somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

ধর্মে উপহাসকারীদের প্রতি কর্তব্য

১৫ ই মার্চ, ২০১৩ রাত ৩:০৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

১৪০০ বছর আগে যখন ইসলামের বানী সর্বপ্রথম মক্কার মানুষদের সামনে উপস্থাপিত হলো সে সময়ের পরিস্থিতি এবং এ সময়ের পরিস্থিতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। সে সময়ে মক্কার মানুষদের ভেতরে একদল মুর্তিপূজারী, একদল খ্রীষ্টান, একদল মুসার ধর্ম অনুসরনকারী এবং একদল ইব্রাহিমের একত্ববাদের ধারণায় বিশ্বাসী। এর বাইরে অন্যান্য ঈশ্বরের উপাসনাকারী মানুষেরাও ছিলো।

উপাস্য হিসেবে এককভাবে আল্লাহকে উপস্থাপন করা এবং তাকে গ্রহনযোগ্য করে তোলার লড়াইটা তখন আরও তীব্র ছিলো। প্রচলিত সামাজিক বিশ্বাসের বিপরীতে দাঁড়িয়ে এবং প্রচলিত ধর্মভাবনার বিরুদ্ধচারণ করে ইসলাম আবির্ভুত হয়েছিলো, এবং প্রতিটি মুহুর্তে প্রয়োজনে কোরআনের একাংশ ব্যক্ত হয়েছে এবং কোরান সংকলনের ইতিহাস অনুযায়ী মুহাম্মদের নির্দেশনা মতো সেটুকু গ্রন্থিত হয়েছে।
সে সময় একেবারে নতুন ধর্ম হিসেবে ইসলামের গ্রহনযোগ্যতা ছিলো না খুব বেশী, ইসলাম প্রচারের প্রথম ১০ বছরে ইসলামের ইতিহাসে অনুগত সাহাবাদের সংখ্যা শতক পূর্ণ করে নি।

স্থানীয় রাজনৈতিক প্রয়োজনে মদীনার মানুষেরা যখন ইসলামে আকৃষ্ট হলো সে সময় থেকে ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। কিন্তু চুড়ান্ত ভাবে মক্কা বিজিত হওয়ার আগ পর্যন্ত ইসলামকে ভালোবাসা ও মুহাম্মদের প্রতি অনুগত মানুষের পরিমাণ এবং মুহাম্মদকে উপহাস করা এবং ইসলামকে অবজ্ঞা করা মানুষের পরিমাণ সমান সমানই ছিলো। সে সময়ে যদি ফেসবুক, জরিপ, আদম শুমারীর রেওয়াজ থাকতো তাহলে দেখা যেতো মুহাম্মদের স্ট্যাটাসে like দেওয়া মানুষের সংখ্যা মুহাম্মদকে বিদ্রুপ করে দেওয়া স্ট্যাটাসে like দেওয়া মানুষের চেয়ে কম হতো, জনসংখ্যার বেশ বড় একটা অংশ ধর্মবিশ্বাসে ইসলামকে অগ্রাহ্য করতো। সে সময়ে যদি জরিপ করা হতো আরও অনেক ধরণের বিশ্লেষণ ও ব্যতিচার নিশ্চিত ভাবেই পাওয়া যেতো।

এই ধর্মপ্রচারের সম্পূর্ণ সময়টাতে এক ধরণের একাকী লড়াই চালিয়ে যেতে হয়েছে ইসলাম ধর্মের অনুসারীদের এবংঅতাদের আশা ভরসা এবং আস্থার একমাত্র কেন্দ্র ছিলো মুহাম্মদ, যার উপরে আস্থা স্থাপন করে তারা প্রবল সামাজিক বৈরিতাকে মেনে নিয়েছিলেন।

