somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

পোস্টটি যিনি লিখেছেন

কাল্পনিক_ভালোবাসা
বহুদিন আগে কোন এক বারান্দায় শেষ বিকেলের আলোয় আলোকিত উড়ন্ত খোলা চুলের এক তীক্ষ্ণ হৃদয়হরনকারী দৃষ্টি সম্পন্ন তরুনীকে দেখে ভেবেছিলাম, আমি যাদুকর হব। মানুষ বশীকরণের যাদু শিখে, তাকে বশ করে নিশ্চিন্তে কাটিয়ে দিব সারাটি জীবন।

হরতাল নাইটঃ আজকের বিষয়- লুল, লুলামী এবং শ্রেষ্ট লুল নির্বাচন। (সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরন ইহা অত্যন্ত স্পর্শকাতর পোষ্ট, কারো ১৮+ অনুভূতিতে আঘাত করলে কারো স্পর্শ দায়বদ্ধ থাকিবে না।)

২৩ শে এপ্রিল, ২০১৩ রাত ১১:৫৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

প্রিয় সহব্লগার বৃন্দ শুভেচ্ছা নিন। আবারও সাপ্তাহ ঘুরে মহাসমারোহে ফিরে এলো হরতালের শুভ দিন। এই কয়টি দিন আমরা চাতক পাখির মত অপেক্ষা করেছি হরতালের জন্য। আমাদের এক একটি দিন কেটেছে এক একটি যুগের ন্যায়। উপরুন্ত আজকে সারাদিনে ঢাকায় যে চমৎকার ডেটিং আবহাওয়া ছিল তা আমাদের হরতালের প্রতি ভালোবাসাকে আরো বৃদ্ধি করেছে। ভালোবাসা পরিনত হয়েছে ছাই চাপা আগুনে।

যদিও অন্য একটি বিষয় নিয়ে ব্লগারদের মধ্যে একটি ছাই চাপা আগুন অবস্থা বিরাজ করছে। তা হল লুল এবং লুলামী। বিষয়টি অতিব গুরত্ব বা ব্লগত্বপূর্ন বিধায় বিষয়টি নিয়ে আপনাদের সামনে উপস্থিত হয়েছি।

সম্প্রতি ব্লগার কনফেশন পেজের বিভিন্ন কনফেশনের বদৌলতে আমরা দেখেছি, এই ব্লগের বিভিন্ন কোনায় কোনায়, চিপায় চিপায়, নিকে নিকে নারী পুরুষ নির্বিশেষে লুকিয়ে আছে বিভিন্ন রকম লুল এবং লুলামী। সকল প্রকার লুল এবং লুমামীর শ্রেনী বিভাগ জানার জন্যই আজকের এই আলোচনা। এতে যেটা লাভ হবে প্রত্যেকেই নিজ নিজ শ্রেনীর সহ-লুলদের সাথে একটি সুন্দর কমিউনিটি ব্লগিং করতে পারবেন, আপনার জীবন হবে লুলময় এবং নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন একজন সফল লুল হিসেবে।

বাংলা ব্লগস্ফিয়ারের বিখ্যাত উপস্থাপক, সঞ্চালক অন্যমনস্ক শরৎ তার বিখ্যাত '' শরৎ এর লুলিয় বাতাস' নামক গ্রন্থে লিখেছেন, ঘুমিয়ে আছে লুলামী সকল ব্লগারের অন্তরে। তিনি তার বিখ্যাত গ্রন্থে আরো উল্লেখ্য করেছেন, লবন এবং লুল একটি সমার্থক শব্দ। যার পরিমিতি ও পরিশীলিত ব্যবহারে হৃদয়ে আনে অনাবিল এক শান্তি। উল্লেখ্য তরকারীতে লবন কম বেশি হলে যেমন খাওয়া যায় না, বিস্বাদ হয়ে যায় তেমনি লুলও বেশি বা কম হলে সেটাও লুল থাকে না, হয়ে যায় বিস্বাদ একটি বস্তুতে। অনেকেই একে আপত্তিজনক ভাবে লুইচ্চামি বলে ডেকে থাকেন।

বিভিন্ন গ্রন্থ এবং ব্লগ সমাজে পর্যবেক্ষন করে ও ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা দর্শনে সামগ্রিক ভাবে 'লুল' গুনটিকে আমরা কয়েকটি শ্রেনীতে ভাগ করেছি। সহব্লগারদের কাছে অনুরোধ রইল, তারা নিজ নিজ পছন্দের ব্লগারকে কিংবা নিজেকে উক্ত শ্রেনীতে মনোয়ন দিয়ে নির্বাচিত হতে সাহায্য করবেন।

আসুন দেখে নেই এক নজরে লুল ক্যাটাগরী গুলোঃ

১# উচ্চমার্গীয় লুলঃ
এই জাতীয় লুলরা খুবই উচ্চমার্গের লুলামী করে থাকে। যা কিনা ক্ষেত্র বিশেষে শিল্প কিংবা সাহিত্যগুন হিসেবে বিবেচিত হয়। তারা বিপরিত লিংগের সৌন্দর্য বর্ননা করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রাকৃতিক জিনিসের সহায়তা নেন। যেমন ঠোঁট নিয়ে বলতে বললে তারা বলবেন, উফ ঠোঁট! সে তো আর শুধু ঠোঁট নয়, যেন কোন মরুদ্যানের শীতল জলাধার, যা আকুন্ঠ পানের পরও পিপাসা থেকেই যায়।

