somewhere in... blog
x
ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয়

আমার দেখা অসাধারণ ১০ টি Sports Drama মুভি এবং ১ টা ফাও!!B-)B-)

২৫ শে মার্চ, ২০১২ সন্ধ্যা ৭:২৮
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :

আমি সবসময় ই যেকোনো ধরনের খেলাধুলায় আগ্রহী, এখনও সময় পেলে খেলতে নেমে যাই! সারা জীবনে যতটা সময় খেলাধুলার পিছনে দিয়েছি তা যদি টাকা বানানোর জন্য ব্যবহার করতাম তাহলে মনে হয় এত দিনে মিলিওনিয়ার হয়ে যেতাম! :P

আজকে আপনাদের কাছে আমার দেখা কয়েকটি অসাধারণ sports drama মুভি সম্পর্কে তুলে ধরছি। ডাউনলোড লিঙ্ক দিচ্ছি না কারন আমার ধারণা প্রায় সবাই ই এই মুভি গুলো দেখেছেন!

1. Million Dollar baby
IMDB Rating- 8.2
Rotten Tomatoes Rating- 92%

অসাধারণ একটি মুভি। শুধু sports drama নয়, যেকোনো ধরণের মুভির মধ্যেই এটি আমার সবচেয়ে প্রিয় মুভি।আমি যখনই এই মুভিটা দেখি, পরিচালক এবং অভিনেতাদের perfection দেখে মুগ্ধ হই। একজন নারী মুষ্টিযোদ্ধার সংগ্রামী জীবন নিয়ে মুভিটি তৈরি হয়েছে। ফ্র্যাঙ্কি ডান একজন অভিজ্ঞ বক্সিং প্রশিক্ষণ যিনি শুধুমাত্র পুরুষ মুষ্টিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ দেন। ম্যাগি ফিটসজেরাল্ড একজন ৩১ বছর বয়সী নারী যে একজন চ্যাম্পিয়ন মুষ্টিযোদ্ধা হতে চায় এবং ফ্র্যাঙ্কি কে তার প্রশিক্ষক হিসেবে পেতে চায়। ফ্র্যাঙ্কি ম্যাগি কে ছাত্রী হিসেবে অনুমোদন না করায় ম্যাগি ফ্র্যাঙ্কির জিম এ নিজে নিজেই ট্রেনিং শুর করে। সেখানে তাকে সাহায্য করে এডি ‘স্ক্র্যাপ-আয়রন’ ডারপিস। স্ক্র্যাপ নিজেও একজন প্রাক্তন মুষ্টিযোদ্ধা কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে একটি চোখ হারিয়ে ফ্র্যাঙ্কির জিম দেখাশোনা করছে। একটানা অনেকদিন একা একাই ট্রেনিং করার পর শেষ পর্যন্ত ফ্র্যাঙ্কি ম্যাগি কে তার ছাত্রী হিসেবে শর্তাধীন অনুমোদন দেয়। শর্তটা হচ্ছে কিছুদিন ট্রেনিং করার পরই ম্যাগি কে নতুন ম্যানেজার খুঁজে নিতে হবে। নতুন ম্যানেজার এর অধীনে প্রথম লড়াই এ ম্যাগির দুরবস্থা দেখে ফ্র্যাঙ্কি ম্যাগি কে লড়াই জিততে সাহায্য করে এবং আর কখনও ছেড়ে যাবে না বলেও কথা দেয়। ফ্র্যাঙ্কির অধীনে ম্যাগি সত্যিকারের এক চ্যাম্পিয়নে পরিনত হয়। তো এরপর ম্যাগি একের পর এক লড়াই জিততে থাকে এবং ওয়ার্ল্ড হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন এর সাথে লড়াই এর সুযোগ পেয়ে যায়। সেই চ্যাম্পিয়ন এর অখেলোয়ারোচিত আচরণ এর কারনে ম্যাগি মারাত্মক আহত হয়। ম্যাগি হাসপাতালে পড়ে থাকে এবং অবস্থা দিন দিন খারাপ হওয়ায় একদিন ফ্র্যাঙ্কি ম্যাগির life support খুলে নেয়।

