somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

খেলিছো এ বিশ্ব লয়ে, বিরাট শিশু আনমনে...............

২৩ শে আগস্ট, ২০১০ দুপুর ২:৩২
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

আস্‌সালা আতু খায়রুন মিনানুম.....ভোরের মৃদুমন্দ হাওয়া আর মুয়াজ্জিনের সুমিষ্ট সূর। আধো আলো-আধারীর খেলা ছাদটির পুরোটা কোন জুড়ে। আশৈশব পুরোনো অভ্যেস এই ভোরের আকাশ, সূর্য্যদয় দর্শন, গাঢ় কৃষ্ণবর্ণ অম্বর, ক্রমশঃ ধবল হতে থাকা, একরাশ অপরুপ রক্তিমাভা, ধীরে ধীরে পুরোটা আকাশ জুড়ে আলোক-ফোয়ারার বর্ণচ্ছটা। সে এক মায়াময় ক্ষণ।

অকস্মাৎ নবাগত শিশুর ক্রন্দন। পুরো পরিবেশটাই চকিতে অন্যরকম বদলে যাওয়া। ছুটোছুটি, হুড়াহুড়ি। দৌড়ে নীচে নামা। পুরো পরিবার হাস্যজ্বল ঝলমল। পারিপার্শ্বিক আবহাওয়া এক নিমিষে পালটে যাওয়া। পুনরায় হেলালের কন্ঠস্বর ও আযান ধ্বনী। বিহ্বল ভোরের নামাজীগন !

ফজরের আযান, নতুন শিশুর স্বাগতমবাণী, বিশ্বপ্রভুর প্রতি কৃতজ্ঞতা। সারাবাড়ী গমগমে, আত্নীয় স্বজন, পাড়াপড়শীর পদচারণ। মুখরিত কলহাস্যে ভরপুর চারিদিক। দেওয়ালে ঝুলানো প্রাগৈতিহাসিক গ্রান্ড ফাদার ক্লকের প্রতিটি সেকেন্ড, মিনিট ও ঘন্টার বড় কাঁটাটিও মাথা নেড়ে জানায় নতুন অতিথীর আগমন বারতা। নতুন অতিথীকে স্বাগত জানাতে উদগ্রীব এ বাড়ির প্রতিটি ইট, কাঠ, সিমেন্ট বালুর প্রতিটি ক্ষুদ্র কণা।


অংশুমনি মধ্যাকাশ ছোঁবার আগেই পুনরায় কান্নার রোল ওঠে । পাশের বাড়ি হতে ভেসে আসে সে ক্রন্দন ধ্বনী । দৃষ্টি সীমানায় ও বাড়ির বুড়ো দাদুর রোগাক্রান্ত ক্ষীণ ভঙ্গুর দেহখানি। নিজের অজান্তেই নিমলিত আখিপল্লব। দুফোঁটা জল ঝরে পড়া। মনে পড়ে ছেলেবেলা হতে দেখে আসা সেই জাদরেল দেহখানি, প্রকৃতির অমোঘ নিয়মে কিভাবে ঝরে ঝরে যায়। বড়ই বিচিত্র এ জগৎ সংসারের নিয়ম। কারো আগমন, কারো চিরবিদায়, অন্তিম প্রয়ান।ও বাড়ির প্রতিটি ইট ,কাঠ, সিমেন্ট, বালুর পাষান কনিকাও বুঝি সে ইতিহাস লিখে রাখে। গগণ বিদারী হরিবোল ধ্বনী,অন্যেরা কাঁধ দেয় সে চিরপ্রস্থানে। চরণ ছাপ বুকে নিয়ে ক্রন্দসী আজ ভাঙা পথের রাঙা ধুলো। সাক্ষী হয়ে রয়।


