somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

নতুন নকিব
আলহামদুলিল্লাহ। যা চাইনি তার চেয়ে বেশি দিয়েছেন প্রিয়তম রব। যা পাইনি তার জন্য আফসোস নেই। সিজদাবনত শুকরিয়া। প্রত্যাশার একটি ঘর এখনও ফাঁকা কি না জানা নেই, তাঁর কাছে নি:শর্ত ক্ষমা আশা করেছিলাম। তিনি দয়া করে যদি দিতেন, শুন্য সেই ঘরটিও পূর্নতা পেত!

রমজানের খবর আগেভাগে অন্যকে জানালে দোজখ হারামের গুজব!!! হাদিসের নামে মিথ্যা প্রচারনায় বিভ্রান্ত না হয়ে এসব ক্ষেত্রে সাধ্যানুসারে হাদিসের নামে ছড়িয়ে দেয়া কথাগুলোর সত্যাসত্য যাচাই করুন প্লিজ

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৭
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


এই ধরনের মেসেজ ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে হাদিসের নামে। আমাকে দেয়া হয়েছে এটি।

ইদানিং ফেসবুকে একটি বার্তা প্রায়শই অনেককে আদান প্রদান করতে দেখা যায়। যাতে লেখা ‘প্রথম রমজান শুরু হবে ২৭ মে, নবী পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি অসাল্লাম বলেছেন, রমজানের খবর যে লোক আগে অন্য কোনো ব্যক্তিকে দেবে তার জন্য জাহান্নামের আগুন হারাম হয়ে যাবে; অতএব আপনিও রমজানের খবর আগে ভাগে অন্যকে দিয়ে জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি লাভ করুন।’

এই বার্তার পর দেখা যায়, রমজানের সূচিও দেওয়া থাকে সেই মেসেজের সাথে। এমন বার্তার বিষয়ে জানলাম সহকর্মীর কাছ থেকেও। এক সহকর্মী হোয়াটস এ্যাপ মেসেজে এই একই মেসেজ আমাকে দিয়েছেন। প্রথম দেখাতেই কথাটির হাদিস হওয়া নিয়ে আমার সন্দেহ হয়। তাকে হাদিসের রেফারেন্স দিতে বললে তিনি নিরব থাকলেন। বুঝলাম, তার কাছে রেফারেন্স নেই, যা তিনি উপস্থাপন করবেন। তাই শেষমেষ বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত জানার আগ্রহ হয়।

অনুসন্ধানে যা পেলাম তার সারমর্ম হলো- সবার আগে রমজান মাসের খবর দিলে, তার জন্য জাহান্নামের আগুন হারাম হবে-এ ব্যাপারে কোনো দলিল হাদিসে বর্ণিত হয়নি। সুতরাং এ বার্তার কোনো ভিত্তি নেই। বরং এমন বার্তার আদান-প্রদান নিষিদ্ধ। কেননা, এমন বার্তা প্রচারের মাধ্যমে হজরত রাসূলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি অসাল্লাম-এর ওপর মিথ্যারোপ করা হচ্ছে।

অভিজ্ঞ ও অনুসন্ধানী ইসলামি স্কলারদের অভিমত হলো- কিছু লোক বিষয়টি হাদিস বলে মানুষের মাঝে প্রচার করছে, মূলত এটা হাদিস নয়। এটা হাদিসের নামে বানানো কথা, যার কোনো ভিত্তি নেই।

সাধারণ নিয়ম মতে রমজান মাস নির্ধারিত হবে দেশের নিযুক্ত চাঁদ দেখা কমিটির মাধ্যমে। আর এটা নির্ধারণ হবে শাবান মাসের শেষের দিকে। সুতরাং কোনো ব্যক্তির পক্ষে সম্ভব নয় যে, সে শাবান মাসেই রমজান মাসকে দৃঢ়তার সঙ্গে নির্ধারণ করে দেয়। তাই ইসলামি স্কলারদের পরামর্শ হলো, এ ধরনের মিথ্যা-বানোয়াট জাল ম্যাসেজ অন্যের কাছে প্রেরণের পূর্বে ভালোভাবে যাচাই-বাছাই করা, সত্যতা যাচাই করা।

তবে রমজান মাসের আগমন উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানানো দোষণীয় কোনো বিষয় নয়। কেননা রাসূলুল্লাহ সল্লাল্লাহু অালাইহি অসাল্লাম সাহাবিদের রমজানের আগমন উপলক্ষে সুসংবাদ দিতেন এবং তাদের উত্তম আমলসমূহের জন্য প্রস্তুতি নিতে উৎসাহিত করতেন।

এ বিষয়ে একটি দীর্ঘ হাদিস বর্ণিত হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, হজরত সালমান ফারসি রাদিঅাল্লাহু তাঅালা অানহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, শাবান মাসের শেষ দিনে হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন।

ওই ভাষণে তিনি বলেন, 'হে লোক সকল! একটি মহিমান্বিত মাস তোমাদেরকে ছায়া হয়ে ঘিরে ধরেছে। এ মাস একটি বরকতময় মাস। এটি এমন এক মাস, যার একটি রাত হাজার মাসের চেয়ে উত্তম। আল্লাহ তায়ালা এ মাসের সিয়ামকে ফরজ করেছেন আর নফল করে দিয়েছেন এ মাসে রাতের কিয়ামকে। যে ব্যক্তি এ মাসে একটি নফল কাজ করবে, সে যেন অন্য মাসের একটি ফরজ আদায় করল। আর যে ব্যক্তি এ মাসে একটি ফরজ আদায় করল, সে যেন অন্য মাসের সত্তরটি ফরজ সম্পাদন করল। এ মাস সবরের (ধৈর্যের) মাস; সবরের সওয়াব জান্নাত। এ মাস সহমর্মিতার। এ এমন এক মাস যাতে মুমিনের রিজিক বৃদ্ধি করা হয়। যে ব্যক্তি এ মাসে কোনো রোজাদারকে ইফতার করাবে, এ ইফতার তার গোনাহ মাফের কারণ হবে, হবে জাহান্নামের অগ্নি থেকে মুক্তির উপায়। তার সওয়াব হবে রোজাদারের অনুরূপ। অথচ তার (রোজাদারের) সওয়াব একটুও কমানো হবে না।'

