somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ফিরে দেখা - ১০ মে

১০ ই মে, ২০২৪ বিকাল ৪:১৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
১০ মে ২০১৬

ফাঁসির রসিতে নিজামী
নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগার চলতি মাসেই কেরানীগঞ্জে স্থানান্তরের কথা রয়েছে। মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডপ্রাপ্ত কুখ্যাত আলবদর বাহিনীর শীর্ষ নেত নিজামীর ফাঁসি কার্যকরের মধ্য দিয়ে কারাগার স্থানান্তরের আগে ইতিহাসের দায়মোচনের আরেকটি আয়োজন সফলভাবে সম্পন্ন হলো গতকাল মধ্য রাতে।

১০ মে ২০১৫

যৌন নিপীড়নবিরোধী মিছিলে নির্বিচার লাঠিচার্জ
বর্ষবরণ উৎসবে নারীদের যৌন নিপীড়নের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও ছয় দফা দাবিতে পূর্বঘোষিত 'ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারের' কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি লাঠিচার্জ করে পণ্ড করে দিয়েছে পুলিশ। দুপুরে ছাত্র ইউনিয়নের ব্যানারে ডিএমপি কার্যালয় ঘেরাও করতে যান। ওই সময় শহীদ ক্যাপ্টেন মনসুর আলী সরণিতে পুলিশ তাদের ওপর নির্বিচারে লাঠিচার্জ, টিয়ারশেল ও জলকামান থেকে পানি নিক্ষেপ করে। বর্ষবরণের দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় নারী লাঞ্ছনাকারীদের কাউকেই ২৬ দিনেও চিহ্নিত করতে পারেনি পুলিশ। উল্টো যাঁরা নিপীড়কদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি করছেন পুলিশ তাঁদের ওপরই বর্বর হামলা চালিয়েছে। নারী লাঞ্ছনার বিচার চাইতে এসে উল্টো লাঞ্ছিত হয়েছেন ছাত্রীরাও। পুরুষ পুলিশের লাথি-ঘুষি খেয়ে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে কয়েকজন ছাত্রীকে। ধাওয়া খেয়ে গাছের আড়ালে লুকিয়ে থাকা ছাত্রীটিকেও চুলের মুঠি ধরে টেনে বের করে পিটিয়েছে পুলি। নিপীড়কদের গ্রেপ্তার ও শান্তিসহ ছয় দফা দাবিতে গতকাল দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কার্যালয় ঘেরাও করতে গিয়েছিলেন ছাত্র ইউনিয়নের নেতা- কর্মীরা। তাঁদের ডিএমপি কার্যালয়ের সীমানায় ঘেঁষতে দেয়নি পুলিশ। মেৱে- ধরে রাস্তা থেকেই তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে ৩৪ জন আহত হয়েছেন বলে ছাত্র ইউনিয়ন জানিয়েছে। তাঁদের মধ্যে ২১ জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। চারজন ভর্তি আছেন বিভিন্ন হাসপাতালে।

১০ মে ২০১৩

১৭তম দিনে মৃত্যকূপ থেকে রেশমা জীবিত উদ্ধার
মাথার ওপর তপ্ত রোদ। চারদিকে ভারী উদ্ধারযন্ত্রের শব্দ। সাভারের রান প্লাজার ধ্বংসস্তূপে চলছিল শেষ পর্যায়ের অভিযান। ফাঁকফোকর থেকে বের করে আনা হচ্ছিল অগণিত অর্ধগলিত একেকটি মৃতদেহ। ধসেপড়া ভবনে বেজমেন্টে কোমর সমান পানি। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টা। এ সময় কয়েকজন সংবাদকর্মীকে বেজমেন্টে জমে থাকা পানি দেখাতে নিয়ে যান সেনাবাহিনী ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের কর্মকর্তা মেজর এমএম মোয়াজ্জেম হোসেন। এমন সম অবিশ্বাস্য সেই দৃশ্যপট। সেনাবাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার রাজ্জাক প্রথম দেখতে পান একটি চাপাপড়া বিমের ফাঁক দিয়ে কেউ পাইপ নাড়ানাড়ি করছে মানবকণ্ঠের মৃদু আওয়াজ। হ্যান্ডমাইকে চিৎকার করে ওঠেন ওয়ারে অফিসার। এরপর গর্তের ভেতরে চোখ রাখেন তিনি। দেখেন, এক তরুণী হাত ইশারা করছে। আবছা আলো-অন্ধকারে তার দুটি চোখ মিটমিট করে জ্বলছিলা কণ্ঠে একটি বাক্য "স্যার আমাকে বাঁচান'। আমি জীবিত। মেয়েটি রেশমা। ১৭ দিন ধরে মৃত্যুকূপে আটকা ।

