somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

অপ্রাপ্ত বয়স্কদের আইনসম্মত বিয়ের পদ্ধতি

০৫ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১:৩৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :


উভয় পক্ষের পরিবার বিয়েতে সম্মত থাকার পরও আইনে মোতাবেক বয়স টা বাধা হয়ে যায়। কারণ দেশের প্রচলিত আইনে ছেলের ২১ আর মেয়ের ক্ষেত্রে বিয়ের বয়স হলো ১৮। তবে হ্যাঁ, এখন অপ্রাপ্ত বয়স্ক হলেই বিয়ে নিষিদ্ধ ব্যাপারটা এমন নয়। কারণ, বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন, ২০১৭ এর ১৯ ধারার বিয়ের বিশেষ বিধান রাখা হয়েছে। যাহা নিম্নরূপঃ
"১৯। এই আইনের অন্যান্য বিধানে যাহা কিছুই থাকুক না কেন, বিধি দ্বারা নির্ধারিত কোন বিশেষ প্রেক্ষাপটে অপ্রাপ্ত বয়স্কের সর্বোত্তম স্বার্থে, আদালতের নির্দেশ এবং পিতা-মাতা বা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অভিভাবকের সম্মতিক্রমে, বিধি দ্বারা নির্ধারিত প্রক্রিয়া অনুসরণক্রমে, বিবাহ সম্পাদিত হইলে উহা এই আইনের অধীন অপরাধ বলিয়া গণ্য হইবে না।"
তবে এক্ষেত্রে ৩ টি বিষয় অনুসরণ করতে হবে;

১. আদালতের নির্দেশ থাকতে হবে।

২. বাবা মা অথবা অভিভাবকের যৌথ সম্মতি থাকতে হবে।

৩. নাবালক বা কম বয়স্কার সর্বোত্তম স্বার্থ বিবেচনা করতে হবে।

তবে হ্যাঁ, ধর্ষণ কিংবা দুই পক্ষের মধ্যে এ সংক্রান্ত মামলা বিচারাধীন থাকলে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের বিশেষ বিধান (বিশেষ অবস্থায় অপ্রাপ্তবয়স্কদের বিয়ে) প্রযোজ্য হবে না।

বাল্যবিবাহ নিরোধ বিধিমালা,২০১৮ এর ১৭ ধারায় বাল্যবিবাহের বিশেষ বিধান প্রয়োগের ক্ষেত্রে প্রক্রিয়া নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে,
বিশেষ বিধান প্রয়োগে দুইপক্ষকে যৌথভাবে আদালতে আবেদন করতে হবে।

এমন আবেদন পাওয়ার পরে বিজ্ঞ আদালত আবেদনের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য যাচাই কমিটির কাছে প্রেরণ করবেন। UNO এর সভাপতিত্বে ৭ সদস্যের যাচাই কমিটি উক্ত বিয়ের বিষয়ে ১৫ দিনের মধ্যে কোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। প্রত্যেক উপজেলায় অপ্রাপ্তবয়স্কের সর্বোত্তম স্বার্থ যাচাইয়ে কমিটি রয়েছে। কমিটিতে সদস্য হিসেবে থাকবেন- উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মনোনীত একজন মেডিকেল অফিসার, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, পৌরসভা/ইউনিয়ন পরিষদের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মনোনীত একজন কিশোর ও একজন কিশোরী। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা হবেন এই কমিটির সদস্য-সচিব।

তার মানে বিধিমালা মোতাবেক, বিশেষ বিধানের আলোকে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে উপযুক্ত আদালতে উভয়পক্ষের পিতা-মাতা বা আইনগত অভিভাবক বা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অপ্রাপ্তবয়স্কসহ উভয়পক্ষ বা বিয়ের পাত্র-পাত্রী উভয়ের যৌথ আবেদনের ভিত্তিতে কারণ উল্লেখ করে দালিলিক প্রমাণসহ (যদি থাকে) আবেদন করতে পারবেন। আদালত আবেদনটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য যাচাই কমিটিতে পাঠাবেন। কমিটি বিষয়টি যাচাই করে ১৫ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করবে।

যাচাই কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয়েছে, বিশেষ বিধানের আলোকে আবেদনপ্রাপ্তির পর যাচাই কমিটি অনুসন্ধান করে বিয়েটি অপ্রাপ্তবয়স্কের সর্বোত্তম স্বার্থে এবং সর্বশেষ বিকল্প হিসেবে হচ্ছে বলে নিশ্চিত হলে, নির্ধারিত বয়সসীমার আগে আবেদিত বিয়ের বিষয়ে সুস্পষ্ট মতামতসহ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করবে।

তবে আবেদিত বিয়েটি জোরপূর্বক হলে; আবেদিত বিয়েটি ধর্ষণ, অপহরণ, জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন ইত্যাদি কারণে সংঘটিত হলে; আবেদিত বিষয়ে ধর্ষণ, অপহরণ, জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষের মধ্যে কোনো মামলা বিচারাধীন থাকলে যাচাই কমিটি বিয়ে সম্পাদন না করার বিষয়ে মতামত দিয়ে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে বিধিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে।

কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর আদালতের কাছে যদি প্রতীয়মান হয় যে, অপ্রাপ্তবয়স্কের সর্বোত্তম স্বার্থেই বিশেষ বিধানের আওতায় আবেদিত বিয়ে হওয়া সমীচীন, সেক্ষেত্রে আবেদিত বিয়ের বিষয়ে অনুমতি দিতে পারবেন বা আদালত প্রয়োজন মনে করলে এ বিষয়ে অধিকতর তদন্ত/পুনঃতদন্ত করে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে পারবেন।

এতে আরও বলা হয়েছে, যাচাই কমিটি লিখিত প্রতিবেদন সিলমোহর করা খামে আদালতে পাঠাবে। আদালত প্রয়োজন মনে করলে কমিটিকে আদালতে উপস্থিত হওয়ারও আদেশ দিতে পারবে।

তাহলে এখন প্রশ্ন হলো আদালত বলতে কোন আদালতকে বুঝানো হয়েছেঃ ২০১৭ সালের আইন এবং পরের ২০১৮ সালের বিধিতে কোথাও কোন আদালত এমন অনুমতি দিবে তা বলা হয়নি। বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ও বিধি একত্রে পড়লে বিষয়টি পরিষ্কার হয় যে, এ বিষয়ে যথাপোযুক্ত ফোরাম হলো এখতিয়ারাধিন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। কেননা বিধিতে কয়েকটি ফোরাম সংযুক্ত আছে যেখানে ‘বিচারিক আদালত’ ও মোবাইল কোর্ট পৃথক ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিয়ের বয়সে পুরুষরাও ছাড় পাবেন?
বিয়ের বয়স নির্ধারণে পুরুষরাও বিশেষ প্রেক্ষাপটে ছাড় পাবেন। নারীদের মতো পুরুষরাও বিশেষ প্রেক্ষাপটে ১৮ বছরের আগেই বিয়ে করতে পারবেন।


- আইনজীবী মোহাম্মদ তরিক উল্যাহ


সর্বশেষ এডিট : ০৫ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১:৩৮
২টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

আহা লুঙ্গি

লিখেছেন শাহ আজিজ, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ১২:৩২



গেল সপ্তাহে ঢাকার একটি সিনেমা হলে এক লুঙ্গি পরিহিত বয়স্ক মানুষকে হলে ঢুকতে দেয়নি হল দারোয়ানরা । আমার মনে হয়েছিল এ এক তীব্র কষাঘাত জাতির গালে । প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের... ...বাকিটুকু পড়ুন

অরুনা আত্মহত্যা করেছিলো!

লিখেছেন রাজীব নুর, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ দুপুর ২:২২

ছবিঃ আমার তোলা।

লোডশেডিং চলছে। অন্ধকার রাস্তায় সে হাটছে।
রাস্তার বাতি গুলোও আজ জ্বলছে না। আকাশে মেঘ জমতে শুরু করেছে। কিন্তু মাত্রই আকাশে বিশাল এক চাঁদ উঠেছে।... ...বাকিটুকু পড়ুন

ব্লগারদের গোপন তথ্য চেয়ে আবেদন!

লিখেছেন কাল্পনিক_ভালোবাসা, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ বিকাল ৫:২৯

একবার আইনশৃংখলা বাহিনীর জনৈক ব্যক্তি ব্লগ টিমের কাছে একজন নির্দিষ্ট ব্লগার সম্পর্কে তথ্য জানতে চেয়ে ফোন দিলেন। ব্লগ টিম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে জানতে চাইলো - কেন উক্ত ব্লগারের তথ্য... ...বাকিটুকু পড়ুন

ভার্টিগো আর এ যুগের জেন্টস কাদম্বিনী

লিখেছেন জুন, ১০ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ৯:১৩



গুরুত্বপুর্ন একটি নথিতে আমাদের দুজনারই নাম ধাম সব ভুল। তাদের কাছে আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র ,পাসপোর্ট এর ফটোকপি, দলিল দস্তাবেজ থাকার পরও এই মারাত্মক ভুল কি... ...বাকিটুকু পড়ুন

যাপিত জীবনঃ কি যাতনা বিষে বুঝিবে সে কিসে কভু আশীবিষে দংশেনি যারে।

লিখেছেন জাদিদ, ১১ ই আগস্ট, ২০২২ রাত ১:১৪

১।
মেয়েকে রুমে একা রেখে বাথরুমে গিয়েছিলাম। দুই মিনিট পরে বের হতে গিয়ে দেখি দরজা বাইরে থেকে লক। পিলে চমকে উঠে খেয়াল করলাম পকেটে তো মোবাইলও নাই। আমি গেট নক... ...বাকিটুকু পড়ুন

×