somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

বাংলাদেশী মুদ্রার সচিত্র ইতিহাস

০৯ ই জুন, ২০০৯ রাত ২:৫৯
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

বাংলাদেশ ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বর স্বাধীনতা লাভের পর কিছু সময় পাকিস্তানী ১, ৫ এবং ১০ রূপী ব্যবহৃত হয় যা পরের দিকে সরকার বাতিল করে দেয়। পরবর্তীতে ১৯৭২ সালের ৪ঠা মার্চ প্রথম নোট চালু হয়। প্রথমে ১, ৫, ১০ এবং ১০০ টাকার নোট ছাপা হয়। বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত যতগুলো নোট এবং কয়েন বাজারে ছাড়া হয়েছে তার সচিত্র ইতিহাস তুলে ধরা হলঃ



এক টাকাঃ

বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভের পর কিছু দিন পাকিস্তানী ১ রূপী প্রচলিত ছিলঃ



পরবর্তীতে ১৯৭২ সালের ৪ঠা মার্চ বাংলাদেশী ১ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



১৯৭৩ সালের ২রা মার্চ প্রথম বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক সম্বলিত ১ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



এরপর ১৯৭৩ সালের ১৮ই ডিসেম্বর পুনরায় আরেকটি ১ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে ১৯৭৯ সালের ৩রা সেপ্টেম্বর "রয়েল বেঙ্গল টাইগার"-এর জলছাপ সম্বলিত ১ টাকার নোট ইস্যু হয়। এরপর আর কোন ১ টাকার কাগুজে নোট ইস্যু হয়নিঃ



মাঝে ১৯৭৫ সালে "নিকেল-কপার" দ্বারা তৈরী ১ টাকার কয়েন ইস্যু হয়েছিলঃ



এরপর ১৯৯৩ সালের ৯ই মে পুনরায় ১ টাকার কয়েন ইস্যু হয়। পরবর্তীতে এর আকৃতি এবং রঙ ৩ বার পরিবর্তন করা হয়ঃ



বিভিন্ন সময়ে ইস্যুকৃত ১ টাকার কয়েনঃ




দুই টাকাঃ

১৯৮৮ সালের ২৯ই ডিসেম্বর দ্বিতীয় "সরকারী নোট" ২ টাকা ইস্যু হয়। এরপর আর কোন ২ টাকার কাগুজে নোট ইস্যু হয়নিঃ




পরবর্তীতে ২০০৪ সালে "স্টীল"-এর তৈরী ২ টাকার কয়েন ইস্যু হয়ঃ





পাঁচ টাকাঃ

১৯৭২ সালের ৪ঠা মার্চ প্রথম ৫ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে ১৯৭৩ সালের ১লা সেপ্টেম্বর এবং ১৯৭৪ সালে "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান" - এর ছবি সম্বলিত আরো দু'টি নোট ইস্যু হয়ঃ





১৯৭৬ সালের ১১ই অক্টোবর "তারা মসজিদ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



১৯৭৮ সালের ২রা মে "তারা মসজিদ"-এর পরিবর্তে "কুসুম বাগ মসজিদের মেহরাব"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০৬ সালের ৮ই অক্টোবর, ১৯৭৮ সালের নোটটি ইস্যু হয়। পার্থক্য হল নোটটিতে ৩মিমি চওড়া নিরাপত্তা সূতা ব্যবহার করা হয়ঃ



মাঝে ১৯৯৩ সালের ১লা অক্টোবর ৫ টাকার কয়েন ইস্যু হয়ঃ




দশ টাকা

১৯৭২ সালের ৪ঠা মার্চ প্রথম ১০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে ১৯৭২ সালের ২রা জুন এবং ১৯৭৩ সালের ১৫ই অক্টোবর "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান" - এর ছবি সম্বলিত আরো দু'টি নোট ইস্যু হয়ঃ






১৯৭৬ সালের ১১ই অক্টোবর "তারা মসজিদ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে ১৯৭৮ সালের ৩রা আগস্ট এবং ১৯৮২ সালের ৩রা সেপ্টেম্বর "আতিয়া জামে মসজিদ" -এর ছবি সম্বলিত ভিন্ন দু'টি নোট ইস্যু হয়ঃ





১৯৯৭ সালের ১১ই ডিসেম্বর "লালবাগ কেল্লা মসজিদ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০০ সালের ১৪ই ডিসেম্বর অস্ট্রেলিয়া থেকে ১০ টাকার পলিমার নোট তৈরী করে আনা হয় যা বাংলাদেশের জন্য ব্যবহারের অনুপযোগীঃ



২০০২ সালের ৭ই জানুয়ারী ১০ টাকার আরেকটি নোট ইস্যু হয়ঃ



সর্বশেষ ২০০৬ সালের ২১ই সেপ্টেম্বর নিরাপত্তা উপাদান বাড়িয়ে পুনরায় আগের নোটটি ইস্যু হয়ঃ





বিশ টাকাঃ

১৯৭৯ সালের ২০ই আগস্ট প্রথম ২০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে হলগ্রাফিক নিরাপত্তা সংযুক্ত করে ২০০২ সালের ১৩ ই জুলাই পুনরায় আগের নোটটি ইস্যু হয়ঃ




পঞ্চাশ টাকা


১৯৭৬ সালের ১লা মার্চ প্রথম ৫০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



১৯৭৯ সালের ৪ঠা "তারা মসজিদ"-এর পরিবর্তে "ষাট গুম্বুজ মসজিদ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