১০ মে, ২০১৮
মহাকাশযাত্রা বিলম্বিত
বাঙালির স্বাধীনতা সংগ্রামের স্লোগান ছিল 'জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু'। সেই স্লোগান বুকে নিয়েই মহাকাশের পথে যাত্রা শুরু করার কথা ছিল দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর। শেষ মুহূর্তে এসে সেই যাত্রা স্থগিত হয়েছে বেড়েছে অপেক্ষার পালা। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে বাংলাদেশ সময় আজ রাত ২টা ১৪ মিনিট থেকে পরবর্তী ২ ঘণ্টার মধ্যে মহাকাশে উড়বে স্বপ্নের এই স্যাটেলাইট
এর আগে বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টা ৪৭ মিনিটে স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নিয়ে উৎক্ষেপণ যান ফ্যালকন-৯ মহাকাশের পথে যাত্রা শুরুর কথা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের মাত্র ১ সেকেন্ড আগেই সেখানে ত্রুটি দেখা দেয়। যে কারণে উৎক্ষেপণটি একদিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। অরল্যান্ডো, ফ্লোরিডা থেকে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের ঘটনার সাক্ষী হতে ফ্লোরিডায় জড়ো হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিরা। কিন্তু বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ বিলম্বিত হওয়ার খবরে মুহূর্তেই তাদের মধ্যে নেমে এসেছে নীরবতা।

১০ মে, ২০১৭
বিএনপির ভিশন ২০৩০ ঘোষণা
ক্ষমতায় গেলে সংবিধান সংশোধন করে প্রধানমন্ত্রীর একক ক্ষমতায় ভারসাম্য আনবে বিএনপি। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর একক নির্বাহী ক্ষমতা দেশে একনায়কতান্ত্রিক শাসনের জন্ম দিয়েছে। সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে যে 'বিতর্কিত ও অগণতান্ত্রিক বিধান' যুক্ত করা হয়েছে, সেগুলো সংস্কার করার অঙ্গীকারের কথাও বলেন বিএনপিপ্রধান। তিনি বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে সংবিধান সংশোধন করে 'গণভোট' ব্যবস্থা পুনঃপ্রবর্তন করবে। ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি আধুনিক, গণতান্ত্রিক উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে চান চান তারা। প্রশাসনিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করার জন্য তারা সংবিধান অনুযায়ী 'ন্যায়পাল'-এর অফিস কার্যকর করবেন। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও উগ্রবাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সুনীতি, সুশাসন এবং সুসরকারের সমন্বয় ঘটাবেন।

১০ মে, ২০০৬
আওয়ামী লীগের ঘেরাও কর্মসূচিকালে গুলিবিদ্ধ ৩ ।। আহত অর্ধ শতাধিক ।। বিএনপির ২ এমপির গাড়ি ভাংচুর
ঘন্টাব্যাপী রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশন সংস্কার, ভুয়া ভোটার তালিকা বাতিল ও ডিজেল সংকটের প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ আহূত ডিসি অফিস ঘেরাও এবং প্রতিবাদ কর্মসূচি গতকাল বুধবার পালিত হয়। এ সময় মুহর্মুহু পুলিশের টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট নিক্ষেপ, পুলিশ ও মিছিলকারীদের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় জেলা শহরে সৃষ্টি হয় আতংক। সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, যুব মহিলা লীগের নেতা-কর্মী, সাংবাদিক, পুলিশসহ কমপক্ষে অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হয়। গুলিবিদ্ধ হয়েছে ৩ জন। গুরুতর আহত ৩ জনকে ময়মনসিংহে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালীন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য ও জেলা বিএনপি’র সভাপতি এম,এ করিম আব্বাসী ও সংসদ সদস্য আবু আব্বাসের গাড়ি ভাংচুর করা হয়। এছাড়া ট্রাক, মোটর সাইকেল ও অন্যান্য যানবাহন ভাংচুর করা হয়।

