খেয়ে রাতে বাড়ি ফিরছিল এই পরিবারটি। রাত ১২টার দিকে টোল প্লাজায় পরিবারটিকে বহনকারী অটোরিক্সাটি টোল দেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিল। এ সময় একটি বাস অটোরিক্সাটিকে ধাক্কা দেয়। ঘটনাস্থলেই পাঁচজনের মৃত্যু হয়।
- - - - - - - -
৫। খান টিপু সুলতান মারা গেছেন
যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বর্ষীয়ান অ্যাডভোকেট খান টিপু সুলতান মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শনিবার রাতে ঢাকা সেন্ট্রাল হাসপাতালের চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত বোর্ড খান টিপু সুলতানের লাইফ সাপোর্ট খুলে দেন। এর পরপরই তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।
অ্যাডভোকেট খান টিপু সুলতান খান টিপু সুলতান পঞ্চম, সপ্তম ও নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোরের মণিরামপুর আসন হতে তিনবার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী স্বপন ভট্টাচার্য্যরে কাছে হেরে যান তিনি।
- - - - - - - -
৬। সুপ্রিম কোর্ট যথেষ্ট ধৈর্য ধরছে: প্রধান বিচারপতি
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলমের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ঝড় তো আপনারাই উঠাচ্ছেন। আমরা কি ঝড় উঠার মতো কিছু বলেছি? তিনি বলেন, এ ঝড় উঠার পরেও সুপ্রিম কোর্ট যথেষ্ট ধৈর্যের পরিচয় দিচ্ছে। বিচার বিভাগ যথেষ্ট ধৈর্য ধরে আছে। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় ও রায়ের পর্যালোচনা নিয়ে অব্যাহত সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ রবিবার মাসদার হোসেন মামলার শুনানিকালে প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন।

২০১৮
======

সূচীপত্র:→ বাংলাদেশ: ফিরে দেখা

________________
তথ্য ও ছবিসূত্র:
দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক সমকাল, দৈনিক যুগান্তর এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ মাধ্যম।
বাংলাদেশের তারিখ : বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান।
বাংলাদেশের ইতিহাস সংক্রান্ত বিভিন্ন বই-পুস্তক ও পত্রপত্রিকা।
ইন্টারনেট, উইকিপিডিয়া, বাংলাপিডিয়া।
সর্বশেষ এডিট : ২১ শে আগস্ট, ২০১৮ ভোর ৪:০৬
৫টি মন্তব্য ৫টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

বিবর্ণ জীবন

লিখেছেন মুক্তা নীল, ২০ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:০৮



কেস স্টাডি ১ : কণা ও আবিরের সাত বছরের সম্পর্কের সমাপ্তি ঘটে দুই পরিবারের বিয়ের সম্মতিতে।আবির চাকরি করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আর কনা বেসরকারি ব্যাংকে। বিয়ের চার... ...বাকিটুকু পড়ুন

এলোমেলো ডায়েরী: শৈশবের ৯ টি সবচেয়ে স্বস্তির, মজার মুহূর্ত! আমার সাথে আপনারটা মেলে কি? :) :)

লিখেছেন সামু পাগলা০০৭, ২০ শে আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৫



পূর্বের পর্বগুলো: এলোমেলো ডায়েরি: ঈদ ইন বিদেশ ভার্সেস বাংলাদেশ। দেশীয় ঈদের যে ৬ টি জিনিস প্রবাসে সবচেয়ে মিস করি!
[link|https://www.somewhereinblog.net/blog/samupagla007/30250594|এলোমেলো ডায়েরী (২): ৭ টি গা জ্বালানি বাংলাদেশী... ...বাকিটুকু পড়ুন

রাশিয়ান নিউক্লিয়ার মনিটরিং স্টেশন এর নিরবতাঃ কিসের আভাস?

লিখেছেন আর্কিওপটেরিক্স, ২০ শে আগস্ট, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২২


৮ই আগষ্ট রাশিয়ান মিলিটারি টেস্টিং ফ্যাসিলিটিতে একটি বিস্ফোরণ ঘটে। এরপর থেকে রাশিয়ার ৪টি নিউক্লিয়ার মনিটরিং স্টেশন থেকে ডেটা ট্রান্সমিশান বন্ধ হয়ে গেছে। এই মনিটরিং স্টেশনগুলো বাতাসে রেডিয়েশান লেভেল... ...বাকিটুকু পড়ুন

সমন্বিতা

লিখেছেন পদাতিক চৌধুরি, ২১ শে আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:২০



সাহেবকে বলে আজ একটু তাড়াতাড়ি অফিস থেকে বার হলাম। নাহ আজ আর অন্য কোথাও যাব না, তাড়াতাড়ি বাড়িতে ফিরতে হবে। দ্রুত পা চালিয়ে স্টেশনে গেলাম। বেশিক্ষণ দাঁড়াতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাটিতে পুতা কুরবানীর পশুর চামড়াই ধ্বংসের হাতিয়ার হয়ে ঝাপিয়ে পড়ুক চামড়াশিল্পের অশুভ সিন্ডিকেট বিনাশে

লিখেছেন ডঃ এম এ আলী, ২১ শে আগস্ট, ২০১৯ ভোর ৬:০৭


ছবি সুত্র : Click This Link

পর্ব-১ : চামড়া শিল্পের পতনকে চামড়ার চাবুক মেরেই প্রতিকার

কোরবানির পশুর চামড়ার বাজারে ধ্বস নেমেছে। কোরবানির চামড়ার বাজারে ধ্বস নামার নেপথ্য কারণ... ...বাকিটুকু পড়ুন

×