এই শ্রেনীর আবার দুটি সাবক্লাস আছেঃ
ক) বিবাহিত লুল।
খ) অবিবাহিত লুল।
গ) জনপ্রিয় লুল।
ঘ) এনোনিমাস লুল।


সাবক্লাস ক)- এর মডেল হতে রাজি হয়েছেন, ব্লগার কান্ডারী অর্থব, ব্লগার আমিনুর রহমান, ব্লগার মামুন৫৬৩ এবং ঘুড্ডির পাইলট।

সাবক্লাস খ) এর অনেকেই মডেল হতে রাজি হয়েছেন। কিন্তু অনেকটা কাকে বাদ দিয়ে কাকে নিব এই অবস্থা। তাই ব্যক্তিগত পছন্দের ভিত্তিতে ব্লগার জনৈক গন্ডমূর্খ, নোমান নমি এবং কুনোব্যাংগকে নির্বাচিত করা হলো।

সাবক্লাস গ) এর মডেল হিসাবে একমাত্র আছেন, চেয়ারম্যান০০৭। তিনি বাংলা ব্লগস্ফিয়ারে প্রবাদ সমতুল্য লুল। এই শিল্পের একজন অন্যতম প্রানপুরুষ।

সাবক্লাস ঘ) এর মডেল হিসেবে আছেন কিংবদন্তী ব্লগার দূর্যোধন। সেই কুসুমের রান থেকে শুরু করে শালীর সাথে তাহার বাক্যলাপগুলো লুলদের নিয়মিত পাঠ্যসুচির অংশ হিসেবে অন্তভূর্ক্ত।

২# মধ্যম লুলঃ
এই জাতীয় লুলরা মধ্যম মানের লুলামী করে। তাদের মনের ইচ্ছাগুলো যখন মাঝে মাঝে ব্রেকফেল করে তখন তাদের লুলামী প্রকাশ পায়। এই শ্রেনীর লুলরা সাধারনত বিপরীত লিংগের সৌন্দর্যকে কোন ফলের সাথে তুলনা করেন। যেমন ঠোঁট নিয়ে বলতে বললে তারা বলেন, উফ! ঠোঁট! সে যেন কমলার চিরে রাখা একখন্ড কোয়া।

মাঝে মাঝে বিভিন্ন ফলের সাথে (যেমন, পেয়ারা, আপেল ইত্যাদি) সৌন্দর্য মেলানোর কারনে অনেক অনভিপ্রত ঘটনার সৃষ্টি হয়। তখন সেখানে উচ্চমার্গীয় লুলরা হস্তক্ষেপ করে, ব্যাপারটার নিয়ন্ত্রন করেন। এই ক্যাটাগরীর উদহারন দিতে গেলে প্রচুর মডেল লাগবে। সময় সল্পতার জন্য সব মডেলদেরকে সামনে উপস্থাপন করা সম্ভব হচ্ছে না বিধায় কিছু বাছাইকৃত মডেলকে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম। এরা হলেন, জাকারিয়া মুবিন, banglar_hasan, আশিক মাসুম, স্বপ্নবাজ অভি, বোকা ডাকু।

এই শ্রেনীর তিনটি সাবক্লাস আছে।

ক) স্বঘোষিত লুল
খ) ছ্যাকামাইছিন লুল
গ) বুক ফাটে তো মুখ ফোটে না লুল


সাবক্লাস ক)- এর মডেল হতে রাজি হয়েছেন, ব্লগার এস আর জনি। তিনি একজন জনপ্রিয় সহজ সরল স্বঘোষিত লুল।

সাবক্লাস খ)- এর মডেল হতে রাজি হয়েছেন, ব্লগার একজন আরমান। তিনি যে একজনই আছেন এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই। তাহার সমতুল্য ছ্যাকামাইসিন লুল বাংলা ব্লগস্ফিয়ারে আর কেউ নেই। তিনি একজন দুঃখী লুল।

সাবক্লাস গ)- এর মডেল হতে রাজি হয়েছেন, ব্লগার গৃহবন্দিনী। তার এই সাহসী পদক্ষেপের জন্য তাকে আন্তরিক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা। উল্লেখ্যে এই ক্যাটাগরীর অধিকাংশই হচ্ছেন নারীরা। তাদের লুলামী অনেকটা বুক ফুটে তো মুখ ফুটেনার মত। আমরা আশা করব নারীরা তাদের সহ অবস্থান নিজেরাই শক্ত করবেন।

