somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বানিশান্তার গল্প!

০৬ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১১:৪৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :




কি নাতিরা! নানীর ঘাটে নাও না ভিড়ায়াই চইলা যাইবা? ঘাট হতে আটপৌরে রমনীর এমন আহবানে সাড়া দেবার বিন্দুমাত্র ইচ্ছা শুভ্র'র না থাকলেও নৌকায় থাকা বাকী দুজন যে ভীষন রকম কৌতুহলী এবং একই সাথে কামোদ্দীপিত হয়ে উঠেছিল তা তাদের মুখ চাওয়া-চাওয়ি দেখেই বোঝা যাচ্ছিল, প্রতীক্ষাটা ছিল শুধু শুভ্র'র সম্মতির। ইশারা পাওয়া মাত্র নৌকা ভীরে গেল নানীর ঘাটে।

ঘাটে নৌকা ভেরা মাত্র সহযাত্রীরা যে যার মত হারিয়ে গেল লোকালয়ে। লোকালয় বললে লোকালয় শব্দটার অপমান হয়, ভদ্রলোকের ভাষায় এটিকে মাগীপাড়া বলাই শ্রেয়। আর এই মাগী পাড়াতেই পূরন হয় কারো জৈবিক চাহিদা আর কারো বা মৌলিক। নানী ঘাটের নিয়ত ভেংগে চলা পাড় হতে প্রমত্ত্বা পশুরের একটার পরে আরেকটা ঢেউয়ের আছড়ে পড়া দেখে চলছিল শুভ্র। পেছন হতে খিল খিল করে হেসে ওঠে অপরুপা ষোড়শীনি। শুভ্র'র এমন ঢেউ গোনা দেখে চপল চাহনি নিয়ে বলে বসে, বানিশান্তায় আইয়া কেউ এরাম কইরা খাড়ায়া খাড়ায়া পানি দেহে? হি হি, কেমন পুরুষ! ধোন নাইক্কা!

মেয়েটির নাম রুপালি! এত সুন্দরী একটা মেয়েকে বানিশান্তায় আবিস্কার করাটা সত্যি দুঃখ জনক। হয়তোবা তার এখানে আসবার পেছনে রয়েছে একটা মর্মান্তিক গল্প। শুধু রুপালি নয় এই পাড়ার প্রত্যেকটা রুপালির এমনকি খোদ বানিশান্তারই রয়েছে একটা দুঃখ ভরা অতীত।

পুরুষের যে সব সময় সেই বস্তুটা থাকতে হবে এটা জরুরী নয়, রুপালিকে ছোট্ট করে প্রতি উত্তর করে শুভ্র!
হা হা হা! এই নানীর ঘাটে ধোন ছাড়া কোন পুরুষ ঢুকেনা সাহেব। অবশ্য ঐ বস্তু নিয়ে আপনারা না ঢুকলে আমাদের পেট চলবে কি করে?
বানিশান্তার আর সেই দিন নেই সাহেব। অথচ এখানে নাকি একসময় দেশ বিদেশের খদ্দের গিজ গিজ করত। নাবিক, ব্যাবসায়ী, সারেং তাদের যাত্রা পথে বন্দরে যখন নোংগর তুলত তখন নাকি তাদের বিশ্রামের জায়গাই ছিল এই বানিশান্তা। এখন বানিশান্তায় কেউ মুততেও আসে না সাহেব।
অভিশাপ সাহেব, অভিশাপ! সমুদ্র দেবতা সহ্য করে ঠিক আছে কিন্তু আর কত পাপ সে সহ্য করবে সাহেব! তিন তিন বার বানিশান্তার ঠিকানা বদল হইছে কিন্তু সমুদ্র দেবতা কোথাও তারে থাকতে দেয় নাই, ভাইংগা নিয়া গেছে। ঝড় দিয়া পুরা গ্রাম লন্ড ভন্ড কইরা দিছে। খাবার পানির তো কোন জায়গা রাখে নাই। এরপরও আমরা কিছু মানুষ এখানে আছি, বানিশান্তা বড়ই মায়া সাহেব।
অনেক কথাই বললাম গো সাহেব! এখন কও পকেটে একশো টাকা আছে কিনা, থাকলে আমার ঘরে চলো দেখি। সকাল থেকে এখন পর্যন্ত বহনি করি নাই। দাদা-মাসী আজ হয়তো আমার পিঠের চামড়া রাখবেনা।

আমার ঘরে যাওয়া লাগবেনা রুপালি! এই নাও তোমার একশ টাকা।

রুপালির ঠোটে তখন ছিল বিদ্রুপের হাসি। ভিক্ষা চাইনি গো সাহেব। কাজ করে মজুরী চেয়েছিলাম। আপনারা যেমন অপিসে যান, কাজ করেন আর মাস শেষে মাইনে নেন। আমাদের এটাও তো তেমনই! আমরাও কাজ করে মজুরী নেই! ফারাকটা শুধু সামাজিক স্বীকৃতির!