ইসলামের প্রাথমিক সময়ে, মক্কায় অবতীর্ণ সূরাগুলোতে এই উপহাসের প্রতিকার যেভাবে এসেছে, যেভাবে ইতিহাস এবং উপকথার সাথে সাথে আল্লাহ'র পরিচয় করানো হয়েছে, রাজনৈতিক প্রচারণা কৌশল হিসেবে সেসব অনুসরণ করা এবং প্রতিটি বিচ্ছিন্ন পদক্ষেপের কার্যকরণ খুঁজে এই সম্পূর্ণ প্রচার অভিযানকে দক্ষভাবে পরিচালিত করার ভীষণ যোগ্যতাকে সম্মান করতেই হবে।

মদীনার পরিস্থিতি ছিলো ভিন্ন, সেখানে ইসলাম অনুগত অনুসারী পেয়েছে, আনসারগণ নিজেদের আবাদী জমি, বসতবাড়ী এমন কি স্ত্রী-কন্যাদেরও প্রয়োজনে হিজরতকারীদের দিয়ে দিয়েছেন। মদীনায় বসবাসকারী ইহুদী জনগোষ্ঠী এবং খ্রীষ্টান জনগোষ্ঠীর সাথেও এক ধরণের চুক্তিবদ্ধ শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের নীতি গ্রহন করতে হয়েছে মোহাম্মদকে।

সেসব মুহূর্তে এই বৈরিতা কিংবা উপহাস কিংবা বিরুপ প্রচারণার প্রতিক্রিয়ায় মুহাম্মদের গৃহীত পদক্ষেপগুলো কিংবা প্রতিপালকের কাছে আসা নির্দেশনাগুলো , ধর্মভিত্তিক গোত্রগত বিরোধিতার প্রতিক্রিয়ায় নেওয়া মুহাম্মদের পদক্ষেপগুলো যা ধর্মবানী হিসেবে অনুগত অনুসারীদের সামনে উপস্থাপিত হয়েছে সেখানে কি ধরণের বক্তব্য প্রাধান্য পেয়েছিলো?

কোরআনের প্রথম ৫টি বড় সুরা, সুরা বাকারা, সুরা ইমরান, সুরা নিসা, সুরা মাইদাহ, এবং সুরা আনআম থেকে সেসব আলোচনা করা যেতো।

ইমরানের আয়াত ৮০ থেকে ৮৫, ১৭৬ থেকে ১৭৮ এবং সর্বোপরি ১৫৯ আয়াতে যে প্রক্রিয়া বলা হয়েছে, মাইদাহের ১০১ থেকে ১০৩ নং আয়াতে যা উপস্থাপিত হয়েছে সেগুলোর পুনরাবৃত্তি হয়েছে সময়ের প্রয়োজনে ।


তবে ধর্ম উপহাসকারী এবং ধর্ম অবিশ্বাসীদের সাথে বিশ্বাসীদের কি ব্যবহার করা প্রয়োজন সেটুকু সুরা আন'আমের ৬৬ থেকে ৭০ এবং ১০৬ থেকে ১০৮ নং আয়াতে যেভাবে বর্নিত হয়েছে সেটুকু চুড়ান্ত নির্দেশনা হয়তো না কিন্তু বর্তমানের প্রেক্ষিতে সেটুকু গুরুত্বপূর্ণ , আমি আয়াতগুলোর অনুবাদ করতে পারতাম, কিন্তু আমার অনুবাদের শব্দচয়নে বিশ্বাসীদের আপত্তি আসতে পারে, যদিও বিশ্বাসীরা নিজেদের বিশ্বাস সিন্দুকে ঢুকিয়ে রেখে আলোচনায় আসতে অনাগ্রহী কিন্তু তারপরও আমার কাছে সে অনুবাদটি সবচেয়ে সহজ সরল মনে হলো সেটাই উল্লেখ করলাম।

66 Thy people (O Muhammad) have denied it, though it is the Truth. Say: I am not put in charge of you.

67 For every announcement there is a term, and ye will come to know.

68 And when thou seest those who meddle with Our revelations, withdraw from them until they meddle with another topic. And if the devil cause thee to forget, sit not, after the remembrance, with the congregation of wrong-doers.