জনরোষ বিস্ফোরণ আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে : সবকিছু সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে
ক্ষমতার মেয়াদ ফুরিয়ে আমার সঙ্গে সঙ্গে সবকিছুই সরকারের নিয়ন্ত্রণের সবকিছু সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠলে সরকারের বিরুদ্ধে পুঞ্জিভূত জনরোষ দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়তে পারে এই আশংকায় সরকারী নেতাদের মধ্যে দেখা দিয়েছে নার্ভাসনেস। স্বাভাবিকভাবেই তারা নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর। দেশের আইনশৃঙ্খলার অবনতি, দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতি, পানি, বিদ্যুৎ তেল সঙ্কট, দুর্নীতি, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, ক্যাডারদের সন্ত্রাসী কার্যকলাপের কারণে গোয়েন্দা রিপোর্টে জনরোষ বিস্ফোরণ আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কার কথা বলা হয়েছে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে।

১০ মে, ২০০১
সাকাচৌ-আনোয়ার জাহিদ বহিষ্কৃত
বিএনপির কট্টর ও উদারপন্থী নেতাদের মধ্যে গত কয়েকদিনে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় ও বিবৃত্তি যুদ্ধের জের ধরে অবশেষে দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটি দলের সাংসদ সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী এবং চেয়ারপারসনের তথ্য উপদেষ্টা আনোয়ার জাহিদকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে। দলের গঠনতন্ত্রের ৫(গ) ধারা অনুযায়ী দলীয় শর্ত ভঙ্গ ও স্বার্থবিরোধী কার্যকলাপের জন্য বিএনপি স্থায়ী কমিটির এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

১০ মে, ১৯৯৮
১০মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত
লাকসামের অদূরে নাওটি ও নাঙ্গলকোট রেল ষ্টেশনের মাঝামাঝি আমদুয়ারা নামক স্থানে এক মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনায় ৩ জন মহিলাসহ ১৭ জন নিহত ও ৩০ জনের মত আহত হইয়াছে। রাতে ঢাকা হইতে চট্টগ্রামগামী একটি মালগাড়ীর বগি বিচ্ছিন্ন হয়ে দাঁড়াইয়া থাকা
চট্টগ্রাম টু-ডাউনগামী যাত্রীবাহী ট্রেনে ধাক্কা দিলে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলেই ১৫ জনের মৃত্যু ঘটে। পরে হাসপাতালে নেওয়ার সময় দুই জনের মৃত্যু ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন রেলকর্মী, একজন বিডিআর সদস্য রহিয়াছেন।

১০ মে, ১৯৯১
চট্টগ্রাম বন্দরের ক্ষয়ক্ষতি অবিশ্বাস্য
মনসুর ঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে বিধ্বস্ত চট্টগ্রাম বন্দরের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কয়েকশত কোটি টাকা। কর্ণফুলী নদী ও বন্দর চ্যানেলের আশেপাশে দেড় শতাধিক নৌযান ও জাহাজডুবির ফলে চট্টগ্রাম বন্দর বিপজ্জনক অবস্থার মধ্যে আছে। এদিকে গামেন্টস শিল্পের কাপড়সহ কমপক্ষে পাঁচ হাজার টন আমদানীকৃত পণ্য বন্দরে বিনষ্ট হওয়ার উপক্রম। মূল চ্যানেলে ১৪টি জাহাজ এবং আশেপাশে কয়েকশত ছোট-বড়-মাঝারি পাইলট শিপ, বার্জ, ট্যাঙ্কার, ট্রলার ও অন্যান্য নৌযান নিমজ্জিত হওয়ায় বন্দরের মূল চ্যানেলে চলাচল বিপজ্জনক হইয়া পড়িয়াছে।