এই মুভির সুক্ষ হিউমার, অভিনয়, পরিচালনা, সাউন্ডট্র্যাক, ক্যামেরার কাজ সব এ ছিল ক্লাসিক। মনে হয় সবাই ইতিমধ্যে দেখে ফেলেছেন, যদি কেউ বাকি থাকেন তাহলে এই masterpiece টি অবশ্যই দেখা উচিত! এটি সর্বমোট চারটি অস্কার পেয়েছিল, তার মধ্যে একটি ছিল Best Picture. :)



2. Warrior
IMDB Rating- 8.3
Rotten Tomatoes Rating- 83%

ওয়ারিওর আমার দেখা সবচেয়ে under appreciated মুভি। এত অসাধারণ একটি মুভি অথচ সেরকম ব্যাবসা করতে পারেনি। সম্ভবত বড় কোন তারকার অনুপস্থিতিই এর কারন। মুভির কাহিনি মূলত দুজন ভাই এর struggle (জীবনসংগ্রাম :P) কে নিয়ে এগিয়ে গেছে। তাঁরা দুজনের সাথেই তাঁদের বাবার সম্পর্ক অনেকটা uncomfortable। দু ভাই ই MMA (Mixed Martial Arts) খেলোয়াড়, আর তাঁদের বাবা একজন ফাইটিং ট্রেনার। মা মারা যাওয়ার পর ছোট ছেলে সেনাবাহিনী তে চলে যায় এবং বড় ছেলে বিয়ে করে আলাদা হয়ে যায়। বাবা একজন Alcoholic হওয়ায় সবার কাছ থেকেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। অনেকদিন পর ছোট ছেলে ফিরে আসে এবং দু ভাই ই একটি বড় MMA টুর্নামেন্ট এ অংশগ্রহণ করে। সেখানে দুজন ই ম্যাচ এর পর ম্যাচ জিতে ফাইনাল এ পৌঁছে যায়। ফাইনাল এ শেষ পর্যন্ত কি হল জানতে হলে মুভি টা দেখতে পারেন। শুরুতে একটু ধীর হলেও শেষের দিকটা আসলেই অসাধারণ করেছে মুভিটিতে। খুব কঠিন হৃদয় মানুষের পক্ষেও শেষ দৃশ্যে চোখের পানি আটকে রাখা কঠিন। দেখলে ভালো লাগবে গ্যারান্টি!! :P

3. Invictus
IMDB Rating- 7.3
Rotten Tomatoes Rating- 75%

এটিও আমার খুব প্রিয় মুভি। এটি ১৯৯৫ সালে সাউথ আফ্রিকার রাগবি বিশকাপ জয়ের কাহিনি নিয়ে তৈরি হয়েছে। এছারাও এই মুভিটির আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্ট হচ্ছে, এটিতে নেলসন ম্যান্ডেলা এবং তাঁর কারাবাসের ঠিক পরের সময়টাও উঠে এসেছে। মুভিটিতে দেখা যায়, কীভাবে একজন রাষ্ট্রপ্রধান তাঁর দেশের অস্থির অবস্থাকে স্বাভাবিক করার জন্য খেলাকে ব্যবহার করতে পারেন। এতে অভিনয় করেছেন মরগান ফ্রীম্যান এবং ম্যাট ডেমন। দুজনই আমার খুব প্রিয় অভিনেতা। ফ্রীম্যান তো সবসময়ই অসাধারণ, ম্যাট ডেমন এর কিছু মুভি যেমন বর্ণ সিরিজ দেখার পর থেকে আমি তাঁর ও এসি বনে গেছি! এটিও একটি দেখার মত মুভি, যারা দেখবেন তাঁরা ঠকবেন না! :)