69 Those who ward off (evil) are not accountable for them in aught, but the Reminder (must be given them) that haply they (too) may ward off (evil).

70 And forsake those who take their religion for a pastime and a jest, and whom the life of the world beguileth. Remind (mankind) hereby lest a soul be destroyed by what it earneth. It hath beside Allah no protecting ally nor intercessor, and though it offer every compensation it will not be accepted from it. Those are they who perish by their own deserts. For them is drink of boiling water and a painful doom, because they disbelieved.

106 Follow that which is inspired in thee from thy Lord; there is no Allah save Him; and turn away from the idolaters.

107 Had Allah willed, they had not been idolatrous. We have not set thee as a keeper over them, nor art thou responsible for them.

108 Revile not those unto whom they pray beside Allah lest they wrongfully revile Allah through ignorance. Thus unto every nation have We made their deed seem fair. Then unto their Lord is their return, and He will tell them what they used to do.

আল্লাহ যাকে সুমতি দিতে ইচ্ছা করেন তাকেই সুমতি প্রদান করেন এবং যাদের ভ্রান্তিতে ফেলে রাখতে চান তারা আল্লাহর সচেতন ইচ্ছায় অবিশ্বাসী। আল্লাহই তাদের উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করবেন, প্রকৃত মুসলমান এইসব ধর্মউপহাস সচেতনভাবে উপেক্ষা করতে পারে এবং নিজেদের ঈশ্বরের শরণাগত করতে পারে।

আনআমের নির্দেশনা অনুসারে একজন প্রকৃত মুমিন ধর্ম উপহাস শুনলে সেখানে চুপ থাকতে পারে কিংবা উপহাস শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারে কিংবা সেখান থেকে চলে আসতে পারে কিন্তু যারা ধর্মকে উপহাস করতেছে তাদের সম্পর্কে ঈশ্বর অবগত আছেন এবং তিনিই তাদের শাস্তির বন্দোবস্ত করছেন। মুমিন অহেতুক রক্তপাত না করে বরং ইশ্বরের অনুগ্রহবাঞ্ছা করতে পারে।

ইসলামী আলেমদের অধিকাংশই কোরআন পড়েছেন এবং আমার ধারণা তারা কোরআনের নির্দেশনা উপলব্ধি করতে পারেন, যদি আল্লাহ অনুগ্রহ করে তাদের হৃদয় সিল গালা না করে দেন তাহলে কোরআনের বানীর সত্যতা উপলব্ধি করতে পারতেন তারা এবং নিজেদের এমন ধর্মবিরোধী সহিস আচরণ থেকে বিরত রাখতে পারতেন। সহিংসতার মাধ্যমে তারা তাদের ঈমানী দায়িত্ব থেকে নিজেদের ভ্রান্তির পথে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন এবং একই সাথে ধর্মীয় সহিংসতার উস্কানি দিয়ে কিংবা মানুষের ধর্মঅনুভুতিতে উস্কানি দিয়ে সামাজিক অস্থিরতা তৈরি করে নিজেরাই কোরআনের আদেশের বিরোধিতা করছেন।

নিছক রাজনৈতিক প্রয়োজনে যারা নিজেরা ধর্মবানী অবজ্ঞা করে অধর্মের চর্চা করছেন তারাই আবার সম্পূর্ণ বেশরিয়তী কায়দায় অপরকে বিধর্মী লেবেল লাগাচ্ছেন এবং তাদের হত্যার হুমকি দিচ্ছেন। যারা নিজেরা ধর্ম পালন করে না, অদ্ভুত এই দেশে তারাই ইসলামের সবচেয়ে বড় রক্ষক হয়ে রক্তগঙ্গা বইয়ে দেওয়ার জাগ্রত হুমকি দিচ্ছেন।