১০ মে, ১৯৮২
বিশেষ সামরিক ট্রাইব্যুনালে সাবেক গণপূত মন্ত্রী আবুল হাসনাতের বিচার শুরু।

১০ মে, ১৯৮১
ঢাকায় সাংবাদিকদের শোক সমাবেশ ও মিছিল "স্বাভাবিক মৃত্যুর নিশ্চয়তা চাই"
গুপ্তহত্যার প্রতিবাদে সারাদেশে সাংবাদিক গণ ধর্মঘট পালন করেন। আজ কোন সংবাদপত্র প্রকাশিত হয় নাই, শনিবার প্রার্ভাসভাগুলির টেলিপ্রিন্টারে একটি হরফ সংবাদও পাঠানো হয় নাই। আততায়ীর হাতে ৭ই মে বাসস'র সিনিয়র রিপোর্টার শ্রমিক নেতা জনাব আবদুর রহমান নিহত হওয়ার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক উনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউ নয়ন ধর্মঘটের আহ্বান জানালে সংবাদপত্র প্রেস শ্রমিক ফেডারেশন ও সাধারণ কর্মী ফেডারেশনও ধর্মঘটের প্রতি সমর্থন জানায়।

১০ মে, ১৯৭৮
প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অর্থহীন ও ইঙ্গিতবহ
জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে ইউ. পি. পির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জনাব রাশেদ খান মেনন
সম্মেলনে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে অর্থহীন বলিয়া অভিহিত করিয়াজেন। তিনি বলেন, একদিনের সংশোধনী ও
কানুন বা আইন করিয়া এবং অপরদিকে একই সাথে প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক ও প্রেসিডেন্ট পদে সমাসীন থাকিয়া নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ফলে এই নির্বাচন কার্যতঃ অর্থহীন হতে চলেছে। উপরন্ত নির্বাচনী প্রস্তুতি ও প্রচারাভিযানের আর মাত্র একমাস সময় প্রদান গোটা ব্যাপারটাকেই বেশ তাৎপর্যপূর্ণ ও ইঙ্গিতবহ করিয়া তুলিয়াছে । তিনি বলেন, চতুর্থ সংশোধনীর অধীনে সামরিক আইনের ছত্রচ্ছায়ার এবং অপর কাহাকেও প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ না দিয় এই নির্বাচনের নামে সরকারের পাকাপোক্তভাবে জাকিয়া বসার রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকার চালু করার নামে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সুপরিকল্পিত ও অশুভ প্রয়াস বিশেষভাবে লক্ষণীয়।

১০ মে, ১৯৭৩

অতিবৃষ্টি ও পাহাড়িয়া ঢলে দেশের পূর্বাঞ্চল প্লাবিত
কাল বৈশাখীর ভয়াল থাবার ক্ষত শুকাইতে না শুকাইতেই মৌসুমী বন্যা আসিরা পড়িয়াছে। পূর্বাঞ্চলের ৩টি জেলার বিস্তীর্ণ এলাকা ইতিমধ্যেই বন্যার পানিতে সয়লাব হইয়া গিয়াছে। বন্দর নগরীর সহিত রাজ ধানীর রেল-যোগ থামিয়া গিয়াছে, যুদ্ধবিক্ষত সড়ক যোগাযোগ কয়েক স্থানেই বিচ্ছিন্ন হইয়া পড়িয়াছে। এর পরও খবর আসিতেছে পানি উদ্দাম গতিতে বাড়িয়া চলিয়াছে । গত চারিদিনের প্রবল বৃষ্টিপাত ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের পাহাড়িয়া অঞ্চল হইতে ব্যাপক ঢল নামিয়া আসার ফলে নোয়াখালী, ত্রিপুরা ও সিলেটের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হইয়াছে।

