somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বই চোর (মুভি রিভিউ)

২২ শে জানুয়ারি, ২০১৫ রাত ১১:২১
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :



আমি যখন বইটি হাতে পেয়েছিলাম তখন বই খোর'রা অলরেডি সবাই এটা পড়ে ফেলেছে। এমনকি মুভিটা তারা এবং আমিও দেখে ফেলেছি। তারপরও আমি পড়লাম, মুগ্ধ হলাম, নিজেকে ধিক্কার দিলাম এত দেরি করে পড়বার জন্য। আমি যখন বইটা পড়ি তখন ফেস বুকে একটা স্টাটাস দিয়েছিলাম, ওখানে প্রিয়ভাষিনী প্রিয়তমেষূ লিখেছিলেন 'বই চোর'। তখনই মনে হল বইটার/ মুভিটার রিভিউ লিখলে শিরোনাম The Book Thief না লিখে লিখবো 'বই চোর'। আজকের মুভি রিভিউ 'বই চোর/ The Book Thief'।



আইএমডিবি রেটিংঃ ৭.৬
পরিচালকঃ ব্রায়ান পার্সিভ্যাল
মূল লেখকঃ মার্কুস জুস্যাক (উপন্যাস)
চিত্রনাট্যঃ মাইকেল পেট্রনি
অভিনয়েঃ সোফি নেলিস্, জিওফ্রে রাশ, এমিলি ওয়াটসন, প্রমুখ...
মুভি দৈর্ঘ্যঃ ১৩১ মিনিট
মুক্তির তারিখঃ ২৭ নভেম্বর ২০১৩
ছবির ধরণঃ নাটক, যুদ্ধ



কাহিনী সংক্ষেপঃ ১৯৩৮ সালে লিজেল মিমিঙ্গার (সোফি নেলিস্) তার মা ও ভাই সাথে ট্রেনে যাবার পথে ভাই টি মারা যায়, ভাইয়ের সমাধি স্থান থেকে লিজেল The Grave Digger's Handbook নামের একটি বই চুরি করে, মজার ব্যাপার হলো তখনও সে পড়তে বা লিখতে পারে না।বারো বছরের লিজেল ছোট একটি শহরে হিমেল স্ট্রিট নামক স্থানে তার পালক বাবা হান্স হোবারম্যান(জিওফ্রে রাশ) ও মা রোজ হোবারম্যান(এমিলি ওয়াটসন) কাছে হস্তান্তর হয়, সেখানে তার ভাইয়েরও আসার কথা ছিল। তার পালক বাবা চিত্রশিল্পী এবং অ্যাকর্ডিয়ন প্লেয়ার ও মা ধোপার কাজ করে থাকেন।
প্রতিবেশী ছেলে রুডি স্টেনার সাথে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে লিজেলের। প্রাণচঞ্চল রুডি নানা অযুহাতে লিজেলের কাছে একটি চুম্বন আশা করে, লিজেলও কৌশলে তাকে ফিরিয়ে দেয়।



অন্য দিকে হান্স জানতে পারেন লিজেল পড়তে পারেন না, তিনি লিজেল কে পড়ানো শুরু করেন এবং বাড়ীর বেসমেন্টের দেয়ালে লেখা তার ডিকশোনারি'টি দেখান ও শিখিয়ে দেন কিভাবে এটা আপডেট করতে হয়। এদিকে যুদ্ধের ডামাডলে তাদের বাড়ীতে ম্যাক্স নামের ইহুদি একটি ছেলে এসে হাজির হয় (হান্সের বন্ধুর ছেলে যিনি হান্স কে বাঁচাতে যেয়ে নিজে মৃত্যুবরন করেন)। অসুস্থ ম্যাক্সের সাথে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে লিজেলের।
লিজেলের ব্যাস্ততা বেড়ে যায়। শহরের মেয়রের বাসায় কাপড় দেওয়া নেওয়ার দায়িত্ব পড়ে তার। মেয়রের স্ত্রী আগেই আবিস্কার করেছিল লিজের বই প্রিতির বিষয়টি একটি বই পোড়ানো উৎসবে। লিজেলকে দেখে তিনি খুশি হন এবং তাদের লাইব্রেরীতে যাতায়াতের অনুমদন দেন। কিছু দিনের ভিতরে মেয়রের চোখে বিষয়টি ধরা পড়ায় বই পড়া ও ধোপার কাজ বন্ধ হয়ে যায়।



