somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

নাস্তিকের ধর্মকথার বিশ্বকাপ ফুটবল দরশন .....

১৩ ই জুন, ২০১০ রাত ২:২৫
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

আরেকটি ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু হয়ে গেলো, চারদিকে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের পতাকার ছড়াছড়ি দেখে বিশ্বকাপের উত্তেজনা টের পেয়েছি- তা নয়। কোন পতাকা না থাকলেও সময় পেলে টিভির সামনে ঠিকই বসে যেতাম, যেমনটা ক্লাব ফুটবলের ক্ষেত্রে হয়ে থাকে। যাহোক কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনায় চলে যাই। এবারের বিশ্বকাপের প্রধান দলগুলো নিয়ে আমার বিশ্লেষণ তুলে ধরাই এ লেখাটার লক্ষ। কাজটা তেমন কঠিন নয়- কারণ অল্প কটা দল নিয়ে দুচার কথা বলেই লেখা শেষ করা যাবে আশা করা যায়। বাংলাদেশের জনপ্রিয়তম দুটো দল দিয়েই শুরু করছি:


১। আর্জেন্টিনা: কোচ ম্যারাডোনা এবং ফরোয়ার্ডে মেসি- এই দুজনের কারণেই সবচেয়ে বেশী আলোচিত আর্জেন্টিনা। তবে যতই আর্জেন্টিনা ফোকাসে থাকুক না কেন- দলটাকে নিয়ে আশাবাদী হওয়ার খুব বেশী কিছু আছে বলে মনে হয় না। ফ্রন্ট লাইন অবশ্যই বিশ্বসেরা কিন্তু ডিফেন্স একদমই সাদামাটা, বলতে গেলে খুবই জঘণ্য। টিম দেখে মনে হয়েছিল- এই দল করা হয়েছে কেবল গোল দেয়া ও গোল খাওয়ার উদ্দেশ্যে (বাস্কেটবলের ৮৮-৮৫ এর মত স্কোর না হয়ে যায়!!)। জেনেত্তি আর কাম্বিয়াসোরে না নেয়ার কারণ একমাত্র কোচই জানেন। বুড়ো ভেরনরে দিয়ে গোল তৈরি করা সম্ভব নয়- তার মানে স্ট্রাইকাররা গোল করার জন্য টগবগ করে ফুটতে থাকবেন- কিন্তু বল বানানোর মত কেউ থাকবেন না!!!! এইরকম ফ্রন্টলাইন প্লেয়ার থাকার পরেও এমন ফালতু টিম হতে পারে- সেটা অকল্পনীয়!!

তার পরেও - আর্জেন্টিনার সম্ভাবনা একেবারে ফেলে দেয়া যাচ্ছে না- তা মেসির জন্য। মেসিরে একটু নীচে খেলতে হবে, মানে বুড়ো ভেরনের কাজটা তাকে আর মাচোরানো-রদ্রিগেজদের সাথে মিলে করতে হবে, হিগুইন-তেভেজ-মিলিতোদের জন্য গোল তৈরি এবং নিজের গোল করা উভয় কাজটাই মেসিকে করতে হবে।

২। ব্রাজিল: ব্রাজিল সবসময়ের ফেভারিট, এবং এবারেও সে ফেভারিট- ফিফা র‌্যাংকিং তার ১। কিন্তু আমার দেখা ব্রাজিল দলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জঘন্য দল এবারের ব্রাজিল দল। দলগত সমঝোতা যত ভালোই থাকুক- সেইরকম সুপার স্কিলড প্লেয়ার এবার ব্রাজিলে একটাও নেই, যাকে কেন্দ্র করে তারা কাপ জেতার স্বপ্ন দেখতে পারে। কাকা-রবিনহো এরা পুরো মৌসুম সাইডবেঞ্চে বসে থেকেছে। ফাবিয়ানোর অবস্থা তেমন না। সবচেয়ে ভালো খেলোয়াড় বলতে গেলে গোলকিপারটা, আর কয়েকটা ডিফেন্ডার। এদের অবস্থা ঠিক আর্জেন্টিনার বিপরীত। গোল দিতে না পারি- গোল খামু না।

আর, কোচ দুঙ্গা হলো একটা চরম বিরক্তিকর কোচ। ব্রাজিলের খেলা দেখার মজাটাই সে নষ্ট করে দিয়েছে।

৩। ইতালি ও জার্মানি: এরা এমন দুইটা দল যাদের খেলা খুবই বিরক্তিকর, এক কথায় ফালতু- কিন্তু বিশ্বকাপে তাদের ফল সবসময়ই ভালো। এবারেও এই হিসাবে তারা ফেভারিটের তকমা গায়ে এটেছে। কিন্তু- তেমন কিছু করতে পারবে বলে মনে হয় না।

৪। ইংল্যান্ড: রুনি- ল্যাম্পার্ড-জেরার্ড-টেরি মিলে মোটামুটি শক্ত দলই বলা যাবে। এদের গায়েও ফেভারিটের তকমা আছে- সবাই একসাথে জ্বলে উঠলে অনেক দূর যেতে পারে।

৫। হল্যান্ড: এক সময় চরম ফ্যান ছিলাম। একসময় মানে- খুলিত-বাস্তেন-রাইকার্ড-বার্গক্যাম্প-ওভারমার্স এর সময়ে। লম্বু-গাধার (নিস্টলরয়) আমল থেকে আগ্রহ হারাতে থাকি। এবারের বিশ্বকাপে হল্যান্ড দলকে তেমন ফলো করা হয়নি। রোবেন আর পার্সি খুব বেশীদূর নিয়ে যেতে পারবে বলে মনে হয় না।