১০ মে ১৯৭২
সাম্রাজ্যবাদীরা স্বাধীনতা নস্যাতের চক্রান্ত করিতেছে
প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাম্রাজ্যবাদী শক্তির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার জন্য আজ জনসাধারণের প্রতি আহ্বান জানাইয়াছেন। তিনি বলেন, সাম্রাজ্যবাদীরা বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে নস্যাৎ করার জন্য তৎপর রহিয়াছে। "আপনারা সতর্ক থাকুন, সাম্রাজ্যবাদের এজেন্টদের খতম করার জন্য আমি আপনাদের ডাক দিতে পারি। প্রধানমন্ত্রী আজ অপরাহ্নে পাবনা স্টেডিয়ামে এক বিশাল জনসমূদ্রের উদ্দেশে ৰক্তৃতা করিতেছিলেন। মন্ত্রী জনাব মনসুর আলী ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সচিব জনাব তোফায়েল আহমেদ- সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃ- স্বপ্নও এই সভায় বক্তৃতা করেন । ভাষণের এক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু উল্লেখ করেন যে, কিছুসংখ্যক দুষ্কতিকারী এখানে-সেখানে অরাজকতা সৃষ্টি করিতেছে। এই সশস্ত্র দুষ্কৃতিকারীরা তাদের অস্ত্র জমা না দিয়া লুটতরাজ ও ডাকাতি করিতেছে । তিনি এসব অপরাধীকে পাকড়াও করিয়া পুলিসের হাতে সোপর্দ করার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দানের আগে ভুট্টোর সাথে কোন কথাই চলিতে পারে না।
প্রধানমন্ত্রী আরও ঘোষণা করেন যে, তাঁহার উপর যত চাপই আসুক না কেন, মানবতার বিরুদ্ধে ইতিহাসের জগন্যতম অপরাধ সংঘটিত করার জন্য যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলাদেশের মাটিতেই অনুষ্ঠিত হইবে। পাকিস্তানে আটক বাঙ্গালীরাও দেশের মাটিতে ফিরিয়া আসিবেন বলিয়া বঙ্গবন্ধু তাঁর আস্থার কথা উল্লেখ করেন।

১০ মে ১৯৭১
ভারতের সীমান্ত রাজ্যগুলোতে শরণার্থী সংখ্যা ত্রিশলক্ষ ছাড়িয়ে গেল
বাংলাদেশ থেকে সীমান্ত রাজাগুলিতে শরণার্থী স্রোত ৩০ লক্ষ অতিক্রম করেছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। যশোরের লড়াইল মহকুমা থেকে পাঁচ লক্ষ শরণার্থী পশ্চিম- যশোর সীমান্তের দিকে আসছে। প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী সীমান্ত রাজ্যগুলি থেকে শরণার্থীদের অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সংগে আলোচনা করবেন বলে পশ্চিম বঙ্গের মূখ্যমন্ত্রীকে জানিয়েছেন। এদিকে সীমান্ত জেলাগুলিতে চাল চিনি, কেরোসিন ও লবণের দাম বাড়তে শুরু করেছে। মূখ্যমন্ত্রী আজ সাংবাদিকদের বলেছেন, এখানে এতো লোক রাখা যাবে না। কারণ এই স্রোত এখানেই শেষ নয়। ত্রাণ বিষয়ক মন্ত্রিসভার উপ-সমিতি আজ এক বৈঠকে মিলিত হয়ে শরণার্থী শিবিরগুলি সুসংগঠিত করা, রসদ সরবরাহ অব্যাহত রাখা এবং পানীয় জল দ্রুত সরবরাহের কাজকে প্রাধান্য দিয়েছেন।বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে যে সীমান্ত থেকে ভারতীয় এলাকায় পাকিস্তানীদের গোলাবর্ষণ অব্যাহত রয়েছে।

উদ্ধৃতি:

"আমার বিরুদ্ধে যে মামলা এর কোন সত্যতা নেই। গনভবনে তাজুল ইসলাম নামের কোন ব্যক্তি কখনো আসেনি এবং তার সাথে সাক্ষাৎও হয়নি। তাকে আমি চিনি না। চাঁদাবাজির এই মামলাটি একান্তই ষড়যন্ত্রমূলক।"
-আওয়ামী লীগ নেত্রী শেখ হাসিনা : ১১ মে ২০০৭