ম্যাক্স আরো বেশি অসুস্থ হয়ে গেলে তার ভালো হয়ে ওঠার প্রার্থনায় লিজেল পাশে বসে বই পড়া শুরু করে। আর এই বই সে সংগ্রহ করা শুরু করে মেয়রের বাড়ী থেকে, যদিও পড়া শেষ হলে তা আবার ফেরত দেয়। ম্যাক্স এক সময় সুস্থ হয়ে ওঠে এবং লিজেলদের নিরপত্তার কথা ভেবে চলে যায়। লিজেল তখন লেখা শুরু করে তার ডাইরি, এটা সে উপহার পেয়েছিল ম্যাক্সের কাছ থেকে।



হান্সকে যুদ্ধে যেতে হয় বাধ্যতামূলক, ফিরেও আসেন তিনি এক পা হারিয়ে। এদিকে মিত্র বাহিনী রাতে জার্মানিতে বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। হামলার সময় সয়য় সাইরেন বাজানো হয় এবং সবাই বাংকারে চলে যায়। একদিন হামলার সময় সাইরেন বাজে না, বোমার আঘাতে তচনচ হয়ে যায় হিমেল স্ট্রিট।



কি হয় লিজেলের? বাবা মায়ের? রুডি কি চুম্বন করতে পেরেছিল? ম্যাক্স কি কখনো ফিরে এসেছিল? মুভিটি দেখলেই জানা যাবে সব প্রশ্নের উত্তর।

মুভি টি কেন দেখবেনঃ
মুভিটি মূলত যে উপ্যনাস থেকে বানানো হয়েছে সেটি সমন্ধে উইকি তে লেখা আছে - the book has won numerous awards and was listed on The New York Times Best Seller list for over 230 weeks। সুতরাং কাহিনী কতটা সুন্দর হতে পারে বুঝহতেই পারছেন।
মুভিতে অভিনয় করেছেন পাপা/হান্স (বাবা) চরিত্রে জিওফ্রে রাশ, তার অভিনয় খ্যাতি নিয়ে কিছু লেখা আমার সাজে না, শুধু লিখতে পারি এই সৎ,দয়ালু, কোমল চরিত্রকে তিনি ১০০% ফুটিয়ে তুলেছেন। তার অভিনয়ের সাথে আমার পরিচয় Shine মুভি থেকে। তারপর Shakespeare in Love, Quills, The King's Speech ছবিতে তিনি মুগ্ধ করেছেন সবাইকে। Pirates of the Caribbean এ ক্যাপ্টেন বারবোসা'কে কেনা চেনে।

মুভিতে অভিনয় করেছেন মামা/রোজ (মা) চরিত্রে এমিলি ওয়াটসন। ছবির শুরুতে মনে হবে এমন রুড মহিলা কেমনে কি...!! যত সময় যাবে তত তার হৃদয়ের গভিরতারও খোঁজ পাওয়া যাবে। ম্যাক্স সুস্থ হলে লিজেলের স্কুলে তার চলে আসা যে কোন মানুষকেই মুগ্ধ করবে। মুগ্ধ করবে তার মাতৃত্যবোধ।

মুভিতে অভিনয় করেছেন লিজেল চরিত্রে সোফি নেলিস্। আগে কখনো দেখি নাই। তবে ১২/১৩ বছরের ছোট মেয়েটি তার অভিনয়ের গুনাগুন সবাইকে বুঝিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। হরিনী চোখের অধিকারী এই মেয়ের অভিনয় আপনাদের ভালো লাগবে।