আমাদের কয়েক ডজন পিএইচডি পাওয়া অতিশিক্ষিত প্রধানমন্ত্রী সেসব অধর্মের আগুণে ঘি ঢালছেন এবং দূরে বগল বাজিয়ে নাচছে শয়তান।



সুরা ইমরান

81. And (remember) when Allah took the Covenant of the Prophets, saying: "Take whatever I gave you from the Book and Hikmah (understanding of the Laws of Allah, etc.), and afterwards there will come to you a Messenger (Muhammad ) confirming what is with you; you must, then, believe in him and help him." Allah said: "Do you agree (to it) and will you take up My Covenant (which I conclude with you)?" They said: "We agree." He said: "Then bear witness; and I am with you among the witnesses (for this)."

82. Then whoever turns away after this, they are the Fasiqun (rebellious: those who turn away from Allah's Obedience).

83. Do they seek other than the religion of Allah (the true Islamic Monotheism worshipping none but Allah Alone), while to Him submitted all creatures in the heavens and the earth, willingly or unwillingly. And to Him shall they all be returned.

84. Say (O Muhammad ): "We believe in Allah and in what has been sent down to us, and what was sent down to Ibrahim (Abraham), Isma'il (Ishmael), Ishaque (Isaac), Ya'qub (Jacob) and Al-Asbat [the twelve sons of Ya'qub (Jacob)] and what was given to Musa (Moses), 'Iesa (Jesus) and the Prophets from their Lord. We make no distinction between one another among them and to Him (Allah) we have submitted (in Islam)."

85. And whoever seeks a religion other than Islam, it will never be accepted of him, and in the Hereafter he will be one of the losers।

176. And let not those grieve you (O Muhammad ) who rush with haste to disbelieve; verily, not the least harm will they do to Allah. It is Allah's Will to give them no portion in the Hereafter. For them there is a great torment.

177. Verily, those who purchase disbelief at the price of Faith, not the least harm will they do to Allah. For them, there is a painful torment.

178. And let not the disbelievers think that Our postponing of their punishment is good for them. We postpone the punishment only so that they may increase in sinfulness. And for them is a disgracing torment.

159. And by the Mercy of Allah, you dealt with them gently. And had you been severe and harsh-hearted, they would have broken away from about you; so pass over (their faults), and ask (Allah's) Forgiveness for them; and consult them in the affairs. Then when you have taken a decision, put your trust in Allah, certainly, Allah loves those who put their trust (in Him).


সুরা নিসা -------
140. And it has already been revealed to you in the Book (this Qur'an) that when you hear the Verses of Allah being denied and mocked at, then sit not with them, until they engage in a talk other than that; (but if you stayed with them) certainly in that case you would be like them. Surely, Allah will collect the hypocrites and disbelievers all together in Hell,

167. Verily, those who disbelieve [by concealing the truth about Prophet Muhammad and his message of true Islamic Monotheism written with them in the Taurat (Torah) and the Injeel (Gospel)] and prevent (mankind) from the Path of Allah (Islamic Monotheism), they have certainly strayed far away. (Tafsir Al-Qurtubi). (See V.7:157)

168. Verily, those who disbelieve and did wrong [by concealing the truth about Prophet Muhammad and his message of true Islamic Monotheism written with them in the Taurat (Torah) and the Injeel (Gospel)], Allah will not forgive them, nor will He guide them to any way, - (Tafsir Al-Qurtubi).

169. Except the way of Hell, to dwell therein forever, and this is ever easy for Allah.

সুরা মাইদাহ
42. (They like to) listen to falsehood, to devour anything forbidden. So if they come to you (O Muhammad ), either judge between them, or turn away from them. If you turn away from them, they cannot hurt you in the least. And if you judge, judge with justice between them. Verily, Allah loves those who act justly.
101. O you who believe! Ask not about things which, if made plain to you, may cause you trouble. But if you ask about them while the Qur'an is being revealed, they will be made plain to you. Allah has forgiven that, and Allah is Oft-Forgiving, Most Forbearing.