"দেশের বর্তমান অবস্থার জন্য দলের কিছু শীর্ষ নেতাই দায়ী, সময় এসেছে চেয়ারপারসনের ক্ষমতা কমিয়ে দলকে গণমুখী করা।"
-বিএনপির ঢাকা মহানগরীর সভাপতি ও ঢাকার মেয়র সাদেক হোসেন খোকা : ১১ মে, ২০০৭

সূত্র:
১। উইকিপিডিয়া
২। বিবিসি
৩। দৈনিক ইত্তেফাক
৪। দৈনিক প্রথম আলো
৫। দৈনিক সমকাল
৮। https://songramernotebook.com/
সর্বশেষ এডিট : ১০ ই মে, ২০২৪ বিকাল ৪:১৫
২টি মন্তব্য ২টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

হ, আপনি জিতছেন, আপনারাই জিতছেন। :#(

লিখেছেন বোকা মানুষ বলতে চায়, ২৪ শে জুলাই, ২০২৪ বিকাল ৫:৩৯



হ, আপনি জিতছেন, আপনারাই জিতছেন। সারাবিশ্ব থেকে ০৬ দিন সংযোগ বিচ্ছিন রেখে আপনারাই জিতছেন। অপরদিকে আলুপোড়া খেতে আসা বিরোধী রাজনৈতিক শক্তি (নাকি অপশক্তি) আপনারাও জিতছেন। দেশের কোটি কোটি টাকার সম্পদ... ...বাকিটুকু পড়ুন

কেমন ছিলাম আমরা?

লিখেছেন শেরজা তপন, ২৪ শে জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫৫


কি দুঃসহ কয়েকটা দিন কাটালাম আমরা- কয়দিন কাটালাম মাঝেমধ্যে তালগোল পাকিয়ে যাচ্ছে! অনলাইন দুনিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যেন আশির দশকে ফিরে গিয়েছিলাম আমরা। পার্থক্য; বিটিভির পরিবর্তে অনেকগুলো নতুন রঙ্গিন... ...বাকিটুকু পড়ুন

আন্দোলনের মুখে এই সরকারের পতন না হোক।

লিখেছেন নূর আলম হিরণ, ২৪ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:২৯


গত ১৫ বছর এই সরকার যেভাবে দেশ চালিয়েছে, বিরোধীদেরকে যেভাবে কন্ট্রোলে রেখেছে এবার সেভাবে পারেনি। শেখ হাসিনার বিভিন্ন বক্তব্যে দেখা গিয়েছে উনি খুবই চিন্তিত ছিল এই আন্দোলন নিয়ে। একটি সাদামাটা... ...বাকিটুকু পড়ুন

দেশের এত বড় বড় দায়িত্ব নিয়ে ছেলেখেলা আর কতদিন?

লিখেছেন মঞ্জুর চৌধুরী, ২৪ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:৫১

আচ্ছা, ডাটা সেন্টারে আগুন লাগলে সমস্ত দেশের ইন্টারনেট বন্ধ হয়ে যায়? কোন মদনা এই কথা বিশ্বাস করতে বলে? পলক ভাইজান? তা ভাইজানের শিক্ষাগত যোগ্যতা কি? পলিটিক্যাল সায়েন্স। আর? এলএলবি। উনি... ...বাকিটুকু পড়ুন

আর ক'টা দিন সবুর কর রসুন বুনেছি: বাংলাদেশ কখনও এই নির্মমতা ভুলে যাবে না!

লিখেছেন মিথমেকার, ২৫ শে জুলাই, ২০২৪ দুপুর ১:৪৮


ইতিহাসে "৭১" এর পর এত স্বল্প সময়ে এত প্রাণহানি হয়নি। সম্ভবত আধুনিক বিশ্ব এত প্রাণহানি, এত বর্বরতা, স্বজাতির মধ্যে এর আগে দেখেনি। সমগ্র বিশ্বে বর্বরতার দৃষ্টান্ত হলো বাংলাদেশ!
... ...বাকিটুকু পড়ুন

×