somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

চলেন, মহেশখালি যাই !

১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:০৪
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

> মামা, তোমার ছেলেমেয়ে কয়টা ?
>> থিরি ডটার ওয়ান সন টু উয়াইফ, আয়াম হ্যাপি নাউ !
> বৌয়েরা ঝগড়া করে না ?
>> ঝগড়া করলে মেরুদন্ডের হাড় ভাইঙ্গা দিমু না...!

কক্সবাজার থেকে আঠারো মিনিটের স্প্রিডবোড জার্নি শেষ করে #মহেশখালি পৌছিয়ে যে রিক্সা ভাড়া করেছি, তার চালক বেশ খুশিমনেই কথাগুলো বলছিলেন ! উনি আজ সারাদিন আমাদের মহেশখালি ঘুরিয়ে দেখাবেন !

রিকশায় ওঠার পরপরই পাশের ফাঁকা মাঠটি দেখিয়ে বললেন, কয়দিন আগে আসলে এখানে লবন চাষ দেখতে পেতেন ! আর ডান পাশে যে গাছগুলো দেখতে পাচ্ছেন, এগুলো ম্যানগ্রোভ গাছ !

কয়েকমিনিট পর একটি বৌদ্ধ মন্দিরের সামনে পৌঁছলাম ! গেটের উপরে বার্মিজ অক্ষরে কি সব লেখা ! পাশে ছোট্ট করে ইংরেজিতে লিখা, Rakhine Buddhist Temple, south rakhine para !
গেটে সেন্ডেল রেখে আমরা মন্দির ঘুরতে শুরু করলাম !
একপাশে গৌতম বুদ্ধের আধা শোয়া মূর্তি ! গৌতম বুদ্ধ ৮০ বছর বয়সে ঠিক এইভাবে শুয়ে তার ভক্তদের উদ্দেশ্যে শেষ বানী দিয়েছিলেন ! আরেক জায়গায় বুদ্ধ বসে রয়েছেন আর তাকে ফনা তুলে পাহারা দিচ্ছে একটি মস্ত সাপ ! গৌতম বুদ্ধ যখন সিদ্ধি লাভের আশায় অশ্মথ গাছের নিচে বসে ধ্যানমগ্ন ছিলেন তখন বনের নানা রকম প্রাণীরা এইভাবে তাকে ঘিরে রাখতো ! যাহোক এইসব ইতিহাস বিস্তারিতভাবে আপনারা বইয়ে পড়ে নিতে পারবেন !
“বাংলাদেশের একমাত্র পাহাড়ি দ্বীপ হলো এই মহেশখালি” মূলত এটাই হয়তো তার জনপ্রিয়তার অন্যতম কারন ! আদিনাথ মন্দিরের সাথেই মাথা উচু করে রয়েছে বেশ কয়েকটি পাহাড় ! এমনকি মন্দিরটাও বেশ উচুতে ! হিন্দু পুরানে আছে, এটি প্রায় হাজার বছরের পুরনো তবে ঐতিহাসিকদের মতে এটি ষোড়শ শতাব্দীতে তৈরি ! পাশেই রয়েছে নয়নাভিরাম এক ব্রিজ ! ব্রিজটি সোজা চলে এসেছে নদীর মাঝ বরাবর ! এখানে দাঁড়িয়ে আপনি একই সাথে নদী এবং ম্যানগ্রোভ বনের দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন ! খটাখট ছবি তুলে ফেলুন কয়েকশো !
লিখাটা বেশ বড় হয়ে যাচ্ছে মনে হয় ! তাহলে একটু রেস্ট নেন আর এখান থেকে মহেশখালির একটা ডাব কিনে নেন ৫০ টাকা দিয়ে ! ডাবের পানি এতো মিষ্টি যে মনে হবে...... (যা খুশি মনে করতে পারেন) !
তবে ডাব খাওয়া শেষ হলে আপনার বাথরুমের বেগ আসতে পারে, ৫ টাকা খরচ করে কাজ সেরে নিন তারপর আবার রিকশায় উঠে পড়ুন ! আর যাদের শুটকি খুব পছন্দ তারা এবার শুটকি পল্লীতে গিয়ে বাসার জন্য টাটকা শুটকি কিনে নিন ! আমি শুটকির গন্ধ সহ্যই করতে পারি না, শুটকি শব্দটা মনে আসতেই পেটে মোচড় দিয়ে উঠছে...... তাই শুটকি বর্ণনা আপাতত স্থগিত !
শুটকি না হয় স্থগিত করলাম, কিন্তু মুখে তো বেশ অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরি হয়ে গেলো ! তাহলে এবার বাজারে এসে একটা মহেশখালির মিষ্টি পান কিনে নেন ৫ টাকা দিয়ে ! পান খেয়ে আবার মনে করিয়েন না, আপনি এর চাইতেও হাজারগুন বেশি মজাদার পান আগেই খেয়েছেন ! মহেশখালির সম্মান রক্ষা করার জন্য হলেও বলুন যে, এই পান আসলেই অন্যরকম সুন্দর পান !
আশেপাশে আরো কয়েকটি মন্দির আছে, সেগুলোও দেখে ফেলুন তবে সব মন্দিরগুলোই মোটামুটি একইরকম ! স্বর্ণমন্দিরে গিয়ে স্বর্ণ খুজছিলাম কিন্তু কি আর করা, মিশন ফেইল !
মহেশখালি আসার আগে ভেবেছিলাম দ্বীপ মানে দ্বীপই ! চারপাশে সমুদ্র দিয়ে ঘেরা কিন্তু এই দ্বীপও আপনার গ্রামের মতই বেশ ব্যাস্ত একটি জনপদ ! এখন বদরখালী ব্রীজ নির্মাণের ফলে মহেশখালী দেশের মুল ভূখন্ডের সাথে সরাসরি যুক্ত হয়েছে। সড়কপথেই বাংলাদেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে মহেশখালীতে যাতায়াত করতে পারেন !
এবার ফেরার পালা কিন্তু তার আগে তো রিকশা ভাড়া পরিশোধ করতে হবে ! রিকশাওয়ালা বললেন, ১০০ টাকা টিপস দেন মামা ! ৬০০ টাকা ভাড়া তার উপর ১০০ টাকা টিপস ! যদিও পরে জানলাম, রিকশা ভাড়ার পেছনে আমরা অতিরিক্ত স্কয়ার খরচ করে ফেলেছি ! সম্ভবত ২০০-২৫০তেই আমরা এগুলো ঘুরে দেখতে পারতাম ! কি আর করা, ন্যাড়া তো ইতিমধ্যেই বেলতলায় গিয়ে মাথা ফাটিয়ে এনেছে ! পয়সা বেশি খরচ হওয়ায় 'মন খারাপ' টাইপ মুড নিয়ে কক্সবাজার ফিরে যাবার জন্য আবার স্পিডবোটে চেপে বসুন !