102. Before you, a community asked such questions, then on that account they became disbelievers.

103. Allah has not instituted things like Bahirah (a she-camel whose milk was spared for the idols and nobody was allowed to milk it) or a Sa'ibah (a she-camel let loose for free pasture for their false gods, e.g. idols, etc., and nothing was allowed to be carried on it), or a Wasilah (a she-camel set free for idols because it has given birth to a she-camel at its first delivery and then again gives birth to a she-camel at its second delivery) or a Ham (a stallion-camel freed from work for their idols, after it had finished a number of copulations assigned for it, all these animals were liberated in honour of idols as practised by pagan Arabs in the pre-Islamic period). But those who disbelieve invent lies against Allah, and most of them have no understanding.

সর্বশেষ এডিট : ১৫ ই মার্চ, ২০১৩ রাত ৩:০৩
৫টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

সময় নির্দেশের ক্ষেত্রে AM ও PM ব্যবহার করার রহস্য

লিখেছেন নতুন নকিব, ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ দুপুর ১২:৪২

ছবি, Click This Link হতে সংগৃহীত।

সময় নির্দেশের ক্ষেত্রে AM ও PM ব্যবহার করার রহস্য

সময় নির্দেশের ক্ষেত্রে AM ও PM কেন ব্যবহার করা হয়, এর কারণটা জেনে রাখা ভালো। আমমরা অনেকেই বিষয়টি... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্বপ্নের যাত্রা শুরু হলো :: পাঠাগারে বই দিয়ে সহযোগিতা করুন

লিখেছেন হাসান ইকবাল, ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ বিকাল ৩:৪২

নেত্রকোণা জেলার আটপাড়া উপজেলাধীন শুনই গ্রামে আমাদের স্বপ্নযাত্রা শুরু হলো। ২৬ শে সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হলো ভবনের নির্মাণ কাজ। আশা করছি ডিসেম্বরর ২০২১ এর মধ্যে শেষ হবে আমাদের গ্রাম পাঠাগারের... ...বাকিটুকু পড়ুন

গাছ-গাছালি; লতা-পাতা - ০৭

লিখেছেন মরুভূমির জলদস্যু, ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫০

প্রকৃতির প্রতি আলাদা একটা টান রয়েছে আমার। ভিন্ন সময় বিভিন্ন যায়গায় বেড়াতে গিয়ে নানান হাবিজাবি ছবি আমি তুলি। তাদের মধ্যে থেকে ৫টি গাছ-গাছালি লতা-পাতার ছবি রইলো এখানে।


পানের বরজ


অন্যান্য ও আঞ্চলিক... ...বাকিটুকু পড়ুন

জার্মান নির্বাচন: মার্কলের দল জয়ী হয়নি।

লিখেছেন চাঁদগাজী, ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১০



গতকাল (৯/২৬/২১ ) জার্মানীর ফেডারেল সরকারের পার্লামেন্ট, 'বুন্ডেসটাগ'এর নির্বাচন হয়ে গেছে; ইহাতে বর্তমান চ্যান্সেলর মার্কেলের দল ২য় স্হান পেয়েছে। বুন্ডেসটাগ'এর সদস্য সংখ্যা ৫৯৮ জন; কিন্তু এবারের নির্বাচনের ফলাফলের... ...বাকিটুকু পড়ুন

পুরুষ মানুষ সহজে কাঁদে না.....

লিখেছেন জুল ভার্ন, ২৭ শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ রাত ১০:০২

"পুরুষ মানুষ সহজে কাঁদে না"... কারণ পুরুষের চোখে জল মানায় না... জন্মের পর তাদের মাথায় ঢুকিয়ে দেয়া হয় যতো কষ্টই হোক তোমার চোখে জল আনা যাবে না!

নারীরা হুটহাট কেঁদে উঠতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×