somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

চোঁখ ভরে যায় : বিশ্বের সেরা যত গাছ

০৯ ই আগস্ট, ২০১৪ রাত ১:৪৭
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

আমাদের পৃথিবীর নানা প্রান্তে এমন সব চোঁখ ধাধানো বৃক্ষ রয়েছে, যা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যকে করেছে দৃষ্টিনন্দিত। ক্যামেরাবন্দি হওয়া এমন সব নজরকাড়া বৃক্ষের ছবি নিয়ে সাজানো হয়েছে - চোঁখ ভরে যায় : বিশ্বের সেরা যত গাছ

চলতি মাসেই পরিবেশ ও প্রকৃতি সম্পর্কিত কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বাছাই করেছে সুন্দর এবং আকর্ষণীয় একাধিক বৃক্ষের ছবি। এদের মধ্যে সেরা ১৫/১৬টি ছবি নিয়ে স্বস্ব ওয়েবসাইট প্রকাশ করেছে প্রতিবেদন। এর মধ্যে 16 Of The Most Magnificent Trees In The World শিরোনাম করে ছবি প্রকাশ করেছে boredpanda. অপরদিকে 15 Most Majestically Beautiful Trees In The World! শিরোনামে প্রকাশ করেছে seenox.com



এটি ১২৫ বছরের পুরানো একটি গাছ, যার নাম Rhododendron. কানাডার Ladysmith, British Columbia তে রয়েছে গাছটি। Rhododendron হচ্ছে একটি গ্রিক শব্দ যার বাংলা হচ্ছে গোলাপ গাছ। গ্রিক শব্দ rhódon মানে গোলাপ এবং déndron মানে গাছ।

আমাদের দেশে প্রচলিত গোলাপ ফুলের মত হলেও এই গোলাপের রঙ শুধু অসাধারণ নয়, গন্ধেও আছে প্রশান্তি। কোরিয়ার পাহাড়ি অঞ্চলে, জাপান, সিকিম, ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় এই গোলাপ গাছের দেখা মেলে।



এটি Japanese Maple Trees. মূলত জাপানে অধিকমাত্রায় দেখা যায় মাপেল গাছ। খোদ জাপানে এই গাছ রয়েছে প্রায় অর্ধশত রকমের। লাল-নীল-হলুদ-কমলাসহ নানা রঙের পাতায় ভরা থাকে একেকটি গাছ।

All About Japanese Maple Trees প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে
গাছগুলো ৮-১০ থেকে ১৫ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। প্রতিটি গাছের ভেতরে রয়েছে এক ধরণের আকর্ষণীয়তা। আকার ও সৌন্দর্য্য বিবেচনায় উল্লেখযোগ্য জাপানি মাপেলগুলো হলো Tamukeyama, Waterfall,
Virdis, Aconitifolium Maiku-jaku, Green Cascade, Shu Shidare, Green Mist, Murasaki Kiyohime, Green Hornet, Tiger Rose, Winter Flame, Rugose, Ao shime no uchi, Hogyoku, Kagiri Nishiki, Scolopendrifolium, Shigarami, Green Lace, Osakazuki, Sango Kaku, Green, Garnet, Crimson Queen, Red Dragon, Octopus, Skeeters Broom
Tsukushigata, Red Cloud, Pixie, Hubb's Red Willow, Iijima Sunago, Red Emperor, Beni Otake, Burgundy Lace, Hefner's Red, Trompenburg, Bloodgood, Oshio Bene, Atro-purpureum.



এটি হচ্ছে ইউক্যালিপটাস গাছ। Rainbow Eucalyptus হিসাবে পরিচিত। এটি আমেরিকার Kauai, Hawaii দ্বীপপুঞ্জে বেশি দেখা যায়। এই বৃক্ষের টানে দেশ-বিদেশের পর্যটকরা ছুটি যান। এ সম্পর্কে আরও জানতে চায়লে ভিজিট করতে পারেন Click This Link
রঙ-বেরঙের ইউক্যালিপটাস দেখে আপনার চোঁখ ভরে যাবে। মনে হবে কেউ মনের মাধুরী মিশিয়ে গাছের সারাগায়ে রঙ করেছে।



এটি জাপানের একটি বৃক্ষ। নাম হচ্ছে Wisteria. দেখে মনে হবে আকাশটাকে কখনও গোলাপী, কখনও ধূসর, কখনও নীল আভা ছড়িয়ে দিয়েছে Wisteria.