৩# নিম্নমানের লুল
এই জাতীয় লুলরা নিম্ন মানের লুলামী করে। তাদের মনের ইচ্ছাগুলোর কোন ব্রেক থাকে না। ফলে ব্রেক করারও কোন ঝামেলা নেই। যা ইচ্ছে তারা সেটা বলতে পারেন। তারা সৌন্দর্যের বর্ননায় কোন ফলের প্রয়োগ করেন না। তারা সরাসরি, "যৌবন আমার লাল টমেটো" টাইপের মন্তব্য করেন। এদেরকে নিয়ে বর্ননা করতে গেলে এই লেখাটি রসময় গুপের ব্লগ হিসেবে পরিচিত পাইবে। তাই কোন প্রকার বিশ্লেষনে যাওয়া হলো না।

প্রাথমিক ভাবে এই কয় শ্রেনীর লুল সম্পর্কে আপনাদের জানানো হইল। এখন আপনাদের পছন্দ মোতাবেক আপনারা শ্রেষ্ঠ লুল নির্বাচন করুন।

উল্লেখ্য এই নির্বাচন প্রক্রিয়াতে, ব্লগার সেলিম আনোয়ার এবং ব্লগার পরিবেশ বন্ধু- 'বাঁচতে হবে জানতে হবে' ভিত্তিতে ইন্টার্ন হিসেবে আছেন। তাদের ভোট গ্রহনযোগ্য হইবে না।

আর একটি বিশেষ ক্যাটাগরী আছে, ছুপা লুল। এই ক্যাটাগরির মডেল হিসেবে অংশগ্রহনের জন্য ব্লগার রাইসুল সাগরকে ফোন দিয়েছিলাম, কিন্তু তিনি মডেল হতে রাজি হন নি দেখে তার নাম আর দিলাম না। তিনি নাকি একটি বিশেষ মিউজিক ভিডিওতে ব্যস্ত। তিনি যে গানের সাথে মডেল হয়েছেন, মডেল নার্গিসের সাথে তা হলো,

ও রে ও রিকশাওয়ালা,
রিকশাটা জোরে চালা।
বলব প্রেমের ঘটনা,
আমি পাট ক্ষেতে আর যাব না।

মেম্বারের বড় ছেলে (নাম ভুমিকায় সাগর ভাই)
টাংকি ফাইরা লাইছে,

ফাটা টাংকি লইয়া আমি
রাস্তায় রাস্তায় ঘুরি
তুমি দেখেও চোখে দেখ না
আমি পাট ক্ষেতে আর যাব না।




বিঃদ্রঃ ইহা একটি ফান পোষ্ট। কেহ কোন প্রকার মাইন্ড খাইলে তার দায়িত্ব নিজেকেই বহন করিতে হইবে।
সর্বশেষ এডিট : ১৭ ই মে, ২০১৪ ভোর ৬:৩৫
১৯৫টি মন্তব্য ১১৮টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

সকল কোমলমতি কিন্তু "কোটা পরিবর্তনের" আন্দোলন করেনি!

লিখেছেন সোনাগাজী, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ বিকাল ৪:৩৬



**** কোর্ট কোমলমতি ফেইসবুকারদের "মোয়া" ধরায়ে দিয়েছে: কোটার ৯৩% নয়, ১৯৩% চাকুরীও যদি কোমলমতিদের দেয়া হয়, তারপরও ৪০ লাখ শিক্ষিত বেকার থাকবে; কারণ, কোটার শতকরা হার বাড়োনো হয়েছে কোমলমতিদের... ...বাকিটুকু পড়ুন

জামাতিরাই জিতল বাংলাদেশে

লিখেছেন মেঘনা, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:৪৩

সাংবিধানিকভাবে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র,এখানে আন্দোলনের অধিকার আছে। আন্দোলনকারীদের দাবি যৌক্তিক বা অযৌক্তিক সেটা যাই হোক না কেন, পুলিশের গুলিতে যদি আন্দোলনকারীরা মারা যায় তার দায়িত্ব অবশ্যই সরকারের, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।... ...বাকিটুকু পড়ুন

সরকারের পতন হলে কি যাবে ক্ষমতায়?

লিখেছেন প্রফেসর সাহেব, ২১ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ৯:৪৬



ব্লগে আমার লেখায় একজন এই প্রশ্নটা করেছেন, প্রশ্নটা হাইপোথিটিক্যাল তার উত্তরও হাইপোথিটিক্যাল হবে।

আমার উত্তর (এটা ধরে নিয়ে যে সরকারের পতন হবে যদিও দিল্লি বহত দূর হ্যায়) হইতেছে, বিষয়টা... ...বাকিটুকু পড়ুন

দুই হাজার চব্বিশ সাল

লিখেছেন মারুফ তারেক, ২২ শে জুলাই, ২০২৪ ভোর ৬:২৮

অতএব আমি কবিতায় সকল নপুংসক কবিদের গালাগাল দেই;
অতএব আমি কবিতায় লেখি দুই হাজার চব্বিশ সাল:
বাংলাদেশের কবিদের হৃদয় শশ্মান হয়ে গেছে
শকুনের মতো তীক্ষ্ণ হিংস্রতায়, কাপুরুষ ভীরুতায়।

অতএব আমি কবিদের বিষাদগার করি-
যখন... ...বাকিটুকু পড়ুন

×