১৯৮৭ সালের ২৪ই আগস্ট প্রথমবারের মত "স্মৃতিসৌধ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



এরপর ১৯৯৯ সালের ২২ই আগস্ট এবং ঈষৎ পরিবর্তন করে ২০০৩ সালের ১২ই মে একই নোট ইস্যু হয়ঃ







একশ টাকাঃ


১৯৭২ সালের ৪ঠা মার্চ প্রথম ১০০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



১৯৭২ সালের ১লা সেপ্টেম্বর "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান" - এর ছবি সম্বলিত এবং ১৯৭৬ সালের ১লা মার্চ "তারা মসজিদ"-এর ছবি সম্বলিত দু'টি একই ডিজাইনের নোট ইস্যু হয়ঃ





১৯৭৭ সালের ১৫ই ডিসেম্বর সম্পূর্ণ নতুন ডিজাইনের ১০০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০১ সালের ১৫ই মার্চ optical variable ink (ovi) ব্যবহার করে নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০২ সালের ৫ই জুন "স্মৃতিসৌধ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০৫ সালের ২৮শে জুলাই পূর্বের ১০০টাকার "100" শব্দটিকে সোনালী রঙে পরিবর্তন করা হয়ঃ



পাঁচশত টাকাঃ

১৯৭৬ সালের ১৫ই ডিসেম্বর প্রথম ৫০০ টাকার নোট ইস্যু হয়ঃ



পরবর্তীতে ডিজাইনে ব্যপক পরিবর্তন এনে ১৯৯৮ সালের ২রা জুলাই আরেকটি নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০০ সালের ১০ই আগস্ট "বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান" - এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০২ সালের ১৭ই জুলাই "স্মৃতিসৌধ"-এর ছবি সম্বলিত নোট ইস্যু হয়ঃ



২০০৪ সালের ২৪ই অক্টোবর পূর্বের নোটের "৫০০" এর পরিবর্তে "পাঁচশত টাকা" শব্দে optical variable ink (ovi) ব্যবহার করে নোট ইস্যু হয়ঃ




এক হাজার টাকাঃ

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মানের নোট। নোটটি ২০০৮সালের ২৭শে অক্টোবর ইস্যু হয়। এর সামনের অংশে শহীদ মিনার এবং পেছনের অংশে কার্জন হলের ছবি রয়েছে। এতে মোট ১১ টি নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে।




সূত্রঃ
(১) http://www.bangladesh-bank.org
(২) http://en.wikipedia.org
(৩) http://www.kcshop.com
(৪) http://aes.iupui.edu
(৫) http://www.crnindia.com
(৬) http://www.qadeem.com
(৭) http://www.atsnotes.com
সর্বশেষ এডিট : ০৯ ই জুন, ২০০৯ রাত ২:৫৯
৯৭টি মন্তব্য ৪৪টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

সবুজের সাম্রাজ্যে হারানো অপদার্থ। (ছবিব্লগ)

লিখেছেন ৎৎৎঘূৎৎ, ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ দুপুর ১:৪২

আমাকে জিজ্ঞেস করবেন না কোথায় যাচ্ছি। আমি এর উত্তরে কিছু একটা বলে দিয়ে পার পেতে চাই না। আপনি অর্থহীন ভাববেন বিধায় উত্তর ও দিতে চাই না। আমি বলতে চাই না... ...বাকিটুকু পড়ুন

বিপরীতের বন্ধন

লিখেছেন মায়াস্পর্শ, ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ বিকাল ৫:৪৫

ছবি : আজকের পত্রিকা

তোমার চোখের কাজলে আঁকলাম এক দীঘি
স্বচ্ছ জল আর সাদা হাঁসের মিতালী সেখানে,
দখিনা বাতাসের খোলামেলা প্রবাহে কবিতা লিখি
তোমার ফাগুন যেন... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাথায় গিট্টুঃ

লিখেছেন বাউন্ডেলে, ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ বিকাল ৫:৫২


বিজ্ঞানীরা বলছেন, মহাবিশ্বের বয়স ১৩৮০ কোটি বছর। বিগ ব্যাংয়ের মধ্য দিয়ে সে সময়েই হয়েছিল মহাবিশ্বের সূচনা। আমরা জানি, আলোর বেগই মহাবিশ্বে সর্বোচ্চ। তাহলে ৯৩০০ কোটি আলোকবর্ষ বড় মহাবিশ্ব আমরা... ...বাকিটুকু পড়ুন

দিবস পালন করা কি শিরক? বা হারাম?

লিখেছেন মৌন পাঠক, ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:৩৮

পড়ুন, ভাবুন, এই লেবাসধারীরা ইসলামকে যেভাবে ব্যাখ্যা করে আসলে ইসলাম সেটা কিনা?

আলোচনাঃ
“আবু ওয়াক্বিদ লাইছী (রাঃ) হতে বর্ণিত, যখন রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) হুনাইনের যুদ্ধে বের হলেন, তখন তিনি মুশরিকদের এমন একটি বৃক্ষের... ...বাকিটুকু পড়ুন

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনুগ্রহ করে এই মুহুর্ত থেকে মৌলবাদীদের বাংলাদেশে নিষিদ্ধ করুন।

লিখেছেন মোহাম্মদ গোফরান, ২০ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ রাত ১১:০৭


মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের শপথ হোক বাংলাদেশে মৌলবাদী গোষ্ঠীকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে। ছোট বেলায় পড়তাম - অ- তে অজগর- অজগর আসছে তেড়ে। আ-তে আম- আমটি আমি খাবো... ...বাকিটুকু পড়ুন

×