somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

চা শ্রমিক: চা গাছের মতোই ছেটে রাখা যে জীবন বাগানের লেবার লাইনে বন্দি

২১ শে মে, ২০১৩ বিকাল ৩:৪৩
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

ফিনলে, লিপটন, ডানকান ইত্যাদি নামি দামি ব্র্যান্ডের যে চা খেয়ে আমরা প্রতিদিন তাজা হই, সেই চা উৎপাদন করতে গিয়ে চা শ্রমিকরা প্রতিদিন আরো নির্জীব হয়।

চা গাছ ছেটে ছেটে ২৬ ইঞ্চির বেশি বাড়তে দেয় হয় না। চা শ্রমিকের জীবনটাও ছেটে দেয়া চা গাছের মতোই, লেবার লাইনের ২২২ বর্গফুটের একটা কুড়ে ঘরে বন্দী। মধ্যযুগের ভূমিদাসের মতোই চা মালিকের বাগানের সাথে বাধা তার নিয়তি।

তার দৈনিক মজুরী মাত্র ৫৫ টাকা। ২০১১ সালে এর পরিমাণ ছিল ৪৮ টাকা। সাথে সপ্তাহে ৩ কেজি রেশনের চাল ও আটা। এ দিয়ে পরিবার নিয়ে তিন বেলা খাবার জোটে না।

সকালে লবণ দিয়ে এক মগ চা আর সাথে দুমুঠো চাল ভাজা খেয়ে বাগানে যেতে হয়, তার উৎপাদিত চা ও দুধ চিনি দিয়ে খাওয়ার সামর্থও তার নাই। সারা দিন এক পায়ে দাড়িয়ে, মাইলের পর মাইল হেটে কঠোর পরিশ্রম। যারা পাতা তোলেন, ২৩ কেজি পাতা তুললেই কেবল দিনের নিরিখ পূরণ হয়, হাজিরা হিসেবে গণ্য হয়। গাছ ছাটার কালে অন্তত ২৫০টা গাছ ছাটতে হয় দিনে। কিটনাশক ছিটালে অন্তত ১ একর জমিতে কীটনাশক ছিটালেই তবে নিরিখ পূরণ। দুপুরে এক ফাকে মরিচ আর চা পাতার চাটনি, সাথে মাঝে মাঝে মুড়ি, চানাচুর।

একেকদিন হাত ফুলে যায়, পা ফুলে যায়, ঝোপালো চা গাছের মধ্যে কাজ করতে গিয়ে হাত পা কোমড় ছিলে যায়। রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে সাপ বিচ্ছার কামড় খেয়ে তারা বাগানে কাজ করে। সন্তানের শিক্ষা মেলে না, চিকিৎসা মেলে না, যে ঘরটিতে প্রজন্মান্তরে তার বসবাস সে ঘরটিও তার হয় না, ঘরটি ধরে রাখতে হলে পরিবারের একজনকে অন্তত চা শ্রমিক হতেই হয়।

অথচ বাগান মালিকের জমি সরকারেরই খাস জমি, সামান্য অর্থে লিজ নিয়ে সস্তায় চা বাগান করে ফিনলে, ডানকান ইত্যাদি ব্রিটিশ স্টারলিং কম্পানি, দেশীয় সরকারি এবং বেসরকারি কোম্পানি। ভর্তুকী মূল্যে সার পায় তারা, সহজ শর্তে স্বল্প সুদে কৃষি ঋণও বরাদ্দ বাগান মালিকদের জন্য। ফলে মুনাফা তাদের কম নয়। চট্টগ্রামের নিলাম হাউজে প্রতি কেজি চা যখন ১৪৭ টাকায় বিকোয়, তাদের খরচ তখন কেজি প্রতি ৭০ থেকে ৮০ টাকা। ফলে মুনাফ বিপুল।

অথচ চা শ্রমিকদের দাবী সামান্যই- দৈনিক মজুরী ১২০ টাকা(মালিকরা মাত্র ৭ টাকা বাড়িয়ে ৫৫ টাকা থেকে ৬২ টাকা করতে চাচ্ছে), পরিবার নিয়ে বসবাস করবার জন্য ৭৫০ বর্গফুটের ঘর,বাগানে ভূমির অধিকার, সন্তানের শিক্ষা, পরিবারের সুষ্ঠু চিকিৎসা, চাকুরি স্থায়ী করণ ইত্যাদি।

এইরকম ২০দফা দাবীতে আধুনিক যুগের বাগান দাস, চা শ্রমিকেরা ফুসে উঠেছে, তারা আজ ২১ মে থেকে সারা দেশের চা বাগানে অনির্দিষ্ট কালের ধর্মঘট ডেকেছে। আমরা চা শ্রমিক ইউনিয়নের ডাকা এই ধর্মঘটের সাথে সংহতি জানাই।
১১টি মন্তব্য ১টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

নন্দিনী

লিখেছেন রাজীব নুর, ০১ লা ডিসেম্বর, ২০২০ দুপুর ১:১৫



তুমি আমার কাছে কি চাও নন্দিনী?
বারবার কেন আমার দৃষ্টি আকর্ষন করতে চেষ্টা করছো?
দেখো, আমি সাংসারিক মানুষ। বউ বাচ্চা আছে।
এরকম করো না। প্লীজ। এসব ভালো নয়।

তুমি... ...বাকিটুকু পড়ুন

মা

লিখেছেন বিএম বরকতউল্লাহ, ০১ লা ডিসেম্বর, ২০২০ বিকাল ৪:৪৯


ব্যথায় তুমি জল ফেলিবার আগে
কার সে চোখে বহে জলের ধারা
তোমার দুখে কে বা উঠে কেঁদে
কষ্টে তোমার হয় যে দিশাহারা!



না খেয়ে মা কোঁচড় ভরে ভিক্ষে করা ভাতে
ইচ্ছে করে ছেলের মুখে... ...বাকিটুকু পড়ুন

এবার যখন আমরা ধরব, ফাইনাল হয়ে যাবে

লিখেছেন শাহ আজিজ, ০১ লা ডিসেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৭



সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদী শক্তির প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ। তিনি বলেছেন, ‘এবার যখন আমরা ধরব, ফাইনাল হয়ে যাবে। এবার আর... ...বাকিটুকু পড়ুন

ভাস্কর্যই আমাদের প্রধান সমস্যা?

লিখেছেন মুজিব রহমান, ০১ লা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪১


দেশে হাজার রকমের সমস্যা৷ সীমাহীন ঘুষ-দুর্নীতি চলছে- আপত্তি নেই! বলাৎকার-ধর্ষণ চলছে- আপত্তি নেই! মাদক-সন্ত্রাস চলছে আপত্তি নেই! ভোট-অধিকার ডাকাতি চলছে- আপত্তি নেই! মোল্লাতন্ত্র এসব অনৈসলামিক কর্মকাণ্ড নিয়ে কথা... ...বাকিটুকু পড়ুন

আজ জন্মদিন আমার সোনামণিটার

লিখেছেন ইফতেখার ভূইয়া, ০২ রা ডিসেম্বর, ২০২০ রাত ৩:০২


দেখতে দেখতে আরো একটা বছর চলে গিয়ে আবারো আমার ছেলেটার জন্মদিন চলে এলো। অনেক প্ল্যান-প্রোগ্রাম করার করার পরেও এবারও দেশে যাওয়া হলো না। পরপর দু'টো বছর এভাবে ছেলেটার জন্মদিনে... ...বাকিটুকু পড়ুন

×