সমুদ্রভ্রমন আপনার মুড ভালো করে দেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে !
#Cox_দ্বিতীয়_কিস্তি

সর্বশেষ এডিট : ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:০৫
৩টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

হে কাক! কালো কাক!

লিখেছেন রাজীব নুর, ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৭



আমার জীবনে আমি কোনো দিন রাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রস্রাব করতে পারিনি। কিন্তু রাস্তা ঘাটে এই কাজটি করতে অনেককেই দেখেছি। আজ পান্থপথ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছি, তখন আমার প্রস্রাব পেলো। রাস্তায়... ...বাকিটুকু পড়ুন

নোটবুকের প্রথম পাতা

লিখেছেন  ব্লগার_প্রান্ত, ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৬



সব ঋতুতেই সন্ধ্যেবেলাটা স্বর্গীয়। সূর্যের শেষ আলোটুকু মেঘেরা ভাগ করে নেয়।সেই আলো, একেকদিন একেক রংয়ের।আজ বিকেলে ঘুম থেকে উঠে বারান্দায় দাঁড়ালাম। একটা ছোট্ট দোয়েল, একটু পরপর সতর্ক হয়ে শিস দিচ্ছে।... ...বাকিটুকু পড়ুন

যাহরা তাবাসসুম রোজা (পরী)

লিখেছেন সনেট কবি, ১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৫



যাহরা তাবাসসুম রোজা(পরী) থাকে
পিতা রাজীব নুর ও মাতা সুরভীর
স্নেহের ছায়ার তলে। অন্তরে গভীর
রয়েছে তাদের কন্যা, সুপ্রিয় সন্তান।
পরীর নির্মল কান্তি সারল্যের তাকে
করেছে গ্রহণযোগ্য নয় যে অস্থীর
অযথা চঞ্চলতায়।ভাল আপুজীর
মাঝে আছে অনুপমা গুণ... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমি কেন মুসলিম?

লিখেছেন সনেট কবি, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:১১



আমি কেন মুসলিম? কারণ আমার
বিশ্বাস, ইসলামের সব কথা ঠিক,
এর বিপরীত কিছু নয়তো সঠিক,
সেজন্য মানি না আমি সেরকম কিছু।
তুলনা করেছি আমি অন্যের কথার
কিছুতে আমার মন ফিরেনি সে দিকে
ইসলাম মান্যতায় থেকে প্রাত্যহিক
ঘুরিনা... ...বাকিটুকু পড়ুন

ছোট্ট সোনামনিদের জন্য ছড়ায় ছড়ায় বাংলা অক্ষর পরিচয় (ইসলামী ভাবধারায় লেখা), পর্ব-০১

লিখেছেন নতুন নকিব, ১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৫৬



ছোট্টমনিদের জন্য সচরাচর বাজারে যেসব বই পাওয়া যায়, মনোপুত হয় না। আমার এই প্রচেষ্টাও খুব যে ভালো কিছু হয়েছে, তাও মনে হয়নি। আসলে এটা প্রাথমিক প্রচেষ্টা। পরামর্শ এবং সহযোগিতা... ...বাকিটুকু পড়ুন

×