4. Cinderella Man
IMDB Rating- 8.0
Rotten Tomatoes Rating- 80%

এই মুভি টি সত্যি ঘটনার উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে। ১৯৩০ সালের অর্থনৈতিক মন্দার কারনে তখনকার জীবন এবং একজন মুষ্টিযোদ্ধার পতন-উথান এই মুভিটির কাহিনি। James J. Braddock একজন প্রথম সারির মুষ্টিযোদ্ধা। লড়াই করতে গিয়ে একদিন হঠাত তাঁর হাতের কবজি ভেঙ্গে যায়। ফলে সে আর আগের মত লড়াই করতে পারে না, এবং অর্থনৈতিক মন্দার কারনে খুবই খারাপ অবস্থায় পড়ে যায়। তাঁর পরিবারকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য শেষ পর্যন্ত তাকে ভিক্ষা পর্যন্ত করতে হয়। শেষ পর্যন্ত এক বন্ধুর সহায়তায় সে আবার লড়াই এ ফিরতে পারে এবং সবাইকে অবাক করে দিয়ে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায়। এই ছবিটিতে অভিনয়, পরিচালনা এবং তখনকার সমাজ ব্যাবস্থা খুব সুন্দরভাবে ফুটে উঠেছে। এতে অভিনয় করেছেন অস্কারজয়ী অভিনেতা রাসেল ক্রো। যারা এখনও দেখেননি তাঁরা মুভি টা জোগাড় করে দেখে ফেলতে পারেন, সবার ভালোই লাগবে আশা করি!

5. MoneyBall
IMDB Rating- 7.7
Rotten Tomatoes Rating- 94%

ব্র্যাড পিটকে আমার ভালই লাগে। তবে অভিনেতা হিসেবে না, ব্যাটার চেহারা আর ফিগার এর কারনে। (ওই কেউ আমারে আবার গে বইলেন না!) শালা আসলেই ম্যানলি, বাট অভিনয় তেমন পারে না! কিন্তু এই মুভি টা দেখে আমার মনে হইসে যে ব্র্যাড পিট ভালো অভিনয় ও করতে পারে! এই মুভির জন্য সে অস্কার মনোনয়ন ও পাইসে :P। যাই হোক, কাহিনি হচ্ছে আমেরিকার মেজর লিগ বেইসবল নিয়ে। ব্র্যাড পিট একটা সাধারন মানের দলের জিএম, সে আগে একজন বেইসবল খেলোয়াড় ও ছিল। সে এবং তাঁর একজন সহকারি (জোনাহ হিল) মিলে ইকোনোমিক্স/ স্ট্যাটিস্টিকস এর সূত্র(!) ব্যবহার করে এমন একটা পদ্ধতি আবিস্কার করে যে, অনেক কম টাকায় ও সে একটি চ্যাম্পিয়ন হবার মত টিম তৈরি করতে পারে। মুভি টা অনেকের কাছে একটু স্লো লাগতে পারে, কিন্তু শেষ পর্যন্ত উপভোগ ই করবেন বলে মনে করি। এই মুভি টাও সত্যি ঘটনার উপর ভিত্তি করে করে হয়েছে।