রুপালি একশো টাকা নেয় নাই। সংগীরা সকলেই চলে এসেছে। নৌকাও ছেড়ে দিয়েছে। বানিশান্তা ছাড়িয়ে নৌকা এগিয়ে চলছে সভ্য নগরীর দিকে।

সহস্র নির্ঘুম রাত্রী তাড়িয়ে,
শ্রান্ত নাবিক! ফিরতি পথে,
এক জোড়া শোন্য পৌরুষ দৃষ্টি!
জানে শুধু, মমতাময়ী বানিশান্তা।
সর্বশেষ এডিট : ০৭ ই মার্চ, ২০২০ রাত ১২:২৪
১৩টি মন্তব্য ১৩টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

গবেষণা আড্ডায় আমন্ত্রণ

লিখেছেন শরৎ চৌধুরী, ২৫ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ৯:১৮

প্রিয় ব্লগার বন্ধুরা, আশাকরি ভালো আছেন। ২০০৬ সাথ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাথে আমার বসবাস। মাঝখানে কতই ই পরিচয় বদলালো, ব্লগার, মডু, এ্যক্টিভিস্ট, এনালিস্ট, পিএইচডি রিসার্চার, শিক্ষক। আপনাদের সাথেই... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্মৃতি, স্বপ্ন ও ভালোবাসার শহরঃ বরিশাল.........

লিখেছেন জুল ভার্ন, ২৫ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১০:৩৮

স্মৃতি, স্বপ্ন ও ভালোবাসার শহরঃ বরিশাল




বরিশাল শহরটি খুব ঝকঝকে বা আধুনিক শহর ছিলনা কোনো সময়ই। কিন্তু প্রচুর গাছপালা, পুকুর, খাল নিয়ে নিরিবিলি মোটামুটি সুন্দর বাসযোগ্য শহর ছিল বরিশাল।
এখন?

শহরের মুল... ...বাকিটুকু পড়ুন

উপভোগ করুন বাংলা অনলাইন রেডিও - জাভা স্ক্রিপ্টিং

লিখেছেন ইফতেখার ভূইয়া, ২৫ শে অক্টোবর, ২০২১ সকাল ১১:৪২


বেশ কিছুদিন আগে অনলাইনে বাংলা এফ.এম. রেডিও তৈরী করার বিষয় নিয়ে একটা লিখা পোস্ট করেছিলাম। বেশ ক'জন ব্লগার উৎসাহিত করেছেন বলেই কিছুটা সময় ব্যয় করে অবশেষে তৈরী করে ফেললাম... ...বাকিটুকু পড়ুন

পুরনো ভাজে নতুন করে ঠাঁই পাওয়া!

লিখেছেন নান্দনিক নন্দিনী, ২৫ শে অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৩:০৮



একটা গণিত বই আরেকটা গণিত বইকে কী বলে জানেন? I have so many problems. পরিচিত গন্ডির সবাই আজকাল গনিত বইয়ের মতো আচরণ করে। আলাপে-সংলাপে কেবল সমস্যা নিয়ে কথা বলে।... ...বাকিটুকু পড়ুন

=নামাজ পড়ো অক্ত হলে=

লিখেছেন কাজী ফাতেমা ছবি, ২৫ শে অক্টোবর, ২০২১ বিকাল ৪:১৭



©কাজী ফাতেমা ছবি
জায়নামাজটা আছে পাতা, এসো দাঁড়াও পড়ো নামাজ,
ছুঁড়ে ফেলো আছে যত, ব্যস্ততা আর আলসেমী কাজ।
মরে গেলে কেউ যাবে না, সঙ্গে শুধু নামাজ যাবে,
সওয়াল জবাব... কালে মানুষ, নামাজটারেই... ...বাকিটুকু পড়ুন

×