২য় বিশ্বযুদ্ধের সময়ের কাহিনী নিয়ে এটা একটি ক্লাসিক্যাল মুভি।
Motion Picture Rating (MPAA)-
Rated PG-13, সো নির্ভাবনায় অনায়াসে দেখে ফেলুন।



মুভিটি অন লাইনে দেখতে/ডাউনলোড করতে পারেন /:)/:)
কপিরাইট আইনের কারণে লিংকটি সরিয়ে ফেলা হল।


নোট- ডাউনলোড লিংক গুলো ভাইরাস মুক্ত নাও হতে পারে (ধুস)।
সকল তথ্য আইএমডিবি, উইকি, ইউটিউব, গুগল... থেকে নেওয়া হয়েছে।
বইয়ের সাথে মুভিটির বেশ কিছু পরির্বতন রয়েছে।




সর্বশেষ এডিট : ২২ শে জানুয়ারি, ২০১৫ রাত ১১:৫১
৫০টি মন্তব্য ৪৯টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

আমাদের সাধারণ ছাত্ররা একা একা আন্দোলন করার মতো দক্ষ নয়।

লিখেছেন সোনাগাজী, ১৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ২:৫০



পাকিস্তান আমলে ছাত্রলীগ ও ছাত্র ইউনিয়ন আইয়ুব খানের বিপক্ষে কয়েকটি শক্ত আন্দোলন করেছিলো; তখন এই ২ দলের কেন্দ্রীয় কমিটি ছিলো ও উভয় দলই তাদের মুল রাজনৈতিক দল ও... ...বাকিটুকু পড়ুন

কাউকে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে দেওয়া হবে না

লিখেছেন জ্যাক স্মিথ, ১৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ২:৫৮



ছাত্রদের কোটা আন্দোলনের সুযোগ নিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার কোন সুযোগ নেই, বিম্পি-জামাত ঝড়ে আমার কুড়াতে খুবই উস্তাদ। শ্বান্তিপূর্ণ একটি আন্দোলনে সাধারণ ছাত্রদের উস্কানী দিয়ে, সোশ্যাল নেটওয়ার্কে গুজব ছড়িয়ে... ...বাকিটুকু পড়ুন

প্রিয় দেশবাসী কর্মস্থলে আসুন। আজ প্রকৃত দেশপ্রেমিক ছাত্রলীগরা আপনাদের নিরাপত্তা দিবে।

লিখেছেন মোহাম্মদ গোফরান, ১৮ ই জুলাই, ২০২৪ সকাল ১০:৪৭



যারা চাকুরী ব্যাবসা বাণিজ্য করেন তাদের সাথে কোটা আন্দোলন কারীদের কোন বিরোধ নেই। আমাদের সকল শিল্পী, মুক্তমনা ব্লগাররা কোটা সংষ্কার এর পক্ষে।আমাদের পরিবারের সদস্যরাও কোটা আন্দোলনে রাজপথে নামছে। উপরের... ...বাকিটুকু পড়ুন

নির্বাচিত আর অনির্বাচিত সরকারের মধ্যে পার্থক্য।

লিখেছেন জাদিদ, ১৮ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ২:১৭

অনেকেই জিজ্ঞেস করেন যে নির্বাচিত আর অনির্বাচিত সরকারের মধ্যে পার্থক্য কি?

একটি নির্বাচিত সরকার জনগণের মতের মূল্যায়ন করেন, সম্মান করেন এবং সেইভাবেই কাজ করার চেষ্টা করে। আর একটি অনির্বাচিত, অগণতান্ত্রিক... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাথার উপর থেকে বাড়ির চাল উড়ে গেলে কেবল সহানুভূতিতে কোন কাজ হয় না

লিখেছেন করুণাধারা, ১৮ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ২:৩৮



আবু সাঈদের স্বজনদের কান্না।


আমি ভাবছিলাম আবু সাঈদের পরিবারের কথা। তাদের স্বপ্ন ছিল পরিবারের একমাত্র শিক্ষিত ছেলেটি এক সময় চাকরি করবে, পরিবারের অভাব দূর করবে। সেই স্বপ্ন ভেঙে দিয়েছে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×