এই বৃক্ষের রঙ নিয়ে কি আকাশ জুড়ে ভেসে ওঠে রঙধনু?

তা নিশ্চয় নয়। তবে এই গাছগুলোর তলে দাড়ায়ে আকাশ দেখার সময় এমনটি মনে হতে পারে আপনার। জাপানের Ashikaga Flower Park এ রয়েছে এই ধরণের অসংখ্য বৃক্ষ। এখানে আছে ১শ ৪৪ বছরের Wisteria বৃক্ষ, যা বিশ্বের সেরা ১৫ বৃক্ষের তালিকায় উঠে এসেছে।



বৃক্ষটির নাম Angel Oak. South Carolina র John’s Island এ গেলে মিলবে এই গাছের দেখা। একহাজারেরও বেশি গাছ রয়েছে নর্থ আমেরিকার John’s Island এ।



১৯৪৭ সালে John Henry Dick নামে একজন বৃক্ষপ্রেমী নর্থ আমেরিকার South Carolina তে নিজের বাড়িতে এই গাছের চারা রোপন করেন। পরবর্তিতে গাছের বংশ বৃদ্ধি হয়ে তার বাড়িসহ গোটা এলাকা হয়ে ওঠে দর্শনীয় স্থান। জায়গাটি Dixie Plantation হিসাবে পরিচিতি পায়। তবে ১৬ শতাব্দিতে প্রথম এই গাছের চারা রোপন করা হলেও ইতিহাস বলছে ১৭ শতাব্দিতে আগুনে পুড়ে অত্র অঞ্চলের এই গাছগুলো পুড়ে যায়। পরবর্তিতে John Henry Dick এই গাছের উদ্যান তৈরিতে লেগে পড়েন।



The President, Third-Largest Giant Sequoia Tree In The World, California.

আমেরিকার ২৯ তম প্রেসিডেন্ট Warren G. Harding এর মৃত্যুর পর তাঁর সম্মানে ১৯২৩ সালে বৃক্ষর নাম রাখা হয় President (tree).



এটি একটি আফ্রিকান বৃক্ষ। নাম Baobab Trees. Madagascar অঞ্চলে রয়েছে এটির আধিক্য।

ওই প্রতিবেদন গুলোতে উঠে আসা সেরা বৃক্ষগুলোর আরও কয়েকটি ছবি, নাম ও স্থানের কথা উল্লেখ করা হলো:



জার্মানিতে দেখা যায় এই গাছগুলো বেশি। Blooming Cherry Trees হিসাবে পরিচিত।



এ্ই বৃক্ষর নাম Dragonblood, এটির দেখা মিলবে Yemen এ যদি আপনি ঘুরতে যান।



Antarctic Beech Draped In Hanging Moss In Oregon.


Maple Tree Tunnel in Oregon.


বৃক্ষ ছাড়া কি আমরা পৃথিবীকে কল্পনা করতে পারি। গাছ কেবল আমাদেরকে অক্সিজেন দেয়না, অপ্রয়োজনীয় কার্বন ডাই অক্সাইড চুষে নিয়ে পৃথিবীকে আমাদের বাসযোগ্য করে তোলে। আমরা সুস্থ দেহ-মন নিয়ে বেঁচে আছি এই প্রকৃতির কৃপায়। It is really incredible to realize how many benefits trees have and one could not imagine our planet earth without trees. After all, they combat the greenhouse effect, clean the air, provide oxygen, help prevent water pollution, provide food, provide a canopy and habitat for wildlife.