6. The Fighter
IMDB Rating- 7.9
Rotten Tomatoes Rating- 91%

বক্সিং নিয়ে তৈরি আরেকটি অসাধারণ মুভি। এই মুভি তে অভিনয় করে সেরা অভিনেতা এবং সেরা অভিনেত্রীর অস্কার পুরস্কার জিতে নিয়েছেন ক্রিস্টিয়ান বেল এবং মেলিসা লিও। এতে আরও অভিনয় করেছেন মার্ক ওয়ালবারগ। এটি পেশাদার বক্সার ‘আইরিশ’ মিকি ম্যাক এবং তাঁর বড় ভাই ডিকি একলান্ড এর জীবনী নিয়ে তৈরি করা হয়েছে। মিকি একজন Irish-American welterweight বক্সার যে তাঁর বক্সিং ক্যারিয়ার নিয়ে সংগ্রাম করছে। তাঁর ভাই ডিকি একলান্ড একজন সাবেক বক্সার যে একসময় একজন বড় বক্সিং লিজেন্ড ‘সুগার রে’ কে পরাজিত করেছিল। সে মানসিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ না হলেও তাঁর ভাইকে ট্রেনিং দেয়। তাঁদের বিশাল পরিবারের Interpersonal Relation কিছুটা অস্বাভাবিক, যেটা মুভি তে খুব ভালভাবেই বোঝা যায়। মিকি নতুন একজন বান্ধবী খুঁজে পায় এবং নানা ঘটনার মধ্যে দিয়ে কাহিনি এগিয়ে যেতে থাকে। সবগুলো ম্যাচেই Underdog হওয়ার পরও কিছুটা ভাগ্যের গুণে এবং ট্রেনিং এর গুণে মিকি শেষ পর্যন্ত World welterweight champion হতে পারে। আমি মুভিটা খুবই উপভোগ করেছি, আপনারা যারা দেখেননি তাঁরা চাইলে দেখে নিতে পারেন!



7. The Blind Side
IMDB Rating- 7.6
Rotten Tomatoes Rating- 66%

এটি আমেরিকান ফুটবল নিয়ে তৈরি একটি স্পেশাল মুভি। এই মুভিটা দেখে প্রথমবার আমার সান্ড্রা বুলক কে ভালো লাগে! :P এই মুভিতে অভিনয় করে সান্ড্রা বুলক সেরা অভিনেত্রীর অস্কার পুরস্কার লাভ করেন। মুভির কাহিনি আবর্তিত হয় একজন ১৭ বছর বয়স্ক ছেলেকে ঘিরে যে বাবা মা না থাকায় বিভিন্ন Foster হোমে থাকে, কিন্তু কোথাও মানিয়ে নিতে না পারার কারনে সর্বদাই ছুটে বেড়ায়। সে একজন বিশালদেহি হওয়া সত্ত্বেও অত্যন্ত Athletic, যে কিনা যেকোনো রকম খেলাধুলায় পারদর্শী। এই প্রতিভার কারনে সে একটি স্বনামধন্য স্কুলে খেলোয়াড় কোটায় ভর্তির সুযোগ পেয়ে যায়। সেখানেও মানিয়ে নিতে সমস্যা হয়ে তাঁর, ঘটনাক্রমে হঠাৎ একদিন সান্ড্রা বুলক তাঁকে বাশায় নিয়ে আসে এবং পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে গ্রহন করে। সান্ড্রা বুলক একজন মায়ের মত স্নেহে ছেলেটিকে রেখে তাঁর খেলাধুলা এবং পড়াশুনায় সাহায্য করে। শেষ পর্যন্ত সেই ছেলেটি একটি American Professional Football টিম এ সুযোগ পেয়ে যায় এবং পড়াশুনায় ও দারুন ফলাফল করতে পারে। আরও কিছু টুকরো ঘটনা মুভিটিতে ঘটে যেটার জন্য মুভিটা দেখতে হবে! মুভিটা দেখলে বোরিং লাগবে না কারণ বেশ মজার মজার কিছু দৃশ্য এতে আছে। :P দেখতে পারেন ভালো লাগবে আশা করি।