আমরা বললাম, 'হে আল্লাহর রসূল! আমাদের সবাইতো রোজাদারের জন্য ইফতারির আয়োজন করতে সমর্থ নই।'

রাসূলুল্লাহ সল্লাল্লাহু অালাইহি অসাল্লাম বললেন, 'এ সওয়াব আল্লাহ তাআলা ওই ইফতার পরিবেশনকারীকেও প্রদান করবেন, যে একজন রোজাদারকে এক চুমুক দুধ, একটি খেজুর অথবা এক চুমুক পানি দিয়ে ইফতার করায়। আর যে ব্যক্তি একজন রোজাদারকে পেট ভরে খাইয়ে পরিতৃপ্ত করল, আল্লাহ তায়ালা তাকে আমার হাউজে কাওসার থেকে এভাবে পানি খাইয়ে পরিতৃপ্ত করবেন- যার পর সে জান্নাতে (প্রবেশ করার পূর্বে) আর পিপাসার্ত হবে না। এমনকি সে জান্নাতে প্রবেশ করবে। এটা এমন এক মাস যার প্রথম অংশে রহমত। মধ্য অংশে মাগফিরাত আর শেষাংশে জাহান্নামের আগুন থেকে নাজাত। যে ব্যক্তি এ মাসে তার অধীনস্তদের ভার-বোঝা সহজ করে দেবে, আল্লাহ তাকে ক্ষমা করবেন। তাকে জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি দেবেন।' -মিশকাতুল মাসাবিহ, কিতাবুস সাওম, হাদিস নং: ১৯৬৫

অাল্লাহ পাক অামাদের সহীহ দ্বীন বুঝার এবং সেই অনুসারে অামল করার তাওফিক দান করুন।

হাদিসে রমজান মাস সম্পর্কে এভাবেই বলা হয়েছে। এর বাইরে অন্য কিছু বলা হয়নি। সুতরাং রমজান মাসের আগমনের খবর সবার আগে অন্যকে জানালে জাহান্নাম হারাম হবে- এ কথা ঠিক নয়। আর রমজান মাসের আগমনের খবর অন্যকে জানানো যাবে- যাতে তারা মানসিকভাবে প্রস্তুতি নিতে পারে।

ছবিঃ গুগল।

সর্বশেষ এডিট : ২৪ শে ডিসেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:২৩
১৬টি মন্তব্য ১৬টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

(ব্লগার ভাই বোনেরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে গর্জে উঠুন এই দাবীতে)

লিখেছেন :):):)(:(:(:হাসু মামা, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৩


আমাদের দাবী মানতে শুনতে হবে,সাংবাদিকদের ফ্ল্যাট দিলে আমাদের ব্লগারদেরও গাড়ি,বাড়ি,আর ভালো উন্নত মানের ক্যামেরা দিতে হইবে। না হলে জলবে আগুন রাজপথে,জলবে আগুন ব্লগারদের ব্লগ বাড়িতে জলবে আগুন বাংলা প্রতিটা... ...বাকিটুকু পড়ুন

সহজ সরল ভাবনা

লিখেছেন রাজীব নুর, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৮:৪২



তুমি হলো আয়না, তোমার কাছে লুকানো কিছু যায় না
খাদ্য যেমন ঈশ্বরের নেয়ামত, তাই খাওয়ার আগে এবং
পরে, ঈশ্বরের কাছে লাখ লাখ শুকরিয়া জানাতে হয়
আদর ভালোবাসার জন্য- তোমাকে শুকরিয়া জানাই... ...বাকিটুকু পড়ুন

মৃত্যুশয্যায় বৃদ্ধা মা, পাশে নেই বিসিএস ক্যাডার-বিত্তবান সন্তানেরা!

লিখেছেন সাত সাগরের মাঝি ২, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ৯:২০



কি নিষ্ঠুরতা! সংবাদ দেখে হতবাক আমি!

ফেনীর বৃদ্ধ এক মা। নাম মৃদুলা সাহা। বয়স ৮০ বছর। সারাটা জনম সংসার সংসার করে জীবন কাটিয়ে দিলেন। ছেলে মেয়েদের মানুষ করলেন। মেধাবী সন্তানদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

আদি পুস্তক সম্পর্কে জানুন ( পাট-২ )

লিখেছেন ঠ্যঠা মফিজ, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১০:২১


আদি পুস্তক সম্পর্কে জানুন ! ( পাট-১ )
ইব্রাহিমএবং সারাহ ভাই-বোন হওয়ার ভান করে ফিলিস্তিনী শহর গেরারে যান। গেরারের রাজা সারাহকে তার স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করেন। কিন্তু... ...বাকিটুকু পড়ুন

ভোজন রসিক বা রসিকতা!!

লিখেছেন কাল্পনিক_ভালোবাসা, ২৪ শে জানুয়ারি, ২০১৯ রাত ১:৫৬

'ভোজন রসিক' শব্দটির অর্থ নিয়ে আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে একটা বিভ্রান্তি কাজ করে। অধিকাংশ মানুষ ভাবেন - খাদক বা যারা বেশি খেতে পারেন, তারাই বুঝি ভোজন রসিক। আর ভদ্রস্থ ভাষায়... ...বাকিটুকু পড়ুন

×