৬/ পর্তুগাল ও আইভরিকোস্ট: রোনালদো ও দ্রগবা দলদুটোকে যতদূর নিয়ে যেতে পারবে ততটুকুই লাভ। পর্তুগাল-আইভরিকোস্টের কেউই খুব বেশী আগানোর কথা নয়- তবে দ্রগবা আর রোনালদোর খেলা যত দেখা যাবে, ততদিন বিশ্বকাপ দেখার মজা থাকনে।

৭। স্পেন: জাভি নামের খেলোয়াড়টা যে দলে আছে- সেই দলে একজন আসলাম থাকলেই চলে, কিন্তু স্পেনের আছে ভিলা-তোরেস-ফাব্রিগাসরা। জাভির সাথে আবার ইনিয়েস্তা। ডিফেন্সে আছে পিকে-পুয়োল। গোলবারে কাসিয়াস; ভালদেসের মত গোলরক্ষক সুযোগ পাচ্ছে না (ভালদেস অনায়াসে ব্রাজিল ছাড়া যেকোন দেশের গোলবার সামলানোর দায়িত্ব পেতে পারে।)
এইরকম কমপ্লিট একটা দলের বিশ্বকাপ না জেতাটাই হবে দুর্ভাগ্যের বিষয়।

পরিশিষ্ট:
১/ ক্রিকেটের চেয়ে ফুটবল বেশী উপভোগ্য কারণ:
-> এখানে সাঈদ আনোয়ার- আমলা- ইউসুফ দের মত দাড়ির ছড়াছড়ি নাই।
-> গোল দেয়ার পরে ডিগবাজি খায়, কোমর দোলায়, দৌড়ায় .. কেউ আকাশের দিকে তাকাইয়া আল্লাহ, ভগবান, গড বা মৃত পিতা-মাতারে থ্যাঙ্কু জানায় না।
-> খেলা বন্ধ করে দিয়ে সারিবদ্ধ হয়ে নামাজ পড়ার তামাশা দেখার কোন সম্ভাবনা এইখানে নাই।
২। পোলা আর মাইয়ার জন্য দুইটা জার্সি খুজতেছি- একটা আর্জেন্টিনার, আরেকটা ব্রাজিলের। কিন্তু সাইজে মিলতেছে না। কালকের মধ্যে সাইজে না মিললে- বড় সাইজেরটাই কিনবো .....
সর্বশেষ এডিট : ১৩ ই জুন, ২০১০ রাত ২:৪২
২২টি মন্তব্য ০টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

মহা সমাবেশ ঘিরে বিএনপির দুইটি ভুল।

লিখেছেন সৈয়দ এমদাদ মাহমুদ, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০২২ রাত ১২:৪২

বহু দিন পর আসলাম। সকল বøগার ভাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা। সংক্ষেপে বলছি কারণ এ বিষয়ে বড় আর্টিক্যাল লিখে আপনাদের সময় নষ্ট করব না। ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মূল বক্তব্য থেকে আমরা জানতে... ...বাকিটুকু পড়ুন

একজন মকবুল !

লিখেছেন স্প্যানকড, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০২২ রাত ২:৪১

ছবি নেট।

মকবুল
এ দেশে তোমার জন্ম নেয়া ছিল মস্ত ভুল !
যদিও তোমার হাত নেই এতে
ছিলেনা ডান বামে 
ছিলে তুমি মেহনতী সোজাসাপটা
ধরতে পারনি রাজনীতির মার প্যাঁচটা। 

মকবুল... ...বাকিটুকু পড়ুন

Mama’s baby papa’s may be

লিখেছেন সাড়ে চুয়াত্তর, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০২২ দুপুর ১২:০৯


বাচ্চার মাকে সনাক্ত করার প্রয়োজন পড়ে না কিন্তু বাচ্চার বাবাকে অনেক সময় সনাক্ত করার প্রয়োজন পড়ে। কারণ বৈশ্বিক পরিমণ্ডলে বিয়ে ছাড়াই সন্তানের পিতা মাতা হওয়ার পরিমান অনেক বেড়ে গেছে।... ...বাকিটুকু পড়ুন

প্রস্তুতি সবসময় কাজে দেয়?

লিখেছেন শূন্য সারমর্ম, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০২২ দুপুর ১২:৪৬




এবার বিশ্বকাপে অঘটনের জন্ম দিয়ে জীবিত আছে এখনো মরক্কো। তবে স্পেনের কোচ নাকি ১০০০ পেনাল্টি প্র্যাকটিসের হোমওয়ার্ক দিয়েছিলো ছেলেদের যেন গত বিশ্বকাপের মত মরক্কোর কাছে ধরা না খায় ; অথচ... ...বাকিটুকু পড়ুন

আজকে ব্রাজিলের খেলার পরপরই দেশ চলবে বেগম জিয়ার হুকুমে!

লিখেছেন সোনাগাজী, ০৯ ই ডিসেম্বর, ২০২২ সন্ধ্যা ৭:০৬



আজকে ব্রাজিলের খেলার পর, টেলিভিশনের সংবাদের প্রতি খেয়াল রাখবেন, ১০ তারিখ থেকে দেশ বেগম জিয়ার হুকুমে চলার কথা আছে।

বেগম জিয়া বিএনপি'র সেক্রেটারীর পদটা তারেক জিয়াকে দিতে চেয়েছিলেন, সেজন্য... ...বাকিটুকু পড়ুন

×