8. The Wrestler
IMDB Rating- 8.1
Rotten Tomatoes Rating- 98%

আমরা যে রেসলিং খেলা টিভিতে দেখি সেটা যে আসলে কোন খেলা নয়, বরং সাজানো নাটক সেটা অনেকেই জানেন না বা জানলেও বিশ্বাস করতে চান না। এই মুভি টা দেখলে বোঝা যায় রেসলিং আসলেই নকল! এই মুভিটা দেখলে একজন প্রোফেশনাল রেসলার এর জীবন কিছুটা আঁচ করা যায়। সমালোচকদের দেয়া সার্টিফিকেট থেকে বোঝাই যাচ্ছে যে মুভিটার Quality কেমন। এতে অভিনয় করেছেন মিকি রোউরক (বাংলায় বানান করতে পারলাম না X(, তিনি অস্কার মনোনয়ন ও পেয়েছিলেন এই চরিত্রের জন্য। মিকি একজন বয়স্ক প্রোফেশনাল রেসলার যে এখনও লড়াই করে যাচ্ছে। একই সাথে তাঁর একমাত্র মেয়ের সাথে Relation rebuild করার চেষ্টা করছে। এছাড়াও সে একজন Stripper এর সাথে Romantic সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও মিকি লড়াই করে যেতে থাকে। শেষ দৃশ্যে দেখা যায় যে ডাক্তার এর বারন সত্ত্বেও মিকি লড়াই করতে যায় এবং জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তাঁর Signature Slam দিয়ে লড়াই শেষ করার জন্য প্রতিপক্ষের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে! আমার অসম্ভভ ভালো লেগেছে শেষ দিকটা, আসলেই মানুষের মত নিজের জীবনকে তুচ্ছ করার ক্ষমতা আর কোন জীবেরই বোধহয় নেই...

9. Gridiron Gang
IMDB Rating- 6.8
Rotten Tomatoes Rating- 42%

এটি আমাদের সবার প্রিয় রেসলার ডুয়াইন ‘দা রক’ জনসন এর একটি মুভি। খুব বেশী রেটিং না থাকলেও আমার কাছে বেশ ভালোই লেগেছে মুভিটি। শন পোর্টার Kilpatrick Detention Center এ কাজ করে। সেখানের ছেলেদের সাহায্য করার জন্য সে আপ্রাণ চেষ্টা করে। সবকিছুতেই ব্যারথ হবার পর শন ছেলেদের নিয়ে একটি আমেরিকান ফুটবল টিম তৈরির পরিকল্পনা করে, যার ফলে ছেলেরা নিজেদের কোনোকিছুর অংশ হিসেবে ভাবতে শিখবে। টিম এক সুতোয় বাঁধতে গিয়ে শন কে অনেক কষ্ট করতে হয়, কারণ ছেলেরা প্রায় সবাই বিভিন্ন স্ট্রিট গ্যাং এর সদস্য এবং এদের অনেকেই বেশ বড় ধরণের অপরাধী। শেষ পর্যন্ত শন একটি টিম তৈরি করতে পারে এবং একটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। কিন্তু প্রথম খেলাতেই বড় ধরণের পরাজয়ে ছেলেরা মুষড়ে পড়ে। বিভিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে কাহিনি এগিয়ে যেতে থাকে, শন এর মা কান্সার এ মারা যায়। শেষ পর্যন্ত টিমটি একটি শক্ত টিম হিসেবে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে, খেলোয়াড়রাও বিভিন্ন টিম এ সুযোগ পায় এবং স্কলারশিপ পেয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে। রক এর অভিনয় আমার বেশ ভালো লেগেছে এই মুভি তে, রক ভক্তরা না দেখে থাকলে দেখে নিতে পারেন!