দেখুন আরো কয়েকটি বৃক্ষের রোমাঞ্চকর রুপ:




The Dark Hedges In Northern Ireland


Jacarandas in Cullinan, South Africa


Wind-Swept Trees In New Zealand


Flamboyant Tree, bangladesh

যদিও ওই প্রতিবেদন গুলোতে সেরা কৃষ্ণচুড়া গাছ হিসাবে এসেছে ব্রাজিলের একটি কৃষ্ণচুড়ার ছবি। তবে আমাদের বাংলাদেশের মাটিতে জন্ম নেয়া কৃষ্ণচুড়া গাছগুলো অনেক সুন্দর, অনেক মুগ্ধকর বলেই আমার মনে হয়েছে।

তথ্য সুত্র:
http://boredpanda.com/most-beautiful-trees
Click This Link
Click This Link
সর্বশেষ এডিট : ০৯ ই আগস্ট, ২০১৪ দুপুর ১২:২১
১৩টি মন্তব্য ১১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

Lost for words....

লিখেছেন জুল ভার্ন, ০৩ রা জুলাই, ২০২২ সকাল ১০:৩৫

Lost for words....

ভৌগোলিক আয়তনে আমাদের দেশটা ছোট হলেও আমাদের দেশের অঞ্চলভিত্তিক ভাষার বিচিত্রিতা অত্যন্ত বৈচিত্র্যময়। আমরা অনেকেই আমাদের আঞ্চলিক ভাষা নিয়ে ট্রল করি। ইদানিং আমাদের দেশের বস্তাপচা নাটক সিনেমায় আকছার... ...বাকিটুকু পড়ুন

প্রধানমন্ত্রীর মত উনার মন্ত্রীগুলোও এখন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেয়ে ব্রিজের পাশে দাঁড়ানোকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে।

লিখেছেন সৈয়দ তাজুল ইসলাম, ০৩ রা জুলাই, ২০২২ দুপুর ২:৪০


'বাংলার পথেঘাটে এখন টাকা বেশি। পায়ের নিচে টাকা পড়ে এখন'
বন্যার্তদের পাশে না দাঁড়িয়ে বন্যার্ত এলাকার মন্ত্রী যখন মিডিয়ার সামনে এমন উদ্ভট কথাবার্তা বলে, তখন কেমন লাগে বলেন দেখি! উনার... ...বাকিটুকু পড়ুন

উত্তরবঙ্গ ভ্রমণ ২০২২ : সীতাকোট বিহার

লিখেছেন মরুভূমির জলদস্যু, ০৩ রা জুলাই, ২০২২ দুপুর ২:৫৫


ডিসেম্বর মাসে বাচ্চাদের স্কুল বন্ধ থাকে দীর্ঘ দিন। বেড়ানোর জন্যও নভেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি সময়টাই বেস্ট। এবার ইচ্ছে ছিলো ডিসেম্বরেই উত্তরবঙ্গ বেরাতে যাওয়ার, যদিও এই সময়টায় ঐ দিকে প্রচন্ড শীত থাকে।... ...বাকিটুকু পড়ুন

ছবি ব্লগ-২

লিখেছেন সৈয়দ মশিউর রহমান, ০৩ রা জুলাই, ২০২২ বিকাল ৪:০২

ছবি ব্লগ-১

মিগ-২১ প্রশিক্ষণ যুদ্ধ বিমানটি ১৯৭৩ সালে পাইলটদের প্রশিক্ষলেন জন্য অন্তর্ভুক্ত হয়।



এই বিমানটি ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হয়। এটি আকাশ তেকে ভুমিতে আক্রমনে পারদর্শী।
... ...বাকিটুকু পড়ুন

নতুন কোন কোন সমস্যাকে মেগা-প্রজেক্ট হিসেবে প্রাইওরিটি দেয়ার দরকার?

লিখেছেন সোনাগাজী, ০৩ রা জুলাই, ২০২২ রাত ৮:৩৮



পদ্মায় সেতুর প্রয়োজন ছিলো বলেই ইহা মেগা প্রজেক্টে পরিণত হয়েছিলো; যখন সরকারগুলো সেতু তৈরির জন্য মনস্হির করেনি, তখন তারা উনার বিকল্প ব্যবস্হা চালু রেখেছিলো (ফেরী ও লন্চ... ...বাকিটুকু পড়ুন

×