গোলাকার পূজোর থালাকৃতি বিকশিত পূর্ণশশী , জ্যোৎস্না ছড়ায় সন্ধ্যাকাশে। সুগন্ধ ছড়ায় হাস্নাহেনা।হাজারো নক্ষত্রের ঝিকিমিকি আলোয় আলোকিত নিলাম্বরী। কয়েকবাড়ি পর দোতলা বাড়ীটি ঘিরে কৃত্রিম আলোকসজ্জারথ। আজ রুনুর বিয়ে। দিব্যদৃষ্টিতে গোচরীভুত রাঙা চেলী, শ্রবনিত রুনুঝুনু নিক্কন, কিঙ্করীত কঙ্কন। বউ ঝিদের মুহুর্মুহু উলুধ্বনী। শাঁখের আওয়াজ।
সারা বাড়ি হৈহুললোড়, হাসি তামাসা, চারিদিকে আনন্দের ফল্গুধারা। হাসিরাশী চতুর্পার্শ্বদিক। আজ রুনুর নতুন জীবনে গৃহপ্রবেশ।



আজন্ম বহমান এ জীবন হতে কারো মহাপ্রস্থান, কারো নবজীবনের অজানা পথের সূচনা..............। কারো বা ধান দূর্বায় বরণীয় সুখী গৃহপ্রবেশ!

বিচিত্র লীলাময় এ জগৎ সংসার!

খেলিছো এ বিশ্ব লয়ে, বিরাট শিশু আনমনে..........
সর্বশেষ এডিট : ৩১ শে আগস্ট, ২০১০ রাত ৯:২৫
১১৬টি মন্তব্য ১১৬টি উত্তর পূর্বের ৫০টি মন্তব্য দেখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

ঢাকার দুই মেয়র মজা নিচ্ছেন না তো?

লিখেছেন শাহিন-৯৯, ২২ শে জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৩৫



একজন তার প্রোফাইলে লিখেছেন "এবারের নির্বাচনের পর রাস্তা ঘাটে, চায়ের টঙ দোকানে লীগ শুভাকাঙ্ক্ষীদের যখনই বলি, ভাই কনগ্রেচুলেশন!
জবাবে তারা বলেন "ভাই মজা নিচ্ছেন"

আমাদের দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা এখন মজার নেওয়া স্টাইলে... ...বাকিটুকু পড়ুন

আমাদের গ্রামের বাড়ি (ছবি ব্লগ)

লিখেছেন রাজীব নুর, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১:৪৯



আজ ছিলো আব্বার কুলখানি।
আব্বা মারা গেছে চল্লিশ দিন হয়ে গেছে। আজ গ্রামে গিয়েছিলাম। আমার কিছু বন্ধুবান্ধব গিয়েছিলো সাথে। খাওয়ার আয়োজন ছিলো- সাদা ভাত। গরুর মাংস। মূরগীর মাংস।... ...বাকিটুকু পড়ুন

স্নো-পাউডার (অনুগল্প ১)

লিখেছেন নাদিয়া জামান, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ৮:৫৩

লিলাবালী লিলাবালী বর ও যুবতী ..... উচ্চস্বরে মাইকে গান বাজছে। বর পক্ষের আনা উপহার সামগ্রী দেখতে কনের ঘরে পাড়ার মহিলাদের ভীড় লাগলো। মেয়েটি ও চোখের কোনা দিয়ে দেখার চেস্টা... ...বাকিটুকু পড়ুন

চন্দ্রমল্লিকা ও এক বুলবুলির উপাখ্যান ( ছবি ব্লগ)

লিখেছেন জুন, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১:২৫


ক্রিসেন্থিমাম বা সংক্ষেপে মাম যাকে আমরা বাংলায় বলি চন্দ্রমল্লিকা। সারা পৃথিবী জুড়ে দেখা গেলেও অসাধারন শৈল্পিক রূপের এই চন্দ্রমল্লিকার আদি নিবাস কিন্ত পুর্ব এশিয়া আর উত্তর পুর্ব ইউরোপ। ১৫... ...বাকিটুকু পড়ুন

কবরে ফুল দেয়া বা পুষ্পস্তবক অর্পন সুন্নত কোনো কাজ নয়ঃ

লিখেছেন নতুন নকিব, ২৩ শে জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:৩৬

ছবিঃ অন্তর্জাল।

কবরে ফুল দেয়া বা পুষ্পস্তবক অর্পন সুন্নত কোনো কাজ নয়ঃ

আমাদের প্রচলিত সমাজ ব্যবস্থায় বিদ্যমান এমন অনেক কাজ রয়েছে যেগুলো সচরাচর পালন করতে দেখা গেলেও সেগুলো মূলতঃ সুন্নত কাজের... ...বাকিটুকু পড়ুন

×