10. Goal!
IMDB Rating- 6.7
Rotten Tomatoes Rating- 44%

এটি একজন দরিদ্র মেক্সিকান ফুটবল খেলোয়াড়ের বড় খেলোয়াড় হয়ে ওঠার গল্প। এই মুভিটিতে ফিফা (আমাদের ব্লগের ফিফা না!) Contribute করায় অনেক বড় বড় তারকাকেই দেখা গিয়েছে। খুব ছোটবেলায় বাবার সাথে পরিবার নিয়ে আমেরিকায় চলে আসে তাঁরা, কিন্তু বৈধ নাগরিক না হতে পারার কারনে পড়াশুনা এবং খেলাধুলা কোনটাই সে ভালোভাবে করতে পারে না। ঘটনাক্রমে হঠাৎ একদিন এক সাবেক ফুটবল এজেন্ট তাঁর খেলা দেখে মুগ্ধ হয় এবং বড় টিম এ খেলার সুযোগ করে দেবে বলে কথা দেয়। সেই এজেন্ট এর সাহায্যে সে Newcastle United এ ট্রায়াল এর সুযোগ পেয়ে যায়, নানা ঘটনার পর শেষ পর্যন্ত সে টিম এ নিয়মিত হতে পারে। আমি মুভিটি উপভোগ ই করেছি, ফুটবল ফ্যানরা না দেখে থাকলে এটা একটা মাস্ট সি!

একটা বোনাস মুভি দিচ্ছি, আমি যেহেতু টেবিল টেনিস খেলাটা খুব বেশী ভালবাসি আমার জন্য এই মুভিটা একটা স্পেশাল মুভি! এইটা আসলে Sports Drama না, স্পোর্টস কমেডি বলা যেতে পারে।

11. Balls of Fury
IMDB Rating- 5.1
Rotten Tomatoes Rating- 23%

Randy Daytona একজন খুবই স্কিল্ড টেবিল টেনিস খেলোয়াড় যে ১৯৮৮ এর অলিম্পিক গেমস এ ফাইনাল/সেমিফাইনাল এ উঠে যায়। তাঁর বাবা খেলায় বাজি ধরাতে সে নার্ভাস হয়ে যায় এবং জার্মান প্রতিপক্ষের কাছে হেরে যায়। বাজিতে হেরে যাওয়ায় র্যা ন্ডির বাবাকে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে। এর ১৯ বছর পর দেখা যায় র্যা ন্ডি একটি ছোট ক্যাসিনো তে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। হঠাৎ একদিন সিআইএ র্যা ন্ডি কে একটি মিশন এর জন্য রিক্রুট করে। ফেং নামে এর টেররিস্ট একটি টেবিল টেনিস টুর্নামেন্ট আয়জন করে যেখানে র্যা ন্ডি অংশগ্রহণ করে এবং জয়ী হয়। ফেং Action এ মারা যায় এবং র্যাান্ডি সব বন্দি কে মুক্ত করতে সমর্থ হয়। পুরো মুভিটাই হাস্যরসে ভরপুর এবং বেশ ইন্টারেস্টিং। দেখলে হাসতে বাধ্য হবেন নিশ্চিত! :):DB-):P

তো আর দেরি কেন, যদি উপরের কোন মুভি এখনও না দেখা থাকে তাহলে দেখে নিতে পারেন। সময়টা আপনার ভালোই কাটবে আশা করি। এইটা আমার প্রথম মুভি ব্লগ, আরও অনেকগুলো লিখব আশা করি। তবে ব্লগ লেখা যে এত কষ্ট আগে বুঝি নাই :((! টাইপ করতে করতে আমার হাত-পা ব্যাথা হয়ে গেসে :-/। যাই হোক ভাই বোনেরা কষ্ট করে যদি পোস্ট টা পড়েন তাহলে কমেন্ট দিয়ে আমাকে ধন্য(!) কইরেন! :P আর আমাকে সামুর জঘন্য পর্যবেক্ষণ নীতি থেকে বাঁচাইয়েন পিলিয...............আর সহ্য হচ্ছে না! X(X((
সর্বশেষ এডিট : ২৬ শে মার্চ, ২০১২ বিকাল ৪:৪৪
৫টি মন্তব্য ৫টি উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন

ছবি সংযুক্ত করতে এখানে ড্রাগ করে আনুন অথবা কম্পিউটারের নির্ধারিত স্থান থেকে সংযুক্ত করুন (সর্বোচ্চ ইমেজ সাইজঃ ১০ মেগাবাইট)
Shore O Shore A Hrosho I Dirgho I Hrosho U Dirgho U Ri E OI O OU Ka Kha Ga Gha Uma Cha Chha Ja Jha Yon To TTho Do Dho MurdhonNo TTo Tho DDo DDho No Po Fo Bo Vo Mo Ontoshto Zo Ro Lo Talobyo Sho Murdhonyo So Dontyo So Ho Zukto Kho Doye Bindu Ro Dhoye Bindu Ro Ontosthyo Yo Khondo Tto Uniswor Bisworgo Chondro Bindu A Kar E Kar O Kar Hrosho I Kar Dirgho I Kar Hrosho U Kar Dirgho U Kar Ou Kar Oi Kar Joiner Ro Fola Zo Fola Ref Ri Kar Hoshonto Doi Bo Dari SpaceBar
এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে :
আলোচিত ব্লগ

কক্সবাজার ভ্রমণ ২০২০ : যাত্রা শুরু

লিখেছেন পগলা জগাই, ১৯ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৫১




দীর্ঘ্য ৬ বছর পরে পরিবার নিয়ে বেরাতে যাওয়ার সুযোগ হলো আবার। এর মধ্যে ওদের নিয়ে বেরাতে গেলেও তা ছিলো ডে ট্রিপ, যেখানেই গেছি রাতের মধ্যে বাড়িতে ফিরতেই হয়েছে। স্ত্রী-কন্যকে নিয়ে... ...বাকিটুকু পড়ুন

নারী পাচার

লিখেছেন রাজীব নুর, ১৯ শে অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১:৫৯



এশিয়ার এক নম্বর নারী ও শিশু পাচার রুট বাংলাদেশ।
প্রতিদিন দেশ থেকে প্রচুর নারী ও শিশু বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত দিয়ে অথবা বিমান যোগে পাচার হয়ে যাচ্ছে। পাচারকৃত নারী ও... ...বাকিটুকু পড়ুন

চিলেকোঠার প্রেম- ১২

লিখেছেন কবিতা পড়ার প্রহর, ১৯ শে অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:২৩

প্রায় দেড় বছর! না না এক ফাল্গুন থেকে আরেক ফাল্গুন পেরিয়ে চৈত্রের শেষ। নাহ ঠিক দেড় বছর না, এক বছরের একটু বেশি সময় পর পা দিলাম আমার চিরচেনা... ...বাকিটুকু পড়ুন

মানুষের প্রতি দয়ামায়া না থাকলে দেশে কি কি ঘটতে পারে?

লিখেছেন চাঁদগাজী, ১৯ শে অক্টোবর, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১০



ভারত খাদ্য রপ্তানী করে, বাংলাদেশের মতো ভারতে সকাল-বিকেল খাদ্যদ্রব্যের দাম বাড়ে না, আয়ের তুলনায় খাবারের দাম কম; খাবারে কেমিক্যাল, ফরমালিন মিশায় না; অনেক বছর এত বেশী খাদ্য উৎপাদন... ...বাকিটুকু পড়ুন

হিরু আলুমের সিনেমা বাহিরে চলিচ্ছে , ভিতরে খালি ক্যারে

লিখেছেন শাহ আজিজ, ১৯ শে অক্টোবর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৮


প্রাডো গাড়ি নিয়ে ঘুরছেন হিরো আলম। ছুটছেন এক প্রেক্ষাগৃহ থেকে আরেক প্রেক্ষাগৃহে। তাঁকে ঘিরে প্রেক্ষাগৃহের বাইরে আবার উৎসুক জনতার ভিড় লক্ষ করা গেলেও প্রেক্ষাগৃহের ভেতরে আসন ফাঁকা। নেই... ...বাকিটুকু পড়ুন

×